নরসিংদীতে আ.লীগের দুপক্ষের সংঘর্ষ, মেয়রকে প্রধান আসামি করে মামলা
নরসিংদীতে আ.লীগের দুপক্ষের সংঘর্ষ, মেয়রকে প্রধান আসামি করে মামলা

নরসিংদীতে আ.লীগের দুপক্ষের সংঘর্ষ, মেয়রকে প্রধান আসামি করে মামলা

Other

নরসিংদীর মাধবদীতে আওয়ামী লীগের দুপক্ষের সংঘর্ষ ও দুজন গুলিবিদ্ধ হওয়ার ঘটনায় মাধবদী পৌর মেয়র মোশাররফ হোসেন মানিককে প্রধান আসামি করে মোট ১১ জনের নামে মামলা দায়ের করা হয়েছে।  

আজ শুক্রবার (১৮ জুন) ভোরে গুলিবিদ্ধ সাবেক কমিশনার মো. জাকারিয়ার বড় ভাই মো. আনোয়ার হোসেন বাদী হয়ে মাধবদী থানায় এই মামলা করেন।

মামলার অন্যান্য আসামিরা হলেন, বিরামপুর এলাকার নান্নু মিয়ার পুত্র আব্দুল আহাদ, কোতায়ালীর চর এলাকার মো. মোজাম্মেল, টাটাপাড়া এলাকার রিপন মিয়ার পুত্র মাসুদ রানা জুনিয়র, ছোট মাধবদী এলাকার মিজানুর রহমানের পুত্র শাহিন মিয়া, ভগিরথপুর এলাকার নান্নু ভূইয়ার পুত্র আতাউর ভূইয়া, আদনান হোসেন, সাকিব, মো. মনিরুজ্জামান ওরফে নাতিমনির, নূর মোহাম্মদ ও সেন্টু শীল।

এর আগে গত ১৬ জুন বিকালে আগামী ২৩ জুন দলের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন করতে মাধবদী থানা আওয়ামী লীগের আহবায়ক কমিটির প্রস্তুতি সভায় মাধবদী পৌর মেয়র মোশাররফ হোসেন মানিককে দাওয়াত না দেয়ার ঘটনাকে কেন্দ্র করে দুই গ্রুপে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

 

এ সময় গুলিবিদ্ধ হয়ে আহত হন মাধবদী পৌরসভার সাবেক কমিশনার ও সদর থানা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি মো. জাকারিয়া (৩৯) ও নুরালাপুর ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবকলীগের সদস্য সচিব আবুল কালাম (৩০)। পৌর মেয়র মোশাররফ হোসেন মানিক নিজে গুলি ছোড়ে বলে দাবি আহতদের।

প্রত্যক্ষদর্শী ও স্থানীয় নেতাকর্মীরা জানান, ২৩ জুন দলের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন করতে গত বুধবার (১৬ জুন) বিকেলে মাধবদী থানা আওয়ামী লীগের আহবায়ক কমিটির প্রস্তুতি সভা অনুষ্ঠিত হচ্ছিল। শহরের রমনী কমিউনিটি সেন্টারের ঐ সভায় নরসিংদী জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ দলের অন্যান্য নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। মিটিং চলাকালে ব্যানারে পৌর মেয়রের নাম না থাকায় ও দাওয়াত না দেয়ায় মোশাররফ হোসেন মানিক ও তার সহযোগীরা সেখানে গিয়ে মিটিং না করতে নিষেধ ও গালিগালাজ করে চলে যান। ঐ মিটিং শেষে রাত ৮ টার দিকে মাধবদী পৌরসভার সাবেক কমিশনার জাকারিয়াসহ ১০-১৫ জন নেতাকর্মী পৌরসভার মোড় হয়ে ফিরছিলেন।

এ সময় মেয়র মোশাররফ হোসেন মানিকের নেতৃত্বে তাদের ওপর অতর্কিত হামলা চালানো হয়। এতে দুইজন গুলিবিদ্ধসহ ৮ জন নেতাকর্মী আহত হয়। আহতদের নরসিংদীর স্থানীয় বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসা দিয়ে গুরুতর অবস্থায় গুলিবিদ্ধ দুজনকে ঢামেকে নিয়ে যাওয়া হয় রাতেই।

মামলার বাদী মো. আনোয়ার হোসেন বলেন, আমার ভাইকে হত্যা করার জন্য মাধবদী পৌর মেয়র মোশাররফ হোসেন মানিক নিজেই গুলি করেছে। এ জন্য তাকে প্রধান আসামি করে ১১ জনের নাম দিয়েছি মামলায়। এছাড়াও অজ্ঞাতনামা ৪০ জনের নাম রয়েছে।

মাধবদী থানার ওসি সৈয়দুজ্জামান মামলার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, সংঘর্ষ ও গুলিবিদ্ধ হওয়ার ঘটনায় গুলিবিদ্ধ সাবেক কমিশনারের ভাই মো. আনোয়ার হোসেন বাদী হয়ে মাধবদী পৌর মেয়র মোশাররফ হোসেন মানিককে প্রধান আসামি করে ১১ জনের নামে মামলা দায়ের করেছেন। অপর পক্ষও একটি মামলা করেছে। তবে এই মামলায় মাধবদী পৌর মেয়রকে প্রধান আসামি করা হয়েছে। সুষ্ঠ তদন্ত করে ঘটনার সাথে জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে জানান তিনি।

আরও পড়ুন:


শনিবার থেকে সিনোফার্মের টিকাদান কার্যক্রম শুরু

ব্রাজিলের কাছে পাত্তাই পেল না পেরু

আবারও গাজায় বিমান হামলা চালিয়েছে ইসরাইলি বাহিনী

নন্দীগ্রামের ভোটের ফলাফল নিয়ে হাইকোর্টে মমতা


news24bd.tv / কামরুল