ত্ব-হা ও দুই সফরসঙ্গীর জবানবন্দির পর পরিবারের কাছে হস্তান্তর

অনলাইন ডেস্ক

ত্ব-হা ও দুই সফরসঙ্গীর জবানবন্দির পর পরিবারের কাছে হস্তান্তর

আলোচিত ইসলামী বক্তা আবু ত্ব-হা মুহাম্মদ আদনান ও তার দুই সফরসঙ্গীর জবানবন্দি নেওয়ার পর নিজ জিম্মায় ছেড়ে দেওয়ার আদেশ দিয়েছেন রংপুর জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত।

শুক্রবার (১৮ জুন) রাত সাড়ে ১১টার দিকে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি শেষে নিজ জিম্মায় তাদেরকে ছেড়ে দেওয়ার আদেশ দেন আদালত।

ত্ব-হা ও তার সফরসঙ্গীর খোঁজ পাওয়ার পর তাদেরকে উদ্ধারে করে রংপুর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)। রংপুর মহানগর পুলিশের গোয়েন্দা শাখার (ডিবি) কার্যালয় থেকে তাদেরকে মহানগর আমলি আদালতে (কোতোয়ালি) নেওয়া হয়। আদালতে নেওয়ার পর আদালত তাদেরকে নিজ জিম্মায় ছেড়ে দেওয়ার আদেশ দেন।

আরও পড়ুন:


ইসরাইলি ড্রোন মাটিতে নামাল ফিলিস্তিনিরা

প্রাণঘাতী করোনায় ইউপি চেয়ারম্যানের মৃত্যু

ময়মনসিংহে ছাত্রদলের সভা নিয়ে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া


রংপুর মহানগর পুলিশের উপ-কমিশনার (অপরাধ) আবু মারুফ হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

আবু ত্ব-হার তিন সঙ্গী হলেন- আব্দুল মুহিত, ফিরোজ আলম ও গাড়িচালক আমির উদ্দিন।

এর আগে রংপুর মেট্টোপলিটন গোয়েন্দা কার্যালয়ের উপ-পুলিশ কমিশনার (ডিবি অ্যান্ড ক্রাইম) আবু মারুফ হোসেন বলেন, আত্মগোপনের ঘটনাটি রাষ্ট্র বা সরকারকে বিব্রতকর পরিস্থিতিতে ফেলার কোনো ষড়যন্ত্র ছিল কি-না, তা খতিয়ে দেখতে আপাতত ত্ব-হা পুলিশ হেফাজতেই থাকছেন।

news24bd.tv / তৌহিদ

পরবর্তী খবর

গ্রামীণফোনকে হু্মায়ূন পরিবারের আইনি নোটিশ

অনলাইন ডেস্ক


গ্রামীণফোনকে হু্মায়ূন পরিবারের আইনি নোটিশ

প্রয়াত কথাসাহিত্যিক হুমায়ূন আহমেদের সৃষ্টি জনপ্রিয় চারটি চরিত্র অনুমতি ছাড়াই বাণিজ্যিকভাবে ব্যবহার করায় মোবাইল অপারেটর কোম্পানি গ্রামীণফোনের কাছে ৩ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ চেয়ে একটি আইনি নোটিশ পাঠানো হয়েছে।

হুমায়ূন আহমেদের স্ত্রী মেহের আফরোজ শাওনসহ পরিবারের সদস্যদের পক্ষ থেকে রোববার (২৫ জুলাই) ওই নোটিশ পাঠানো হয় বলে জানিয়েছেন তাদের আইনজীবী ব্যারিস্টার হামিদুল মিজবাহ। 

সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী হামিদুল মিজবাহ জানান, প্রয়াত  হুমায়ূন আহমেদের পরিবারের ৬ সদস্যের পক্ষে এ নোটিশ প্রেরণ করা হয়েছে।

তারা হলেন, হুমায়ূন আহমেদের স্ত্রী মেহের আফরোজ শাওন, কন্যা নোভা আহমেদ, শীলা আহমেদ ও বিপাশা আহমেদ, পুত্র নুহাশ হুমায়ূন এবং ভাই জাফর ইকবাল।

আরও পড়ুন:


এবার তিউনিসিয়ার প্রতিরক্ষামন্ত্রীকে বহিষ্কার করলেন প্রেসিডেন্ট

মাহফুজ আনামের অনৈতিক কর্মকাণ্ডের প্রতিবাদে সম্পাদক পরিষদ থেকে নঈম নিজামের পদত্যাগ


তিনি বলেন, গ্রামীণফোন নিবেদিত ‘কেমন আছেন তারা’ শীর্ষক কয়েক পর্বে একটি ধারাবাহিক প্রমোশনাল অনুষ্ঠান গ্রামীণফোনের ফেসবুক পেজ ও ইউটিউব চ্যানেল থেকে প্রচারিত হয়। 

হুমায়ূন আহমেদ রচিত বাকের ভাই, এলাচি বেগম, সোবহান সাহেব ও তৈয়ব আলী-জনপ্রিয় এই চার চরিত্র কোনো ধরনের অনুমতি ছাড়াই বাণিজ্যিকভাবে ব্যবহার করেছে গ্রামীণফোন। এতে মেধাস্বত্ব আইন লঙ্ঘিত হয়েছে। 

নোটিশে ওই পর্বগুলো তিন দিনের মধ্যে অপসারণ করতে এবং মেধাস্বত্ব আইন লঙ্ঘন করায় ১৫ দিনের মধ্যে হুমায়ূন আহমেদের পরিবারের সদস্যদের প্রায় সোয়া তিন কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ দিতে বলা হয়েছে। অন্যথায় গ্রামীণফোনের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলেও নোটিশে উল্লেখ করা হয়েছে।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

ছাত্রীকে যৌন হয়রানি: জামিন পাননি স্কুলশিক্ষক

অনলাইন ডেস্ক

ছাত্রীকে যৌন হয়রানি: জামিন পাননি স্কুলশিক্ষক

প্রাইভেট পড়ানোর সময় অস্টম শ্রেণির এক স্কুলছাত্রীকে যৌন হয়রানির অভিযোগের মামলায় গত ২৩ মে পুলিশ স্কুলশিক্ষক কিরণ চন্দ্র মন্ডলকে (৬২) গ্রেপ্তার করে। তার আগের দিন ২২ মে ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে মামলা হয়। 

এদিকে সেই মামলায় খুলনার স্কুলশিক্ষক কিরণ চন্দ্র মন্ডলকে জামিন দেননি হাইকোর্ট।

বিচারপতি জে বি এম হাসানের হাইকোর্ট বেঞ্চ আজ মঙ্গলবার এ আদেশ দেন। শিক্ষকের পক্ষে আইনজীবী ছিলেন ব্যারিস্টার রুহুল কুদ্দুস কাজল ও জি এম নজরুল ইসলাম। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল তুষার কান্তি রায়।

আসামিকে গ্রেপ্তারের পরদিন ২৪ মে হাসপাতালে ওই শিক্ষার্থীর স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা হয়। যদিও এই পরীক্ষায় ধর্ষণের কোনো আলামত পাননি চিকিৎসক। সেই মেডিক্যাল রিপোর্ট আদালতে উপস্থাপন করে ওই শিক্ষকের জামিন আবেদন করা হয় হাইকোর্টে। আদালত জামিন নামঞ্জুর করে তার আবেদন কার্যতালিকা থেকে বাদ দিয়েছেন।

news24bd.tv/এমিজান্নাত

পরবর্তী খবর

তিন বছর ধরে শাশুড়ি ও শ্যালিকাকে ধর্ষণ : গ্রেফতার মেয়ে জামাই

অনলাইন ডেস্ক

তিন বছর ধরে শাশুড়ি ও শ্যালিকাকে ধর্ষণ : গ্রেফতার মেয়ে জামাই

টানা তিন বছর নিজের শাশুড়ি ও শ্যালিকাকে ধর্ষণ ও সেই কর্মকাণ্ডের ভিডিও ধারণ এবং সেসব দৃশ্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেয়ার অভিযোগ উঠেছে জামাইয়ের বিরুদ্ধে। জামাইয়ের বিরুদ্ধে মা ও মেয়ের পৃথক দুটি মামলায় সেই জামাইকে গ্রেফতার করেছে র্যাব।

গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জে এই ঘটনা ঘটে। মামলার পর জামাই রুহুল আমিন সরকার আপেলকে (২৬) রোববার (২৫ জুলাই) সন্ধ্যায় উপজেলার কাটাখালি বালুয়া বাজারের মুক্তিযোদ্ধা ময়েজ উদ্দিন সুপার মার্কেট থেকে গ্রেফতার করে র্যাব।সোমবার (২৬ জুলাই) অভিযুক্ততে গোবিন্দগঞ্জ থানায় সোপর্দ করে র‌্যাব। 

মামলা সূত্রে জানা গেছে, রুহুল আমিন তার শ্বশুরবাড়ি প্রায়ই যাতায়াত করতেন। সেই সুবাধে একদিন শাশুড়ির গোসলের আপত্তিকর দৃশ্য মোবাইলে ধারণ করেন। পরে ধারণকৃত ওই দৃশ্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেয়ার ভয় দেখিয়ে শাশুড়ির ইচ্ছার বিরুদ্ধে তার সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক করেন। শারীরিক সম্পর্কের ঘটনাও গোপনে ধারণ করেন রুহুল আমিন। এরপর গত ২০১৮ সাল থেকে ৭ জুলাই, ২০২১ সাল পর্যন্ত বিভিন্ন সময় রুহুল আমিন ইচ্ছার বিরুদ্ধে তার শাশুড়িকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। রুহুল আমিন তার স্ত্রীকে কালো কাপর দিয়ে মুখ বেঁধে নগ্ন ছবি তুলে শাশুড়ির মোবাইলে পাঠাতো এবং ফোনে রেখে মেয়েকে মারপিট ও নির্যাতন করতো।

অন্যদিকে, রুহুল আমিন তার শ্যালিকার সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক করতে বিভিন্ন কৌশল অবলম্বন করেন। শ্যালিকাকে গাইবান্ধার পলাশপাড়ার বাসায় ও গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার তালুক কানুপুর ইউনিয়নের সমসপাড়ায় ফুফাতো বোনের বাড়ি নিয়ে ধর্ষণের চেষ্টা চালায়। শ্যালিকার ধর্ষণ চেষ্টার ও অশ্লীল দৃশ্য ফেসবুকে প্রকাশ করেন।

রুহুল আমিন সরকার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার তালুক কানুপুর ইউনিয়নের সমসপাড়া গ্রামের আব্দুল মজিদের ছেলে। তার বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন, পর্নোগ্রাফি নিয়ন্ত্রণ আইন ও ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে ভুক্তভোগী মা-মেয়ে বাদী হয়ে গোবিন্দগঞ্জ থানায় পৃথক দুটি মামলা (৩৭ ও ৩৮) করেছেন। দুটি মামলায় সোমবার বিকেলে রুহুল আমিনকে গোবিন্দগঞ্জ সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হাজির করা হলে আদালত তাকে জেলহাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

আরও পড়ুনঃ


দ. কোরিয়ার কোন গালিও দেয়া চলবে না উত্তর কোরিয়ায়

তালেবানের হাত থেকে ২৪ জেলা পুনরুদ্ধারের দাবি

কাছাকাছি আসা ঠেকাতে টোকিও অলিম্পিকে বিশেষ ব্যবস্থা


 

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই আরিফুল ইসলাম জানান, আসামি রুহুল আমিনকে পৃথক দুই মামলায় ৫ দিনের রিমান্ড আবেদনসহ আদালতে উপস্থিত করা হয়। এসময় তাকে কারাগারে প্রেরণের নির্দেশ দেন এবং রিমান্ড শুনানির জন্য পরবর্তী দিন ধার্য করেন আদালত।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

জরুরি অবস্থা জারি করতে রাষ্ট্রপতির নিকট আইনজীবীর আবেদন

অনলাইন ডেস্ক

জরুরি অবস্থা জারি করতে রাষ্ট্রপতির নিকট আইনজীবীর আবেদন

করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধে  দেশের জনগণের জীবন রক্ষায় সারাদেশে জরুরি অবস্থা জারির জন্য রাষ্ট্রপতির প্রতি আবেদন পাঠিয়েছেন সুপ্রিম কোর্টের এক আইনজীবী।  

আবেদনে বলা হয়,করোনার বর্তমান পরিস্থিতিতে সংবিধানের ১৪১ (ক) অনুচ্ছেদ অনুযায়ী, রাষ্ট্রপতির ক্ষমতাবলে ১২০ দিনের জন্য জরুরি অবস্থা জারি করা হলে দেশ ও জাতি আসন্ন বিপর্যয় থেকে রক্ষা পেতে পারে বলে আবেদনে উল্লেখ করা হয়।

ন্যাশনাল লইয়ার্স কাউন্সিলের চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট এস এম জুলফিকার আলী জুনু মঙ্গলবার বিকালে ই-মেইল যোগে এ আবেদন পাঠান। 

এতে বলা হয়, বিদেশি  ক্রেতারা পোশাক খাতের ক্রয় আদেশ বাতিল করার ফলে দেশের অর্থনীতির মারাত্মক ক্ষতি হচ্ছে। এই পরিস্থিতিতে সংবিধানের ১৪১ (ক) অনুচ্ছেদ অনুযায়ী, রাষ্ট্রপতির ক্ষমতাবলে ১২০ দিনের জন্য জরুরি অবস্থা জারি করা হলে দেশ ও জাতি আসন্ন বিপর্যয় থেকে রক্ষা পেতে পারে বলে আবেদনে উল্লেখ করা হয়।

এতে বলা হয়, করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মধ্যে হাজার হাজার মানুষ মৃত্যুবরণ করেছেন। বিশ্বের বিভিন্ন উন্নত দেশ এই ভাইরাস নিয়ন্ত্রণে হিমশিম খাচ্ছে। করোনার সংক্রমণ থেকে দেশের মানুষকে রক্ষায় যুক্তরাষ্ট্র, অস্ট্রেলিয়া, ইতালি, স্পেন, কানাডা ও বেলজিয়ামে জাতীয় এবং আঞ্চলিক পর্যায়ে জরুরি অবস্থা ঘোষণা করেছিল। জরুরি অবস্থা পালনের ফলে দেশগুলো করোনার সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণ করতে অনেকাংশেই সফল হয়। ফলে অনেক উন্নত দেশে এখন আর লকডাউনের প্রয়োজন হচ্ছে না। সেসব দেশের মানুষ স্বাভাবিক জীবন অতিবাহিত করছে। 

আবেদনে আরও বলা হয়, বাংলাদেশ সরকার ও করোনার সংক্রমণ  থেকে  দেশবাসীকে রক্ষার আপ্রাণ চেষ্টা চালাচ্ছে। দফায় দফায় লকডাউন দিতে হচ্ছে। কিন্তু দিন দিন করোনার সংক্রমণ বৃদ্ধি পাচ্ছে, বাড়ছে মৃত্যু হার। লকডাউন পালনে দেশের অনেক মানুষের মাঝে উদাসীনতা লক্ষ্য করা যাচ্ছে। করোনার ভয়াল সংক্রমণ ও মৃত্যুহার কোনোভাবেই নিম্নমুখী করা যাচ্ছে না। 

আরও পড়ুনঃ


দ. কোরিয়ার কোন গালিও দেয়া চলবে না উত্তর কোরিয়ায়

তালেবানের হাত থেকে ২৪ জেলা পুনরুদ্ধারের দাবি

কাছাকাছি আসা ঠেকাতে টোকিও অলিম্পিকে বিশেষ ব্যবস্থা


 

এছাড়া, করোনা আক্রান্তরা অনেকেই তথ্য গোপন করে জনসম্মুখে ঘুরে বেড়াচ্ছে কোনভাবেই কোয়ারেন্টাইন ও আইসোলেশনে বাধ্য করা যাচ্ছে না না। ফলে করোনাভাইরাসের এই ভয়াল সংক্রমণ থেকে  দেশ ও জাতিকে কোনোভাবেই রক্ষা কারা যাচ্ছে না। এছাড়া সরকার বিদেশ ফেরতদের হোম কোয়ারেন্টিনে থাকার নির্দেশ দিয়েছে। কিন্তু অনেকেই নিয়ম না মেনে জনসম্মুখে ঘুরে বেড়াচ্ছে। 

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

শৈলকূপায় আওয়ামী লীগের দুপক্ষের সংঘর্ষে নিহতের ঘটনায় আটক ৪

শেখ রুহুল আমিন, ঝিনাইদহ

শৈলকূপায় আওয়ামী লীগের দুপক্ষের সংঘর্ষে নিহতের ঘটনায় আটক ৪

ঝিনাইদহের শৈলকুপায় সামাজিক আধিপত্য বিস্তার নিয়ে স্থানীয় আওয়ামী লীগের দুপক্ষের সংঘর্ষে একজন নিহতের ঘটনায় আজ সোববার চারজনকে আটক করেছে পুলিশ। গত রোববার রাত সাড়ে ৯ টার দিকে উপজেলার মনোহরপুর ইউনিয়নের দামুকদিয়া গ্রামে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। সে সময় রাশেদুল ইসলাম উকিল মৃধা (৪৫) নামে একজন নিহত ও উভয় পক্ষের ৫জন আহত হয়।

স্থানীয়রা জানায়, ইদের পর দিন থেকে সামাজিক আধিপত্য বিস্তার নিয়ে দামুকদিয়া সহ আশপাশের কয়েক গ্রামে বিরোধ ও সহিংসতা চলে আসছিল। এক পক্ষে ৯নং মনোহরপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও থানা আওয়ামীলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা আরিফ রেজা মন্নু সমর্থিত ও অপর পক্ষে বকুল মোল্লা
সমর্থিত গ্রামবাসী রয়েছে। গতকাল সন্ধ্যায় থানায় দামুকদিয়া গ্রামের বিবাদমান এ দুপক্ষের ভেতরে একটি সমঝোতা বৈঠক হয়। বৈঠক শেষে বাড়ি ফেরার পথে মাথায় আঘাতপ্রাপ্ত ও হামলার শিকার হয় মন্নু সমর্থিত রাশিদুল ইসলাম উকিল সহ কয়েকজন। এতে ঘটনাস্থলেই নিহত হয় কৃষক রাশিদুল ইসলাম উকিল। তাকে হাসপাতালে আনা হলে ডাক্তার মৃত ঘোষণা করে।

এব্যাপারে শৈলকুপা থানার অফিসার ইনচার্জ জাহাঙ্গীর আলম জানান, এখনও থানায় মামলা দায়ের হয়নি। তবে পুলিশ অভিযান চালিয়ে ঘটনার সাথে জড়িত সন্দেহে চারজনকে আটক করা হয়েছে। পরিস্থিতি শান্ত রাখতে ওই এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করে রাখা হয়েছে।

আরও পড়ুন:


বিভিন্ন জেলায় করোনা ও উপসর্গে মৃত্যুর তথ্য

গার্মেন্টস খোলার ব্যাপারে যা জানালেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী

কখন লকডাউন বাড়ানো লাগবে না জানালেন তথ্যমন্ত্রী

ময়মনসিংহ মেডিকেলে করোনায় ‍মৃত্যুর রেকর্ড


 news24bd.tv তৌহিদ

পরবর্তী খবর