অনলাইনে ক্লাস : ছোট ভাইয়ের কারণে গর্ভবতী ১৫ বছরের কিশোরী

অনলাইন ডেস্ক

অনলাইনে ক্লাস : ছোট ভাইয়ের কারণে গর্ভবতী ১৫ বছরের কিশোরী

করোনার কারণে বিশ্বের নানা প্রান্তের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান কার্যত বন্ধই রয়েছে। মাসের পর মাস তো আর শিক্ষা কার্যক্রম থেকে শিক্ষার্থীদের পড়াশোনা থেকে দুরে রাখা যায় না। তাই তো সমগ্র বিশ্বে চলছে অনলাইনেই পড়াশোনা। কিন্তু এই অনলাইন শিক্ষা কার্যক্রমের অন্তরালে ঘটেছে এক তীব্র চাঞ্চল্যর ঘটনা। ১৩ বছরের  এক সপ্তম শ্রেণির ছাত্র তারই তিন বছরের বড়  কিশোরী বোনের সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক স্থাপন করেছে। কারণ সে কিশোর অনলাইনে পড়াশোনার নাম করে নিষিদ্ধ ভিডিও দেখতো। এই কারণে সে নিজের বড় বোনের সাথে শারীরিক সম্পর্ক স্থাপন করে। যার ফলে তার বড় ভোন গর্ভবতী হয়ে গেছে। 

ভারতের রাজস্থানের আলওয়ার জেলায় এমন ঘটনায় তীব্র চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। 

বেশ কিছুদিন ধরেই এমন কাণ্ড ঘটাচ্ছিল ওই দুজন। স্মার্টফোনে প্রথমবার পর্ন ভিডিও দেখে ওই কিশোর। তারপর খেলার ছলেই দুজনে শারীরিক সম্পর্কে লিপ্ত হয়। এরপর সেই কাজ চলতে থাকে। তবে গর্ভবতী হওয়ার ফলে নবম শ্রেণির ওই ছাত্রীর শরীরে পরিবর্তন ঘটতে শুরুর পর বিষয়টি সবার নজরে আসে।

ওই কিশোরীর দাদী প্রথম বিষয়টি লক্ষ্য করেন। এরপরই কিশোরীর ডাক্তারি পরীক্ষা করানো হয়। তখনই তার অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার খবর সামনে আসে। কিন্তু তখনও কেউ ভাবতে পারেনি এই ঘটনার জন্য দায়ী কিশোরীর ভাই।

অনেকক্ষণ ধরে জিজ্ঞাসাবাদের পরই আসল তথ্য প্রকাশ্যে আসে। সত্য জানতে পেরে হতবাক হয়ে যায় পরিবারের সবাই।

জানা গেছে, পরিবারটি আদতে মহারাষ্ট্রের বাসিন্দা। কাজের জন্য বেশ কয়েক বছর ধরে তারা রাজস্থানে থাকছে। এদিকে এ ঘটনা জানাজানি হতেই রাজস্থানের সেবাগ্রাম থানায় জিরো এফআইআর দায়ের করেছে ভিওয়ান্ডি থানার পুলিশ।

প্রসঙ্গত, মহামারি পরিস্থিতিতে অনলাইন ক্লাসই ভরসা শিক্ষার্থীদের। এজন্য অনেক বাড়িতেই এখন স্মার্টফোন, ল্যাপটপ, ট্যাবের ব্যবহার বেড়েছে। আর তা শিশুদের নাগালেও অনায়াসে পৌঁছে যাচ্ছে। আর এতেই অনেক ক্ষেত্রে এমন সমস্যার সৃষ্টি হচ্ছে।

আরও পড়ুন:


লন্ডনে রানির বাড়ির সামনে থেকেও ফোন চুরি হয়: পরিকল্পনামন্ত্রী

ফরিদপুরে লকডাউনের দ্বিতীয় দিনে ৩ জনের মৃত্যু, আক্রান্ত শতাধিক

ফোনালাপে আড়িপাতা রোধের পদক্ষেপের বিষয়ে জানতে বিটিআরসিকে নোটিশ

অজান্তেই শিশুরা পর্ন ভিডিও দেখে ফেলছে বা নিষিদ্ধ কোনও সাইট খুলে ফেলছে। এক্ষেত্রে মোবাইল ফোনে চাইল্ড প্রোটেকশন অন রাখার পরামর্শ দিচ্ছেন অনেকে। 

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

করোনায় ইন্দোনেশিয়ায় রেকর্ড মৃত্যু, শনাক্ত ৪৫ হাজারের বেশি

অনলাইন ডেস্ক

করোনায় ইন্দোনেশিয়ায় রেকর্ড মৃত্যু, শনাক্ত ৪৫ হাজারের বেশি

করেনায় আক্রান্ত হয়ে একদিনে ইন্দোনেশিয়ায় সর্বোচ্চ রেকর্ড সংখ্যক মানুষের মৃত্যু হয়েছে। দেশটিতে মঙ্গলবার (২৭ জুলাই) দুই হাজার ৬৯ জন মারা গেছেন। এ নিয়ে দেশটিতে করোনায় মোট মৃত্যু সাড়ে ৮৬ হাজারের বেশি। একই সময়ে করোনা শনাক্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৪৫ হাজারের বেশি। মোট শনাক্ত ৩২ লাখ ৩৯ হাজার ছাড়িয়েছে।

ভারতীয় ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের ‘উর্বরভূমি’ বলা হচ্ছে ইন্দোনেশিয়াকে। বিশ্বের সংক্রামক রোগ বিশেষজ্ঞরা সতর্ক করে বলছেন, ইন্দোনেশিয়ায় মহামারির বর্তমান গতি ও আক্রান্তের হার নতুন কোভিড ধরনের উৎপত্তির ঝুঁকিতে রয়েছে। যা কি না ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের তুলনায় আরও বেশি মারাত্মক হতে পারে।

গত সপ্তাহে দৈনিক আক্রান্তের হারে ভারত ও ব্রাজিলকে অতিক্রম করেছে ইন্দোনেশিয়া। বিশ্বের সবচেয়ে বেশি মুসলিম জনসংখ্যার দেশটিতে দৈনিক গড়ে ৫০ হাজার জনের বেশি নতুন রোগী শনাক্ত ও দেড় হাজারের মতো মৃত্যু হচ্ছে।

মহামারি বিশেষজ্ঞরা বলছেন, নতুন ভ্যারিয়েন্ট সবসময় এমন অঞ্চল বা দেশগুলোতে শুরু হয়, যারা সহজে সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণ করতে পারে না।

আরও পড়ুন


দাঁড়িয়েছিলেন করোনা পরীক্ষার জন্য, সেখানেই যুবকের মর্মান্তিক মৃত্যু

বরিশালে টিসিবি পণ্য কিনতে দীর্ঘ লাইন, ক্রেতাদের অভিযোগ

ডেঙ্গু চিকিৎসায় রাজধানীতে ৬ ডেডিকেটেড হাসপাতাল

জীবন রক্ষা না পেলে জীবিকা দিয়ে কী হবে: ওবায়দুল কাদের


বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বলছে, পাঁচ শতাংশের বেশি করোনা টেস্টের ফলাফল পজিটিভ হলে মহামারি নিয়ন্ত্রণ সম্ভব হয় না। ইন্দোনেশিয়ায় করোনা মহামারি শুরুর পর ১৬ মাস ধরে আক্রান্তের হার ১০ শতাংশের বেশি ছিল। বর্তমানে তা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৩০ শতাংশে। সুতরাং বিশেষজ্ঞরা সহজেই অনুমান করছেন, ইন্দোনেশিয়ায় করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্ট বা সুপার ভ্যারিয়েন্ট তৈরির শঙ্কা যথেষ্ঠ রয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রধান দুটি গবেষক দল ইন্দোনেশিয়ার বর্তমান পরিস্থিতিতে উদ্বেগ জানিয়ে বলেছে, সেখানে নতুন ভ্যারিয়েন্ট শনাক্তের রয়েছে শঙ্কা। ভাইরাস যত বেশি ছড়ায় তত বেশি নতুন ভ্যারিয়েন্ট তৈরি ত্বরান্বিত হয়। ঈদুল আজহার কারণে ইন্দোনেশিয়ায় করোনা ভাইরাস আরও বেশি মাত্রায় ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা রয়েছে বলে স্থানীয় সংবাদমাধ্যমে ইতোমধ্যে উঠে এসেছে। এর আগে ঈদুল ফিতরের পর সংক্রমণ অনেকাংশে বেড়েছিল। বেড়েছিল মৃত্যুও। এবারও তেমন হওয়ার শঙ্কা প্রবল।

news24bd.tv এসএম

পরবর্তী খবর

সংকট সমাধানে তিউনিশিয়ার প্রেসিডেন্টকে সংলাপের আহ্বান আন-নাহদার

অনলাইন ডেস্ক

সংকট সমাধানে তিউনিশিয়ার প্রেসিডেন্টকে সংলাপের আহ্বান আন-নাহদার

তিউনিশিয়ার চলমান রাজনৈতিক সঙ্কট সমাধানের জন্য সংলাপে বসতে প্রেসিডেন্ট কায়েস সাঈদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে দেশটির সবচেয়ে বড় রাজনৈতিক দল আন-নাহদা। তিউনিশিয়ার জোট সরকারের গুরুত্বপূর্ণ শরিক দল এই আন-নাহদা।

গত কয়েকদিনে প্রেসিডেন্ট সাঈদ দেশের প্রধানমন্ত্রী, প্রতিরক্ষামন্ত্রী ও আইনমন্ত্রীকে বরখাস্ত এবং জাতীয় সংসদ স্থগিত করেছেন। এতে দেশটি মারাত্মকভাবে রাজনৈতিক সংকটের মধ্যে পড়েছে। প্রেসিডেন্ট সাঈদের এইসব পদক্ষেপে তিউনিশিয়ায় মিশ্র প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়েছে।

এ পরিস্থিতিতে আন-নাহদা তিউনিশিয়ার নাগরিকদের মধ্যে ঐক্য ও সহযোগিতা বৃদ্ধির আহ্বান জানিয়ে বলেছে, সবাইকে দাঙ্গায় ও উস্কানির বিরুদ্ধে সতর্ক থাকতে হবে। একইসঙ্গে দলটির নেতাকর্মীদের প্রতি সংসদ ভবনের পাশে অনশন ধর্মঘটে যোগ না দিতে এবং সব ধরনের বিক্ষোভ প্রতিবাদ এড়ানোর আহ্বান জানানো হয়েছে।

আরও পড়ুন


করোনায় ৭ মাসের অন্তঃসত্ত্বা সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট সানিয়া আক্তারের মৃত্যু

বগুড়ায় করোনা আক্রান্ত ও উপসর্গ নিয়ে ১৯ জনের মৃত্যু

ইসরাইলের গুপ্তচর সংস্থা মোসাদের এজেন্টরা গ্রেপ্তার, অস্ত্র উদ্ধার

বরিশাল শেবাচিমে ১০ জনের মৃত্যু, শনাক্তের হার ৬০ শতাংশ


২০১১ সালে আরব-বসন্তের সময় সর্বপ্রথম তিউনিসিয়ার স্বৈরশাসক বেন আলী উৎখাত হয়েছিলেন এবং সেখানে জনগণের শাসন প্রতিষ্ঠিত হয়। কিন্তু গত রোববার প্রেসিডেন্ট সাঈদ দেশের প্রধানমন্ত্রী হিচেম মেচিচিকে বরখাস্ত এবং জাতীয় সংসদ এক মাসের জন্য স্থগিত করেন। এরপর দেশটি মারাত্মক রাজনৈতিক সংকটের মধ্যে পড়েছে। পরিস্থিতি মোকাবিলায় প্রেসিডেন্ট সাঈদ এক মাসের জন্য রাত্রিকালীন কারফিউ জারি করেছেন। সূত্র: পার্সটুডে।

news24bd.tv এসএম

পরবর্তী খবর

আজ জাপানে আঘাত হানবে ঘূর্ণিঝড় নেপারতাক

অনলাইন ডেস্ক

আজ জাপানে আঘাত হানবে ঘূর্ণিঝড় নেপারতাক

জাপানের মূল ভূখণ্ডে আঘাত হানবে মৌসুমি ঝড় নেপারতক। এর প্রভাবে টোকিও এবং এর আশপাশের এলাকায় রয়েছে ভারী বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা।

আজ বুধবার দেশটির আবহাওয়া অধিদপ্তর জানিয়েছে, আনুমানিক বিকেল ৩টার দিকে কেসেনুমা শহরের কাছে ঝড়টি আঘাত হানবে।

আরও পড়ুন:


রাজ কুন্দ্রার পর্নকাণ্ডে যা বললেন সোফিয়া

বান্দরবানে ভারী বর্ষণে পাহাড় ধসের আশঙ্কা

পশ্চিমবঙ্গের নাম বদলে ‘বাংলা' রাখার অনুরোধ মুখ্যমন্ত্রী মমতার

ঠাকুরগাঁওয়ে বিরল রোগে আক্রান্ত একই পরিবারের তিন শিশু

এদিকে, ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে টোকিওসহ আশপাশের এলাকায় গতকাল মঙ্গলবার তীব্র বাতাসসহ বৃষ্টি হয়। ঘূর্ণিঝড়ের কারণে টোকিও অলিম্পিকে ইতোমধ্যে আর্চারি ও সার্ফিংসহ আরও কিছু খেলার সময়সূচি পরিবর্তন করা হয়েছে। 

news24bd.tv রিমু

 

পরবর্তী খবর

ইসরাইলের গুপ্তচর সংস্থা মোসাদের এজেন্টরা গ্রেপ্তার, অস্ত্র উদ্ধার

অনলাইন ডেস্ক

ইসরাইলের গুপ্তচর সংস্থা মোসাদের এজেন্টরা গ্রেপ্তার, অস্ত্র উদ্ধার

ইরানি নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা

ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের গোয়েন্দা বাহিনীর সদস্যরা ইহুদিবাদী ইসরাইলের গুপ্তচর সংস্থা মোসাদের কয়েকজন এজেন্টকে গ্রেপ্তার করেছে। এসব এজেন্ট ইরানের বিভিন্ন শহরে দাঙ্গা সৃষ্টি এবং সন্ত্রাসী কার্যক্রম পরিচালনার পরিকল্পনা নিয়েছিল।

ইরানের গোয়েন্দা মন্ত্রণালয়ের মহাপরিচালক জানান, ইসরাইলি এজেন্টদের আটকের পর তাদের কাছ থেকে বিপুল পরিমাণ অস্ত্র এবং গোলাবারুদ উদ্ধার করা হয়।

তিনি বলেন, মোসাদ এজেন্টদেরকে ইরানের পশ্চিম সীমান্ত এলাকা থেকে আটক করা হয়। ওই এলাকায় ইরানের গোয়েন্দা সংস্থা ও নিরাপত্তা বাহিনীর নজরদারি ছিল। তবে ঠিক কোথা থেকে এবং কতজনকে আটক করা হয়েছে তার সঠিক সংখ্যা জানাননি ইরানের গোয়েন্দা মন্ত্রণালয়ের এই কর্মকর্তা।

উদ্ধার করা অস্ত্রের মধ্যে রয়েছে পিস্তল, গ্রেনেড, উইনচেস্টার শটগান, কালাশনিকভ রাইফেল এবং প্রচুর পরিমাণ গুলি। গোয়েন্দা মন্ত্রণালয়ের মহাপরিচালক জানান, এসমস্ত অস্ত্রের কিছু কিছু দাঙ্গা সৃষ্টির কাজে ব্যবহার করা হয়েছে।

আরও পড়ুন


বরিশাল শেবাচিমে ১০ জনের মৃত্যু, শনাক্তের হার ৬০ শতাংশ

এবার ভিকারুননিসার সেই অধ্যক্ষের পদত্যাগ চাইলেন ব্যারিস্টার সুমন

বাংলাদেশ-অস্ট্রেলিয়ার টি-টোয়েন্টি সিরিজের পূর্ণাঙ্গ সূচি

ঝিনাইদহে আরও ৫ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ৭৬


তিনি বলেন, মোসাদ এজেন্টরা এসমস্ত অস্ত্র ব্যবহার করে দেশের বিভিন্ন শহরে দাঙ্গা সৃষ্টি এবং গুপ্তহত্যা পরিচালনার পরিকল্পনা নিয়েছিল।

ইরানের গোয়েন্দা মন্ত্রণালয়েন এ শীর্ষ কর্মকর্তা আরো জানান, গত জুন মাসে প্রেসিডেন্ট নির্বাচন অনুষ্ঠানের সময় ইহুদিবাদী ইসরাইল ইরানের বিভিন্ন অংশে অন্তর্ঘাতমূলক তৎপরতা পরিচালনার পরিকল্পনা নিয়েছিল কিন্তু তাদের সে পরিকল্পনা বাস্তবায়িত হতে পারে নি বরং ইসরাইলি নেটওয়ার্ককে নির্মূল করা হয়েছে। সূত্র: পার্সটুডে।

news24bd.tv এসএম

পরবর্তী খবর

বিশ্বে তীব্র তাপ ও শৈত্যপ্রবাহে বাড়ছে মৃত্যু

নাহিদ জিহান

পৃথিবীর কোথাও শরীর ঝলসে দেয়ার মতো তাপমাত্রা, আবার কোথাও হাড় হিম করার মতো ঠান্ডা। দুই ধরনের ঘটনাই বাড়ছে দিনকে দিন। 

বাড়ছে তীব্র তাপপ্রবাহ ও শৈত্যপ্রবাহে ম়ৃতের সংখ্যা। আবহাওয়ার এমন তীব্র প্রতিকূলতার পেছনে জলবায়ুর প্রভাব স্পষ্ট। সম্প্রতি ল্যানসেট প্ল্যানেটারি হেল্থ প্রকাশিত গবেষণাপত্রে দেখা গেছে, বৈরি আবহাওয়ার কারণে মানুষের মৃত্যু বেড়েছে ৯ দশমিক ৪ শতাংশ। 

প্রতিবছর বিশ্বের নানা প্রান্তে বন্যা, ঘূর্ণিঝড়, তুষারপাত কিংবা তীব্র দাবদাহ মানুষকে মোকাবেলা করতে হয়। কিন্তু এসব প্রাকৃতিক দুর্যোগ ক্রমেই এর স্বাভাবিক সীমা হারিয়ে ভয়াবহ রূপ ধারণ করেছে। 

শীতের সঙ্গে গরমের তীব্রতা বেড়েছে অনেকখানি। চলতি বছরই পূর্বের সব রেকর্ড ভেঙে শীতপ্রধান দেশ কানাডায় তাপমাত্রা উঠেছে ৫০ ডিগ্রীতে। মারা গেছে প্রায় পাঁচশো জন। অন্যদিকে নাতিশীতোষ্ণ অঞ্চল ভারতে তীব্র শৈত্র্যপ্রবাহে প্রতিবছর প্রাণ হারায় শতাধিক মানুষ।  

বিশ্বে প্রতি বছর তীব্র তাপপ্রবাহ ও শৈত্যপ্রবাহে মৃতের সংখ্যা গড়ে প্রায় ৫০ লাখ। আন্তর্জাতিক চিকিৎসা গবেষণা পত্রিকা ‘ল্যানসেট প্ল্যানেটারি হেল্থ’-এ প্রকাশিত একটি গবেষণাপত্রে বলা হয়েছে, বৈশ্বিক উষ্ণতার কারণে গেলো ২০ বছরে শৈত্যপ্রবাহ অনেকটা কমে এসেছে। তবে বেড়েছে তীব্র তাপপ্রবাহ। আর এতে মৃতের সংখ্যাও বাড়ছে উদ্বেগজনকভাবে।

আরও পড়ুন:


এবার তিউনিসিয়ার প্রতিরক্ষামন্ত্রীকে বহিষ্কার করলেন প্রেসিডেন্ট

মাহফুজ আনামের অনৈতিক কর্মকাণ্ডের প্রতিবাদে সম্পাদক পরিষদ থেকে নঈম নিজামের পদত্যাগ

গ্রামীণফোনকে হু্মায়ূন পরিবারের আইনি নোটিশ


গবেষকরা জানিয়েছেন, বিশ্বে প্রতিবছর যত মানুষের স্বাভাবিক মৃত্যু হয়, তাঁদের ৯.৪ শতাংশই শিকার হচ্ছেন তীব্র তাপপ্রবাহ ও শৈত্যপ্রবাহের। অর্থাৎ বলা চলে, প্রতি ১ লাখ মানুষের মধ্যে তীব্র ঠান্ডা ও গরমে মৃতের সংখ্যা আগের ২০ বছরের নিরিখে গড়ে ৭৪ জন করে বাড়ছে। ভয়াবহ এই আবহাওয়ার কারণে শুধু মানুষই নয়, সমুদ্রের একশ কোটির বেশি প্রাণীর মৃত্যু হয়েছে বলে জানিয়েছেন সামুদ্রিক জীববিজ্ঞানীরা।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর