বোট ক্লাবে পরীমণি নাসিরকে বলেন ‘অ্যাই যা...যা’(ভিডিও)

অনলাইন ডেস্ক

বোট ক্লাবে পরীমণি নাসিরকে বলেন ‘অ্যাই যা...যা’(ভিডিও)

আবারো সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল বোট ক্লাবে ঢুকেই মদ পান করেছেন পরীমনি। এর আগেও গণমাধ্যমে বোট ক্লাবের সিসিটিভি ক্যামেরার ফুটেজ প্রকাশ পায়।  যেখানে পরীমণি ও নাসির ইউ মাহমুদের কথোপকথন প্রকাশ পেয়েছে।

ভিডিওতে দেখা যায়, পরীমনি ক্লাবে বারের সামনে চেয়ারে বসে তার সঙ্গে থাকা অমি ও জিমিকে নিয়ে মদ পান করছেন।

এ সময় দূর থেকে বোট ক্লাবের পরিচালনা পর্ষদের সদস্য নাসির ইউ মাহমুদ তাকে মদ পান করতে নিষেধ করেন।

ভিডিওতে দেখা যায়, পরীমণিকে উদ্দেশ্য করে নাসির বলেন, ‘হোয়াট ইজ দিস, প্লিজ স্টপ ইট, ডোন্ট ডু দিস, ইটস ঠু মাচ।’

নাসিরের উত্তরে পরীমণি বলেন, ‘অ্যাই যা...যা’

এর আগে বোট ক্লাবের সিসিটিভি ক্যামেরায় ধারণকৃত সেই রাতের একটি ফুটেজ প্রকাশ পেয়েছিল। 

ওই ফুটেজে দেখা যায়, ৯ জুন রাত ১২টা ২২ মিনিটে ঢাকা বোট ক্লাবের সামনে একটি কালো গাড়ি দাঁড়ায়। সেই গাড়ি থেকে পরীমণি, জিমি ও অমিকে নামতে দেখা যায়। কিছুক্ষণ পর গাড়ি থেকে বের হন বনিও। ক্লাবের রিসিপশনেও অমির সঙ্গে পরীমণিসহ অন্যদের ঢুকতে দেখা গেছে ওই ফুটেজে।

এর আগেও গনমাধ্যমে বোট ক্লাবের সিসিটিভি ক্যামেরার ফুটেজ প্রকা্শ পায়। তবে অনেকেই ধারণা করছেন চড় মারার ক্ষোভ থেকেই বাকি সব কিছু করেছেন পরীমনি। এই ঘটনায় গ্রেফতার তার বন্ধু অমির ৯ সহযোগীকে গ্রেফতার করেছে সিআইডি।

 

গত ১৩ জুন রাতে নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে এক স্ট্যাটাস দিয়ে ধর্ষণ ও হত্যাচেষ্টার অভিযোগ করেন পরীমণি।

বিষয়টি নিয়ে ওইদিন রাতেই বনানীর নিজের বাসায় সংবাদ সম্মেলন করেন এই অভিনেত্রী। তার সংবাদ সম্মেলনের পরদিন ১৪ জুন ঢাকার সাভার মডেল থানায় একটি মামলা করেন এ অভিনেত্রী। এতে নাসির ও তার বন্ধু অমির নাম উল্লেখ করে চারজনকে অজ্ঞাত আসামি করা হয়। মামলার পরপরই রাজধানীর উত্তরা-১ নম্বর সেক্টরের-১২ নম্বর রোডের বাসা থেকে নাসির ও অমিসহ পাঁচজনকে গ্রেফতার করে মহানগর গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশ।

সেদিনের ভিডিও দেখতে এখানে ক্লিক করুন

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

তরুণ আ. লীগ নেতাকে কুপিয়ে হত্যা

আব্দুস সালাম বাবু, বগুড়া:

তরুণ আ. লীগ নেতাকে কুপিয়ে হত্যা

বগুড়ায় তরুণ আওয়ামী লীগ নেতা কে কুপিয়ে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। মঙ্গলবার রাত সাড়ে নয়টার দিকে সদর উপজেলার ফাঁপোর ইউনিয়নের হাটখোলা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। 

নিহত মমিনুর ইসলাম  রকি (৩২) ফাঁপোড় মন্ডলপাড়া গ্রামের সিরাজুল ইসলামের ছেলে। সে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক এবং আসন্ন ফাঁপোর ইউপিতে চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী ছিলেন।

স্থানীয়রা জানান, রাতে নিহত রকি মসজিদে এশার নামাজ আদায় করে বাড়ি ফিরছিলেন। এ সময় মসজিদের পেছনে হাটখোলা এলাকায় পৌঁছালে দুর্বৃত্তরা রকিকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে মাথা সহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে কুপিয়ে জখম করে। 

স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ (শজিমেক) নিয়ে যায়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসারা তাকে মৃত ঘোষণা করেন। 

নিহত রকিকে মেডিকেল এ নিয়ে আসা স্থানীয় যুবক জানান, আমরা এলাকায় বসে ছিলাম। ওই সময় শুনি রকিকে কয়েকজন মিলে কুপিয়েছে। পরে তাকে উদ্ধার করে মেডিকেল এ আনা হলে ডাক্তার বলেন তিনি মারা গেছেন। 

বগুড়ার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ফয়সাল মাহমুদ জানান, দূর্বৃত্তদের হামলায় রকি নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় জড়িতদের গ্রেপ্তার করতে পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে। 

এদিকে রকি নিহতের খবরে সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও উপজেলা চেয়ারম্যান আবু সুফিয়ান সফিক, সাধারণ সম্পাদক মাফুজুল ইসলাম রাজ, জেলা আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক আল রাজী জুয়েল শজিমেক হাসপাতালে আসেন। নেতৃবৃন্দ এ হত্যাকাণ্ডের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে অবিলম্বে খুনিদের গ্রেপ্তার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেন।

আরও পড়ুন:


বিভিন্ন জেলায় করোনায় প্রায় দেড় শতাধিক মৃত্যুর

সিলেট বিভাগে করোনায় শনাক্ত ও মৃত্যু নতুন রেকর্ড

বগুড়ায় ৭০০ পরিবারের মাঝে বসুন্ধরা গ্রুপের ত্রাণ বিতরণ

মাহফুজ আনামের অনৈতিক কর্মকাণ্ডের প্রতিবাদে সম্পাদক পরিষদ থেকে নঈম নিজামের পদত্যাগ


news24bd.tv / কামরুল 

পরবর্তী খবর

কিশোরী অপহরণের দায়ে তরুণ গ্রেপ্তার

অনলাইন ডেস্ক

কিশোরী অপহরণের দায়ে তরুণ গ্রেপ্তার

১৪ বছরের এক কিশোরীকে অপহরণের ঘটনায় আল আমিন (১৯) নামে এক তরুণকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

এ সময় অপহরণ হওয়া ওই কিশোরীকে (১৪) উদ্ধার করা হয়েছে। চট্টগ্রামের খুলশী থানার লালখানবাজার এলাকা থেকে কিশোরীকে অপহরণ করা হয়েছিল।

মঙ্গলবার (২৭ জুলাই) কুমিল্লার মুরাদনগর থানার কাজীয়াতল এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। 

চট্টগ্রামের খুলশী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ শাহিনুজ্জামান এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

আল আমিন কুমিল্লার মুরাদনগর থানার কাজীয়াতল এলাকার মৃত আবুল খায়েরের ছেলে। তিনি চট্টগ্রাম নগরের খুলশী থানার লালখান বাজার পোড়া কলোনি এলাকার একটি ভাড়া বাসায় থাকতেন।

পুলিশ জানায়, অপহরণের শিকার কিশোরী লালখান বাজার এলাকার শহীদ নগর বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির  শিক্ষার্থী। পরিবারের সঙ্গে খুলশী থানার লালখান বাজার এলাকায় বসবাস করে। মেয়েটি পোড়া কলোনি এলাকায় জনৈক রাসেল নামে একজনের কাছে প্রাইভেট পড়তে যেত। যাওয়া-আসার পথে তাকে প্রায় দিনই অভিযুক্ত আল আমিন প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে বিরক্ত করত। কিন্তু কিশোরী তার প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করে। এতে আলামিন ক্ষিপ্ত হয়। এক পর্যায়ে গত ২৫ জুলাই বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে ওই কিশোরীর প্রাইভেট শেষে বাসায় ফেরার পথে লালখান বাজার এলাকা থেকে অপহরণ করে ওই তরুণ। পরে রাতে এই ঘটনায় কিশোরীর বাবা বাদী হয়ে খুলশী থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। 

পুলিশ কর্মকর্তা মোহাম্মদ শাহিনুজ্জামান বলেন, মামলার তদন্ত চলাকালে তথ্যপ্রযুক্তির সহায়তায় আল আমিনের অবস্থান কুমিল্লা জেলার মুরাদনগরে শনাক্ত করা হয়। আজ ভোরে অভিযান চালিয়ে মুরাদনগর থানার কাজীয়াতল এলাকা থেকে আল আমিনকে গ্রেফতার করা হয়। একই সঙ্গে অপহৃত কিশোরীকেও উদ্ধার করা হয়েছে।

আরও পড়ুন:


বিভিন্ন জেলায় করোনা ও উপসর্গে মৃত্যুর তথ্য

গার্মেন্টস খোলার ব্যাপারে যা জানালেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী

কখন লকডাউন বাড়ানো লাগবে না জানালেন তথ্যমন্ত্রী

ময়মনসিংহ মেডিকেলে করোনায় ‍মৃত্যুর রেকর্ড


 news24bd.tv তৌহিদ

পরবর্তী খবর

জামিনে স্বামীকে মুক্ত করতে এসে ধর্ষণের শিকার গৃহবধূ

অনলাইন ডেস্ক

জামিনে স্বামীকে মুক্ত করতে এসে ধর্ষণের শিকার গৃহবধূ

মাদক মামলায় কারাগারে থাকা স্বামীকে জামিনে মুক্ত করতে এসে দুই দফায় ধর্ষণের শিকার হয়েছেন এক গৃহবধূ (৪০)।

জানা গেছে,মাদক মামলায় ওই নারীর স্বামী নারায়ণগঞ্জ জেলা কারাগার আটক রয়েছে। স্বামীকে জামিনে মুক্ত করার কথা বলে ফিরোজ মিয়া ভুক্তভোগীকে ১৫ জুলাই ফোন করে নারায়ণগঞ্জ আসতে বলেন। স্বামীকে মুক্ত করতে তার আশ্বাসে সে টেকনাফ থেকে নারায়ণগঞ্জে আসেন। ফিরোজ তাকে তার ইসদাইরস্থ ভাড়া বাসায় থাকার জন্য প্রস্তাব দিলে রাজি হয়। তার স্বামীকে কারাগার থেকে মুক্ত করার কথা বলে ফিরোজ বাদীর কাছ থেকে ৫৫ হাজার টাকাও নেয়।

ভুক্তভোগী অভিযোগে বলেন, ২০ জুলাই রাত সাড়ে ১২টার দিকে সে ঘুমিয়েছিল। এসময় ফিরোজ তাকে ধর্ষণ করে। বাঁধা দিলে তাকে হত্যা করার হুমকি দেয়। সোমবার (২৬ জুলাই) সকাল ১০টার দিকে স্বামীর সঙ্গে দেখা করিয়ে দেয়ার কথা বলে অজ্ঞাত একটি স্থানে নিয়ে হত্যা করার হুমকি দিয়ে দ্বিতীয় বারের মতো ধর্ষণ করে ফিরোজ। ধর্ষণ শেষে তাকে রিকশায় করে শহরের চাষাড়া বাস স্ট্যান্ড এলাকায় পাঠিয়ে দেয়।

এ ঘটনায় ভুক্তভোগী বাদী হয়ে জামালপুর জেলার ইসলামপুর থানার অমপুরের লেবু মিয়ার পুত্র ও ফতুল্লা থানার ইসদাইরস্থ আইডিয়াল স্কুল সংলগ্ন আলামিনের বাড়ির চতুর্থ তলার ভাড়াটিয়া ফিরোজ মিয়াকে (২৮) আসামি করে মঙ্গলবার (২৭ জুলাই) দুপুরে ফতুল্লা মডেল থানায় মামলা করেছেন।

আরও পড়ুনঃ


দ. কোরিয়ার কোন গালিও দেয়া চলবে না উত্তর কোরিয়ায়

তালেবানের হাত থেকে ২৪ জেলা পুনরুদ্ধারের দাবি

কাছাকাছি আসা ঠেকাতে টোকিও অলিম্পিকে বিশেষ ব্যবস্থা


মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ফতুল্লা মডেল থানার এসআই রউফ জানান, ভুক্তভোগী গৃহবধূকে পরীক্ষার জন্য হাসপাতালে নেয়া হয়েছে।অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করার চেষ্টা করছে পুলিশ।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

লকডাউনে জন্মদিন, গুনতে হলো জরিমানা

শেখ আহসানুল করিম, বাগেরহাট

লকডাউনে জন্মদিন, গুনতে হলো জরিমানা

বাগেরহাটের কচুয়ায় উপজেলা সদরে লকডাউন অমান্য করে ব্যাপক লোকসমাগম ঘটিয়ে আবু হানিফ শেখের স্ত্রী শিউলী বেগম তার প্রথম পক্ষের ছেলে মিঠুন শেখের (২১) জন্মদিন পালন করার তিন হাজার টাকা জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত।

কচুয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো.মনিরুল ইসলাম জানান, সোমবার রাতে আবু হানিফ তার স্ত্রী শিউলী বেগমের প্রথম পক্ষের ছেলে মিঠুনের জন্মদিনে ব্যাপক আয়োজন করেন।

অনেক লোকজনকে নিমন্ত্রণ করে স্বাস্থ্যবিধি না মেনে ভূরিভোজের আয়োজন করা হয়।

লকডাউনের নির্দেশনা অমান্য করে মহা ধুমধামে এই জন্মদিন পালনের খরব জানতে পেরে কচুয়া
উপজেলা নির্বাহী অফিসার জীনাত মহল সেখানে অভিযান চালান।

এসময়ে আমন্ত্রিত লোকজন উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে দেখতে পেয়ে খাওয়ার টেবিল ছেড়ে পালিয়ে যায়। লকডাউনের নির্দেশনা অমান্য করাসহ করোনা স্বাস্থ্যবিধি না মানায় কচুয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিট্রেট জীনাত মহল সেখানে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে আবু হানিফ শেখের স্ত্রী শিউলী বেগম তিন হাজার টাকা জরিমানা করেন।

আরও পড়ুন:


জাতীয় পরিচয়পত্র দেখালেই টিকা দেওয়া হবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

শিল্প কারখানা কবে খুলবে জানা গেল


 news24bd.tv তৌহিদ

পরবর্তী খবর

রাঙামাটিতে জেএসএস নেতা অস্ত্রসহ আটক

ফাতেমা জান্নাত মুমু, রাঙামাটি

রাঙামাটিতে জেএসএস নেতা অস্ত্রসহ আটক

রাঙামাটির কাপ্তাইয়ে অস্ত্রসহ পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতি জেএসএসের এক নেতাকে আটক করেছে যৌথবাহিনী। আটকের নাম-বিজয় তঞ্চঙ্গ্যা (৩২)।

মঙ্গলবার ভোর রাতে কাপ্তাই উপজেলার রাইখালী ভালুকিয়াপাড়া থেকে তাকে আটক করা হয়।

এসময় তার কাছ থেকে একটি দেশীয় বন্দুক, ৪ রাউন্ড গুলি ও একটি মোবাইল উদ্ধার করা হয়।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তিনি নিজেকে পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতি অর্থাৎ জেএসএসের সশস্ত্র গ্রুপের সদস্য বলে দাবি করেন।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে যৌথবাহিনীর একটি বিশেষ দল কাপ্তাই উপজেলার রাইখালী ভালুকিয়াপাড়া অভিযানে নামে।

এ সময় পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতি অর্থাৎ জেএসএসের সশস্ত্র গ্রুপের সদস্য বিজয় তঞ্চঙ্গ্যা অস্ত্রসহ ওই এলাকায় অবস্থান করছিল। পরে চারপাশ থেকে ঘেরাও করে তাকে আটক করে যৌথবাহিনীর সদস্যরা।

এ সময় তাকে তল্লাশি করে একটি দেশীয় বন্দুক, ৪রাউন্ড গুলি ও একটি মোবাইল ফোন উদ্ধার করা হয়।

রাঙামাটির কাপ্তাই উপজেলা থানার কর্মকর্তা (ওসি) মো. ইকবাল বাহার চোধূরী জানান, পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতি অর্থাৎ জেএসএসের সশস্ত্র গ্রুপের সদস্য বিজয় তঞ্চঙ্গ্যার বিরুদ্ধে আগেও যুবলীগ নেতা উসুই প্রু মারমা হত্যা মামলা রয়েছে। এখনো তার কাছে অস্ত্র ও গুলি পাওয়া গেছে। যৌথবাহিনী তাকে আটক করার পর পুলিশের কাছে হস্তান্তর করে। অবৈধ অস্ত্র রাখার অপরাধে তার বিরুদ্ধে পুলিশ বাদি হয়ে মামলা করেছে।

 news24bd.tv তৌহিদ

পরবর্তী খবর