তালেবান ঠেকাতে অস্ত্র হাতে আফগান নারীরা

অনলাইন ডেস্ক

তালেবান ঠেকাতে অস্ত্র হাতে আফগান নারীরা

আফগানিস্তানের বিভিন্ন স্থানে নিরাপত্তা বাহিনীর সঙ্গে সংঘর্ষের জের ধরে তালেবান বেশ কিছু জেলা দখল করে নেয়ার পর তালেবানের বিরুদ্ধে গণ-প্রতিরোধ বাহিনী গঠন করা হচ্ছে। এসব বাহিনীতে উল্লেখযোগ্য সংখ্যক আফগান নারী অংশগ্রহণ করছেন।

আফগানিস্তানের উত্তর, পূর্ব ও পশ্চিমাঞ্চলে এসব গণ-প্রতিরোধ বাহিনী গঠন করা হচ্ছে। তবে তালেবান গতকাল (বুধবার) এক বিবৃতি প্রকাশ করে এই মর্মে হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেছে যে, যারা এ ধরনের বাহিনী গঠন করার উদ্যোগ নিয়েছেন ‘তাদেরকে ক্ষমা করা হবে না।’ তালেবানের বিবৃতির বক্তব্যের ধরন থেকে বোঝা যায় তারা ‘ক্ষমতা হাতে পাওয়ার পর’ এসব উদ্যোক্তাকে শাস্তি দেয়ার কথা বুঝেয়েছেন।

অবশ্য তালেবান এখন পর্যন্ত বেশ কিছু জেলা দখল করতে পারলেও এককভাবে কোনো প্রদেশ বা বড় কোনো শহর দখল করতে পারেনি।

আফগানিস্তানের জুযজান প্রদেশের বহু নারী নিরাপত্তা বাহিনীর সমর্থনে অস্ত্র হাতে তুলে নিয়েছেন বলে দেশটির গণমাধ্যমগুলো খবর দিয়েছে। জুযজানের প্রাদেশিক সরকার এক বিবৃতি প্রকাশ করে এ খবরের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেছে, এসব নারী অস্ত্র হাতে নিয়ে এই বার্তা দিতে চান যে, তারা তাদের শহরগুলোতে কোনো অবস্থায় তালেবানের অনুপ্রবেশ মেনে নিতে রাজি নন।

রাজধানী কাবুলের উত্তরে অবস্থিত কুহ্‌দামান শহরের শত শত মানুষ এক স্থানে সমবেত হয়ে পুলিশের কাছ থেকে অস্ত্র গ্রহণ করে নিরাপত্তা বাহিনীর প্রতি নিজেদের সমর্থন ঘোষণা করেছেন। ১৯৯০-এর দশকে আফগানিস্তানের ক্ষমতায় থাকার সময় তালেবান কুহ্‌দামানে ব্যাপক গণহত্যা চালানোর পাশাপাশি সেখানের বহু আঙ্গুরের বাগান জ্বালিয়ে দিয়েছিল বলে অভিযোগ রয়েছে।

আফগানিস্তানের উত্তরাঞ্চলে এসব সশস্ত্র সম্মেলন আয়োজনে আমানুল্লাহ গুজারসহ বেশ কয়েকজন সাবেক মুজাহিদ কমান্ডার গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছেন। ‘হেজবে ওয়াহদাত’ দলের নেতা ও প্রেসিডেন্ট আশরাফ গনির উপদেষ্টা মোহাম্মাদ মোহাক্কেক গণ-বাহিনী সংগঠিত করার কাজে দেশটির পশ্চিমাঞ্চলীয় বল্‌খ প্রদেশের রাজধানী মাজার শরিফ পৌঁছেছেন। আফগানিস্তানের পূর্বাঞ্চলীয় নানগারহার প্রদেশ থেকে পাওয়া খবরে জানা গেছে, সেখানকার সাবেক মুজাহিদ নেতা হজরত আলীর নেতৃত্বে তালেবানের বিরুদ্ধে ‘গণ-বিদ্রোহ’ ঘোষণা করা হয়েছে।


আরও পড়ুনঃ

শুভ জন্মদিন লিওনেল ‘দ্য ম্যাজিশিয়ান’

রাজধানীতে বান্ধবীকে ভিডিও কল দিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীর আত্মহত্যা!

কলম্বিয়ার বিপক্ষে অনেক কষ্টে জয় পেল ব্রাজিল

রাশিয়ার আক্রমণে পালিয়েছে ব্রিটিশ যুদ্ধ জাহাজ, বেড়েছে উত্তেজনা


তালেবানের সঙ্গে ২০২০ সালে করা এক চুক্তির ভিত্তিতে যখন আফগানিস্তান থেকে মার্কিন নেতৃত্বাধীন বিদেশি সেনা প্রত্যাহারের কাজ চলছে তখন দেশটিতে এ আশঙ্কা জোরদার হচ্ছে যে, তালেবান আবার আফগানিস্তানের ক্ষমতা দখল করতে পারে। বিভিন্ন প্রদেশে তালেবানের হামলার পরিপ্রেক্ষিতে দেশটির জনগণ এ আশঙ্কা প্রকাশ করছেন।

সূত্রঃ পার্সটুডে

news24bd.tv / নকিব

পরবর্তী খবর

ভারতের বিরুদ্ধে প্রচারণা চালানোর উদ্যোগ নিয়েছে পাকিস্তান

অনলাইন ডেস্ক

ভারতের বিরুদ্ধে প্রচারণা চালানোর উদ্যোগ নিয়েছে পাকিস্তান

ভারতীয় সংবাদ সংস্থা এএনআই (এশিয়ান নিউজ ইন্টারন্যাশনাল) গত ৩১ জুলাই ‌‘Wicked plans of Pakistan for August 5’ শিরোনামে একটি মতামতধর্মী লেখা প্রকাশ করেছে। লেখক হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে ডা. আমজাদ আইয়ুব মির্জা (Dr Amjad Ayub Mirza) নামক এক ব্যক্তির নাম। তার পরিচয় দেওয়া হয়েছে লেখক ও মানবাধিকার কর্মী হিসেবে।

পাকিস্তান অধিকৃত কাশ্মীরের এই বাসিন্দা বর্তমানে যুক্তরাজ্যে আছেন। ওই লেখায় দাবি করা হয়েছে, আগামী ৫ আগস্টকে কেন্দ্র করে ইউরোপজুড়ে ভারতের বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালানোর পরিকল্পনা করেছে পাকিস্তান। 

এই উদ্যোগ নিয়েছে পাকিস্তানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কৌশলগত যোগাযোগ বিভাগ। ৫ আগস্টকে কেন্দ্র করে তারা 'Yom-e-Istehsaal' (নিপীড়ন দিবস) পালনের উদ্যোগ নিয়েছে। টুইটার হ্যান্ডেলের হিডেন রুটস থেকে এমন পরিকল্পনার কথা ফাঁস হয়েছে বলে ওই লেখায় দাবি করা হয়েছে। সারা বিশ্বের পাকিস্তান দূতাবাসগুলোতে এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় নির্দেশনাও পাঠানো হয়েছে।

প্রথাগত আন্দোলনের পাশাপাশি ভারতবিরোধী প্রচারণা ছড়িয়ে দিতে ডিজিটাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম ব্যবহারেরও পরিকল্পনা করা হয় বলে প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে। এ উদ্দেশ্যে গঠন করা হয় International Coalition Red for Kashmir নামের সংগঠন। ভারতবিরোধী প্রচারণায় অংশ নিতে বেসরকারি সংস্থা, লবিস্ট, কূটনৈতিক, পাকিস্তান প্রবাসী, ইউরোপ ও যুক্তরাষ্ট্রের রাজনীতিবিদদের ব্যবহারের চেষ্টা করছে পাকিস্তান।

উল্লেখ্য, ২০১৯ সালের ৫ আগস্ট কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা দানকারী সংবিধানের ৩৭০ ধারা বাতিল করে ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার। সেই সঙ্গে জম্মু-কাশ্মীরকে ভেঙে দুই ভাগ করা হয়। ভারতীয় সংবিধানে ৩৭০ অনুচ্ছেদ অনুসারে, কাশ্মীরের নিজস্ব সংবিধান থাকবে। এ ছাড়া সামরিক, যোগাযোগ এবং পররাষ্ট্রনীতি ছাড়া অন্য কোনো বিষয়ে কোনো সিদ্ধান্ত নিতে হলে রাজ্য সরকারের অনুমোদন লাগবে। বিশেষ মর্যাদা বাতিলের আগ পর্যন্ত আলাদা আইনকানুন দিয়ে জম্মু-কাশ্মীরের জনগণের নাগরিকত্ব, সম্পদের মালিকানা, মৌলিক অধিকার সংরক্ষণ করা হচ্ছিল।

এ কারণেই অন্য রাজ্যের অধিবাসীরা সেখানে জমি কিংবা সম্পদ কিনতে পারতেন না। ওই বিশেষ বিধানের জন্যই বিশেষ মর্যাদা পেয়েছিল জম্মু-কাশ্মীর। যা এখন আর নেই।

news24bd.tv/এমিজান্নাত 

পরবর্তী খবর

নিলামে উঠছে প্রিন্সেস ডায়ানার বিয়ের কেক!

অনলাইন ডেস্ক

নিলামে উঠছে প্রিন্সেস ডায়ানার বিয়ের কেক!

ব্রিটিশ রাজ পরিবার বারবার আলোচনায় আসছে কোন না কোন বিষয় নিয়ে। এবার খবর এলো প্রিন্সেস ডায়ানা ও যুবরাজ চার্লসের বিয়ের এক টুকরো কেক নিলামে উঠতে যাচ্ছে। ৪০ বছরের পুরনো সেই কেকের টুকরোর জন্য আগামী ১১ আগস্ট নিলাম ডাকা হবে।

১৯৮১ সালে প্রিন্স চার্লসের সঙ্গে বিয়ে হয় রাজকুমারী ডায়ানার। প্রায় ৪০ বছর আগে তাদের বিয়ের অনুষ্ঠানে রাজ প্রাসাদে আনা হয় মোট ২৩টি কেক। সেই কেক কাটার পর এক টুকরো যত্ন করে রেখে দেন রানির কর্মচারী মোয়রা স্মিথ। আর সংরক্ষিত সেই টুকরোটিই নিলামে তুলতে যাচ্ছে নিলাম সংস্থা ডমিনিক উইন্টার। কেকের এই টুকরো ৩০০ থেকে ৫০০ পাউন্ডে বিক্রি হবে বলে আশা করছে সংস্থাটি।


আরও পড়ুন

দূরপাল্লার বাসের জন্য ছাড় দিবে পুলিশ: এনায়েত উল্যাহ

পোশাক কারখানা খুলে দেওয়ায় সংক্রমণ আরও বাড়বে : স্বাস্থ্যমন্ত্রী

বাড়ানো হয়েছে লঞ্চ চলাচলের সময়

এবার পর্নোগ্রাফি শুটিংয়ের অভিযোগে অভিনেত্রী গ্রেপ্তার


news24bd.tv/এমিজান্নাত 

পরবর্তী খবর

বিয়ের অনুষ্ঠানে গুলি করে হত্যা

অনলাইন ডেস্ক

বিয়ের অনুষ্ঠানে গুলি করে হত্যা

বিয়ের অনুষ্ঠানে লেবাননের সশস্ত্র রাজনৈতিক সংগঠন হিজবুল্লাহর এক সদস্যকে গুলি করে হত্যা করেছে আততায়ীরা। স্থানীয় সময় শনিবার সন্ধ্যায় দেশটির রাজধানী শহর বৈরুতের দক্ষিণে আলী শিবলি নামের ওই ব্যক্তিকে হত্যা করা হয়।

লেবাবনের রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা ন্যাশনাল নিউজ এজেন্সির এক খবরে জানায়, আততায়ীর গুলিতে আরও একজন আহত হয়েছেন। লেবাননের সামরিক বাহিনী ঘটনাস্থল নিরাপত্তা বেষ্টনে আবদ্ধ করেছে এবং হত্যার ঘটনায় তদন্ত শুরু করেছে।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ঘটনার একটি ভিডিও ছড়িয়ে পড়ে। ছড়িয়ে পড়া ভিডিওতে দেখা যায়, পিস্তল হাতে এক ব্যক্তি দৌড়ে শিবলির কাছে গিয়ে তাকে কয়েক দফা গুলি করে। গুলি শেষে আবার আততায়ী দৌড়ে পালিয়ে যায়।

আরও পড়ুন

বাড়ানো হয়েছে লঞ্চ চলাচলের সময়

এবার পর্নোগ্রাফি শুটিংয়ের অভিযোগে অভিনেত্রী গ্রেপ্তার

সাকিবের সামনে রেকর্ড গড়ার হাতছানি, যেখানে তিনিই হবেন প্রথম

চিত্রনায়িকা একার বিরুদ্ধে হাতিরঝিল থানায় দুই মামলা


গত বছরের আগস্টে দেশটির খালদা শহরে স্থানীয় শিয়া ও সুন্নি আরবদের মধ্যে এক সংঘর্ষের জেরে এই ঘটনা ঘটে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। ওই সংঘর্ষে এক শিশুসহ দুইজন নিহত হয়।

news24bd.tv/ নকিব

পরবর্তী খবর

ফিলিস্তিনে উচ্ছেদ বিরোধী সমাবেশে ইসরাইলি সেনাদের ধরপাকড়

অনলাইন ডেস্ক

ফিলিস্তিনে উচ্ছেদ বিরোধী সমাবেশে ইসরাইলি সেনাদের ধরপাকড়

ইহুদিবাদী ইসরাইলের বর্বর সেনারা ফিলিস্তিনের অধিকৃত আল-কুদস জেরুজালেম শহরে শেখ জাররাহ শরণার্থী শিবির থেকে ফিলিস্তিনি মুসলমানদের উচ্ছেদ অভিযানের বিরুদ্ধে আয়োজিত একটি সমাবেশে হামলা ও ধরপাকড় অভিযান চালিয়েছে। শেখ জাররাহ শরণার্থী শিবির থেকে ফিলিস্তিনি নাগরিকদের বহিষ্কার করার চেষ্টা করছে ইসরাইলি কর্তৃপক্ষ।

ফিলিস্তিনের শেহাব নিউজ এজেন্সি প্রকাশিত ফুটেজে দেখা যায়, শেখ জাররাহ শরণার্থী শিবিরের সমস্ত এলাকায় ইহুদিবাদী সেনারা দাপিয়ে বেড়াচ্ছে এবং একজন বিক্ষোভকারীকে জোর করে মাটিতে ফেলে চেপে ধরেছে। ফিলিস্তিনের অন্য কয়েকটি গণমাধ্যম যে ছবি প্রকাশ করেছে তাতে দেখা যায়, বিক্ষোভে অংশ নেয়া লোকজনের ওপর ইসরাইলি সেনারা ব্যাপক অস্ত্রেশস্ত্রে সজ্জিত হয়ে হামলা চালাচ্ছে।

আরও পড়ুন


৪১তম বিসিএস প্রিলির ফল প্রকাশ হতে পারে বিকেলে

বাড়ানো হয়েছে লঞ্চ চলাচলের সময়

এবার পর্নোগ্রাফি শুটিংয়ের অভিযোগে অভিনেত্রী গ্রেপ্তার

সাকিবের সামনে রেকর্ড গড়ার হাতছানি, যেখানে তিনিই হবেন প্রথম


এদিকে, ফিলিস্তিনের মা'আন বার্তা সংস্থা জানিয়েছে ইহুদিবাদী সেনারা শরণার্থী শিবিরের প্রবেশপথ ব্যারিকেড দিয়ে আটকে দেয়। শরণার্থী শিবিরের বাসিন্দাদের ছাড়া অন্য কাউকে সেখানে তারা প্রবেশ করতে দেয় নি।

বার্তা সংস্থাটি বলছে, ইসরাইলি সেনারা বিক্ষোভকারীদের ওপর লাঠিচার্জ করে এবং তাদের বিরুদ্ধে জলকামান ব্যবহার করা হয়। সাংবাদিকরাও এই হামলা থেকে রেহাই পান নি।

ইহুদিবাদী সেনাদের বর্বর অভিযানের সময় আল-কুদস শহরের কয়েকজন বাসিন্দাকে আটক এবং তাদের ওপর তল্লাশি চালানো হয়। সূত্র: পার্সটুডে।

news24bd.tv এসএম

পরবর্তী খবর

ইরাকের গ্রামঞ্চল থেকে দায়েশকে নিমূলে হাশদ আশ-শাবি’র অভিযান

অনলাইন ডেস্ক

ইরাকের গ্রামঞ্চল থেকে দায়েশকে নিমূলে হাশদ আশ-শাবি’র অভিযান

ইরাকের পূর্বাঞ্চলীয় দিয়ালা প্রদেশের গ্রামাঞ্চল থেকে তাকফিরি সন্ত্রাসবাদী গোষ্ঠীর দায়েশের বিরুদ্ধে নির্মূল অভিযান শুরু করেছে স্বেচ্ছাসেবী বাহিনী হাশদ আশ-শাবি। দিয়ালা প্রদেশের সঙ্গে প্রতিবেশী ইরানের সীমান্ত রয়েছে।

অভিযানের কমান্ডার তালিব অল-মুসাভি এক বিবৃতিতে বলেছেন, তার বাহিনীর যোদ্ধারা এরইমধ্যে দিয়ালা প্রদেশের রাজধানী বাকুবার উত্তরাঞ্চলে পৌঁছে গেছে। ইরাকের রাজধানী বাগদাদ থেকে বাকুবা শহরের দূরত্ব ৫০ কিলোমিটার।

তিনি বলেন, হামরিন উপত্যকায় একটি এলাকা থেকে এরইমধ্যে হাশদ আশ-শাবির যোদ্ধারা অভিযান চালিয়ে দায়েশকে হটিয়ে দিয়েছে। ইরাকি নিরাপত্তা বাহিনী এবং স্থানীয় লোকজনের ওপর হামলার প্রস্তুতি নিচ্ছিল দায়েশ সন্ত্রাসীরা। তিনি জানান, অভিযান সফলভাবে সম্পন্ন করেছে তার বাহিনী।

আরও পড়ুন


বাড়ানো হয়েছে লঞ্চ চলাচলের সময়

এবার পর্নোগ্রাফি শুটিংয়ের অভিযোগে অভিনেত্রী গ্রেপ্তার

সাকিবের সামনে রেকর্ড গড়ার হাতছানি, যেখানে তিনিই হবেন প্রথম

চিত্রনায়িকা একার বিরুদ্ধে হাতিরঝিল থানায় দুই মামলা


এদিকে, ইরাকের মধ্যাঞ্চলীয় সালাহউদ্দিন প্রদেশের একটি এলাকায় দায়েশ সন্ত্রাসীদের অনুপ্রবেশ ব্যর্থ করেছে হাশদ আশ-শাবি। অভিযানের পর ওই এলাকায় স্থিতিশীলতা ও নিরাপত্তা প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। এর একদিন আগে সালাহউদ্দিন প্রদেশের বালাদ জেলায় একটি দাফন অনুষ্ঠানে দায়েশ সন্ত্রাসীরা হামলা চালায়। এতে অন্তত পাঁচজন নিহত এবং ২০ জন আহত হয়েছে। সূত্র: পার্সটুডে।

news24bd.tv এসএম

পরবর্তী খবর