মার্কিন সেনাবাহিনীতে আত্মহত্যার প্রবণতা খতিয়ে দেখছে পেন্টাগন

অনলাইন ডেস্ক

মার্কিন সেনাবাহিনীতে আত্মহত্যার প্রবণতা খতিয়ে দেখছে পেন্টাগন

মার্কিন সেনাবাহিনীর মধ্যে বিশেষ করে পুরানো সেনা সদস্যদের মধ্যে আত্মহত্যার পরিমাণ অনেক বেড়ে গেছে বলে দেশটির প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় পেন্টাগনের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে। ৪৫ হাজারের বেশি পুরানো সেনা সদস্য অথবা ৬ বছরের অভিজ্ঞ সেনা সদস্য আত্মহত্যা করেছে।

পরিস্থিতি এমন পর্যায়ে পৌঁছেছে যে পেন্টাগন জানিয়েছে, ‘তারা এই আত্মহত্যার প্রকৃত কারণ খুঁজে বের করা এবং প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার বিষয়ে জোর প্রচেষ্টা শুরু করেছে।’

এদিকে, বিভিন্ন গণমাধ্যমের খবরে জানা গেছে, মার্কিন সেনা সদস্যদের মধ্যে আত্মহত্যার সামাজিক প্রভাবের বিষয়ে সতর্কবাণী উচ্চারণ করেছেন বিশেষজ্ঞরা। বিশেষ করে ওইসব সেনা সদস্যদের পরিবারের সদস্যদের মধ্যেও নজিরবিহীনভাবে আত্মহত্যার প্রবণতা লক্ষ্য করা যাচ্ছে। ইরাক ও আফগানিস্তান যুদ্ধে যতটানা মার্কিন সেনারা প্রাণ হারিয়েছে তার চেয়ে বেশি মারা গেছে আত্মহত্যার মাধ্যমে। বিশিষ্ট সাংবাদিক ও রাজনৈতিক বিশ্লেষক ক্যারল গিয়াকোমো এ ব্যাপারে বলেছেন, ‘প্রতিদিন গড়ে ২০ জন মার্কিন সেনা আত্মহত্যা করছে।’

ধারণা করা হচ্ছে, ইরাক ও আফগানিস্তানের যুদ্ধে যেসব মার্কিন সেনা অংশ নিয়েছিল তাদের মধ্যেই আত্মহত্যার প্রবণতা সবচেয়ে বেশি। অর্থাৎ গত দুই দশকে মার্কিন সরকারগুলো অযথা বিভিন্ন দেশে যেসব যুদ্ধ শুরু করেছে তা সেনাদের আত্মহত্যার পেছনে অন্যতম নিয়ামক হিসেবে কাজ করছে। ১১ সেপ্টেম্বর সন্ত্রাসী হামলার পর সন্ত্রাস নির্মূলের অজুহাতে যুক্তরাষ্ট্র সরকার এসব যুদ্ধ শুরু করে এবং এ পর্যন্ত বহু মার্কিন সেনা নিহত হয়েছে। এ সব যুদ্ধে কোনো লক্ষ্যই অর্জিত হয়নি এবং কতদিন এ যুদ্ধ চলবে তারও কোনো ঠিক ছিল না। ফলে সেনাদের মধ্যে মারাত্মক হতাশা দেখা দেয়। এসব হতাশা থেকেই আত্মহত্যার ঘটনা ঘটছে সবচেয়ে বেশি। ১১ সেপ্টেম্বরের পর আত্মহত্যার মাত্রা চারগুণে বেড়েছে।

প্রকৃতপক্ষে, পেন্টাগনের পরিসংখ্যান থেকে বোঝা যায় মার্কিন সেনাদের মধ্যে মানসিক অস্থিরতা ও হতাশা বিরাজ করছে যা কিনা গত দুই দশকের ইরাক ও আফগানিস্তান যুদ্ধের প্রভাব। কেননা প্রচণ্ড মানসিক চাপ সহ্য করে তাদেরকে যুদ্ধের দিনগুলো পার করতে হয়েছে।

এ ছাড়া, শুধু আফগানিস্তানের যুদ্ধেই যুক্তরাষ্ট্রের ব্যয় হয়েছে দুই ট্রিলিয়ন ৪০ হাজার কোটি ডলার। আফগানিস্তানে মার্কিন হামলার পর গত ২০ বছরের সহিংসতায় এ পর্যন্ত ২৪০০ এর বেশি মার্কিন সেনা নিহত এবং আহত হয়েছে আরো হাজার হাজার সেনা।

আরও পড়ুন


দাম্পত্য জীবন সুখের করতে বিশ্বনবীর উপদেশ

সূরা ইয়াসিন: আয়াত ৪৫-৫০, দুনিয়া ও আখেরাতের শাস্তি

যেসব কারণে গণপরিবহন বন্ধের কথা বলছেন পরিবহন সংশ্লিষ্টরা

সারা দেশে বজ্রসহ বৃষ্টির আভাস


এরপর ২০০৩ সালে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের অনুমোদন ছাড়াই মার্কিন সরকার ইরাকে হামলা চালিয়ে দেশটি দখল করে নেয়। ইরাক যুদ্ধে অন্তত ৫০০০ মার্কিন সেনা নিহত এবং আরো হাজার হাজার সেনা আহত হয়েছে। লক্ষ্যহীন ও বিরামহীন এসব যুদ্ধে জড়িয়ে হাজার হাজার মার্কিন সেনা মানসিক রোগে আক্রান্ত হয়েছে এবং এমনকি দেশে ফিরে গিয়েও তারা মানসিক ও পারিবারিক সংকট থেকেও মুক্ত হতে পারেনি। শেষ পর্যন্ত এমনসব সংকটের সম্মুখীন তাদেরকে হতে হয়েছে বা এখনো হচ্ছে যে আত্মহত্যার  পথ বেছে নিতে হচ্ছে তাদেরকে। মনোরোগ বিশেষজ্ঞরা বলছেন, প্রায় সব মার্কিন সেনা ৪০ দিনের বেশি সম্মুখ ফ্রন্টে থেকে যুদ্ধ করেছে এবং জীবনের শেষ দিন পর্যন্ত হয়তো তাদেরকে বিভিন্ন ধরনের মানসিক রোগে ভুগতে হবে।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, মার্কিন সেনাদের হতাশা ও মানসিক রোগের আরেকটি কারণ হচ্ছে ইরাক ও আফগানিস্তানে যুদ্ধ চলাকালে সাধারণ মানুষের সঙ্গে তাদের অমানবিক আচরণ ও সেনা কমান্ডারদের দুর্ব্যবহার। বিশেষ করে অযথা সামরিক অভিযান পরিচালনার সময় সাধারণ মানুষের ওপর তারা যে হত্যাকাণ্ড ও নৃশংসতা চালিয়েছে পরবর্তীতে এর প্রভাব সেনাদের ওপরও গিয়ে পড়েছে। অর্থাৎ অপরাধবোধ থেকে মানসিক রোগ এবং সেখান থেকে আত্মহত্যার পথে তারা পা বাড়িয়েছে। এসব কারণে পেন্টাগনে  উদ্বেগ ছড়িয়ে পড়েছে। সূত্র: পার্সটুডে।

news24bd.tv এসএম

পরবর্তী খবর

যুক্তরাজ্যে করোনায় ৮৬ জনের মৃত্যু, আক্রান্ত ৩০,২১৫ জন

অনলাইন ডেস্ক

যুক্তরাজ্যে করোনায় ৮৬ জনের মৃত্যু, আক্রান্ত ৩০,২১৫ জন

যুক্তরাজ্যে গত ২৪ ঘন্টায় করোনায় মৃত্যুর সংখ্যা কমলেও আক্রান্তের সংখ্যা বেড়েছে। গত ২৪ ঘন্টায় করোনায় নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ৩০,২১৫ জন । গতকাল বুধবার ছিলো ২৯,৩১২ জন, মঙ্গলবার ছিলো ২১,৬৯১ জন। এ নিয়ে মোট আক্রান্তের সংখ্যা গিয়ে দাঁড়িয়েছে ৫৯ লাখ ৮২ হাজার ৫৮১ জন।

বর্তমানে হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন ৫,৬৮৬ জন।

এদিকে গত ২৪ ঘন্টায় নতুন করে মৃত্যু রেকর্ড করা হয়েছে ৮৬ জনের । গতকাল বুধবার ছিলো ১১৯ জন, মঙ্গলবার ছিলো ১৩৮ জন। মোট মৃতের সংখ্যা ১ লাখ ৩০ হাজার ৮৬ জন।

আরও পড়ুন:


পরীমনি কাণ্ডে থমথমে ‘সুনসান এফডিসি’

প্রজ্ঞাপন জারি, রোববার ব্যাংক বন্ধ


 

এ পর্যন্ত ভ্যাকসিনের প্রথম ডোজ নিয়েছেন ৪ কোটি ৬৯ লাখ ২৬ হাজার ৩৩০ জন। দ্বিতীয় ডোজ নিয়েছেন ৩ কোটি ৮৮ লাখ ৭৪ হাজার ৮৩৭ জন।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

বন্যার ঝুঁকিতে আরও সাড়ে ৮ কোটির বেশি মানুষ : গবেষণা

অনলাইন ডেস্ক

বন্যার ঝুঁকিতে আরও সাড়ে ৮ কোটির বেশি মানুষ : গবেষণা

জলবায়ু পরিবর্তন এখন বিশ্বব্যাপী সত্য প্রমাণিত। যার কারণে গত দুই দশকে পুরো বিশ্বে বন্যার ঝুঁকিতে থাকা মানুষের সংখ্যা ২৫ শতাংশ বেড়েছে। সংখ্যার হিসেবে যা ৮ কোটি ৬০ লাখ। সম্প্রতি এ তথ্য জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক একটি গবেষণা প্রতিষ্ঠান। 

কলাম্বিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের আর্থ ইনস্টিটিউটের গবেষক ও বন্যা বিশ্লেষণভিত্তিক প্রতিষ্ঠান ক্লাউড টু স্ট্রিটের সহপ্রতিষ্ঠাতা বেথ টেলম্যান জানান, আগের সংখ্যার তুলনায় বর্তমানে ১০ গুণ বেশি মানুষ বন্যার ঝুঁকিতে রয়েছে। জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে সাম্প্রতিক সময়ে ভারত, চীন, জার্মানি ও বেলজিয়ামসহ ইউরোপে ভয়াবহ বন্যার দেখা দিয়েছে। অসংখ্য মানুষের মৃত্যুর পাশাপাশি ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।

সাধারণত দক্ষিণ এবং দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার দেশগুলোকে বন্যাপ্রবণ এলাকা হিসেবে দেখা হলেও স্যাটেলাইট থেকে পাওয়া তথ্য বলছে ভিন্ন কথা। সেখানে দেখা যায়, লাতিন আমেরিকা ও মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোয় বন্যার পরিমাণ আশঙ্কাজনক হারে বাড়ছে। ভবিষ্যতে কেবল আফ্রিকাতেই বন্যায় প্রতিবছর ২৭ লাখ মানুষ গৃহহীন হতে পারে। ২০৫০ সালের মধ্যে এ সংখ্যাটা সাড়ে আট কোটি ছাড়াবে।

সূত্র : এএফপি

news24bd.tv/এমিজান্নাত

পরবর্তী খবর

ইরানে হামলার জন্য প্রস্তুত ইসরাইল, পাল্টা হুঁশিয়ারি ইরানের

অনলাইন ডেস্ক

ইরানে হামলার জন্য প্রস্তুত ইসরাইল, পাল্টা হুঁশিয়ারি ইরানের

ইরানের বিরুদ্ধে সামরিক হামলা চালাতে প্রস্তুত ইসরাইল। এ কথা বলেছেন ইসরাইলের যুদ্ধমন্ত্রী বেনি গান্তজ।

ওমান সাগরের উপকূলে ইসরাইলের মালিকানাধীন একটি তেল ট্যাংকারে অজ্ঞাত হামলার পর সৃষ্ট উত্তেজনার মধ্যে ইসরাইলি যুদ্ধমন্ত্রী ইরানের ওপর হামলার হুমকি দিলেন।

ট্যাংকারে হামলার জন্য ইসরাইল, ব্রিটেন, আমেরিকা এবং রোমানিয়া ইরানকে দায়ী করেছে। ইরান এ অভিযোগ সরাসরি নাকচ করেছে। ট্যাংকারে হামলার ঘটনায় ব্রিটেন এবং রোমানিয়ার দুই ক্রু নিহত হয়।

ইসরাইলের গণমাধ্যমের পক্ষ থেকে আজ (বৃহস্পতিবার) বেনি গান্তজকে জিজ্ঞেস করা হয়- ইরানের বিরুদ্ধে হামলার জন্য ইসরাইল প্রস্তুত কিনা। জবাবে তিনি বলেন, ‘হ্যাঁ’।

ইসরাইলের যুদ্ধমন্ত্রী ওয়াই নেটকে ওয়েবসাইটকেও বলেছেন, ইরানসহ কয়েকটি ফ্রন্টে যুদ্ধ করতে প্রস্তুত রয়েছে তেল আবিব।

তিনি তার ভাষায় বলেন, ‘ইরান হচ্ছে একটি আন্তর্জাতিক ও আঞ্চলিক সমস্যা; এটি ইসরাইলের জন্য একটি চ্যালেঞ্জ।’

এর আগে গতকাল ইরানের ইসলামি বিপ্লবী গার্ড বাহিনীর কমান্ডার মেজর জেনারেল হোসেইন সালামি বলেছেন, যে সমস্ত দেশ ইরানকে হুমকি দেয় তাদেরকে বিশেষ করে ইসরাইলকে ইরানের আত্মরক্ষা ও হামলা চালানোর সক্ষমতার বাস্তবতা বুঝতে হবে।

তিনি বলেন, ‘শত্রুর কোনো ধরনের হামলা সহ্য করার নীতি ইরানের সামরিক কৌশলে নেই।’

তিনি স্পষ্ট করে বলেছেন, শত্রুর যেকোনো ধরনের হামলার তাৎক্ষণিক ও শক্তিশালী জবাব দেবে ইরান।

জেনারেল সালামি পরিষ্কার করে বলেন, ‘যেকোনো পরিস্থিতির জন্য আমরা প্রস্তুত।’

তিনি আরো বলেন, তার এসব কথা কোনো কূটনীতি নয় বরং আ্যকশন।’

আরও পড়ুন:


পরীমনি কাণ্ডে থমথমে ‘সুনসান এফডিসি’

প্রজ্ঞাপন জারি, রোববার ব্যাংক বন্ধ


news24bd.tv তৌহিদ

পরবর্তী খবর

মাকে প্লাস্টিকে মুড়ে ফেলে চলে গেল মেয়ে!

অনলাইন ডেস্ক

মাকে প্লাস্টিকে মুড়ে ফেলে চলে গেল মেয়ে!

ভারতের কলকাতায় বৃষ্টির মধ্যে এক বৃদ্ধা মাকে প্লাস্টিকে মুড়ে রাস্তায় ফেলে যায় তার মেয়ে। পরে তাঁর মৃত্যু হয়েছে। বরানগরের সিঁথি থানা এলাকার এ ঘটনায় শোরগোল পড়ে গেছে। মেয়ের অমানবিকতার এমন নজির দেখে ক্ষুব্ধ প্রতিবেশীরা। তাকে গ্রেপ্তারের দাবিও উঠেছে। এ ঘটনায় বৃদ্ধার ছেলেরাও জড়িত বলে অভিযোগ।

গতকাল বুধবার বেলা সামান্য বাড়তেই তুমুল বৃষ্টি শুরু হয় কলকাতা ও তার চারপাশের এলাকায়। টানা কয়েকঘণ্টার বৃষ্টিতে জলমগ্ন হয়ে পড়ে বিটি রোডের বিস্তীর্ণ অংশ। আর এমনই দুর্যোগে মায়ের সঙ্গে চরম অমানবিক আচরণ করতে দেখা যায় মেয়েকে। সিঁথির পেয়ারাবাগান এলাকার বাসিন্দা আশি বছরের ঠাকুরদাসী সাহাকে প্লাস্টিকে মুড়ে রাস্তায় ফেলে রেখে যায় বলে অভিযোগ পাওয়া যায়। রাতের দিকে ধীরে ধীরে বৃষ্টি কমলে পানি নামতে শুরু করলে দু-একজনের চোখে পড়ে প্লাস্টিকমোড়া বৃদ্ধাকে। তবে মৃত বলে মনে করে পাশ কাটিয়ে চলে যান।

তার কিছুক্ষণ পর সিঁথি থানার পুলিশ খবর পায়, এলাকার নির্জন জায়গায় পড়ে রয়েছেন এক বৃদ্ধা। পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখেন, বৃদ্ধা জীবিতই। তাঁকে সঙ্গে সঙ্গে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তাঁর কাছ থেকেই পুলিশ জানতে পারে, বাড়ি পেয়ারাবাগান এলাকায় তাঁর মেয়ের নির্দেশেই ছেলেরা তাঁকে বৃষ্টির মধ্যে রাস্তায় ফেলে গেছে।


আরও পড়ুনঃ


১১ আগস্ট থেকে খোলা থাকবে সবকিছু

পরীমণি নিজের স্বার্থ হাসিলের জন্য বিভিন্ন অশ্লীল ভিডিও তৈরি করতো : র‌্যাব

পরীমনি ও প্রযোজক রাজের বিরুদ্ধে হচ্ছে ৩ মামলা

স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলবে ট্রেন: টিকিট বিক্রি অনলাইনে


কিন্তু কেন এভাবে বাড়ি থেকে বের করে দেওয়া হলো, তা জানেন না তিনি। এরপর আজ বৃহস্পতিবার সকালে হাসপাতাল থেকে সুস্থ করে ঠাকুরদাসী সাহাকে বাড়ি পৌঁছে দেওয়ার পরপরই তাঁর মৃত্যু হয়। এ ঘটনার পরই এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়।

সূত্র : সংবাদ প্রতিদিন

news24bd.tv/এমিজান্নাত

পরবর্তী খবর

সিরিয়া থেকে অবশ্যই বিদেশি সেনাদের চলে যেতে হবে: রায়িসি

অনলাইন ডেস্ক

সিরিয়া থেকে অবশ্যই বিদেশি সেনাদের চলে যেতে হবে: রায়িসি

সিরিয়ার ভূখণ্ড থেকে অবশিষ্ট বিদেশি সেনাদের অবিলম্বে প্রত্যাহার করে নেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন ইরানের প্রেসিডেন্ট সাইয়্যেদ ইব্রাহিম রায়িসি। এসময় তিনি গত এক দশক ধরে ইহুদিবাদী ইসরাইল এবং পাশ্চাত্যের মদদপুষ্ট সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে সিরিয়ার বীরত্বপূর্ণ প্রতিরোধের ভূঁয়সী প্রশংসা করেন তিনি।

ইরানের প্রেসিডেন্ট সাইয়্যেদ ইব্রাহিম রায়িসির শপথ অনুষ্ঠানে অংশ নিতে আসা সিরিয়ার সংসদ স্পিকার হামুদা সাব্বাগের সঙ্গে সাক্ষাতে তিনি এ মন্তব্য করেন।

প্রেসিডেন্ট রায়িসি বলেন, সিরিয়ার সরকার এবং জনগণ হেব্রু-পাশ্চাত্য সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে সাহসিক প্রতিরোধ সক্ষমতা দেখিয়েছে এবং তারা বিজয় অর্জন করেছে। সিরিয়ার জাতি যাতে পূর্ণ শক্তি দিয়ে পুর্নগঠন কার্যক্রম শুরু করতে পারে সেজন্য অবিলম্বে সিরিয়ার ভূখণ্ড থেকে বাকি সেনাদের চলে যাওয়া উচিত বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

আরও পড়ুন


বরিশাল থেকে অপহরণ হওয়া কিশোরী ৩৮ দিন পর গাজীপুর থেকে উদ্ধার

লেবাননে বিমান হামলা চালিয়েছে ইসরাইলি বাহিনী

কুষ্টিয়ায় মাইক্রোবাস-সিএনজি সংঘর্ষে নিহত ২, আহত ৩

মোটাতাজাদের বাদ দিয়ে শুকনাদের কমিটিতে আনুন: মির্জা আজম (ভিডিও)


সিরিয়ার সরকার ২০১১ সাল থেকে পাশ্চাত্য মদদপুষ্ট সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে লড়াই চালিয়ে আসছে। বিশেষ করে আমেরিকা এবং তার মিত্রদেশগুলো সিরিয়ায় তৎপর বিভিন্ন উগ্র গোষ্ঠীগুলোকে সামরিক এবং আর্থিক সহায়তা দিয়েছে।  তবে ইরান এবং রাশিয়ার সহায়তায় সিরিয়ার সরকার তাকফিরি সন্ত্রাসীদের কবল থেকে সিরিয়ার বেশিরভাগ এলাকা দখলমুক্ত করতে সক্ষম হয়েছে।

রাজনৈতিক এবং অর্থনৈতিক ক্ষেত্রে তেহরান-দামেস্কের মধ্যে সম্পর্ক উন্নয়নের প্রতি গুরুত্বারোপ করে ইরানের নব নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট বলেন, দুই দেশের ঐক্য এবং সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে এবং ভ্রাতৃত্বপূর্ণ সম্পর্ক আরো বাড়ানোর ব্যাপারে কোনো ধরনের সীমাবদ্ধতা থাকবে না। সূত্র: পার্সটুডে।

news24bd.tv এসএম

পরবর্তী খবর