আটকাবস্থায় ফিলিস্তিনি মানবাধিকারকর্মীর মৃত্যু, প্রেসিডেন্টের পদত্যাগ দাবি
আটকাবস্থায় ফিলিস্তিনি মানবাধিকারকর্মীর মৃত্যু, প্রেসিডেন্টের পদত্যাগ দাবি

আটকাবস্থায় ফিলিস্তিনি মানবাধিকারকর্মীর মৃত্যু, প্রেসিডেন্টের পদত্যাগ দাবি

অনলাইন ডেস্ক

আটকাবস্থায় ফিলিস্তিনি স্বশাসন কর্তৃপক্ষের কঠোর সমালোচক হিসেবে পরিচিত মানবাধিকার কর্মী নিজার বানাত মারা গেছেন। নিজার বানাত পশ্চিম তীরের আল-খলিল শহরের বাসিন্দা ছিলেন।

গতকাল বৃহস্পতিবার (২৪ জুন) সকালে ফিলিস্তিনের নিরাপত্তা বাহিনী নিজার বানাতকে গ্রেপ্তারের জন্য তার বাড়িতে অভিযান চালিয়ে ধরে নিয়ে যায়। এ বছর ফিলিস্তিনে যে নির্বাচন হওয়ার কথা ছিল তাতে অংশ নেয়ার কথা ছিল নিজারের।

ইহুদিবাদী ইসরাইল অধিকৃত পশ্চিম তীর শাসন করে ফিলিস্তিনি কর্তৃপক্ষ। পশ্চিমা দেশগুলো থেকে প্রচুর অর্থ সাহায্য পেয়ে থাকে ফিলিস্তিনি স্বশাসন কর্তৃপক্ষ। নিজার বানাত এর বিরোধিতা করে থাকেন।

তিনি বিদেশি শক্তিগুলোকে এই অর্থায়ন বন্ধের আহবান জানিয়ে আসছিলেন। নিজার বানাতের অভিযোগ ছিল- এই অর্থ ব্যবহার করে ফিলিস্তিনের সরকার কর্তৃত্বপরায়ন হয়ে উঠছে এবং মানবাধিকার লঙ্ঘন করছে।

এক সংক্ষিপ্ত বিবৃতিতে ফিলিস্তিনি কর্তৃপক্ষ জানায়, বানাতকে গ্রেপ্তার করতে গেলে তার স্বাস্থ্যের অবনতি ঘটে। এরপর তাকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। তবে সেখানে তাকে মৃত ঘোষণা করা হয়। তবে কী কারণে তার মৃত্যু হয়েছে তা জানানো হয় নি।

আরও পড়ুন


‘যুক্তরাষ্ট্র আবারও পরমাণু সমঝোতা থেকে বেরিয়ে গেলে কঠোর ব্যবস্থা নেবে ইরান’

মহাকাশ স্টেশন থেকেই সরাসরি ইউরো দেখছেন নভোচারীরা

মাহির ‘কপাল’ পরীক্ষা আজ

আবারো থাইল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রীর পদত্যাগের দাবিতে বিক্ষোভ


এদিকে, বানাতের পরিবার জানিয়েছে, ফিলিস্তিনি বাহিনী যখন জোর করে ঘরে প্রবেশ করে তখন তিনি ঘুমাচ্ছিলেন। তারা ঢুকেই বানাতকে আঘাত করতে থাকে। বানাত সে সময় জোরে চিৎকার করছিলেন। এর আগে গত মে মাসেও তার বাড়ি লক্ষ্য করে গুলি ছোঁড়া হয়।

অন্যদিকে, নিজার বানাতের মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়লে অধিকৃত পশ্চিম তীরে প্রতিবাদ-বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়। এসময় বিক্ষোভকারীরা প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাসের পদত্যাগ দাবি করেন। সূত্র: পার্সটুডে।

news24bd.tv এসএম