আটকাবস্থায় ফিলিস্তিনি মানবাধিকারকর্মীর মৃত্যু, প্রেসিডেন্টের পদত্যাগ দাবি

অনলাইন ডেস্ক

আটকাবস্থায় ফিলিস্তিনি মানবাধিকারকর্মীর মৃত্যু, প্রেসিডেন্টের পদত্যাগ দাবি

আটকাবস্থায় ফিলিস্তিনি স্বশাসন কর্তৃপক্ষের কঠোর সমালোচক হিসেবে পরিচিত মানবাধিকার কর্মী নিজার বানাত মারা গেছেন। নিজার বানাত পশ্চিম তীরের আল-খলিল শহরের বাসিন্দা ছিলেন।

গতকাল বৃহস্পতিবার (২৪ জুন) সকালে ফিলিস্তিনের নিরাপত্তা বাহিনী নিজার বানাতকে গ্রেপ্তারের জন্য তার বাড়িতে অভিযান চালিয়ে ধরে নিয়ে যায়। এ বছর ফিলিস্তিনে যে নির্বাচন হওয়ার কথা ছিল তাতে অংশ নেয়ার কথা ছিল নিজারের।

ইহুদিবাদী ইসরাইল অধিকৃত পশ্চিম তীর শাসন করে ফিলিস্তিনি কর্তৃপক্ষ। পশ্চিমা দেশগুলো থেকে প্রচুর অর্থ সাহায্য পেয়ে থাকে ফিলিস্তিনি স্বশাসন কর্তৃপক্ষ। নিজার বানাত এর বিরোধিতা করে থাকেন।

তিনি বিদেশি শক্তিগুলোকে এই অর্থায়ন বন্ধের আহবান জানিয়ে আসছিলেন। নিজার বানাতের অভিযোগ ছিল- এই অর্থ ব্যবহার করে ফিলিস্তিনের সরকার কর্তৃত্বপরায়ন হয়ে উঠছে এবং মানবাধিকার লঙ্ঘন করছে।

এক সংক্ষিপ্ত বিবৃতিতে ফিলিস্তিনি কর্তৃপক্ষ জানায়, বানাতকে গ্রেপ্তার করতে গেলে তার স্বাস্থ্যের অবনতি ঘটে। এরপর তাকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। তবে সেখানে তাকে মৃত ঘোষণা করা হয়। তবে কী কারণে তার মৃত্যু হয়েছে তা জানানো হয় নি।

আরও পড়ুন


‘যুক্তরাষ্ট্র আবারও পরমাণু সমঝোতা থেকে বেরিয়ে গেলে কঠোর ব্যবস্থা নেবে ইরান’

মহাকাশ স্টেশন থেকেই সরাসরি ইউরো দেখছেন নভোচারীরা

মাহির ‘কপাল’ পরীক্ষা আজ

আবারো থাইল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রীর পদত্যাগের দাবিতে বিক্ষোভ


এদিকে, বানাতের পরিবার জানিয়েছে, ফিলিস্তিনি বাহিনী যখন জোর করে ঘরে প্রবেশ করে তখন তিনি ঘুমাচ্ছিলেন। তারা ঢুকেই বানাতকে আঘাত করতে থাকে। বানাত সে সময় জোরে চিৎকার করছিলেন। এর আগে গত মে মাসেও তার বাড়ি লক্ষ্য করে গুলি ছোঁড়া হয়।

অন্যদিকে, নিজার বানাতের মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়লে অধিকৃত পশ্চিম তীরে প্রতিবাদ-বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়। এসময় বিক্ষোভকারীরা প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাসের পদত্যাগ দাবি করেন। সূত্র: পার্সটুডে।

news24bd.tv এসএম

পরবর্তী খবর

জো বাইডেনের উপদেষ্টা

‘করোনা পরিস্থিতি আরও ভয়াবহ হতে চলেছে’

অনলাইন ডেস্ক

‘করোনা পরিস্থিতি আরও ভয়াবহ হতে চলেছে’

যুক্তরাষ্ট্রের শীর্ষ সংক্রামক রোগ বিশেষজ্ঞ ড. অ্যান্থনি ফাউসি । ছবি রয়টার্স

করোনা পরিস্থিতি আরও ভয়াবহ হতে চলেছে বলে মন্তব্য করেছেন  মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের শীর্ষ চিকিৎসা উপদেষ্টা ফাউসি । তিনি এবিসি টেলিভিশনের দিস উইক শোতে  এই মন্তব্য করেন। তিনি বলেন, যারা এখনও টিকা নেয়নি তারা যেন দ্রুত টিকা নিয়ে নেয়।

ফাউসি আরও বলেছেন, যারা টিকা নিচ্ছে না তারা ভয়াবহ ঝুঁকির মুখে পড়তে যাচ্ছে। যারা টিকা নিয়েছে তারা অন্তত গুরুতর অসুস্থ হওয়া ও করোনার কারণে মৃত্যু থেকে বাঁচবে।

বর্তমান সময়ে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের অবস্থা দিন দিন খারাপের দিকেই যাচ্ছে। হঠাত করেই বেড়ে যাচ্ছে আক্রান্ত আর মৃতের সংখ্যা আবার সেটি কমেও যাচ্ছে। তবে এই কমা বা বাড়ার সময়টা খুব কম।

দেশটিতে বর্তমানে দৈনিক ৭০ হাজার জন নতুন করে করোনায় সংক্রমণের রেকর্ড করছে। এই সংখ্যা গত ছয় সপ্তাহে ছিল প্রায় ৬০ হাজার করে ছিল।

আরও পড়ুন:


বিএনপি-জামায়াত-হেফাজত করোনার মতো বারবার রূপ পরিবর্তন করছে: বাহাউদ্দিন নাছিম

টিকা নেয়ার পরেও করোনা পজিটিভ ফারুকী

স্বামীর পর্নকাণ্ড: মানহানির মামলা নিয়ে শিল্পাকে আদালতের ভর্ৎসনা


 

আশঙ্কা করা হচ্ছে দ্রুতই দেশটিতে ভারতীয় বা ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট ছড়িয়ে পড়বে। এটি মনে করিয়ে দিয়ে ফাউসি বলেন, আমরা গুরুতর স্বাস্থ্য চ্যালেঞ্জের মধ্যে আছি। আশঙ্কা করছি দ্রুত ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট ছড়িয়ে পড়তে পারে। এর থেকে রক্ষা পেতে হলেও টিকার আওতায় আসতে হবে সবাইকে।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

৩৩ দেশে চালু হলো কোভিড পাসপোর্ট

অনলাইন ডেস্ক

৩৩ দেশে চালু হলো কোভিড পাসপোর্ট

ইউরোপীয় ইউনিয়নের কয়েকটি দেশসহ মোট ৩৩টি  দেশে চালু হলো কোভিড পাসপোর্ট।

পর্যটকদের জন্য ক্রমেই এই পাসপোর্ট অপরিহার্য হয়ে উঠছে। সাধারণত মোবাইল ফোনে একটি অ্যাপের মাধ্যমে এই পাসপোর্টের অ্যাক্সেস দেওয়া হয়। তবে কিছু ক্ষেত্রে কাগুজে পাসপোর্টও আছে। 

আরও পড়ুন:


বিএনপি-জামায়াত-হেফাজত করোনার মতো বারবার রূপ পরিবর্তন করছে: বাহাউদ্দিন নাছিম

টিকা নেয়ার পরেও করোনা পজিটিভ ফারুকী

স্বামীর পর্নকাণ্ড: মানহানির মামলা নিয়ে শিল্পাকে আদালতের ভর্ৎসনা


 

করোনার ভ্যাকসিন নেওয়ার সার্টিফিকেটকেই বলা হচ্ছে কোভিড  পাসপোর্ট। এই মুহূর্তে উচ্চ ঝুঁকিতে থাকা বিশ্বের নাগরিকদের একদেশ থেকে অন্য দেশে যেতে এবং বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ স্থানে প্রবেশে ভ্যাকসিনেশনের প্রমাণ দিতে হচ্ছে। সেখানে  সংক্রমিত এবং সুস্থ ব্যক্তিকে সহজেই পৃথকীকরণে এই সার্টিফিকেট কাজে লাগছে।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

ফেলে দেয়া বস্তু দিয়ে মূল্যবান চিত্রকর্ম তৈরি করছেন এক ইরাকী শিল্পী

অনলাইন ডেস্ক

ফেলে দেয়া বস্তু দিয়ে মূল্যবান চিত্রকর্ম তৈরি করছেন এক ইরাকী শিল্পী

একেবারে নিষ্ফলা কোন জায়গা থেকেও মানুষ তার চেষ্টা আর অধ্যাবস্যায় দিয়ে তৈরি করে আনতে পারে মহামূল্যবান কিছু। আর এরকমই এক দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন ইরাকের শিল্পী আলী জামাল। যে কি-না ফেলে দেয়ার মতো অপ্রয়োজনীয় সব বস্তু দিয়ে অসম্ভব সুন্দর সব চিত্র অংকন করে অবাক করে দিয়েছেন সবাইকে।

বিস্তারিত নাহিদ জিহানের ডেস্ক রিপোর্টে। নরম প্লাস্টিকের এই বোর্ডগুলো খুব ছোট আকারে কেটে একটি একটি করে বসিয়ে যাচ্ছে ইরাকের শিল্পী আলী জামাল। অত্যন্ত ধৈয্য আর নিষ্ঠার সঙ্গে অনেক সুক্ষভাবে তাকে প্রতিটি টুকরো বসাতে হয়েছে। প্রথমে বিষয়টিকে অর্থহীন মনে হলেও, যখন পুরো কাজটি শেষ হয়, তখন সেখানে ফুটে ওঠে বিখ্যাত খেলোয়ার মেসির ছবি। আরো মজার বিষয় হলো এক পাশ থেকে মেসি আর অন্যপাশ থেকে দেখা যাচ্ছে রোনান্দোকে।

আমি একজন চিত্রশিল্পী। কিন্তু এতো চিত্রকরের ভীড়ে আমার নিজের স্বকীয়তাকে অন্যরুপে ফুটিয়ে তুলতেই আমি আমার ছবিতে অদ্ভুত সব জিনিষ ব্যবহার করেছি। যা আমার অভিনব সৃষ্টিকে করেছে অনন্য। আলী জামাল, রঙিন স্কচ টেপ দিয়ে তৈরি করেছেন ছবি।


আরও পড়ুন

করোনায় শ্রমিক ভাইয়েরা নীরবে-নিভৃতে নিষ্পেষিত হচ্ছে: তাপস

নির্মাণাধীন ৬৫ শতাংশ ভবন ও ওয়াসার পানির মিটারের গর্তে ২৫ শতাংশ ডেঙ্গুর লার্ভা

রোহিঙ্গাদের ইস্যুতে বিশ্ব ব্যাংকের প্রস্তাব নাকচ

মাত্র ৫ টাকার জন্য অটোচালককে হত্যা!


এছাড়াও প্লাস্টিকের রঙিন ব্যাগ, পিন, নাইলনের সুতা, প্লাস্টিকের ফ্লিপ, কিংবা বুলেটের খালি শেলের মতো জিনিষ দিয়েও তৈরি করেছেন অসাধারণ সব চিত্রকর্ম। "আমি সাধারণত মানুষের মুখের অভিব্যাক্তি তৈরি করতে বেশি পছন্দ করি। আর আমার বেশিরভাগ কাজই আমি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশ করেছি। আবার সেখানে অনেকেই আমাকে ভীষণ অনুপ্রাণিত করে।" ২৬ বছর বয়সি আলী জামাল এখনো শিক্ষার্থী। অপ্রাসঙ্গিক সব দ্রব্য দিয়ে অসাধারণ তার সব চিত্রকর্ম এরইমধ্যে বেশ সারা ফেলে দিয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়।

news24bd.tv/এমিজান্নাত 

পরবর্তী খবর

৪৮ ঘন্টা অভুক্ত : বৃদ্ধাকে উদ্ধারে হেলিকপ্টার

অনলাইন ডেস্ক

৪৮ ঘন্টা অভুক্ত : বৃদ্ধাকে উদ্ধারে হেলিকপ্টার

হঠাৎ করে বাঁধ ভেঙে চারদিকে বন্যায় গোটা এলাকা প্লাবিত। এরই মাঝখানে একটি বাড়িতে আটকে পড়েন ১০১ বছরের এক বৃদ্ধা। সেই বৃদ্ধাকে অবশেষে হেলিকপ্টারে করে উদ্ধার করা হয়েছে। দুইদিন না খেয়ে ছিলেন জাহ্নবী নামে ওই বৃদ্ধা। হেলিকপ্টার থেকে নেমেই খাবার চাইলেন। প্রাথমিক স্বাস্থ্য পরীক্ষার পর বৃদ্ধার প্রথম কথা ছিলো, বড্ড খিদে পেয়েছে। দু’দিন প্রায় কিছুই খাওয়া হয়নি।

পশ্চিমবঙ্গের হুগলি জেলার খানাকুলে এ ঘটনা ঘটে। আজ সোমবার সকালে তাকে বাড়ির ছাদ থেকে উদ্ধার করে আরামবাগের ত্রাণশিবিরে নেওয়া হয়। খানাকুলের পূর্ব ঠাকুরানি চকের সামন্তপাড়ায় সেই বাড়ি। আনন্দবাজারের খবরে বলা হয়েছে, ১০১ বছরের জীবনে এই প্রথম আকাশে ওঠা জাহ্নবীর। প্রথমে ভয়। তার পর বিস্ময়, শিহরণ। কিন্তু সব ছাপিয়ে উঠল পেটের জ্বালা। হেলিকপ্টার চড়ার ঘোর দ্রুতই কেটে গেল দু’দিন প্রায় না খেয়ে থাকা জাহ্নবীর।

গত শনিবার রাতে রূপনারায়ণের বাঁধ ভেঙে পড়ে। এলাকায় পানি ঢুকতে শুরু করে। ধীরে ধীরে বন্যা লেগে যায়। এতে জাহ্নবীর বাড়িটির একতলা ডুবে যায়। বাধ্য হয়েই তিনি সপরিবারে বাড়ি ছাদে গিয়ে আশ্রয় নেয় তারা।

সূত্র: আনন্দবাজার

news24bd.tv/এমিজান্নাত 

পরবর্তী খবর

আমিরাতে এবার শিশুদেরও সিনোফার্মের টিকা দেওয়া হবে

অনলাইন ডেস্ক

আমিরাতে এবার শিশুদেরও সিনোফার্মের টিকা দেওয়া হবে

প্রাপ্তবয়স্কদের পাশাপাশি এখন তিন থেকে ১৭ বছর বয়সীদেরও সিনোফার্মের তৈরি করোনা টিকা ব্যবহারের অনুমোদন দিল সংযুক্ত আরব আমিরাত। চীনের তৈরি এই করোনা টিকা দেয়া হবে বলে ঘোষণা দিয়েছে আমিরাতের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। দেশটির রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা ওয়াম সোমবার এক টুইটে বিষয়টি নিশ্চিত করেছে।

দুবাইভিত্তিক সংবাদমাধ্যম গালফ নিউজের প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালে পাওয়া ইতিবাচক ফলাফলের ভিত্তিতে শিশুদের সিনোফার্মের টিকা দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে আমিরাতি কর্তৃপক্ষ। এর মাধ্যমে করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াই আরও জোরদার করতে পারবে দেশটি।

news24bd.tv/এমিজান্নাত 

পরবর্তী খবর