সীমান্ত জেলাগুলো করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে
কাজে আসছে না বিশেষ লকডাউন

সীমান্ত জেলাগুলো করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে

Other

সীমান্ত জেলাগুলোর করোনা পরিস্থিতি ক্রমেই নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যাচ্ছে। নিয়ন্ত্রণে চলছে বিশেষ লকডাউন। কি কিছুতেই কমছে সংক্রমণের হার।   স্থানীয় সংসদ সদস্যদের অভিযোগ, লকডাউনসহ করোনা প্রতিরোধে এবারে নেয়া নানা পতক্ষেপে তাদের সম্পৃক্ত করা হয়নি।

তাই দফায় দফায় বিধিনিষেধ আর লকডাউনের মেয়াদ বাড়ালেও মিলছে না সুফল।  

করোনা সংক্রমণের উর্ধ্বগতি বিবেচনায় গেল ১১ জুন থেকে এক সপ্তাহের জন্য বিশেষ বিধিনিষেধ চলে রাজশাহীতে। কাঙ্খিত ফল না পেয়ে ১৬ জুন থেকে সর্বাত্মক লকডাউনের ঘোষণা দেয় জেলা প্রশাসন। তবুও কমছে না সংক্রমণ। বরং মৃত্যু আর শনাক্তের হার শঙ্কা তৈরি করছে জনমনে। এমন বাস্তবতায় গেল বুধবার, আরও এক সপ্তাহ লকডাউন বাড়ানোর ঘোষণা দেন জেলা প্রশাসক।

লকডাউন চললেও, রাজশাহীর জীবনযাত্রা অন্য স্বাভাবিক দিনের মতোই। জীবিকার তাগিদে রাস্তায় মানুষ। মাস্ক পড়ার প্রয়োজন এখানে ক্ষীণ। জনপ্রতিনিধিদের অভিযোগ, সংক্রমণ কমিয়ে আনতে নেয়া উদ্যোগে, তাদের কোনো পরামর্শই নেয়া হচ্ছে না এবার।
জেলা প্রশাসকের দাবি, সংসদ সদস্যদের সঙ্গে সমন্বয় ও পরামর্শ করেই সিদ্ধান্ত নেয়া হচ্ছে।

জনপ্রতিনিধিদের সম্পৃক্ত করা ছাড়া লকডাউন পুরোপুরি কার্যকর করা সম্ভব নয় বলে মনে করেন জনস্বাস্থ্য নিয়ে কাজ করা ব্যক্তিরা।
রাজশাহী সিটিতে ‘সর্বাত্মক লকডাউন’ চলবে আগামী ৩০ জুন মধ্যরাত পর্যন্ত। তবে এর আওতায়, শুধু শপিং মল বন্ধ থাকা ছাড়া সবই চলছে বলে অভিযোগ রয়েছে।

আরও পড়ুন:


১৪ দিনের শাটডাউনে প্রস্তুত সরকার, যেকোন সময় ঘোষণা (ভিডিও)

সারাদেশে ১৪ দিনের ‘শাটডাউন’ দেওয়ার সুপারিশ

খুলনার তিন হাসপাতালে আরও ৯ জনের মৃত্যু

ঝিনাইদহে ২৪ ঘন্টায় সর্বোচ্চ আক্রান্ত, মৃত্যু ২


news24bd.tv / কামরুল