স্ত্রী ধর্ম পরিবর্তন না করায় কন্যকে ধর্ষণ!
স্ত্রী ধর্ম পরিবর্তন না করায় কন্যকে ধর্ষণ!

স্ত্রী ধর্ম পরিবর্তন না করায় কন্যকে ধর্ষণ!

অনলাইন ডেস্ক

সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের এক ব্যক্তি ধর্মীয় পরিচয় লুকিয়ে এক হিন্দু নারীকে বিয়ে করে । সেই নারীর আগের ঘরে এক শিশু কন্য আছে। বিয়েল পর স্ত্রী ধর্শ পরিবর্তন না করায় স্বামী সেই নাবালিকা কন্যকেই ধর্ষণ করেন।

ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের উত্তরপ্রদেশে।

এ ঘটনায় লখনউয়ের গুদাম্বা থানার পুলিশ ইমরান খানের অভিযুক্ত ওই ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করেছে।

লখনউ-পুলিশের ডিসি (উত্তর) দেবেশ পাণ্ডে জানিয়েছেন, ইমরান তার নাম গোপন রেখে ৩৫ বছর বয়সী ওই বিবাহবিচ্ছিন্না নারীর সঙ্গে আলাপ করেছিল। তখন নিজেকে সঞ্জয় চৌহান হিসেবে পরিচয় দিয়েছিল। কিছুদিন পর দুজনের মধ্যে সম্পর্ক তৈরি হয়। তারা বিয়েও করেন। বিয়ের কয়েকদিন পর ইমরান তার ধর্মীয় পরিচয় প্রকাশ করে। এরপর তার স্ত্রীকে ধর্ম পরিবর্তনের জন্য চাপ দিলে তিনি রাজি না হলে তার নাবালিকা মেয়েকে ধর্ষণ করে।

পুলিশ আরও জানিয়েছে, ইমরানকে গ্রেপ্তারের পর তার কাছ থেকে ভুয়া জাতীয় পরিচয়পত্র উদ্ধার করা হয়েছে।  

news24bd.tv/আলী

সম্পর্কিত খবর