আড়াই টাকার জন্য ২ মাস জেল
আড়াই টাকার জন্য ২ মাস জেল

আড়াই টাকার জন্য ২ মাস জেল

অনলাইন ডেস্ক

মাত্র আড়াই টাকা গড়মিলের দায়ে চাকরিচ্যুত হয়ে জেল খাটেন ২ মাস। ঘটনাটি ঘটেছিলো এরশাদের আমলে। ৩৯ বছর পর এসে এই সাজা বাতিল করে বুঝিয়ে দিতে বলা হয়েছে বেতন-ভাতার প্রায় দেড় কোটি টাকা।

আজ সোমবার সুপ্রিম কোর্ট এই রায় দেয়।

১৯৮২ সালে কুষ্টিয়ায় পাট সম্প্রসারণ সহকারী ছিলেন মুক্তিযোদ্ধা ওবায়দুল আলম আকন। মাত্র আড়াই টাকা বেশি দরে পাটের বিজ বিক্রির কথিত অভিযোগে চাকরি যায় তার।   এক হাজার টাকা জরিমানা এবং দুই মাসের জেল হয়। এজন্য তার পরিবারকে সহ্য করতে হয়েছে সামাজিক নানা বঞ্চনা।

ওবায়দুল আলম আকনের ছেলে সোহেল আকন বলেন, ভীষণ কষ্ট হয়, যখন বড় হই তখন এলাকা দিয়ে হাঁটার সময় মানুষ বলতো ওই যে যাচ্ছে! আড়াই টাকার অভিযোগে বাবার চাকরি গেছে। অনেক কলঙ্ক বহন করতে হয়েছে সেসময় আমাদের। আজকে তা থেকে মুক্তি পেলাম।
দেশের সর্বোচ্চ আদালত এরশাদের আমলের সব আদেশ বাতিল হলে নেমে পড়েন আইনিযুদ্ধে। সাজা বাতিল এবং বেতন ভাতা পেতে মামলা করেন হাইকোর্টে। আদালত তার পক্ষে রায় দেন। আপিল বিভাগও বহাল রাখে সেই রায়।

৩৯ বছর পর এসে আদালতের এ রায়ে খুশি মুক্তিযোদ্ধা আকন।

news24bd.tv/এমিজান্নাত 

;