স্প্রাইটের নতুন ক্যাম্পেইন ‘তৃষ্ণা মিটলে সব ক্লিয়ার’
স্প্রাইটের নতুন ক্যাম্পেইন ‘তৃষ্ণা মিটলে সব ক্লিয়ার’

স্প্রাইটের নতুন ক্যাম্পেইন ‘তৃষ্ণা মিটলে সব ক্লিয়ার’

প্রেস বিজ্ঞপ্তি

তীব্র এই গরমে বাংলাদেশের ভোক্তাদেরকে উজ্জীবিত করতে “তৃষ্ণা মিটলে সব ক্লিয়ার” শীর্ষক থিমভিত্তিক নতুন ক্যাম্পেইন নিয়ে এলো কোকা-কোলার লেমন-লাইম স্বাদের জনপ্রিয় কোমলপানীয়- স্প্রাইট।

ভোক্তা-কেন্দ্রীক নতুন এই যোগাযোগে স্প্রাইটের সঙ্গে সতেজতার সম্পর্ক তুলে ধরার পাশাপাশি এসময়ের সেই সব তরুণদের জীবনের প্রতি আলোকপাত করা হয়েছে, যারা নিজেদের ক্লান্তি দূর করার জন্য স্প্রাইটের প্রতি ভরসা রাখে। বাংলাদেশের দর্শকদের কথা মাথায় রেখে বাংলা ভাষায় নির্মিত নতুন এই থিমভিত্তিক যোগাযোগটিতে রয়েছে দেশিয় ছন্দময় সুর ও আকর্ষণীয় লিরিক।

সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিপুল সাড়া জাগিয়ে শেষ হলো স্প্রাইটের ব্যতিক্রমধর্মী স্টোরিটেলিং ক্যাম্পেইন- “তোমার চয়েসে হোক স্প্রাইট এর গল্প”।

দারুণ প্রশংসা কুড়ানো এই ক্যাম্পেইনটির কেন্দ্রীয় চরিত্রে ছিলেন জনপ্রিয় অভিনেতা ও বাংলাদেশে স্প্রাইটের ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর সিয়াম আহমেদ। জীবনের নানান বাস্তবতায় সঠিক সিদ্ধান্ত গ্রহণের ক্ষেত্রে স্প্রাইট সবসময় বাড়তি মাত্রা যোগ করে থাকে।

স্প্রাইট মূলত: বুদ্ধিদীপ্ত ও মজার যোগাযোগ কৌশলের কারণে ভোক্তাদের কাছে ভালোবাসার ব্র্যান্ড হয়ে উঠেছে। বিপদে মাথা ঠান্ডা রেখে কার্যকর সিদ্ধান্ত গ্রহণের ক্ষেত্রে তৃষ্ণা নিবারণের গুরুত্বটি স্প্রাইট মজার ছলে তুলে ধরে থাকে। সত্যি বলতে- আজকের পৃথিবীটা তরুণদের জন্য খুব মোটেও সহজ জায়গা নয়। অতিরিক্ত দায়িত্ব, কাজের চাপ ও তীব্র প্রতিযোগিতার যাঁতাকলে পড়ে তরুণরা প্রায়ই বুঝে উঠতে পারে না যে, এখন আসলে তাদের কি করা উচিৎ। এমন পরিস্থিতিতে স্প্রাইটের অকৃত্রিম সজীবতার চুমুক সেসব তরুণদের চাঙ্গা করে তোলে। জীবনের যাবতীয় ক্লান্তি দূরে ঠেলে মুহূর্তেই তাদের সময়গুলোকে আরো উপভোগ্য করে তোলে স্প্রাইট। সারা বিশ্বেই মানুষ এখন অতিরিক্তি নানান চাপ এবং দায়িত্বভারে জর্জরিত, যা তাদের দৈনন্দিন জীবনকে আরো কঠিন করে তুলছে। এ অবস্থায় এক চুমুক ঠান্ডা স্প্রাইটই পারে তরুণদের সতেজ করে তুলতে। আর এভাবেই তারা আত্মবিশ্বাস খুঁজে পেয়ে নিজেদের মতো করেই এগিয়ে যাওয়ার উৎসাহ পায়।

স্প্রাইটের নতুন থিমভিত্তিক ক্যাম্পেইনটি প্রসঙ্গে কোকা-কোলা বাংলাদেশ এক বিবৃতিতে জানায়, “আমরা এমন একটি পৃথিবীতে বাস করছি, যেটি ক্রমাগত পরিবর্তিত হচ্ছে। এ অবস্থায় ছোট্ট-সাধারণ ভালো লাগার মূহূর্তগুলোই আমাদের জীবনকে অন্যরকম করে তুলতে পারে।

অনন্য অসাধারণ লেমন-লাইম স্বাদে ভরপুর স্প্রাইটের নতুন এই থিমভিত্তিক যোগাযোগটি আমাদেরকে চমৎকারভাবে স্মরণ করিয়ে দেয় যে, জীবন তোমার উপর যতই কঠিন হোক না কেন, তোমার নিজের কাছে যেটি গুরুত্বপূর্ণ, সেটাতেই মনোযোগ দেয়া জরুরী। স্প্রাইট কেবল তৃষ্ণামেটাতেই সাহায্য করে না, ঠান্ডা মাথায় সঠিক সিদ্ধান্ত গ্রহণের মাধ্যমে মনকেও চাঙ্গা রাখে। ”

কোকা-কোলার লেমন-লাইম স্বাদের জনপ্রিয় কোমলপানীয়- স্প্রাইট, সেই ১৯৬১ সাল থেকেই অবিরামভাবে সারা বিশ্বে মানুষের তৃষ্ণা নিবারণ করে আসছে। গুণ-মানের প্রশ্নে ব্র্যান্ডটির আপোষহীন মনোভাব বিশ্বজুড়েই সুবিদিত। ব্র্যান্ডটি- অপ্রয়োজনীয় সব ঝুট-ঝামেলা ছুড়ে ফেলে জীবনকে প্রকৃতপক্ষেই উপভোগ্য করে তোলায় বিশ্বাসী।

কোকা-কোলা বাংলাদেশ সম্পর্কে:
কোকা-কোলা সমগ্র বাংলাদেশ জুড়ে হাজার হাজার ভোক্তার কোমল পানীয়ের চাহিদা পূরণ করছে, যা তাঁদের সতেজ ও চনমনে থাকতে বেশ সহায়ক। কোকা-কোলার পণ্যগুলোর মধ্যে রয়েছে- কোকা-কোলা, ডায়েট কোক, স্প্রাইট, ফান্টা, কিনলে পানি, কিনলে সোডা, কোকা-কোলা জিরো, স্প্রাইট জিরো, থামস আপ কারেন্ট ইত্যাদি। কোকা-কোলা এদেশে ৮ শতাধিক লোকের সরাসরি এবং পরোক্ষভাবে ২২ হাজারেরও বেশি মানুষের কর্মসংস্থান সৃষ্টি করেছে। কোকা-কোলা নানা ধরনের কর্মসূচির মাধ্যমে কমিউনিটি বা সমাজকে শক্তিশালী করে তোলার ব্যাপারে প্রতিশ্ধসঢ়;রুতিবদ্ধ। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য দু’টি কর্মসূচি হলো: ‘এভরি ড্রপ ম্যাটারস’ ও ‘ওয়াশ’। এই দু’টি কর্মসূচির আওতায় দেশব্যাপী বিশুদ্ধ পানি সরবরাহ, স্যানিটেশন বা পয়ঃনিষ্কাশন, হাইজিন বা স্বাস্থ্যবিধি বা পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা এবং স্কুলে বৃষ্টির পানি সংরক্ষণের কার্যক্রম চলছে। এছাড়া নারীদের অর্থনৈতিক ক্ষমতায়নের লক্ষ্যে বাংলাদেশে কোকা-কোলা ‘উইমেন বিজনেস সেন্টার’ নামে তার ব্যতিক্রমধর্মী ফ্ল্যাগশিপ প্রোগ্রাম পরিচালনা করছে, যা ২০২০ সালের মধ্যে দেশটির ১,০০,০০০ নারীকে সাবলম্বী হয়ে উঠতে সহায়ক ভূমিকা পালন করেছে।

আরও পড়ুন:


শিক্ষক নিবন্ধনের ফল ‘বৃহস্পতিবার’!

ঈদের আগে লকডাউন শিথিলের ব্যাপারে যা জানালেন ওবায়দুল কাদের

স্প্রাইটের নতুন ক্যাম্পেইন ‘তৃষ্ণা মিটলে সব ক্লিয়ার’

news24bd.tv / তৌহিদ

সম্পর্কিত খবর