কি আশ্চর্য! ক্ষমতা, মন্ত্রীত্ব এদের জীবনে আনন্দ দেয় না
কি আশ্চর্য! ক্ষমতা, মন্ত্রীত্ব এদের জীবনে আনন্দ দেয় না

ক্যাথরিন

কি আশ্চর্য! ক্ষমতা, মন্ত্রীত্ব এদের জীবনে আনন্দ দেয় না

Other

কি আশ্চর্য! ক্ষমতা, মন্ত্রীত্ব এদের জীবনে আনন্দ দেয় না, এঁরা আনন্দ খুঁজে রাজনীতি থেকে অবসর নিয়ে। কানাডার ফেডারেল সরকারের অবকাঠামো বিষয়ক মন্ত্রী ক্যাথরিন ঠিক একই কথা বললেন, জানো.. সু.. দীর্ঘ আটটা বছর।  

আমি এখন একটু ’ফান’ করতে চাই। জীবন নিয়ে মজা করতে চান বলেই ক্যাথরিন আগামী নির্বাচনে আর প্রার্থী হতে চান না, ফিরে আসতে চান না, রাজনীতি কিংবা ক্ষমতা বলয়ে।

রাজনীতি থেকে অবসরের ঘোষনা দিয়ে সেটিও স্পষ্ট করে জানিয়ে দেন তিনি।  

ক্যাথরিন ম্যাককানা রাজনীতিক কিংবা ফেডারেল সরকারের মন্ত্রী  হিসেবে যতোটা না পরিচিত, তার চেয়ে বেশি পরিচিত  একজন জলবায়ু বিষয়ক বিশেষজ্ঞ হিসেবে। পরিবেশ রক্ষার একজন সোচ্চার এক্টিভিষ্ট হিসেবে। কানাডার পরিবেশ মন্ত্রী হিসেবেও তিনি দায়িত্ব পালন করেছেন।  

কেন তিনি রাজনতি ছেড়ে দিতে চাচ্ছেন?- তার উত্তরটাও তার কাছে পরিষ্কার। – দেখো,  আর দশজন কানাডীয়ানের মতোই আমি ভেবেছি, আমার কাছে আসলে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ  কী? আমার তিনটা বাচ্চা আছে, তাদের আমি আরো বেশি সময় দিতে চাই, তাদের সঙ্গে আরো বেশি সময় কাটাতে চাই। জীবনটাকে উপভোগ করতে চাই।  

নিশ্চয়ই ক্যাথরিন, আপনি আপনার জীবনকে আপনার মতো করেই  উপভোগ করবেন। কিন্তু বিশ্বের জলবাযু পরিস্থিতি, কানাডার পরিবেশ আন্দোলন সারাক্ষণ  আপনাকে হাতছানি দিয়ে ডাকবে। মন্ত্রীত্বকে না হয় উপেক্ষা করতে পারলেন, পরিবেশ নিয়ে কানাডীয়ানদের উদ্বেগ উৎকণ্ঠার ডাক আপনি এড়িয়ে থাকবেন কী ভাবে!

শওগাত আলী সাগর, প্রধান সম্পাদক, নতুনদেশ, কানাডা।

news24bd.tv নাজিম

;