দুই বছরে মেয়েকে ১০৫ বার ধর্ষণ, বাবার সাজা ১০৫০ বছর কারাদণ্ড!
দুই বছরে মেয়েকে ১০৫ বার ধর্ষণ, বাবার সাজা ১০৫০ বছর কারাদণ্ড!

দুই বছরে মেয়েকে ১০৫ বার ধর্ষণ, বাবার সাজা ১০৫০ বছর কারাদণ্ড!

অনলাইন ডেস্ক

নিজের ১২ বছরের সৎ মেয়েকে টানা দুই বছরের বেশি সময় ধরে ধর্ষণের দায়ে এক বাবার ১ হাজার বছরের বেশি কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত। এর আগে ওই ব্যক্তি আদালতের কাছে তার ১২ বছরের সৎ মেয়েকে দুই বছর ধরে ধর্ষণের কথা স্বীকার করেন। তিনি জানান, এই বছরে নিজের কিশোরী কন্যাকে ১০৫ বার ধর্ষণ করেছেন তিনি। চলতি বছরের ২৭ জানুয়ারি ক্লাং সেশন কোর্ট ওই ব্যক্তিকে ১০৫০ বছর কারাদণ্ড দেন।

এসময় তাকে ২৪টি বেত্রাঘাতও করার নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।  

মালয়েশিয়ায় এই ঘটনা ঘটেছে। তবে এখন তিনি তার বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ অস্বীকার করছেন এবং সাজার মেয়াদ কমানোর আবেদন করেছেন। ওই ব্যক্তির আইনজীবী কে এ রামু বলেন, সম্প্রতি কাজাং কারাগার থেকে হাইকোর্টে একটি আবেদন করেছেন তারা।

জানা গেছে, ওই ব্যক্তি ২০১৮ সালের ৫ জানুয়ারি থেকে ২০২০ সালের ২৪ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত তার সৎ মেয়েকে ধর্ষণ করেন। এই অপরাধের জন্য মালয়েশিয়ার প্রচলিত আইনে ১০ বছর থেকে সর্বোচ্চ ৩০ বছর পর্যন্ত কারাদণ্ড এবং বেত্রাঘাতের বিধান রয়েছে।

এর আগে ২০১৫ সালে ওই কিশোরীর বাবা-মায়ের বিচ্ছেদ হওয়ার পর ২০১৬ সালের নভেম্বরে অভিযুক্ত ব্যক্তিকে বিয়ে করেন ওই কিশোরীটির মা। কিশোরীটি জানায়, ঘটনার সময় বাড়িতে তিনি এবং তার সৎ বাবা ছাড়া আর কেউ ছিল না। তাকে হুমকিও দিয়েছিল তার বাবা বলে জানায় ওই কিশোরী।

বিচারক এম. কুনাসুন্দরি ওই ব্যক্তিকে ১০ বছর কারাভোগের নির্দেশ দেন। এছাড়া ধর্ষণের প্রতিটি অভিযোগের জন্য দুটি করে বেত্রাঘাতের নির্দেশ দিয়েছেন। গত ২০ জানুয়ারি অভিযুক্ত ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করা হয়। বিচারক জানান, ওইদিন থেকেই এই সাজার মেয়াদ শুরু বলে বিবেচিত হবে।

news24bd.tv/আলী

;