পুঁজিবাজারে দুই মাসের মধ্যে সর্বনিম্ন লেনদেন

অনলাইন ডেস্ক

পুঁজিবাজারে দুই মাসের মধ্যে সর্বনিম্ন লেনদেন

সপ্তাহের তৃতীয় কার্যদিবস মঙ্গলবার (২৯ জুন) দেশের শেয়ারবাজারে মূল্য সূচক বাড়লেও কমেছে লেনদেনের পরিমাণ। এদিন দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) লেনদেন কমে দুই মাসের মধ্যে সর্বনিম্ন অবস্থানে নেমেছে। 

তবে আর্থিক প্রতিষ্ঠানের পাশাপাশি ব্যাংক খাতের শেয়ারের দাম বাড়ায় সূচকের উত্থান হয়েছে। বেশির ভাগ কোম্পানিরই শেয়ারের দাম বেড়েছে। দিনভর দেশের পুঁজিবাজারে লেনদেন হয়েছে সূচক ওঠানামার মধ্য দিয়ে। 

মঙ্গলবার পুঁজিবাজারের তালিকাভুক্ত আর্থিক খাতের ২৩টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে দাম বেড়েছে ১৮টির। অপরিবর্তিত রয়েছে ৫টি কোম্পানির শেয়ারের দাম। একইভাবে উত্থান হয়েছে ব্যাংকের শেয়ারে দাম। অপরদিকে মিশ্রপ্রবণতায় লেনদেন হয়েছে প্রকৌশল এবং মিউচুয়াল ফান্ড খাতের শেয়ারের।  

আর তাতে সবমিলে আজ দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) প্রধান সূচক আগের দিনের চেয়ে বেড়েছে ১৫ পয়েন্ট। অপর পুঁজিবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সূচক বেড়েছে ৪৪ পয়েন্ট।

সূচক বাড়লেও প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের পাশাপাশি ব্যক্তি বড় বিনিয়োগকারীদের কম লেনদেন হয়েছেন। আর তাতে লেনদেন নেমে এসেছে ১ হাজার কোটি টাকায়। এছাড়াও লকডাউনে ব্রোকার হাউজগুলো বিনিয়োগকারীদের উপস্থিতি কম ছিল। ফলে লেনদেনও কমেছে বলে মনে করেন বাজার সংশ্লিষ্টরা।

ডিএসইর তথ্যমতে, সকাল ১০টা থেকে প্রকৌশল, আর্থিক প্রতিষ্ঠানসহ বেশ কয়েকটি খাতের শেয়ার কেনার আগ্রহ বাড়ে বিনিয়োগকারীদের। তাতে লেনদেনের প্রথম ১৭ মিনিটে সূচক বাড়ে ৪০ পয়েন্ট। তবে বীমা ও মিউচুয়াল ফান্ডের শেয়ারের দাম কমতে থাকে। আর এই ধারাবাহিকতায় দিনের বাকি সময় লেনদেন হয়।

দিন শেষে ডিএসইতে মোট ৩৭৩টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার লেনদেন হয়েছে। এর মধ্যে দাম বেড়েছে ১৭৫টির, কমেছে ১৬৬টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৩২টির। তাতে এদিন মোট লেনদেন হয়েছে ১ হাজার ৩২৮ কোটি ৪৯ লাখ টাকা। এর আগের দিন লেনদেন হয়েছিল ১ হাজার ৩২৮ কোটি ৪৯ লাখ টাকা। যা গত প্রায় দুই মাসের মধ্যে সর্বনিন্ম লেনদেন। এর আগের ৩ মার্চ ডিএসইতে লেনদেন হয়েছিল ১ হাজার ১৫৯ কোটি টাকা।

বেশির ভাগ শেয়ারের দাম বাড়ায় এদিন ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স আগের দিনের চেয়ে ১৫ পয়েন্ট বেড়ে ৬ হাজার ৪২ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। প্রধান সূচকের পাশাপাশি ডিএসইর অন্য সূচকগুলোর মধ্যে শরিয়াহ সূচক ৩ দশমিক ৫৮ পয়েন্ট বেড়ে ১ হাজার ২৯৮ পয়েন্টে এবং ডিএসই-৩০ সূচক ৯ পয়েন্ট বেড়ে ২ হাজার ১৮৫ পয়েন্টে অবস্থান করছে।

এদিন ডিএসইতে লেনদেন হওয়া কোম্পানিগুলোর মধ্যে লেনদেনের শীর্ষে ছিল বেক্সিমকো লিমিটেড। এরপর বেশি লেনদেন হয়েছে ডেল্টা লাইফ ইনস্যুরেন্স লিমিটেডের শেয়ারের। এরপর ক্রমান্বয়ে রয়েছে মালেক স্পিনিং, ন্যাশনাল ফিডস মিলস, আনোয়ার গ্যালভানাইজিং, জেনারেশন নেক্সট, কুইন সাউথ টেক্সটাইল, কেয়া কসমেটিকস, লঙ্কা বাংলা ফাইন্যান্স এবং নিউ লাইন ক্লোথিং লিমিটেড।

অপরদিকে, চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ৪৪ পয়েন্ট বেড়ে ১৭ হাজার ৪৭৩ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। সিএসইতে লেনদেন হওয়া ৩২১টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে বেড়েছে ১৪০টির, কমেছে ১৫১টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৩০টির শেয়ারের দাম। সিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৫৪ কোটি ৬৬ লাখ ৩৩ টাকা।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

দাম বেড়েছে পোল্ট্রি মুরগি-ডিম, চড়া আটা-রসুনও

অনলাইন ডেস্ক

দাম বেড়েছে পোল্ট্রি মুরগি-ডিম, চড়া আটা-রসুনও

রাজধানীর খুচরা বাজারে সপ্তাহের ব্যবধানে অস্বাভাবিকভাবে বেড়েছে ব্রয়লার (পোল্ট্রি) মুরগি ও ডিমের দাম। কেজিতে ১০-২০ টাকা বেড়ে প্রতি কেজি ব্রয়লার মুরগি বিক্রি হচ্ছে ১৬০ থেকে সর্বোচ্চ ১৭০ টাকা। 

পাশাপাশি হালিতে ৩-৪ টাকা বেড়ে ফার্মের ডিম বিক্রি হচ্ছে ৪০-৪১ টাকা। এছাড়া সাতদিনের ব্যবধানে আটা, পাম অয়েল, আদা-রসুন ও দারুচিনি বাড়তি দরে বিক্রি হচ্ছে। 

বৃহস্পতিবার রাজধানীর কারওয়ান বাজার, নয়াবাজার ও মালিবাগ কাঁচাবাজার ঘুরে ও বিক্রেতাদের সঙ্গে কথা বলে এ তথ্য জানা গেছে।

এ দিন সরকারি সংস্থা ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশের (টিসিবি) দৈনিক বাজার মূল্য তালিকায় ব্রয়লার মুরগি ও ডিমের দাম বাড়ার চিত্র লক্ষ্য করা গেছে। 

টিসিবি বলছে, সপ্তাহের ব্যবধানে প্রতি কেজি মুরগির দাম বেড়েছে ৬ দশমিক ৯০ শতাংশ। মাসের ব্যবধানে বেড়েছে ১৪ দশমিক ৮১ শতাংশ। এছাড়া গত বছর একই সময়ের তুলনায় বর্তমানে প্রতি কেজি ব্রয়লার মুরগি ৩৮ দশমিক ৭৪ শতাংশ বেশি দরে বিক্রি হচ্ছে। পাশাপাশি প্রতি হালি ডিম সপ্তাহের ব্যবধানে ৫ দশমিক ৪৮ শতাংশ বেশি দরে বিক্রি হচ্ছে। মাসের ব্যবধানে ও গত বছর একই সময়ের তুলনায় বিক্রি হচ্ছে ৬ দশমিক ৯৪ শতাংশ।

রাজধানীর কারওয়ান বাজারে খুচরা বাজারের ডিম কিক্রেতা আলী আহম্মেদ জানান, সরবরাহ কমায় ডিমের দাম হঠাৎ বেড়ে গেছে। সপ্তাহ আগে প্রতি হালি ফার্মের ডিম বিক্রি করেছি ৩৭-৩৮ টাকা, যা এখন বিক্রি করতে হচ্ছে ৪০-৪১ টাকা। একই ডিম মাসখানেক আগে বিক্রি করেছি ৩৫-৩৬ টাকা।

রও পড়ুন:


সেই বাংলা ছবি থেকে সানি লিওনের অংশটি বাদ

অনলাইনে পণ্য ডেলিভারির সময় নির্ধারণ করে দিলো মন্ত্রণালয়

ভ্রুন নষ্ট না করলে তালাক দেয়ার হুমকি স্বামীর

মানবতাবিরোধী মামলার আসামি শহীদুল্লাহ ফকির গ্রেপ্তার


NEWS24.TV / কামরুল

পরবর্তী খবর

বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের গণবিজ্ঞপ্তি

অনলাইনে পণ্য ডেলিভারির সময় নির্ধারণ করে দিলো মন্ত্রণালয়

অনলাইন ডেস্ক

অনলাইনে পণ্য ডেলিভারির সময় নির্ধারণ করে দিলো মন্ত্রণালয়

বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের কেন্দ্রীয় ডিজিটাল কমার্স সেল অনলাইনে কেনাকাটার বিষ‌য়ে গণবিজ্ঞপ্তি দি‌য়ে ক্রেতা ও বি‌ক্রেতা‌দের সতর্ক ক‌রে‌ছে।

গণবিজ্ঞপ্তি বলা হয়েছে, ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানগুলোকে একই শহরের ভেতরে অগ্রিম অর্থ নেওয়ার ৫ দিনের ম‌ধ্যে ক্রেতাদের কাছে পণ্য ডেলিভারি দিতে হবে। আর ভিন্ন শহর বা গ্রামের ক্ষেত্রে পণ্য সরবারাহে সময় পা‌বে ১০ দিন।

গণবিজ্ঞপ্তি আরও বলা হ‌য়ে‌ছে, সম্প্রতি বিভিন্ন ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান কর্তৃক ভােক্তা সাধারণের নানাভাবে প্রতারিত হওয়ার তথ্য পাওয়া যাচ্ছে। এ সমস্যা নিরসনে সরকার ইতােমধ্যে ডিজিটাল কমার্স পরিচালনা নির্দেশিকা-২০২১ জারি করেছে। 

এ নির্দেশিকা অনুসারে অগ্রিম পরিশােধের ক্ষেত্রে ক্রেতা ও বিক্রেতা একই শহরে অবস্থান করলে ক্রয়াদেশ গ্রহণের পরবর্তী সর্বোচ্চ পাঁচ দিন এবং ভিন্ন শহরে বা গ্রামে অবস্থিত হলে সর্বোচ্চ ১০ (দশ) দিনের মধ্যে পণ্য ডেলিভারি দেওয়ার বিধান রাখা হয়েছে।

এছাড়া গ্রাহকের সুরক্ষার স্বার্থে পণ্য ডেলিভারি দেওয়ার পর পেমেন্ট গেটওয়ে হতে অর্থ ছাড়করণের জন্য বাংলাদেশ ব্যাংক কর্তৃক নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। এক্ষেত্রে অনলাইন পেমেন্ট অপেক্ষাকৃত নিরাপদ।

আরও পড়ুন:

অবশেষে ব্রিটেনের লাল তালিকা থেকে বাদ পড়ছে বাংলাদেশ

বেড়াতে গিয়ে অতিরিক্ত মদ পানে দুই ছাত্রলীগ কর্মীর মৃত্যু

আর কোনো তত্ত্বাবধায়ক সরকার হবে না, জানালেন কৃষিমন্ত্রী

ইভ্যালির সঙ্গে আর সম্পর্ক নেই তাহসানের


এ অবস্থায় ডিজিটাল কমার্স পরিচালনাকারী প্রতিষ্ঠান থেকে সতর্কতার সঙ্গে দ্রব্যাদি ক্রয়ের জন্য ক্রেতা সাধারণকে অনুরােধ ক‌রে‌ছে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়। একই সঙ্গে ডিজিটাল কমার্স প্রতিষ্ঠান ব্যবসায় পরিচালনায় ‘ডিজিটাল কমার্স পরিচালনা নির্দেশিকা ২০২১’ এর ব্যত্যয় পরিলক্ষিত হলে সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানের ওয়েবসাইট বন্ধ করাসহ অন্যান্য আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

বাংলাদেশ সম্ভাবনা ও সুযোগে পরিপূর্ণ একটি দেশ : জেনেভায় ভূমিমন্ত্রী

অনলাইন ডেস্ক

বাংলাদেশ সম্ভাবনা ও সুযোগে পরিপূর্ণ একটি দেশ : জেনেভায় ভূমিমন্ত্রী

বর্তমান যুগকে এশিয়ার যুগ হিসেবে উল্লেখ করে ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী বলেছেন, বাংলাদেশ সম্ভাবনা ও সুযোগে পরিপূর্ণ একটি দেশ। এই সুযোগ গ্রহণ করুন। এটাই বাংলাদেশের আহবান।

২২ সেপ্টেম্বর বুধবার সুইজারল্যান্ডের জেনভায় এক হোটেলে বিদেশী ও অনাবাসি বাংলাদেশী ব্যবস্যায়ীদের উদ্দেশে ‘দ্য রাইজ অব বেঙ্গল টাইগার: পটেনশিয়ালস অব ট্রেড এন্ড ইনভেস্টমেন্ট ইন বাংলাদেশ'  শীর্ষক রোডশো-এ বাংলাদেশের পুঁজিবাজারের উপর দ্বিতীয় বিনিয়োগ শীর্ষ সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্য ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী এসব কথা বলেন।

ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী বিদেশি বিনিয়োগকারীদের বাংলাদেশে হাই-টেক শিল্প এবং জাহাজ নির্মানের মত ভারী শিল্পে বিনিয়োগ করার আহ্বান জানান। 

বিদেশী ও প্রবাসী বাংলাদেশী বিনিয়োগকারীদের 'বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল' ও 'রপ্তানি প্রক্রিয়াকরণ এলাকা'য় বিনিয়োগে বিশ্বমানের পরিবেশ ও সুযোগের ব্যাপারে জানিয়ে ভূমিমন্ত্রী আরও বলেন, বাংলাদেশে আসুন এবং বিনিয়োগের পূর্বে পরিস্থিতি যাচাই করে দেখুন।

কোভিড-১৯ বিশ্ব মহামারির এই সময়ে বাংলাদেশের অর্থনীতি সচল রাখতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দৃঢ় নেতৃত্বের কথা বলার সময় ভূমিমন্ত্রী বাংলাদেশী উদ্যোক্তাদের উদ্যোমী এবং যোদ্ধা হিসেবেও উল্লেখ করেন।

বাংলাদেশ ধীরে ধীরে কৃষিভিত্তিক অর্থনীতি থেকে শিল্প ভিত্তিক অর্থনীতিতে পরিবর্তন হচ্ছে উল্লেখ করে সাইফুজ্জামান চৌধুরী বলেন, এক দশকের মধ্যে বাংলাদেশ একটি সম্পূর্ণ শিল্প ভিত্তিক অর্থনীতি হবে। 

আরও পড়ুন:

অবশেষে ব্রিটেনের লাল তালিকা থেকে বাদ পড়ছে বাংলাদেশ

বেড়াতে গিয়ে অতিরিক্ত মদ পানে দুই ছাত্রলীগ কর্মীর মৃত্যু

আর কোনো তত্ত্বাবধায়ক সরকার হবে না, জানালেন কৃষিমন্ত্রী

ইভ্যালির সঙ্গে আর সম্পর্ক নেই তাহসানের


অনুষ্ঠানে প্রদর্শিত ভিডিও বার্তার মাধ্যমে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মহাপরিচালক টেড্রোস অ্যাধনম বলেন, তার দেশের সকল মানুষের জীবন ও স্বাস্থ্যের সর্বোচ্চ অর্জনযোগ্য মানসমূহ নিশ্চিতে আধুনিক বাংলাদেশের জনক শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্ন পূরণের দায়িত্ব প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকারের নিকট অর্পিত হয়েছে। বাংলাদেশ গত এক দশকে বিশ্বের সবচেয়ে দ্রুত বর্ধনশীল অর্থনীতিগুলোর মধ্যে অন্যতম, এছাড়া দারিদ্র্য হ্রাস ও স্বাস্থ্য উন্নয়নে দেশটি উল্লেখযোগ্য অগ্রগতি অর্জন করেছে। 

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

ইভ্যালির মতো কার্যালয় বন্ধ করে দিয়েছে কিউকম

অনলাইন ডেস্ক

পাওনাদার ও গ্রাহকদের চাপ সামলাতে না পেরে ইভ্যালির মতো কার্যালয় বন্ধ করে দেয়া হয়েছে বলে জানাল আলোচিত আরেক ই-কমার্স সাইট কিউকম।

বুধবার মধ্যরাতে ফেইসবুক লাইভে এসে অফিস বন্ধ করে বাসায় বসে কাজ করার ঘোষণা দেন এই কোম্পানির উদ্যোক্তা ও সিইও রিপন মিয়া এবং তার সহযোগী সাবেক রেডিও জকি নিরব।

এই সময়ে গ্রাহকদেরকে তাদের বাসাবাড়ির নিচে ভিড় না করার অনুরোধও করেন তারা। 

আরও পড়ুন:

অবশেষে ব্রিটেনের লাল তালিকা থেকে বাদ পড়ছে বাংলাদেশ

বেড়াতে গিয়ে অতিরিক্ত মদ পানে দুই ছাত্রলীগ কর্মীর মৃত্যু

আর কোনো তত্ত্বাবধায়ক সরকার হবে না, জানালেন কৃষিমন্ত্রী

ইভ্যালির সঙ্গে আর সম্পর্ক নেই তাহসানের


 

করোনা মহামারীকালে ই-কমার্সের প্রসার ঘটার পাশাপাশি বিভিন্ন সাইট খুলে প্রলোভন দেখিয়ে গ্রাহকদের কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগও ‍উঠেছে। বুধবার এ বিষয়ে পদক্ষেপ নেয়ার কথা জানান বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

ডিজিটাল মার্কেটিংয়ে পরিচিত মুখ মৃত্যুঞ্জয় দেব নাথ

অনলাইন ডেস্ক

ডিজিটাল মার্কেটিংয়ে পরিচিত মুখ মৃত্যুঞ্জয় দেব নাথ

চাকরির আশায় বসে না থেকে ডিজিটাল মার্কেটিংয়ের মাধ্যমে মাত্র ২১ বছর বয়সেই সাফল্য অর্জন করেছেন মৃত্যুঞ্জয় দেব নাথ। নিজে স্বনির্ভর হওয়ার পাশাপাশি অসংখ্য তরুণের জন্য কাজের সুযোগ সৃষ্টি করেছেন। তার সফলতা দেখে এখন আরও অনেক তরুণই এই পেশায় আগ্রহী হয়ে উঠেছেন।

মৃত্যুঞ্জয় দেব নাথ প্রথম থেকেই নতুনকিছু করতে আগ্রহী ছিলেন। তার কঠিন পরিশ্রম ও লক্ষ্য আজ সফলতার দ্বারপ্রান্তে দাঁড় করিয়ে দিয়েছে। অল্প বয়স থেকেই ডিজিটাল মার্কেটিং এর কাজ শুরু করেন তিনি।তিনি Mritunjoy Dev Nath নামক পেজের মাধ্যমে তার কাজ করে থাকেন, মূলত ফেসবুকের জন্য কন্টেন্ট তৈরির কাজ করছে তার প্রতিষ্ঠানটি। বিভিন্ন ধরনের এজেন্সির হয়ে কনটেন্ট প্রজেকশন এবং ডিস্ট্রিবিউশনের মাধ্যমে ডিজিটাল মার্কেটিং করেন তারা।

বর্তমান যুগের ডিজিটাল মার্কেটিং কে বিশাল একটি সম্ভাবনা ক্ষেত্রে বলে মনে করেন মৃত্যুঞ্জয় নাথ। তিনি জানান, ‘দিন দিন এর গুরুত্ব বাড়ছে। ডিজিটাল মার্কেটিং নিয়ে কাজ শুরু করতে চাইলে প্রথমে তার দক্ষতা বাড়াতে হবে। কারণ সঠিক জ্ঞান নিয়ে এই সফলতার দিকে এগিয়ে যাওয়া যায়। এর জন্য সবার প্রথমে দক্ষতা বাড়াতে হবে। এরপর অনুসন্ধান করতে হবে প্রতিনিয়ত চোখ কান খোলা রেখে। পাশাপাশি জানতে হবে বিভিন্ন টুলস এর ব্যবহার। কি ধরনের কনটেন্ট পছন্দ করছে লাখো মানুষ সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে।’

ডিজিটাল মার্কেটিং এর ক্ষেত্রে কনটেন্ট তৈরি ভীষণ গুরুত্বপূর্ণ বলে জানান, মৃত্যুঞ্জয় দেব নাথ। আবার অনেকেই ভাল কনটেন্ট তৈরি করেও ডিজিটাল মার্কেটিং নিয়ে কাজ করার সুযোগ পাচ্ছে না। তাদের জন্য সবসময় কিছু একটা করার স্বপ্ন দেখেন মৃত্যুঞ্জয় দেব নাথ। নিজের ক্যারিয়ার শুরুতে পার করেছেন অনেক ধরনের বাধা বিপত্তি। তাই ডিজিটাল দুনিয়ার কাজ করতে আসা তরুণরা যেন বাধার সম্মুখীন না হয়, সে জন্য মৃত্যুঞ্জয় নাথ চেষ্টা করে যাচ্ছেন নিজ জায়গা থেকে।

এছাড়াও সামাজিক দায়বদ্ধতা থেকে তিনি সামাজিক নানা কর্মকাণ্ডে যুক্ত রয়েছেন। এছাড়াও তিনি ব্লগিং করেন পাশাপাশি সংগীত প্লাটফর্ম গুলাতেও তিনি ব্যাপক পরিচিত। মৃত্যুঞ্জয় বিশ্বাস করেন যে, পজিটিভিটি ছড়িয়ে দেয়ার মাধ্যমে সমাজকে পরিবর্তন করা সম্ভব। তিনি বুঝিয়েছেন যে সত্য ছড়িয়ে দেয়ার মাধ্যমে এই সমাজে মিথ্যা কে ঢেকে দেয়া সম্ভব।

একজন ডিজিটাল মার্কেটার হিসেবে মৃত্যুঞ্জয় নাথ বিশ্বাস করেন সফলতার কোন শর্টকাট পথ নেই। মানুষ নিজের সততা, একাগ্রতা, কাজ এবং পরিশ্রম দিয়ে সফল হয়ে উঠে। যেখানে মানুষের কাজের কোনো সততা নেই সেখানে কাজের প্রকৃত সম্মান পাওয়া যায় না। এবং প্রকৃত সফলতা পাওয়া যায় না। তাই প্রতিটি মানুষের সততা ঠিক রেখে কাজ করা উচিত। পরিশ্রম মানুষকে সফলতার চূড়ায় নিয়ে যায়। সততা ও ধৈর্য ধরে পরিশ্রম করলে সফলতা আসবেই।

ডিজিটাল চ্যানেল ব্যবহার করে পণ্যের প্রমোশন করাই হচ্ছে ডিজিটাল মার্কেটিং। সোশ্যাল মিডিয়া, সার্চ ইঞ্জিন, ইনফ্লুয়েন্সার্ মার্কেটিং- এসবই ডিজিটাল মার্কেটিং এর অন্তর্ভুক্ত। প্রথাগত চাকরির বাজারে ছুটতে ছুটতে জীবনের অর্ধেক সময়টাই পার হয়ে যায় বাংলাদেশের শিক্ষার্থীদের। তাই বর্তমান সময়ে তাল মিলাতে চাইলে প্রথাগত চিন্তাভাবনা ছেড়ে ভাবতে হবে নতুন কিছু। এই দিক থেকে ডিজিটাল মার্কেটিং একটি সম্ভাবনাময় পেশা।

NEWS24.TV / কামরুল

পরবর্তী খবর