নিজ স্ত্রীকে ধর্ষণের জন্য অন্য লোক আনত স্বামী!
নিজ স্ত্রীকে ধর্ষণের জন্য অন্য লোক আনত স্বামী!

নিজ স্ত্রীকে ধর্ষণের জন্য অন্য লোক আনত স্বামী!

অনলাইন ডেস্ক

স্ত্রীর পরিবার থেকে যৌতুক দাবি করেছিল স্বামী। কিন্তু স্ত্রীর পরিবার সেই পরিমাণ যৌতুক দিতে ব্যর্থ হওয়াই  ভিন্ন ভিন্ন ব্যাক্তি দিয়ে স্ত্রীকে ধর্ষণ করানোর অভিযোগ উটেছে  স্বামীর বিরুদ্ধে। সেই গৃহবধু জানিয়েছেন, যৌতুকের টাকা দিতে ব্যর্থ হওয়াই  প্রতিদিন নতুন নতুন পুরুষ তার ঘরে পাঠাতেন স্বামী। সেই সময় স্বামীও বাসায় অবস্থান করতেন।

তার স্বামী এবং অভিযুক্ত দ্বিতীয় ব্যক্তি তাকে নির্যাতন করে। তারা তার গোপনাঙ্গে মরিচ ঢুকিয়ে দেয়।  

ভারতের রাজস্থানের আলওয়ারের ঢোলপুরে এমন ঘটনা ঘটেছে।  

২৩ বছর বয়সী ওই নারী জানান, এসব ঘটনার সময় তার স্বামী উপস্থিত ছিলেন। পরে বাসেরি পুলিশ স্টেশনে একটি এজাহার দায়ের করেন ওই নারী। তিনি অভিযোগ করেন যে, এক ব্যক্তি শনিবার তাকে ধর্ষণের পর মারধর করে। পরদিন রোববারও আরেক ব্যক্তি তাকে ধর্ষণের চেষ্টা করে। তার স্বামী এবং অভিযুক্ত দ্বিতীয় ব্যক্তি তাকে নির্যাতন করে। তারা তার গোপনাঙ্গে মরিচ ঢুকিয়ে দেয়।  

পুলিশ জানায়, ওই নারী তার বাবা-মাকে পুরো ঘটনা জানালে তার ঢোলপুর এসে তাদের মেয়েকে উদ্ধার করে। এ ঘটনার পর পুলিশ গণধর্ষণের একটি মামলা দায়ের করেছে।

ডিএসপি পারবেন্দ্র সিং বলেছেন, পাঁচ মাস আগে ওই নারীর বিয়ে হয়েছিল। বিয়ের পর থেকেই স্বামী ও তার পরিবার যৌতুকের জন্য চাপ দিতে থাকে। পরে তার ঘরে অন্য লোকদের পাঠানো শুরু করে স্বামী।  

news24bd.tv/আলী