বেগমগঞ্জে থানা থেকে ধর্ষণকারীকে ছেড়ে দেওয়ার অভিযোগে সংবাদ সম্মেলন
বেগমগঞ্জে থানা থেকে ধর্ষণকারীকে ছেড়ে দেওয়ার অভিযোগে সংবাদ সম্মেলন

বেগমগঞ্জে থানা থেকে ধর্ষণকারীকে ছেড়ে দেওয়ার অভিযোগে সংবাদ সম্মেলন

Other

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জের এক সন্তানের জননীকে ধর্ষণের ঘটনায় অভিযুক্ত ধর্ষককে থানা থেকে ছেড়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। অভিযুক্ত দেলোয়ার হোসেন (৩০) বেগমগঞ্জ উপজেলার হাজীপুর ইউনিয়নের ৭ নম্বর ওয়ার্ডের মুগা মিয়ার বাড়ির আবদুল মান্নানের ছেলে এবং সুমন বাহিনীর সেকেন্ড ইন কমান্ড শহীদের ছোট ভাই।

বৃহস্পতিবার (১ জুলাই) দুপুর ১২টার দিকে বেগমগঞ্জ উপজেলার নিজ বাড়িতে সংবাদ সম্মেলনে এমন অভিযোগ করেন ভুক্তভোগী গৃহবধূ (২২) নিজেই।

ভুক্তভোগী গৃহবধূ সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ করেন, গত (২৪ জুন) তাকে তার বসত ঘরে ধর্ষণ করে স্থানীয় দেলোয়ার নামে এক যুবক।

এ সময় আমার চিৎকারে আশেপাশের লোকজন ছুটে এসে তাকে হাতেনাতে ধরে ফেলে। পরে পুলিশ এসে দেলোয়ারকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়। তার পরের দিন ১১টার দিকে দেন দরবার করে ছাত্রলীগ নেতা স্বপন ও পলাশ থানা থেকে দেলোয়ারকে ছাড়িয়ে নিয়ে যায়। এই দেলোয়ার হচ্ছে সুমন
বাহিনীর সেকেন্ড ইন কমান্ড শহীদের ছোট ভাই। সুমন বাহিনীর কয়েকজন সন্ত্রাসী আমার মাকে মারধর করে এই ঘটনা থানা-পুলিশ করলে মেরে পেলার হুমকি দেয়। এরপর ওই দিন প্রতিপক্ষের হুমকির মুখে আমরা মামলা করতে থানায় যেতে পারেনি।

বেগমগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুহাম্মদ কামরুজ্জামান শিকদার জানান, গত (২৪ জুন) জাতীয় জরুরি সেবা ৯৯৯-এ থেকে কল পেয়ে দেলোয়ার নামে এক যুবককে আটক করে পুলিশ থানায় নিয়ে আসে। কিন্ত কোনো লিখিত অভিযোগ না পেয়ে পরের দিন তাকে ছেড়ে দেওয়া হয়।

এদিকে আজ ভুক্তভোগী গৃহবধূ বাদী হয়ে থানায় মামলা দায়ের করেন, অবশেষে বৃহস্পতিবার তাকে আটক করে পুলিশ।

আরও পড়ুন:


মালয়েশিয়ায় বছরজুড়ে বৈধতার সুযোগ বাড়ল

যে ১০০ টাকার জন্য দাঁড়িয়ে থাকত, সে মেয়ের ছয় তলা বাড়ি, প্রতিদিন সিঙ্গাপুরে যায়


news24bd.tv / তৌহিদ