যে গ্রামে নারীরা নগ্ন হয়ে প্রবেশ করে দল বেঁধে ঘোরে
যে গ্রামে নারীরা নগ্ন হয়ে প্রবেশ করে দল বেঁধে ঘোরে

যে গ্রামে নারীরা নগ্ন হয়ে প্রবেশ করে দল বেঁধে ঘোরে

অনলাইন ডেস্ক

অদ্ভুত এই বিশ্বের নানা প্রান্তে প্রতিনিয়তই নানা রখমের অদ্ভুত সব ঘটনা ঘটে। এর মধ্যে কিছু আমাদের মনোজগতে আলোড়ন তোলে আর কিছু বিস্ময় জাগায়। এমনই এক অদ্ভুত ধরণের আজব ঘটনা ঘটেছে এক গ্রামে। সেই গ্রামে পুরুষ প্রবেশ করলেই শাস্তির মুখোমুখি হতে হয়।

সেই গ্রামে শুধু প্রবশে করতে পারে মেয়েরা। সেই গ্রামে মেয়েরা সম্পূর্ণ নগ্ন হয়ে প্রবেশ করে। জঙ্গল, জলাভূমিতে তারা  দল বেঁধে ঘোরেন।

ইন্দোনেশিয়ার পাপুয়ায়  অবস্থিত সেই গ্রামের নাম টোনোটিওয়াট। যার অর্থ ‘ফিমেল ফরেস্ট’ বা নারীদের অরণ্য।  

পাপুয়ার মানুষের পছন্দের খাবার ঝিনুক এবং নানা রকম ফলের জোগান দেয় এই অরণ্য। সেসব সংগ্রহ করে আনার কাজও মেয়েরাই করে থাকে। রাজধানী জয়পুরার ক্যামপাং এনগ্রোসের মাঝামাঝি ওই ম্যানগ্রোভ অরণ্য ছড়িয়ে আছে প্রায় ৮ হেক্টর এলাকা জুড়ে।

এই অরণ্যে পুরুষরা প্রবেশ করতে পারে শুধু কাঠ সংগ্রহের জন্য। তবে তার আগে তাদের নিশ্চিত হতে হয় যে জঙ্গলে কোনও নারী নেই। নারী থাকতে কোনও পুরুষ জঙ্গলে প্রবেশ করে ধরা পড়লে তাকে নিয়ে যাওয়া হয় উপজাতি আদালতে। অপরাধ প্রমাণ হলে শাস্তির পাশাপাশি দিতে হয় জরিমানাও।

জরিমানার পরিমাণও কম নয়। জঙ্গলে প্রবেশ করার জন্য ১০ লাখ রুপাইয়া জরিমানা দিতে হয়। নারীদেরও জঙ্গলে প্রবেশের কিছু নিয়ম আছে। এখানে মেয়েরা সম্পূর্ণ নগ্ন হয়ে প্রবেশ করে। জঙ্গল, জলাভূমিতে দল বেঁধে ঘোরেন। জঙ্গলে প্রবেশের পর একত্রিত হয়ে শপথ নেন জঙ্গলে থাকাকালীন কেউ কাউকে ছেড়ে যাবেন না।

তবে কবে থেকে এই নিয়ম চলে আসছে তা জানেন না কেউ। যদিও স্থানীয়রা জানিয়েছেন, তাদের মা, নানীদের কাছেও এই একই কাহিনি শুনে আসছেন তারা। প্রচলিত কাহিনী থেকেই জেনেছেন এই জঙ্গলের সঙ্গে স্থানীয়দের সখ্যতা ১৮০৮ সাল থেকে।

সমুদ্র লাগোয়া জঙ্গলের জলাভূমিতে নেমে ঝিনুক সংগ্রহ করেন মেয়েরা। কাদা জলে পোশাক নষ্ট হতে পারে ভেবেই হয়তো চালু হয়েছিল নগ্ন নামার এই নিয়ম। স্থানীয়রা জানিয়েছেন, যেহেতু মেয়েদের এই জঙ্গলে নগ্ন হতে হয়, তাই হয়তো পুরুষদের দূরে রাখার নিয়ম চালু হয়েছিল।

উল্লেখ্য, ইন্দোনেশিয়ার ৩৪টি প্রদেশের একটি হল পাপুয়া। এর উত্তরে প্রশান্ত মহাসাগর দক্ষিণে আরফুরা সমুদ্র। নারীরা জানিয়েছেন, ভাটার সময় কাঠের নৌকায় চেপে বেরিয়ে পড়েন তারা। সারাদিন থাকেন জঙ্গলেই। লম্বাটে কাঠের ওই নৌকার নাম ‘কোলে কোলে’। সারাদিন ঝিনুক সংগ্রহ করে পরে সেগুলো বিক্রি করেন স্থানীয় বাজারে।

news24bd.tv/আলী

;