কিশোরীকে ফাঁদে ফেলে একাধিকবার ধর্ষণ,যুবলীগ নেতা গ্রেফতার

কিশোরীকে ফাঁদে ফেলে একাধিকবার ধর্ষণ,যুবলীগ নেতা গ্রেফতার

কিশোরীকে ফাঁদে ফেলে একাধিকবার ধর্ষণ,যুবলীগ নেতা গ্রেফতার

অনলাইন ডেস্ক

১৬ বছরের এক কিশোরী মেয়েকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে এক যুবলীগ নেতার বিরুদ্ধে। গত  রোববার দেখা করার কথা বলে কিশোরীকে একটি পরিত্যক্ত বাড়িতে নিয়ে ফের ধর্ষণ করে। এই ঘটনায় কিশোরীর দুলাভাই বাদী হয়ে কুদ্দুসের বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা করেছেন।  

লক্ষ্মীপুরের রামগতিতে এই ঘটনা ঘটে।

ধর্ষণের মামলায় আব্দুল কুদ্দুস (২৭)  নামে সেই যুবলীগ নেতাকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বুধবার রাতে উপজেলার চর রমিজ এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। এরআগে রোববার উপজেলার একটি পরিত্যক্ত বাড়িতে ধর্ষণের ঘটনা ঘটে।  

আব্দুল কুদ্দুস উপজেলার বড়খেরী ইউনিয়নের দুদু মিয়া হাজী বাড়ির কামাল উদ্দিনের ছেলে ও বড়খেরী ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী। বৃহস্পতিবার বিকালে তাকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

পুলিশ ও ক্ষতিগ্রস্ত কিশোরীর স্বজনরা জানায়, আব্দুল কুদ্দুসের সঙ্গে কিশোরীর (১৬) মোবাইলে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। প্রেমের ফাঁদে ফেলে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ওই কিশোরীকে লম্পট কুদ্দুস একাধিকবার ধর্ষণ করে। রোববার দেখা করার কথা বলে কিশোরীকে ওই পরিত্যক্ত বাড়িতে নিয়ে ফের ধর্ষণ করে।  

বিষয়টি কিশোরী পরিবারের লোকজনকে জানালে বুধবার রাতে কৌশলে কুদ্দুসকে কিশোরী মাধ্যমে এক প্রতিবেশীর বাড়িতে ডেকে আনা হয়। এ সময় বিয়ের করতে অস্বীকৃতি জানালে কুদ্দুসকে স্থানীয়রা আটক করে পুলিশে দেয়।

কিশোরীর দুলাভাই জানান, আব্দুল কুদ্দুস এলাকার মেয়েদের বিয়ের ফাঁদে ফেলে, আপত্তিকর ছবি তোলে কিশোরী ও বিভিন্ন বয়সী নারীদের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক করে ধর্ষণ করে।

রামগতি থানার ওসি মোহাম্মদ সোলাইমান বলেন, বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে কুদ্দুস ওই কিশোরীকে তিনবার ধর্ষণ করেছে। ক্ষতিগ্রস্ত কিশোরীর দুলাভাই বাদী হয়ে কুদ্দুসের বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা করেছেন। ভিকটিম কিশোরীকে সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।  

news24bd.tv/আলী