বেলজিয়ামকে হারিয়ে ৯ বছর পর সেমিতে ইতালি
বেলজিয়ামকে হারিয়ে ৯ বছর পর সেমিতে ইতালি

বেলজিয়ামকে হারিয়ে ৯ বছর পর সেমিতে ইতালি

অনলাইন ডেস্ক

বেলজিয়ামের স্বপ্ন অধরাই রয়ে গেল। ইউরো থেকে বিদায় নিতে হল তাদের। বেলজিয়ামকে বিদায় করে সেমিফাইনালে উঠেছে ইতালি। দীর্ঘ ৯ বছর পর উয়েফা ইউরোর সেমিফাইনালের দেখা পেল দলটি।

এই নিয়ে রেকর্ড টানা ৩২ ম্যাচে অপরাজিত রইল আজ্জুরিরা।

শুক্রবার (২ জুলাই) দিবাগত রাতে ইউরো-২০২০ এর দ্বিতীয় কোয়ার্টার ফাইনালে বেলজিয়ামকে ২-১ গোলে হারিয়ে শেষ চার নিশ্চিত করে রবার্তো মানচিনির শিষ্যরা।

এর আগে সবশেষ ২০১২ সালে সেমিফাইনালে উঠেছিল তারা। সেবার অবশ্য ফাইনালও খেলেছিল। কিন্তু স্পেনের কাছে হেরে রানার্স-আপ হয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হয়েছিল। এরপর ২০১৬ সালে কোয়ার্টার ফাইনাল থেকেই বিদায় নিতে হয়েছিল তাদের।

বল দখলে এগিয়ে থাকা ইতালি আক্রমণেও প্রাধান্য দেখায়। গোলমুখে তাদের নেওয়া ১৪ শটের তিনটি ছিল লক্ষ্যে। অন্যদিকে, রবার্তো মার্তিনেজের দল ১০টি শট নিয়ে লক্ষ্যে রাখতে পারে চারটি।

বেলজিয়াম উজ্জীবিত শুরু করলেও ধীরে ধীরে নিজেদের গুছিয়ে নেয় ইতালি। ১৩তম মিনিটে নাপোলির ফরোয়ার্ড ইনসিনিয়ের ফ্রি-কিকে জুভেন্টাসের ডিফেন্ডার লিওনার্দো বোনুচ্চি জালে বলও জড়ান। কিন্তু মাঝে জর্জিও কিয়েলিনি ও জিওভান্নি ডি লরেঞ্জো অফসাইডে থাকায় বাতিল হয় গোলটি।

পিছিয়ে পড়ার শঙ্কা এড়িয়ে বেলজিয়াম মনোযোগী হয় আক্রমণে। ২২তম মিনিটে ম্যানচেস্টার সিটির মিডফিল্ডার ডি ব্রুইন মাঝমাঠের সামনে থেকে বল নিয়ে এগিয়ে ডি-বক্সের বাইরে থেকে নেন বাঁকানো শট। বামদিকে ঝাঁপিয়ে তা রুখে দেন গোলরক্ষক জিয়ানলুইজি দোন্নারুমা। চার মিনিট পর আবারও ইতালির ত্রাণকর্তা হিসেবে আবির্ভূত হন তিনি। ইন্টার মিলান স্ট্রাইকার লুকাকুর বাঁ পায়ের গড়ানো শট পরাস্ত করতে পারেনি তাকে।

আক্রমণ-পাল্টা আক্রমণে জমে ওঠা লড়াইয়ে ৩১তম মিনিটে এগিয়ে যায় ইতালি। বেলজিয়ান ডিফেন্ডার ইয়ান ভেরটনগেন বল বিপদমুক্ত করতে ব্যর্থ হলে পেয়ে যান মার্কো ভেরাত্তি। তিনি ডি-বক্সে খুঁজে নেন ইন্টার মিডফিল্ডার বারেল্লাকে। প্রতিপক্ষের রক্ষণদেয়াল ভেঙেচুরে কোণাকুণি শটে গোলরক্ষক থিবো কোর্তোয়াকে ফাঁকি দিয়ে গোল করেন তিনি।

১০ মিনিট পর আরেকটি গোল প্রায় পেয়েই যাচ্ছিল ইতালি। ফেদেরিকো কিয়েসার শট দূরপাল্লার শট অল্পের জন্য লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়। পরের মিনিটে লাৎসিও স্ট্রাইকার চিরো ইম্মোবিলে গোলমুখে ফাঁকায় থাকলেও তালগোল পাকিয়ে সুযোগ নষ্ট করেন। ৪৪তম মিনিটে আর হতাশ হতে হয়নি তাদের। একক নৈপুণ্যে বাম দিকে থেকে ভেতরে ঢুকে ডি-বক্সের বাইর থেকে চোখ ধাঁধানো বাঁকানো শটে দূরের পোস্টে লক্ষ্যভেদ করেন ইনসিনিয়ে।

ভালো লিড নিয়ে বিরতিতে যাওয়ার সম্ভাবনা জাগালেও প্রথমার্ধের শেষ মিনিটে বেলজিয়ামকে পেনাল্টি উপহার দেয় ইতালি। ডি-বক্সে জেরেমি ডোকুকে ফেলে দেন ডি লরেঞ্জো। স্পট- কিক থেকে নিশানা ভেদ করতে কোনো ভুল করেননি ছন্দে থাকা লুকাকু।

দ্বিতীয়ার্ধে তুলনামূলক ভালো শুরু করে ইতালি। ম্যাচের ৪৭তম মিনিটে কিয়েসার শট চলে যায় পোস্টের বাইরে দিয়ে। বাকিটা সময় সমতায় ফেরার বেশ চেষ্টা চালায় বেলজিয়াম। ৬১তম মিনিটে সুবর্ণ সুযোগ হাতছাড়া করেন লুকাকু। ডি ব্রুইনের ক্রসে তিনি দূরের পোস্টে ঠিকভাবে পা ছোঁয়াতে পারলেই বল চলে যেত জালে। কিন্তু তালগোল পাকিয়ে সরাসরি লিওনার্দো স্পিনাজ্জোলার গায়ে মারেন তিনি।

আরও পড়ুন


নামাজের রুকুতে যে দোয়াগুলো পড়া উত্তম

সূরা ইয়াসিন: আয়াত ৭৭-৮০, পুনরুজ্জীবনে বিশ্বাস

ডিসেম্বরের মধ্যে ১০ কোটি টিকার প্রত্যাশা স্বাস্থ্যমন্ত্রীর

এলো ১১ লাখ আরও আসছে রাতে ৯ লাখ চীনা টিকা


১০ মিনিট পর বদলি নামা নাসের চ্যাডলির ক্রস প্রতিপক্ষের এক খেলোয়াড়ের পায়ে লেগে ছয় গজের বক্সের মধ্যে উড়ে যায় বল। কিন্তু লাফিয়ে উঠেও নাগাল পাননি লুকাকু। দূরের পোস্টে থোরগান হ্যাজার্ডের পক্ষেও কাজে লাগানো সম্ভব হয়নি সুযোগটি। ৮৪তম মিনিটে ডোকুর দূরপাল্লার শট ক্রসবারের ওপর দিয়ে চলে গেলে সমতায় ফিরতে পারেনি বেলজিয়াম। বাকিটা সময় পেরিয়ে গেলে জয়ের উৎসবে মাতোয়ারা হয় ইতালি।

১৯৬৮ সালের পর দ্বিতীয়বারের মতো ইউরো জেতার অভিযানে আরেক ধাপ এগোল ইতালি। অন্যদিকে, তারকায় ঠাসা বেলজিয়ামের সোনালী প্রজন্মের কোনো শিরোপা জয়ের অপেক্ষা আরো দীর্ঘ হলো।

আগামী ৭ জুলাই সেমিফাইনালে ইতালি খেলবে স্পেনের বিপক্ষে। ইংল্যান্ডের ওয়েম্বলি স্টেডিয়ামে দুই দলের ফাইনালে ওঠার লড়াইটি শুরু হবে বাংলাদেশ সময় রাত ১টায়।

news24bd.tv এসএম