১৮ বছর পর ‘মৃত থেকে জীবিত‌’, ৫৬ বছর বয়সী স্ত্রীকে ফের করছেন বিয়ে
১৮ বছর পর ‘মৃত থেকে জীবিত‌’, ৫৬ বছর বয়সী স্ত্রীকে ফের করছেন বিয়ে

১৮ বছর পর ‘মৃত থেকে জীবিত‌’, ৫৬ বছর বয়সী স্ত্রীকে ফের করছেন বিয়ে

অনলাইন ডেস্ক

কাগজে কলমে ছিলেন একজন মৃত মানুষ হিসেবে। দীর্ঘ ১৮ বছর ধরে নিজেকে জীবিত প্রমাণ করতে ঘুরেছেন দ্বারে দ্বারে। অনেক কষ্টের এই লড়াইয়ের পর মৃতদের তালিকা থেকে এবার নাম উঠেছে জীবিতদের তালিকায়। সংবাদের শিরোনামে থাকা ৬৬ বছর বয়সী এই ব্যক্তি ৫৬ বছর বয়সী স্ত্রীকে ফের বিয়ে করছেন।

ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের উত্তরপ্রদেশে।

ভারতীয় গণমাধ্যম টাইমস অব ইন্ডিয়ার প্রতিবেদনে এসব তথ্য জানানো হয়। ওই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ভারতের উত্তরপ্রদেশের আজমগড় জেলার আমিলো গ্রামের বাসিন্দা লাল বিহারীকে ১৯৭৫ সালে ‘মৃত’ হিসেবে সরকারি নথিভুক্ত করা হয়। নিজেকে জীবিত প্রমাণের জন্য কঠিন লড়াই চালিয়ে গেছেন সরকারি খাতায় মৃত লাল বিহারী।

অবশেষে দীর্ঘ আইনি প্রক্রিয়ার পর ১৯৯৪ সালের ৩০ জুন সরকারি নথিতে পুনর্জন্ম হয়। অর্থাৎ তখনই তার জন্ম হয়েছে বলে সরকারি নথিভুক্ত করা হয়। সেই তথ্য অনুযায়ী তিনি সবে ২৭ বছর পূর্ণ করেছেন। ২০২২ সালে সরকারিভাবে ২৮ বছর হওয়ার পর লাল বিহারী ফের বিয়ে করবেন তার ৫৬ বছর বয়সী স্ত্রী কার্মি দেবীকে।

আরও পড়ুন


সন্তানের পিতৃপরিচয়ের দাবিতে যুবলীগ নেতার বিরুদ্ধে অন্তঃসত্ত্বা কলেজছাত্রীর মামলা

কষ্টার্জিত জয়ে সেমিফাইনালে ব্রাজিল

ইসরাইলি সেনাদের হামলায় ১৫০ ফিলিস্তিনি বিক্ষোভকারী আহত

৬ গোলের ম্যাচ শেষ হল টাইব্রেকারে, প্যারাগুয়েকে হারিয়ে সেমিতে পেরু


লাল বিহারী আর কার্মি দেবীর দুই মেয়ে আর এক ছেলের সবাই বিবাহিত। তবে, সরকারি নথিতে জীবন্ত মানুষকে মৃত দেখনো আসলে ভুল করে হয় না বলে জানিয়েছেন লাল বিহারী। পরিবারের মানুষই হয়তো সম্পত্তির জন্য অসৎ সরকারি কর্মকর্তাদের সঙ্গে হাত মিলিয়ে ঘৃণ্য এই ষড়যন্ত্র করেন। এর ফলে ওই মৃত ঘোষিত ব্যক্তি নুন্যতম নাগরিক অধিকার থেকে বঞ্চিত হয়।

তার মতো যারা সরকারি তালিকায় ‘মৃত’ হয়ে ‘জীবন্মৃত’ জীবন কাটাচ্ছেন তাদের হয়ে লড়াই করছেন লাল বিহারী।

১৮ বছর ধরে মৃত থাকা লাল বিহারীর নিজেকে জীবিত প্রমাণের লড়াই নিয়ে সিনেমাও তৈরি হয়েছে। সতীশ কৌশিকের পরিচালনায় ‘কাগজ’ নামের ওই সিমেনায় পঙ্কজ ত্রিপাঠী লাল বিহারীর ভূমিকায় অভিনয় করেছেন।

news24bd.tv এসএম

সম্পর্কিত খবর

;