শনিবার, ২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ | আপডেট ৩২ ঘন্টা ৪৯ মিনিট আগে

দাম চড়া!

যশোরের বাজারে উঠতে শুরু করেছে দেশি প্রজাতির লিচু

রিপন হোসেন, যশোর

যশোরের বাজারে উঠতে শুরু করেছে দেশি প্রজাতির লিচু

আর ক’দিন পরেই শুরু হবে মধুমাস। তখন রসালো ফলের মৌ মৌ গন্ধে মাতোয়ারা হবে চারপাশ। তবে গ্রীষ্মকালকে ফলের মাসও বালা হয়ে থাকে। এরইমধ্যে বাজারে আসতে শুরু করেছে গ্রীষ্মের সুস্বাদু ফল লিচু। তবে দাম অন্যান্য বছরের তুলনায় বেশি।

যশোর সদর ও বাঘারপাড়া লিচু চাষের জন্য বিখ্যাত। এ অঞ্চলে দীর্ঘদিন ধরে লিচুর চাষ হয়ে আসছে। হাজার হাজার লিচু গাছ রয়েছে এ অঞ্চলে। রাজধানী ঢাকা ছাড়াও দেশের বিভিন্ন স্থানে লিচু যায় এখান থেকে। এজন্য মৌসুম আসলেই এ অঞ্চলে লিচু নিয়ে কৃষকদের মধ্যে অনেকটা উৎসব চলে। তবে এবছর তার চিত্র ভিন্ন।

গাছে গাছে এখন থাকার কথা রসালো লাল লিচুর থোকা। কিন্তু যশোরের লিচুর গ্রাম খ্যাত বাঘারপাড়ার দরাজহাট, দাইতলা, দাঁতপুরের চিত্র একেবারেই ভিন্ন। এবছর পুরো ইউনিয়নের হাজারো গাছে লিচুই ফলেনি। একই অবস্থা বাহাদুরপুর, জঙ্গলবাঁধাল, বসুন্দিয়া, চৌগাছা এলাকার। ফলে হাসি নেই বাগান মালিকদের।

যশোর জেলায় এবছর  ৬শ’ হেক্টর জমিতে লিচুর চাষ হলেও এবার এসব লিচু বাগানে ফলন কম হয়েছে।  যেটুকু হয়েছিলো সেটুকুও ঝরিয়ে দিয়েছে কালবৈশাখী ঝড়ে এমটা জানালেন লিচু চাষীরা।

তবে যেসব গাছে লিচু হয়েছিল তা পরম যত্নে বড় করেছে বাগান মালিকরা। এখন বাজারে বিক্রি করতেও শুরু করেছেন। পাচ্ছেন ভালো দাম।

যশোর শহরের মনিহার এলাকায়  ১শ’ লিচু বিক্রি হচ্ছে সাড়ে ৩শ’ টাকা বলে জানান ব্যবসায়ী মোসলেম উদ্দিন। আর দড়াটানার ব্যবসায়ী জাহাঙ্গির হোসেনের দোকানের লিচুর দাম ২শ’ ৬০ টাকা হলেও আলমগীর হোসেনের লিচুর দাম ছিল ২শ’ টাকা শ’। দামের ব্যবধানের কাথা বলতেই দোকানদার আলমগীর হোসেন বলেন যেমন কেনা তেমন বিক্রি। তবে তার দাবি লিচু বাগান থেকে ক্রয় করলে দাম কম হয়। আর ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে ক্রয় করলে দাম বেশি পড়বে।

তাই বলে কি লিচু খাওয়া বন্ধ রাখবে লিচু প্রেমীরা! তা হয় না। তাই বাজার থেকে ২শ’ ৬০ টাকা দিয়ে ১শ’ লিচু ক্রয় করছে আরাফাত খান। তিনি বলেন, বছরের প্রথম ফল খাওয়ার মজাই আলাদা। তাই বেশি দাম হলেও ক্রয় করলাম।

যশোর জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক কাজী হাবিবুর রহমান বলেন, এ অঞ্চলের লিচু বৈশাখের ১৫ থেকে শুরু হলেও জ্যৈষ্ঠ মাসের প্রথমেই বাজারে উঠবে বিভিন্ন জাতের লিচু। এবছর আবহাওয়ার বিরূপ প্রভাবে এ বছর লিচুর ফলন কম হয়েছে। তবে যে বাগানে লিচু হয়েছে তারা দাম বেশি পাচ্ছেন।


(নিউজ টোয়েন্টিফোর/কেআই)

মন্তব্য