কাস্পিয়ান সাগরে বিস্ফোরণ ও আগুনের কারণ আগ্নেয়গিরির অগ্ন্যুৎপাত: আজারবাইজান
কাস্পিয়ান সাগরে বিস্ফোরণ ও আগুনের কারণ আগ্নেয়গিরির অগ্ন্যুৎপাত: আজারবাইজান

কাস্পিয়ান সাগরে বিস্ফোরণ ও আগুনের কারণ আগ্নেয়গিরির অগ্ন্যুৎপাত: আজারবাইজান

অনলাইন ডেস্ক

তারা প্রায় নিশ্চিত যে আগ্নেয়গিরির অগ্ন্যুৎপাতের কারণে কাস্পিয়ান সাগরে বিস্ফোরণ ও অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। আজারবাইজানের রাষ্ট্রীয় তেল সংস্থা সোকার এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

প্রতিষ্ঠানটির মুখপাত্র ইব্রাহিম আহমাদভ বলেছেন, কাস্পিয়ান সাগরের জনমানবহীন একটি দ্বীপে আগ্নেয়গিরির অগ্নুৎপাতের ঘটনা ঘটেছে বলে তাদের প্রতিষ্ঠানের কয়েকজন কর্মী জানিয়েছেন। এ বিষয়ে নিশ্চিত হতে তদন্ত চলছে।

আজ সকাল পর্যন্ত ঐ এলাকায় আগুন জ্বলতে দেখা যায়।

কাস্পিয়ান সাগরে রোববারের বিস্ফোরণের ঘটনায় কোনও হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি।

প্রথমে ধারণা করা হচ্ছিল— হয়তো গ্যাস অথবা তেলের খনিতে বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। কিন্তু তেল ও গ্যাসের খনি সুরক্ষিত আছে— এটি নিশ্চিত হওয়ার পর বিশেষজ্ঞরা ধারণা করতে থাকেন, সম্ভবত একটি মাড ভলক্যানো অর্থাৎ ছোট আগ্নেয়গিরি জেগে উঠেছে। পরে আজারবাইজানের প্রশাসনের পক্ষ থেকে জানানো হয়, খনিতে কোনো বিস্ফোরণ হয়নি।

আজারবাইজান আবহাওয়া দপ্তর জানায়, ভূপৃষ্ঠে বেশ কিছু মাড ভলক্যানো বা ছোট আগ্নেয়গিরি আছে। সেখানে অগ্ন্যুৎপাতের সময় প্রথমে বিস্ফোরণ হয়, তার পর লাভার সঙ্গে কাদা বের হতে শুরু করে। সমুদ্রপৃষ্ঠেও এ ধরনের আগ্নেয়গিরি আছে। কাস্পিয়ান সাগর অঞ্চলে এর সংখ্যা অনেক। তেমনই একটি আগ্নেয়গিরি থেকে অগ্ন্যুৎপাত শুরু হয়েছে। বিস্ফোরণও হয়েছে সেখানেই।

এর আগে মেক্সিকো উপসাগরে সমুদ্রের মাঝখানে দাউ দাউ করে আগুন জ্বলতে দেখা যায়। সেই আগুন পাঁচ ঘণ্টারও বেশি সময় চেষ্টার পর নেভানো সম্ভব হয়।

মেক্সিকো উপসাগরে ইউকাটান উপদ্বীপ এলাকার কাছেই শুক্রবার ওই আগুন লেগেছিল।  

দেশটির জাতীয় তেল উত্তোলন সংস্থা পেমেক্স জানিয়েছে, সমুদ্রের নিচে থাকা পাইপলাইনের গ্যাস লিক হওয়ার কারণে লেগেছিল ওই আগুন।

আরও পড়ুন:


বিধিনিষেধ বাড়ল যে কারণে

রেকর্ড মৃত্যুর দিনে শনাক্ত ৯,৯৬৪

ভারতের সঙ্গে গোপন যোগাযোগ নেই: পাকিস্তান

করোনা আক্রান্ত বেশি গ্রামে না শহরে জানালেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক

পুরুষদের দাড়ি রাখতেই হবে, একা বের হতে পারবেন না নারীরা


news24bd.tv / তৌহিদ