‘বিচারের রায় পছন্দ না হওয়ায়’ কুপিয়ে হত্যা

অনলাইন ডেস্ক

‘বিচারের রায় পছন্দ না হওয়ায়’ কুপিয়ে হত্যা

কুমিল্লার মনোহরগঞ্জে বিচারের রায় পছন্দ না হওয়ায় মো. আবদুর রহিম (৩৮) নামে এক ইউপি সদস্যকে প্রকাশ্যে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

মঙ্গলবার (০৬ জুলাই) সকাল সাড়ে ৯টার দিকে উপজেলার ঝলম উত্তর ইউনিয়নের ধিকচান্দা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত আবদুর রহিম ধিকচান্দা গ্রামের জায়েদ আলীর ছেলে। তিনি ঝলম উত্তর ইউনিয়নের ৮ নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য ছিলেন। ঘটনার পর ঘাতক রহমত আলীকে গণধোলাই দিয়ে পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে।

ঝলম উত্তর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ইকবাল হোসেন বলেন, ধিকচান্দা গ্রামে একটি পুকুর ইজারা সংক্রান্ত জটিলতার সমাধান করে দেন ইউপি সদস্য মো. আবদুর রহিম। কিন্তু রায় পছন্দ না হওয়ায় তার ওপর ঘাতক রহমত আলী বেশ ক্ষুব্ধ ছিল।

সোমবার (০৫ জুলাই) রাতে তাদের মধ্যে বাগবিতণ্ডা হয়। পরে সকালে আবদুর রহিমকে রামদা দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করেন রহমত আলী। এ সময় এলাকাবাসী রহমতকে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করে। শুনেছি তার অবস্থা গুরুতর। তাকে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। 

মনোহরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহাবুল কবির বলেন, রামদা দিয়ে কুপিয়ে আবদুর রহিমের মৃত্যু নিশ্চিত করা হয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হচ্ছে। ঘাতক আমাদের হেফাজতে  চিকিৎসাধীন আছে।

পরবর্তী খবর

ঘরে ফিরতেই মাকে জড়িয়ে হাউমাউ করে কেঁদে উঠল মেয়ে

অনলাইন ডেস্ক

ঘরে ফিরতেই মাকে জড়িয়ে হাউমাউ করে কেঁদে উঠল মেয়ে

চাঁদপুর হাজীগঞ্জে ভাতিজিকে ধর্ষণের অভিযোগে চাচাকে আটক করেছে পুলিশ। শনিবার (৩১ জুলাই) দুপরে উপজেলার ৬নং বড়কূল পূর্ব ইউনিয়নের মোল্লাডহর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

আটক মোল্লাডহর নোয়াবাড়ীর আব্দুস সোবাহানের ছেলে আ. রশিদ (৩৫)।

ওই তরুণীর মা বলেন, আমাদের নতুন বাড়ির চারপাশে বর্ষার পানি। শনিবার (৩১ জুলাই) দুপুরের দিকে ঘরে আমার মেয়েকে রেখে নৌকা যোগে গ্রামের দোকানে বাজার করতে যাই। এ সুযোগে আমার মেয়েকে একা পেয়ে ধর্ষণ করে দেবর রশিদ।

ঘরে ফিরে মেয়ের দিকে তাকালে আমাকে জড়িয়ে হাউমাউ করে কেঁদে ওঠে। ঘটনা খুলে বলে। পরে তার বাবাকে খবর দিয়ে গ্রামবাসীকে জানাই।

স্থানীয়রা বলেন, আমরা শুনে ঘটনাস্থলে যাই এবং ধর্ষককে আটকে রাখি। মেয়েটির বাবা ৯৯৯ ফোন করলে পুলিশ রাত ৯টার দিকে অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করে।

হাজীগঞ্জ থানার উপপরিদর্শক জয়নাল আবেদীন বলেন, সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থলে এসে সত্যতা পাই। পরে অভিযুক্তসহ ভিকটিমকে রাত সাড়ে ১০টার দিকে থানায় নিয়ে আসি।

হাজীগঞ্জ থানার ওসি মো. হারুনুর রশিদ জানান, ঘটনার সত্যতা পেয়েছি। আসামিকে আটক করা হয়েছে।

 news24bd.tv তৌহিদ

পরবর্তী খবর

পর্নো ভিডিওর প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় স্ত্রীকে নির্যাতন

অনলাইন ডেস্ক

পর্নো ভিডিওর প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় স্ত্রীকে নির্যাতন

আপত্তিকর ভিডিও করতে রাজি না হওয়ায় স্ত্রীকে নির্যাতন করে বাড়ি থেকে বের দেওয়ার অভিযোগে উঠেছে স্বামীর বিরুদ্ধে। স্বামীর নাম মোরসালিন (৩২)। তাকে এক বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। 

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ উপজেলার ঘটনা এটি।

রোববার (১ আগস্ট) দুপুরে ভ্রাম্যমাণ আদালত বসিয়ে এ দণ্ড দেন সোনারগাঁ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আতিকুল ইসলাম।

অভিযুক্ত মোরসালিন বৈদ্যেরবাজার ইউনিয়ননের পঞ্চবটি গ্রামের ফজর আলীর ছেলে।

ভ্রাম্যমাণ আদালত সূত্রে জানা যায়, মোরসালিন মাদক সেবন ও বিক্রির সঙ্গে জড়িত। তিনি তার স্ত্রীকে পর্নো ভিডিও করার প্রস্তাব দেন। প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় তাকে বিভিন্ন সময়ে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন করতেন। পরে ওই নারী এক পর্যায়ে সন্তান ধারণ করলে স্বামী ও শাশুড়ি জোর করে গর্ভপাত করান।

এদিকে গত ৮ জুলাই ভাড়া বাসায় বন্ধুদের সঙ্গে স্ত্রীকে অনৈতিক কাজ করার প্রস্তাব দেন মোরসালিন। এতে রাজি না হওয়ায় তাকে এলোপাতাড়ি মারধর করেন। পরে ভুক্তভোগী হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়ে সোনারগাঁ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর অভিযোগ করেন। তিনি অভিযোগের সত্যতা পেয়ে কারাদণ্ড দেন।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. আতিকুল ইসলাম জানান, আপত্তিকর ভিডিও তৈরি করতে রাজি না হওয়ায় স্ত্রীকে নির্যাতনের অভিযোগে স্বামীকে এক বছরের সাজা দেওয়া হয়েছে। স্বামী-স্ত্রীকে মুখোমুখি জেরা করে অভিযোগের সত্যতা পাওয়া যায়।

 news24bd.tv তৌহিদ

পরবর্তী খবর

গফরগাঁওয়ে দুই লাশ উদ্ধার

সৈয়দ নোমান, ময়মনসিংহ

গফরগাঁওয়ে দুই লাশ উদ্ধার

ময়মনসিংহের গফরগাঁওয়ে আবিদ (২৬) নামে বিদেশফেরত এক যুবক ও সাত্তার (৬৫) নামে এক বৃদ্ধের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। উপজেলার রসুলপুর ইউনিয়নের ভরভরাগ গ্রাম থেকে শনিবার রাতে সাত্তারের লাশ ও রোববার পাগলা থানার লংগাইর ইউনিয়নের পশ্চিম গোলাবাড়ি গ্রাম থেকে বিদেশ ফেরত আবিদের ফাঁসিতে ঝুলানো লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

দুটি লাশই রোববার দুপুরে ময়নাতদন্তের জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল পাঠায় করে পুলিশ।

গফরগাঁও থানার ওসি অনুকুল সরকার ও পাগলা থানার ওসি রাশেদুজ্জামান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

স্থানীয় এলাকাবাসী ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, সাত্তারের ছেলে মাজহারকে কয়েকদিন আগে একটি ভ্যানগাড়ি ভাড়া দেন প্রতিবেশী জয়নালের ছেলে কাঞ্চন মিয়া। কিন্তু মাজহার ভ্যান গাড়িটি গোপনে বিক্রি করে বাড়ি থেকে পালিয়ে যান। এ নিয়ে ওই দুই প্রতিবেশীর মধ্যে ঝামেলা চলছিল। পরে শনিবার দিবাগত রাত ১টার দিকে বাড়ির কাছে সাত্তারের লাশ পড়ে থাকতে দেখে স্থানীয় লোকজন থানা-পুলিশকে খবর দেন।

অন্যদিকে শনিবার দিবাগত রাত ১টার দিকে স্ত্রীকে ঘুমে রেখে আবিদ বাইরে থেকে দরজায় আটকিয়ে বের হয়ে যান। পরে রোববার ভোরে বাড়ি থেকে প্রায় ৩০০ গজ দূরে একটি গাছে গলায় ফাঁস লাগানো আবিদের লাশ ঝুলতে দেখে স্বজনরা।

 news24bd.tv তৌহিদ

পরবর্তী খবর

ইমাম সঙ্গে গৃহবধূর অবৈধ সম্পর্ক, রাতভর বেঁধে রাখল গ্রামবাসী

অনলাইন ডেস্ক

ইমাম সঙ্গে গৃহবধূর অবৈধ সম্পর্ক, রাতভর বেঁধে রাখল গ্রামবাসী

পাবনার ভাঙ্গুড়া উপজেলার সদর ইউনিয়নের ভবানীপুর (ভাটোপাড়া) গ্রামে এলাকাবাসী এক ইমাম (২৮) ও গৃহবধূকে আটক করেছে। তাদের দাবি, ইমামকে ওই গৃহবধূর সঙ্গে গভীর রাতে পাওয়া যায়। গত রোববার দিবাগত রাত একটার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

আটক যুবক ওই গ্রামের মসজিদের ইমাম ও নারী মসজিদের পাশের এক আনসার সদস্যের স্ত্রী ও দুই সন্তানের জননী।

গ্রামবাসীর দুজনকে সারা রাত সড়কের পাশে বিদ্যুতের খুঁটিতে দড়ি দিয়ে একসঙ্গে বেঁধে রাখে। এ নিয়ে গ্রামের কিছু সচেতন মানুষ প্রতিবাদ করলে সকালে তাদের বাঁধন খুলে দেওয়া হয়। তবে দুজনকেই এলাকাবাসী তাদের হেফাজতে আটক রাখে। পরে পুলিশ এসে থানায় নিয়ে যায়। 

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, অবিবাহিত ইমামের বাড়ি পার্শ্ববর্তী চাটমোহর উপজেলার পার্শ্বডাঙ্গা গ্রামে। সে ভাঙ্গুড়া ও ফরিদপুর উপজেলার একাধিক মসজিদে ইমামতি করেছে। 

এর আগে সে ফরিদপুর উপজেলার বিএলবাড়ি গ্রামের একটি মসজিদে থাকার সময় একই অভিযোগে চাকরি হারায়। পরে ভাঙ্গুড়া উপজেলার ভবানীপুর গ্রামে এসে যোগদান করে। এরপর সে মসজিদের পাশের এক গৃহবধূর সঙ্গে পরকীয়ার সম্পর্ক গড়ে তোলে। ওই গৃহবধূর স্বামী একজন আনসার সদস্য ও ঢাকায় চাকরি করে।

এমতাবস্থায় ওই ইমাম রোববার রাতে ওই নারীর ঘরে প্রবেশ করলে একজন প্রতিবেশী টের পায়। তখন ওই ব্যক্তি পাড়ার অন্য মানুষকে ডেকে গৃহবধূর বাড়িতে প্রবেশ করে তাদের দুজনকে আটক করে সড়কের পাশের একটি বিদ্যুতের খুঁটির সঙ্গে দড়ি দিয়ে বেঁধে রাখে। 

সকালে সেখানে গ্রামবাসী জড়ো হলে অনেকেই ওই গৃহবধূকে দড়ি দিয়ে বেঁধে রাখার প্রতিবাদ করে। এতে তাদের দড়ির বাঁধন খুলে দিয়ে গৃহবধূকে এক বাড়িতে এবং ইমামকে মসজিদের ওজুখানায় আটকে রাখা হয়।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে ভবানীপুর গ্রামের ইউপি সদস্য আবদুল মাজেদ বলেন, এলাকার মানুষ অবৈধ মেলামেশার সময় মসজিদের ইমাম ও এক গৃহবধূকে আটক করে বেঁধে রেখেছিল। পরে আমিসহ গ্রামপ্রধানরা ঘটনাস্থলে এসে তাদের বাঁধন ছেড়ে দিয়ে একটি বাড়িতে আটকে রাখি। পুলিশকে খবর দেওয়া হয়েছে। এখন চেয়ারম্যান ও পুলিশ এসে আইনগত ব্যবস্থা নেবেন।

ভাঙ্গুড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ফয়সাল বিন আহসান বলেন, ঘটনাটি শুনে একজন অফিসার পাঠানো হয়েছে। অফিসার ফিরলে এর বিস্তারিত জানা যাবে। তবে এখন পর্যন্ত কোনো লিখিত অভিযোগ পাইনি।

আরও পড়ুন:


বাড়ানো হয়েছে লঞ্চ চলাচলের সময়

এবার পর্নোগ্রাফি শুটিংয়ের অভিযোগে অভিনেত্রী গ্রেপ্তার

সাকিবের সামনে রেকর্ড গড়ার হাতছানি, যেখানে তিনিই হবেন প্রথম

চিত্রনায়িকা একার বিরুদ্ধে হাতিরঝিল থানায় দুই মামলা


news24bd.tv / কামরুল 

পরবর্তী খবর

বড়াইগ্রামে পাঁচ বছরের শিশুকে ধর্ষণ, অভিযুক্ত আটক

নাটোর প্রতিনিধি

বড়াইগ্রামে পাঁচ বছরের শিশুকে ধর্ষণ, অভিযুক্ত আটক

নাটোরের বড়াইগ্রামে পাঁচ বছর বয়সের এক শিশুকে ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। আজ শনিবার সকালে উপজেলার বনপাড়া পৌরসভার গুণাইহাটি মধ্যপাড়া মহল্লায় এ ঘটনা ঘটে। 

এ ঘটনায় অভিযুক্ত আরিফুর রহমান জয় (১৯) কে আটক করেছে পুলিশ। আটক আরিফুর রহমান গুণাইহাটি মহল্লার আসলাম হোসেনের ছেলে। বনপাড়া পৌরসভার ওয়ার্ড কাউন্সিলর জিয়াউরর রহমান জানান, শনিবার সকালে শিশুটি বাড়ির বাইরে খেলা করছিল। 

এ সময় প্রতিবেশী যুবক আরিফুর রহমান জয় তাকে নিজের বাড়িতে ডেকে নিয়ে যায়। পরে বাড়িতে কেউ না থাকার সুযোগে সে শিশুটিকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। এ সময় মেয়েটির কান্না শুনে তার মা এগিয়ে এলে লম্পট জয় দৌড়ে পালিয়ে যায়। পরে শিশুটিকে রক্তাক্ত অবস্থায় স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।  

এ ব্যাপারে বনপাড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ ইন্সপেক্টর রাশিদুল ইসলাম বিষয়টির সত্যতা স্বীকার করে জানান, এলাকায় অভিযান চালিয়ে পুলিশ দুপুরে তাকে আটক করেছে। এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।

আরও পড়ুন:


দেশে একদিনে করোনায় মৃত্যু বাড়ল

দক্ষিণের পথে পথে ঢাকামুখি মানুষের স্রোত

বগুড়ায় করোনা ও উপসর্গে ৯ জনের মৃত্যু

বাংলাবান্ধা স্থলবন্দর ১২ দিন পর চালু


news24bd.tv / কামরুল 

পরবর্তী খবর