ঔষধের কথা বলে জুয়ার আসরে তারা, অতঃপর

অনলাইন ডেস্ক

ঔষধের কথা বলে জুয়ার আসরে তারা, অতঃপর

করোনা সংক্রমণ রোধে দেশব্যাপী চলা কঠোর বিধিনিষেধের সময় বাইরে বের হওয়ার কারণ হিসেবে পুলিশকে দুজন ব্যক্তি জানায়- ওষুধ কেনার জন্য বের হয়েছেন তারা। কিন্তু  দুজনের কথায় পুলিশের সন্দেহ হলে তাদের পিছু নেয় পুলিশ। শেষ পর্যন্ত দেখা যায় ওই দুই ব্যক্তি জুয়ার আসরে গিয়ে বসেছেন। পরে জুয়ার আসর থেকে ওই দুই ব্যক্তিসহ মোট আটজনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন- মো. মান্নান (২৭), মো. জাফর (৫৫), মো. করিম (৩২), মো. জাহাঙ্গীর হোসেন (৪০), তাজুল ইসলাম (৬০), মো. আলমগীর (৪৭), মো. কামাল (৩৮) ও মো. সুমন (২৯)।

সোমবার (৫ জুলাই) দিবাগত রাতে চট্টগ্রাম নগরের ডবলমুরিং থানার চৌমুহনী নাজিরপুল কলাবাগান এলাকায় ঘটেছে এ ঘটনা।

পুলিশ জানিয়েছে, রাতে থানা পুলিশের নিয়মিত টহল চলছিল। তখন দুই ব্যক্তিকে বাইরে বের হওয়ার কারণ জানতে চাইলে জানান- ওষুধ কিনতে বের হয়েছেন তারা। সন্দেহ হওয়ায় তাদের পিছু নিয়ে একটি জুয়ার আসর থেকে ওই দুজনসহ আটজনকে গ্রেপ্তার করা হয়। এ সময় জুয়া খেলার সরঞ্জাম, তাস ও নগদ তিন হাজার টাকা জব্দ করা হয়।

ডাবলমুরিং থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মহসিন গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন, গ্রেপ্তার আটজনকে সংশ্লিষ্ট ধারায় মামলা দায়ের করে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

প্রসঙ্গত, সারা দেশে লকডাউনের ছয় দিনে গ্রেপ্তার হয়েছেন ৩০০৮৫ জন। ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি) সূত্রে জানা গেছে, মঙ্গলবার ‘বিনা কারণে’ রাস্তায় বের হওয়ায় ৪৬৭ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। লকডাউনের পঞ্চম দিন সোমবার গ্রেপ্তারের সংখ্যা ছিল ৫০৯। ছয় দিনের লকডাউনে মোট গ্রেপ্তার হয়েছে ৩০ হাজার ৮৫ জন।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

প্রেমের প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় কিশোরীকে ধর্ষণ!

নিজস্ব প্রতিবেদক

 প্রেমের প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় কিশোরীকে ধর্ষণ!

নরসিংদীর রায়পুরা উপজেলার বাঁশগাড়ি ইউপির দিঘলিয়াকান্দি গ্রামের প্রেমের প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় এক কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। বুধবার (৪ আগস্ট) দুপুরে ওই কিশোরীর মা ২ জনকে আসামি করে রায়পুরা থানায় একটি মামলা করেন।

অভিযুক্তরা হলেন, রায়পুরা উপজেলার বাঁশগাড়ি ইউপির দিঘলিয়াকান্দি গ্রামের হযরত আলীর ছেলে সালামত উল্লাহ ওরফে সামছুল এবং জলিল মিয়ার ছেলে সাগর মিয়া।

কিশোরীর পরিবার সূত্রে জানা যায়, প্রেম প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় তাকে ২ জন মিলে ধর্ষণ করেছে।

মামলার বিবরণে জানা যায়, সাগর মিয়া দীর্ঘদিন ধরে ওই কিশোরীকে প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে আসছিল। আর তার প্রেমের প্রস্তাবে সাড়া না দেয়ায় কিশোরীর উপর ক্ষুব্ধ হয় সাগর। গত শনিবার রাতে ওই কিশোরীর বাড়িতে ওত পেতে থাকে সাগর ও সামছুল নামে এই দুই যুবক। পরে ঘরের বাইরে বের হলে ওই কিশোরীর টেনে প্রায় ২০০ গজ দূরে নিয়ে ধর্ষণ করে। এ সময় কিশোরীর চিৎকারে পরিবারের সদস্যরা ঘর থেকে বের হয়ে আসলে তারা পালিয়ে যায়।

রায়পুরা থানার এসআই দেব দুলাল দে জানান, ধর্ষণ মামলা হওয়ার পর ওই ভুক্তভোগীকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য নরসিংদী সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এরই মধ্যে মামলার প্রধান আসামি সালামত উল্লাহ ওরফে সামছুলকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। অন্য আসামিকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

আরও পড়ুন:


পাবনায় মেডিকেল ছাত্রীকে খালি সিরিঞ্জ পুশের অভিযোগ

হলি আর্টিজানের ঘটনায় সিনেমা, জাহান কাপুরের অভিষেক

দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতেও অস্ট্রেলিয়াকে হারালো টাইগাররা

রাজের বাসায় বিকৃত যৌনাচারের সরঞ্জামাদি,চলত পর্নোগ্রাফি (ভিডিও)


news24bd.tv / কামরুল 

পরবর্তী খবর

টেকনাফে র‌্যাব সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ রোহিঙ্গা যুবক নিহত

অনলাইন ডেস্ক

টেকনাফে র‌্যাব সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ রোহিঙ্গা যুবক নিহত

টেকনাফে র‌্যাব সঙ্গে কথিত 'বন্দুকযুদ্ধে' এক রোহিঙ্গা যুবক নিহত হয়েছেন। নিহত মো. নুরু মিয়া (৪০) জাদিমুড়া রোহিঙ্গা ক্যাম্পের ২৭ নং সি ব্লকের মৃত আবুল বাশারের ছেলে। 

টেকনাফ র‌্যাব ১৫ সিপিসি-১ মিডিয়া কর্মকর্তা এএসপি বিমান চন্দ কর্মকার জানান, বুধবার দিনগত রাতে ২৭ নং রোহিঙ্গা শিবিরে পাহাড়ের পাদদেশে ডাকাত দলের মধ্যে গোলাগুলি হচ্ছে- খবর পেয়ে অভিযানে যায় র‌্যাব। 

এ সময় ডাকাত দল র‌্যাবের উপস্থিত টের পেয়ে এলোপাতাড়ি  গুলি বর্ষণ করে। এতে র‌্যাবের দুই সদস্য আহত হন। পরে র‌্যাবও আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলি চালায়। 

তিনি জানান, ডাকাত দল পিছু হটলে ঘটনাস্থলে গিয়ে একটি বিদেশি পিস্তল, দুই রাউন্ড গুলিভর্তি ম্যাগজিনসহ তিনটি ওয়ান শুটার গান, দুটি তাজা কার্তুজ উদ্ধার করা হয়। সেখান থেকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় এক যুবকেকে উদ্ধার করে টেকনাফ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। 

টেকনাফ মডেল থানার ওসি মো. হাফিজুর রহমান জানান, নুরের বিরুদ্ধে টেকনাফ থানায় একাধিক ডাকাতির মামল রয়েছে।

আরও পড়ুন:


হলি আর্টিজানের ঘটনায় সিনেমা, জাহান কাপুরের অভিষেক

কাকরাইলে গ্যারেজের আগুন নিয়ন্ত্রণে

দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতেও অস্ট্রেলিয়াকে হারালো টাইগাররা

রাজের বাসায় বিকৃত যৌনাচারের সরঞ্জামাদি,চলত পর্নোগ্রাফি (ভিডিও)


news24bd.tv / কামরুল 

পরবর্তী খবর

অস্ত্র ও মাদকসহ পিয়াসার দুই সহযোগী মিশু হাসান ও জিসান গ্রেপ্তার

প্লাবন রহমান

মডেল পিয়াসার অন্যতম সহযোগী মিশু হাসানকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। রাজধানীর ভাটারা থানা এলাকা থেকে অস্ত্র ও মাদকসহ মিশু ও তার এক সহযোগীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। পরে সংবাদ সম্মেলনে র‌্যাব জানায়- রাজধানীর বিভিন্ন অভিজাত এলাকায় ডিজে পার্টির নামে মাদক বিক্রি ও সরবরাহ করতেন বিতর্কিত মডেল পিয়াসার সহযোগী মিশু হাসান। একইসঙ্গে-পার্টিতে থাকা ব্যক্তিদের কাছ থেকে টাকা-পয়সা হাতিয়ে নিতেনে। সব মিলিয়ে কয়েক বছরে বনে গেছেন কোটি কোটি টাকার মালিক। 

মডেল পিয়াসার অন্যতম সহযোগী ছিলেন মিশু হাসান। যিনি মাদক বিক্রি ও সরবরাহের মূল কারিগর। বিভিন্ন ডিজে পার্টির নামে মাদক বিক্রি করতেন মিশু। পার্টিতে থাকা ব্যাক্তিদের ফাঁদে ফেলে হাতিয়ে নিতেন টাকা-পয়সা। 

মাদকসহ অবৈধভাবে উপার্জিত কোটি কোটি টাকা দিয়ে বিদেশ থেকে দামি গাড়ী আনতেন মিশু। বিকেলে রাজধানীর ভাটারা থানা এলাকা থেকে অস্ত্র ও মাদকসহ মিশু হাসান ও তার সহযোগী জিসানকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। পরে বুধবার বিকেলে ‌র‌্যাব সদর দপ্তরে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এ বিষয়ে বিস্তারিত জানানো হয়।

গ্রেফতারকৃত মিশু গাড়ি আমদানির ক্ষেত্রে ট্যাক্স ফাঁকি দিতেন বলে জানানো হয় ব্রিফিং এ। বলেন - জিসান ও মিশুর প্রায় ৫০টির বেশি ক্লায়েন্ট রয়েছে। এছাড়াও দুবাইসহ বিদেশে তাদের ক্লায়েন্ট রয়েছে বলেও জানান র‌্যাবের মিডিয়া উইং এর পরিচালক খন্দকার আল মঈন।

আরও পড়ুন

আর্থিক সংকট মেটাতে বাড়ি ভাড়া দিচ্ছে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী

চিত্রনায়িকা পরীমণি আটক হচ্ছেন!

পরীমণির বাসায় অজ্ঞাত ব্যক্তিদের হামলার দাবি, আতঙ্কে নায়িকা


 

গ্রেফতার করার সময় একটি অস্ত্র, ছয় রাউন্ড গুলি, ১৩ হাজার ইয়াবা, একটি দামি গাড়ী, চেকবই এটিএম কার্ড ও ভারতীয় জাল মুদ্রা উদ্ধার করে র‌্যাব। গ্রেফতার হওযা মডেল পিয়াসা ও মৌয়ের সঙ্গে গ্রেফতার জিসান ও মিশুর সখ্য রয়েছে বলেও জানান এই র‌্যাব কর্মকর্তা।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

স্বামীর সহায়তায় হাত-মুখ ওড়না দিয়ে বেঁধে গৃহবধূকে গণধর্ষণ

আকবর হোসেন সোহাগ, নোয়াখালী

স্বামীর সহায়তায় হাত-মুখ ওড়না দিয়ে বেঁধে গৃহবধূকে গণধর্ষণ

নোয়াখালীর হাতিয়াতে স্বামীর সহায়তায় এক গৃহবধূকে (২৫) গণধর্ষণের ঘটনায় অভিযুক্ত চারজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

তারা হলো, নিঝুমদ্বীপ ইউনিয়নের জেলে কলোনীর আক্তার (২৭) একই ইউনিয়নের বান্দাখালী গ্রামের হক সাব (৩৪), মদিনা গ্রামের সোহেল প্রকাশ রোহিঙ্গা সোহেল (৩০), জেলে কলোনীর ছেলে রাশেদ মাঝি (৪২)।

বুধবার (৪ আগস্ট) সন্ধ্যা ৭টায় এসব তথ্য নিশ্চিত করেন হাতিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আনোয়ারুল ইসলাম।

তিনি আরও জানান, এ ঘটনায় নির্যাতিতা গৃহবধূ নারীও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করেছেন। ওই মামলায় আগামীকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে আটক আসামিদের গ্রেফতার দেখিয়ে বিচারিক আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হবে। 

মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে উপজেলার নিঝুমদ্বীপ ইউনিয়ন থেকে তাদের আটক করে নিঝুমদ্বীপ তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশ।

মামলা ও ভুক্তভোগী সূত্রে জানা যায়, নির্যাতিতা গৃহবধূ চট্টগ্রামের একটি গার্মেন্টস ফ্যাক্টরীতে কাজ করে। মঙ্গলবার (৩ আগস্ট) সন্ধ্যা ৭টার দিকে ১৬ মাস বয়সী শিশু কন্যাসহ তার স্বামী সোহেল ওরফে রোহিঙ্গা সোহেলের এর কাছে যাওয়ার জন্য তিনি হাতিয়ার নিঝুমদ্বীপ ঘাটে পৌঁছান। সেখানে তার স্বামী সোহেলসহ সঙ্গীয় ৭ জন এবং অজ্ঞাত ৩ জন ভিকটিমের হাত ও মুখ ওড়না দিয়ে বেঁধে নিঝুমদ্বীপ ইউনিয়নের ৮ নম্বর ওয়ার্ডের বান্দাখালী গ্রামের মোক্তারিয়া ঘাট থেকে ৫ কিলোমিটার পূর্ব দিকে নদীর পাড়ে নিয়ে যায়। সেখানে তার স্বামী আসামি সোহেলের সহায়তায় অন্যরা ভিকটিমকে পালাক্রমে ধর্ষণ করে।

আরও পড়ুন:

যতক্ষণ না পুলিশ আসবে, মিডিয়া আসবে লাইভ চলবে: পরীমনি

আবারও মুখোমুখি ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা

একসঙ্গে দুই ছেলে ও দুই মেয়ের জন্ম

দরজা খুলল পরীমনি

news24bd.tv তৌহিদ

পরবর্তী খবর

শিশু ছাত্রীকে ধর্ষণচেষ্টা: ইমাম আটক

অনলাইন ডেস্ক

শিশু ছাত্রীকে ধর্ষণচেষ্টা: ইমাম আটক

বাগেরহাটের চিতলমারীতে সাত বছরের ছাত্রীকে যৌন হয়রানি ও ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগে মাদরাসা শিক্ষক ও ইমাম আমিনুল ইসলামকে (৩৫) আটক করেছে পুলিশ। অভিযুক্ত আমিনুল ইসলাম চিতলমারী চিংগড়ী হাফিজিয়া মাদরাসার শিক্ষক ও চিংগডী জামে মসজিদের ইমাম।

চিংগুরি জামে মসজিদ কমিটির সাধারণ সম্পাদক লিয়াকত আলী জানান, প্রতিদিন সকালে ইমাম আমিনুল মসজিদ এলাকার আশেপাশের শিক্ষার্থীদের আরবী শিক্ষা দিতেন। গত রবিবার সকালে সুযোগ পেয়ে এলাকার জনৈক ব্যক্তির সাত বছরের শিশুকে তার ঘরে নিয়ে ধর্ষণচেষ্টা করেন। শিশুটি ঘটনাটি বাড়ি এসে তার মাকে খুলে। বিষয়টি জানাজানি হলে আজ বুধবার এলাকাবাসী ওই ইমাম ও মাদরাসা শিক্ষককে পুলিশে সোপর্দ করে।

আরও পড়ুন

জামিনে থাকা আসামিকে খুন!

প্রসূতিদের টিকা নিয়ে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নতুন তথ্য

আর্থিক সংকট মেটাতে বাড়ি ভাড়া দিচ্ছে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী

পরীমণির বাসায় অজ্ঞাত ব্যক্তিদের হামলার দাবি, আতঙ্কে নায়িকা

news24bd.tv/এমিজান্নাত

পরবর্তী খবর