বিআরটি কর্তৃপক্ষকে রাস্তা ও ফুটপাথ সচল রেখে কাজ করতে হবে : মেয়র আতিকুল

অনলাইন ডেস্ক

বিআরটি কর্তৃপক্ষকে রাস্তা ও ফুটপাথ সচল রেখে কাজ করতে হবে : মেয়র আতিকুল

বাস র্যাপিড ট্রানজিট-বিআরটি কিংবা মেট্রোরেল কর্তৃপক্ষেকে ডিএনসিসির সাথে সমন্বয় করে কমপ্লায়েন্স মেনে যথাযথভাবে কাজ করতে হবে বলে জানিয়েছেন  ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন(ডিএনসিসি) মেয়র  আতিকুল ইসলাম।

ডিএনসিসি মেয়র বলেন, বিআরটি কর্তৃপক্ষকে রাস্তা, ড্রেন ও ফুটপাথ সচল রেখে কাজ করতে হবে। জনগণের যাতে কোনো ধরনের ভোগান্তি না হয় সেজন্য নিয়মিত রাস্তা, ড্রেন ও ফুটপাথ পরিষ্কারের ব্যবস্থা করতে হবে।

৭ জুলাই বুধবার সকালে এয়ারপোর্ট রোড এবং দক্ষিণখান এলাকায় সরেজমিনে পরিদর্শনকালে ডিএনসিসি মেয়র একথা বলেন।

তিনি বলেন, বিআরটি কর্তৃপক্ষ কমপ্লায়েন্স মেনে কাজ না করায় এয়ারপোর্ট রোডসহ আশেপাশের এলাকায় পরিবেশ দূষণসহ বিভিন্ন ধরণের জনভোগান্তির সৃষ্টি করেছে।  বিআরটি কর্তৃপক্ষকে অবশ্যই জনকল্যাণে এয়ারপোর্টের সন্নিকটস্থ মহাসড়কে প্রতিবন্ধকতাবিহীন একটি ইউটার্নের সুব্যবস্থা রাখতে হবে।

তিনি আরও বলেন, ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন এলাকায় যেকোনো প্রকল্প গ্রহণের পূর্বেই সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে ডিএনসিসির সাথে বিস্তারিত আলোচনা করতে হবে এবং প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রে অনুমতি নিয়ে ডিএনসিসির সাথে সমন্বয় করে কাজ করতে হবে।

আতিকুল ইসলামের উপস্থিতিতে ৭ নম্বর অঞ্চলের ৫০ নং ওয়ার্ডের আজমপুর রেলগেট হতে কসাইবাড়ি সংলগ্ন এলাকায় অবৈধভাবে কাঠের গুড়ি রেখে রাস্তা ও ফুটপাথ দখল করে জনদূর্ভোগ সৃষ্টিকারী মালামাল জব্দ করে সেগুলো স্পট নিলামের ব্যবস্থা করা হয়। এসময় ৫টি জায়গায় জব্দকৃত মালামালগুলো আলাদাভাবে ৫টি স্পট নিলামে সর্বমোট ১১ লক্ষ ৩৭ হাজার টাকায় বিক্রি করে প্রাপ্ত অর্থ সরকারি কোষাগারে জমা করা হয়।

দক্ষিণখান এলাকা পরিদর্শনকালে ডিএনসিসি মেয়র এই এলাকার জলাবদ্ধতা নিরসনের জন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে নির্দেশনা প্রদান করেন।

উপস্থিত সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে মোঃ আতিকুল ইসলাম বলেন, করোনা ভাইরাসের বিস্তার রোধকল্পে সশরীরে কোরবানীর পশুর হাট এড়ানোর লক্ষ্যেই “ডিএনসিসি ডিজিটাল হাট-২০২১” এর ব্যবস্থা করা হয়েছে।

ডিএনসিসি মেয়র আরও বলেন, ডিএনসিসির নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় স্লটারিং হাউজে বিজ্ঞানসম্মত উপায়ে এবার ১ হাজার কোরবানির পশু জবাইয়ের ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। ২৫টি ফ্রিজার ভ্যানের মাধ্যমে কোরবানি করা গবাদি পশুর গোশত যথাযথভাবে পৌঁছানোর ব্যবস্থা করা হবে এবং “মানব সেবা” নামক একটি এনজিওকে চামড়া দিয়ে দেয়া হবে।

এসময় অন্যান্যের মধ্যে গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র এডভোকেট জাহাঙ্গীর আলম, ডিএনসিসির উর্ধ্বতন কর্মকর্তা এবং স্থানীয় কাউন্সিলরবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

অভিনয় ছেড়ে ইসলামের নিয়ম পালন করতে চাই : সানাই

অনলাইন ডেস্ক

অভিনয় ছেড়ে ইসলামের নিয়ম পালন করতে চাই : সানাই

সামাজিক মাধ্যমে আপত্তিকরভাবে নিজেকে উপস্থাপন করে বার বার মুখোমুখি হয়েছেন সমালোচনার।বেশ কয়েক বছর নাটক ও সিনেমায় অভিনয় করেছেন তিনি। তবে ক্যারিয়ারে সুবিধাজনক অবস্থানে যেতে পারেননি তিনি। তাইতো আলেচিত সমালোচিত মডেল ও অভিনেত্রী সানাই মাহবুব সুপ্রভা এবার ঘোষনা দিলেন অভিনয় ছাড়ার।

একই সঙ্গে ইসলামের পথে নিজের বাকি জীবন অতিবাহিত করারও কথা এক ভিডিওবার্তায় জানিয়েছেন তিনি। যেখানে তাকে হিজাব পরে উপস্থিত হতে দেখা গেছে।

সানাই বলেন, ‘ইসলামের ছায়া তলে থেকে শান্তি খুঁজে পেতে চাই। নিজের ভুল বুঝতে পেয়েছি এবং অভিনয় জগত থেকে নিজেকে গুটিয়ে নিয়েছি। এ জগতে আর ফিরছি না। পুরোপুরি ইসলামের নিয়ম পালন করতে চাই। ইচ্ছে আছে খুব শিগগিরই হজে যাওয়ার, বাকিটা মহান আল্লাহর ইচ্ছে। ’

আরও পড়ুনঃ


দ. কোরিয়ার কোন গালিও দেয়া চলবে না উত্তর কোরিয়ায়

তালেবানের হাত থেকে ২৪ জেলা পুনরুদ্ধারের দাবি

কাছাকাছি আসা ঠেকাতে টোকিও অলিম্পিকে বিশেষ ব্যবস্থা


একই সঙ্গে ইসলামের পথে যাতে তিনি চলতে পারেন, সেজন্য সবার কাছে দোয়াও চেয়েছেন। কারো কাছে তার ছবি থাকলে সেগুলো সরিয়ে ফেলারও অনুরোধ এই অভিনেত্রীর।

সিনেমার নায়িকা হওয়ার স্বপ্ন নিয়ে ঢালিউডে পা রেখেছিলেন সানাই। কিন্তু সেই পথচলা ছন্দ মিলিয়ে ধারাবাহিক করতে পারেননি। অল্প সময়ের ফাঁকে কিছু সিনেমায় তিনি শুটিং করেছিলেন।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

মাছের ড্রামে ১০জন মানুষ!

অনলাইন ডেস্ক

মাছের ড্রামে ১০জন মানুষ!

করোনা সংক্রমণ রোধে আজ থেকে ১৪ দিনের কঠোর লকডাউন চলছে সারাদেশে। এই লকডাউনে বন্ধ আছে সব ধরণের যাবনবাহন। ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টে দেখা গেছে চেকপোস্ট। কঠোর লকডাউন বাস্তবায়নে গাজীপুরে সেনাবাহিনী, বিজিবি, র‌্যাব ও পুলিশের টহল ছিল চোখে পড়ার মতো। এছাড়াও রয়েছে জেলা প্রশাসনের ভ্রাম্যমাণ আদালত।

কিন্তু এর মধ্যে প্রশাসন ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর চোখ ফাঁকি দিতে ট্রাকে মাছের ড্রামের ভেতরে বসে বাড়ি যাচ্ছিলেন কয়েকজন যাত্রী। ট্রাকটি ঢাকা থেকে গাজীপুরের রাজেন্দ্রপুর এলাকায় পৌঁছালে পুলিশ সেটি তল্লাশি করে। এসময় ১০ জনকে মাছের ড্রামের ভেতরে দেখতে পায় পুলিশ।

আরও পড়ুনঃ


দ. কোরিয়ার কোন গালিও দেয়া চলবে না উত্তর কোরিয়ায়

তালেবানের হাত থেকে ২৪ জেলা পুনরুদ্ধারের দাবি

কাছাকাছি আসা ঠেকাতে টোকিও অলিম্পিকে বিশেষ ব্যবস্থা


 

শুক্রবার দুপুরে রাজেন্দ্রপুর চৌরাস্তায় গাজীপুর মহানগর পুলিশের চেকপোস্টে ওই ট্রাকে তল্লাশি চালানো হয়।

গাজীপুর মেট্টোপলিটন পুলিশের সদর জোনের সহকারী কমিশনার (এসি) বেলাল হোসেন জানান, ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের রাজেন্দ্রপুর চৌরাস্তায় পুলিশ চেকপোস্ট বসিয়ে বিভিন্ন গাড়িতে তল্লাশি চালাচ্ছিল। এসময় ঢাকা থেকে ময়মনসিংহগামী একটি মাছবাহী ট্রাক দেখে সন্দেহ হলে চেকপোস্টে থামিয়ে তল্লাশি করা হয়। এ সময় মাছের ড্রামের ভেতর থেকে ১০ জনকে আটক করে পুলিশ। পরে তাদের ছেড়ে দেওয়া হয়। ট্রাকচালকের বিরুদ্ধে ট্রাফিক আইনে ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

নামাজরত অবস্থায় বিনাবেতনে খেদমত করা ইমামের মৃত্যু

অনলাইন ডেস্ক

নামাজরত অবস্থায় বিনাবেতনে খেদমত করা ইমামের মৃত্যু

নামাজরত অবস্থায় মিরাশ উদ্দিন (৭০) নামের এক ইমামের মৃত্যু হয়েছে। শুক্রবার ময়মনসিংহের ফুলপুর উপজেলার বালিয়া ইউনিয়নের কাইচাপুর গ্রামে শাহ সাব্দী দরগাবাড়ি জামে মসজিদে এ ঘটনা ঘটে।

মিরাশ উদ্দিন  কাইচাপুর সিনিয়র আলিম মাদরাসার সাবেক নৈশপ্রহরী ও মাদরাসার মসজিদের মুয়াজ্জিন ছিলেন। ১০ বছর আগে অবসরে যাওয়ার পর কিছুদিন ঢাকায় ইমামতি ও শিক্ষকতা করেন। এরপর গত ৭ বছর ধরে দরগাবাড়ি মসজিদে বিনাবেতনে খেদমত আঞ্জাম দিয়ে আসছিলেন।

তার কলেজ পড়ুয়া ছেলে সালাহ উদ্দিন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, এক ছেলে ও দুই মেয়ে রেখে গেছেন।

ইমামের শ্যালক কাইচাপুর মাদরাসার হিসাব রক্ষক এরশাদ খান বলেন, ‘তিনি (ইমাম) সুস্থ ছিলেন। আমার পাশেই এসে দাঁড়িয়ে ক্বাবলাল জুমা শুরু করেন। নামাজের দ্বিতীয় রাকাতেই হঠাৎ তিনি ঢলে পড়েন এবং ঘটনাস্থলেই মৃত্যুবরণ করেন।’ 

আরও পড়ুনঃ


দ. কোরিয়ার কোন গালিও দেয়া চলবে না উত্তর কোরিয়ায়

তালেবানের হাত থেকে ২৪ জেলা পুনরুদ্ধারের দাবি

কাছাকাছি আসা ঠেকাতে টোকিও অলিম্পিকে বিশেষ ব্যবস্থা


 

মসজিদের সভাপতি দুলাল হোসেন খান বলেন, ‘হুজুর অত্যন্ত সৎ ও আদর্শ ব্যক্তি ছিলেন। তিনি নিঃস্বার্থভাবে আমাদের মসজিদে ইমামতি করতেন। 

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

‘স্ত্রীর মর্যাদা না পেলে এখান থেকে আমার লাশ যাবে’

অনলাইন ডেস্ক

‘স্ত্রীর মর্যাদা না পেলে এখান থেকে আমার লাশ যাবে’

২৫ বছর বয়সী এক তরুণী ১৩ দিন যাবত স্ত্রীর মর্যাদার দাবিতে  মাসুদ রানা নামের এক যুবকের বাড়িতে অবস্থান নিয়েছেন। তরুণীর সাথে যুবকের তিন মাসের সংসার ছিলো জানিয়ে তরুণী বলেন, আমাদের দেড় বছর প্রেম ও বিয়ের পর তিন মাস সংসার ভালোই চলছিল ঢাকায়। হঠাৎ কয়েকদিন আগে কথা কাটাকাটির একপর্যায়ে আমাকে মারধর করে, বাসা ছেড়ে চলে যায় মাসুদ। সব রকমের যোগাযোগ বন্ধ করে দেয় আমার সঙ্গে। ভাড়া বাসার মালিক মারধরের ঘটনায় ভয় পেয়ে আমাকে বাসা ছেড়ে দিতে বলেন। বাসা ছেড়ে দেওয়ার পর উপায় না পেয়ে স্বামীর বাড়িতে এসে অবস্থান নিয়েছি। আমি স্ত্রীর মর্যাদা না পেলে এখান থেকে আমার লাশ যাবে।

১৩ দিন ধরে ঠাকুরগাঁওয়ের বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার আমজানখোর ইউনিয়নের চড়ুইগদি গ্রামের মাসুদ রানার বাড়িতে অবস্থান নিয়েছে তরুণী। তবে ১৩ দিন পেরিয়ে গেলেও ওই যুবকের দেখা পাননি তিনি। 

শুক্রবার ওই তরুণী সাংবাদিকদের অভিযোগ করে বলেন, তার আসার খবরে শ্বশুরবাড়ির লোকজন মাসুদকে লুকিয়ে রেখেছেন। যদিও মাসুদের পরিবারের লোকজন বলছেন, ঢাকায় ছেলে একটি বেসরকারি কোম্পানিতে কর্মরত। সেখান থেকে ঈদের ছুটিতে বাড়ি ফেরার কথা থাকলেও আজ শুক্রবার দুপুর পর্যন্ত ফেরেনি। 

তরুণী সাংবাদিকদের আরও বলেন, ‘আমার পরিবারকে ভুল বুঝিয়ে রাজশাহীর এক প্রতারক আমাকে বিয়ে করলে, পরে জানতে পারি যে বাড়িতে আরেকটা স্ত্রী রয়েছে তার। এরপরে তার সংসারে যাইনি। ঢাকায় বোনের বাসায় থেকে একটি বিউট পার্লারে কর্মরত থাকাকালীন সময়ে মাসুদের সঙ্গে পরিচয় হয় আমার। পরে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠলে, রাজশাহীর প্রতাকরকে তালাক দিয়ে ১৬ এপ্রিল আমরা বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হই।’
তরুণী বলেন, দেড় বছর প্রেম ও বিয়ের পর তিন মাস সংসার ভালোই চলছিল ঢাকায়। হঠাৎ কয়েকদিন আগে কথা কাটাকাটির একপর্যায়ে আমাকে মারধর করে, বাসা ছেড়ে চলে যায় মাসুদ। সব রকমের যোগাযোগ বন্ধ করে দেয় আমার সঙ্গে। ভাড়া বাসার মালিক মারধরের ঘটনায় ভয় পেয়ে আমাকে বাসা ছেড়ে দিতে বলেন। বাসা ছেড়ে দেওয়ার পর উপায় না পেয়ে স্বামীর বাড়িতে এসে অবস্থান নিয়েছি। আমি স্ত্রীর মর্যাদা না পেলে এখান থেকে আমার লাশ যাবে।

এই বাড়িতে কোনো সমস্যা হচ্ছে কি না জানতে চাইলে তিনি বলেন, স্থানীয় কয়েকজনকে দিয়ে বাড়ি থেকে বের করে দেওয়ার অসংখ্যাবার চেষ্টা করেছে। আমি বের হইনি। চর থাপ্পড়ও মেরেছে। আমার স্বামী না আসা পর্যন্ত এখানে যদি মরতে হয়, মরব। ফিরে গেলে আমার মরদেহ যাবে। আমি যাব না।

আরও পড়ুনঃ


দ. কোরিয়ার কোন গালিও দেয়া চলবে না উত্তর কোরিয়ায়

তালেবানের হাত থেকে ২৪ জেলা পুনরুদ্ধারের দাবি

কাছাকাছি আসা ঠেকাতে টোকিও অলিম্পিকে বিশেষ ব্যবস্থা


 

মাসুদের বাবা মোহাম্মদ আলী জানান, মেয়েটি এসে আমার ছেলের বউ হিসেবে নিজেকে দাবি করছে। বিবাহের কাগজপত্র সঙ্গে নিয়ে এসেছে।কাগজপত্র দেখে মনে হচ্ছে, বিয়ে করেছে আমার ছেলে। তবে ঢাকা থেকে মাসুদ না ফেরা পর্যন্ত কিছু বলা যাচ্ছে না।

স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান মো. আকালু (ডংগা) জানান, মাসুদের বাবাকে বলা হয়েছে দ্রুত সময়ে মাসুদকে বাসায় নিয়ে আসতে। ছেলে ফিরে এলে আগামী ২৫ জুলাই দুই পরিবারকে নিয়ে বসা হবে।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

রূপগঞ্জে ঈদ সামগ্রী ও কোরবানীর গরুর গোস্ত বিতরণ বসুন্ধরা ও রংধনু গ্রুপের

অনলাইন ডেস্ক

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জের কায়েতপাড়া ইউনিয়নসহ উপজেলার ১০ হাজার হত-দরিদ্র পরিবারের মাঝে ঈদ খাদ্য সামগ্রী ও কোরবানীর গরুর গোস্ত বিতরণ করেছে বসুন্ধরা ও রংধনু গ্রুপ।

বৃহস্পতিবার দিন ব্যাপি উপজেলার নাওড়া এলাকায় কোরবানির মাংস বিতরণ করা হয়। এর আগে ১০ হাজার পরিবারের মাঝে চাল, পোলাউয়ের  চাল, ডাল, তেল, সিমাই, চিনিসহ ঈদ খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করা হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন রংধনু গ্রুপ ও কায়েতপাড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব রফিকুল ইসলাম রফিক। 

আরও পড়ুন:

আনন্দ ভ্রমণে গিয়ে মাদরাসাছাত্রের মৃত্যু

রাস্তায় ফেলে চলে যাওয়া চামড়াগুলোতে পচন ধরে দুর্গন্ধ ছড়াচ্ছে

মুনিয়ার মৃত্যুর সঙ্গে সায়েম সোবহান আনভীরের জড়িত থাকার প্রমাণ পায়নি পুলিশ


 

এ সময় উপস্থিত ছিলেন রংধনু গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক কাউসার আহাম্মেদ অপু, ভাইস চেয়ারম্যান মেহেদী হাসান দিপসহ  এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিরা।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর