দেশের প্রতিটি অর্জন আওয়ামী লীগের হাত ধরেই হয়েছে: ওবায়দুল কাদের

নিজস্ব প্রতিবেদক

দেশের প্রতিটি অর্জন আওয়ামী লীগের হাত ধরেই হয়েছে: ওবায়দুল কাদের

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ হঠাৎ গজিয়ে উঠা কোনো ভূঁইফোড় রাজনৈতিক সংগঠন নয়, দেশের প্রতিটি অর্জন আওয়ামী লীগের হাত ধরেই হয়েছে। 

বৃহস্পতিবার (৮ জুলাই) সকালে তাঁর সরকারি বাসভবনে নিয়মিত ব্রিফিংকালে একথা বলেন তিনি। 

ওবায়দুল কাদের বলেন, এদেশের মাটির অনেক গভীরে আওয়ামী লীগের শেকড়, শুধু ভৌগোলিক স্বাধীনতাই নয়, অর্থনৈতিক মুক্তিও এসেছে আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে। মাটি ও মানুষের হৃদয়ের গভীরে আওয়ামী লীগের স্থান। আওয়ামী লীগকে নিয়ে অতীতে অনেক ষড়যন্ত্র হয়েছে কিন্তু কোন লাভ হয়নি উল্টো এই রাজনৈতিক দলটি ফিনিক্স পাখির মতো জেগে উঠেছে। 

বাংলাদেশ রাষ্ট্রের অস্তিত্বের সাথে আওয়ামী লীগের সম্পর্ক, এ সম্পর্ক চিরকালের,ইচ্ছে করলেই কেউ তা মুছে ফেলতে পারবে না উল্লেখ করে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, যরা আওয়ামী লীগকে নিশ্চিহ্ন করার ষড়যন্ত্র করেছিলো বরং তারাই নিশ্চিহ্ন হয়েছে, জনগণ তাদেরকেই ইতিহাসের কাঠগড়ায় দাঁড় করিয়েছে। আন্দোলন, সংগ্রাম, ত্যাগ আর মানুষের ভালোবাসায় আওয়ামী লীগ আজ মহীরূহে রূপান্তরিত একটি প্রতিষ্ঠান। 

ওবায়দুল কাদের আরও বলেন, শেখ হাসিনার নেতৃত্বে অদম্য গতিতে এগিয়ে যাওয়া আওয়ামী লীগকে যারা জনবিচ্ছিন্ন মনে করে, তারা নিজেরাই এখন জনবিচ্ছিন্ন ও জননিন্দিত। তাদের রাজনীতি আজ অস্তিত্ব সংকটে বলেও দাবি এই রাজনীতিবিদের। 

করোনাকালে এখন রাজনীতি হচ্ছে অসহায়, খেটে খাওয়া মানুষের পাশে দাঁড়ানো, আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবিষয়ে দুঃখ প্রকাশ করে বলেন, বিএনপি এই দুঃসময়েও মানুষের পাশে না দাঁড়িয়ে সরকারের বিরুদ্ধে বিষোদগার করে যাচ্ছে। বিএনপির রাজনীতি জনমানুষের জন্য নয়। তাদের রাজনীতিতে ত্যাগের কোনো মহিমা নেই, আছে শুধু ভোগের উগ্র বাসনা।

ওবায়দুল কাদের বিএনপি নেতাদের উদ্দেশে বলেন, বাংলাদেশের স্বাধীনতার ইতিহাস বিকৃতির জনক বিএনপি, আওয়ামী লীগ নয়। তিনি প্রশ্ন রেখে বলেন, কারা মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে ভূলন্ঠিত করতে চায়, কারা স্বাধীনতা বিরোধীদের গাড়িতে পতাকা তুলে দিয়েছিলো, এখনও কারা স্বাধীনতা বিরোধীদের পৃষ্ঠপোষকতা দিয়ে যাচ্ছে তা দেশবাসি জানে?

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক আবারও বিএনপি নেতাদের স্মরণ করিয়ে দিয়ে বলেন, স্বাধীনতার ঘোষক আর ঘোষণার পাঠক এক নয়, এ সত্যটা বিএনপিকে অনুধাবন করতে হবে। আওয়ামী লীগ নাকি নিশ্চিহ্ন হয়ে যাবে, বিএনপি নেতাদের এমন বক্তব্যের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, এটা বিএনপি নেতাদের এক ধরনের ভ্রান্তিবিলাস, এ ভাবনা দেশের ইতিহাসের সবচেয়ে ব্যর্থ বিরোধী দলের নেতাদের আত্মতুষ্টি লাভের সস্তা খোরাক মাত্র।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবর্ষ "মুজিববর্ষ" উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনা ও পরিকল্পনায় গৃহহীনদের জন্য বিনামূল্যে গৃহ নির্মাণ কর্মসূচি বাস্তবায়িত হচ্ছে। 

জাতির পিতার স্বপ্নের সোনার বাংলা তথা সমৃদ্ধ বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠার অগ্রসরমান সংগ্রামের অংশ হিসেবে প্রধানমন্ত্রী অর্থনৈতিকভাবে সমাজের পিছিয়ে পড়া মানুষের জীবন-মানোন্নয়নে সময়োপযোগী কর্মসূচি গ্রহণ করেছেন। যা বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা ও আওয়ামী লীগের উন্নয়ন নীতি থেকে উৎসারিত হয়েছে বলে জানান ওবায়দুল কাদের। 

টেকসই উন্নয়ন নিশ্চিতকরণে প্রধানমন্ত্রীর এসব উদ্যোগ ইতিহাসের একটি যুগান্তকারী পদক্ষেপ হিসেবে বিবেচিত হচ্ছে এবং বিশ্বব্যাপী ব্যাপক প্রশংসিত হয়েছে উল্লেখ করে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী বলেন, নাগরিকের মৌলিক অধিকার প্রতিষ্ঠায় সকলের জন্য বাসস্থানের ব্যবস্থা নিশ্চিত করতে ইতিমধ্যেই সরকার প্রায় এক কোটি বিশ হাজার গৃহহীন মানুষকে বাড়ি উপহার দিয়েছেন। 

প্রায় এক কোটি বিশ হাজার বাড়ির মধ্যে চব্বিশটি স্থানের নির্মাণ কাজের ত্রুটি গণমাধ্যমে উঠে এসেছে, যা বাস্তবায়িত প্রকল্পের ০.২৫ ভাগ জানিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, ত্রুটিপূর্ণ যে ০.২৫ ভাগ স্থাপনা চিহ্নিত হয়েছে তা সরকারি খরচে মেরামত এবং প্রয়োজনে পুননির্মাণ করা হবে।

আরও পড়ুন


গেল ২৪ ঘণ্টায় খুলনা বিভাগে মৃত্যু ও শনাক্ত কিছুটা কমেছে

বরিশালে রিমান্ডে নারীকে যৌন নির্যাতনের অভিযোগ, মেডিকেল টেস্টে প্রমাণ মেলেনি

বাবার সম্পত্তি

আমার দেখা আওয়ামী লীগের দুঃসময়ের সাহসী নেত্রী সাহারা আপা


ওবায়দুল কাদের বলেন, এসব গৃহ সরকারি খাস জমিতে নির্মিত হয়েছে এবং অনেক ক্ষেত্রে খাস ভূমিসহ তুলনামূলক নিচু স্থানে হওয়ায় স্থাপনাসমূহ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। তারপরও বিশাল কর্মযজ্ঞের হিসেবের খাতায় ক্ষুদ্র অংশে ত্রুটি দেখা দিলেও যারা এই ত্রুটির জন্য দায়ী এবং দায়িত্বে অবহেলা ও অনিয়মে জড়িত তাদের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে, কোন ছাড় দেওয়া হবে না।

ওবায়দুল কাদের আরো বলেন, ইতিমধ্যে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে এবং অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে। এই প্রকল্প প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার একটি মহৎ উদ্যোগ এবং গভীর আবেগ ও ভালোবাসার কর্মসূচি বলেও জানান ওবায়দুল কাদের। 

প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণা অনুযায়ী সকল গৃহহীন মানুষের জন্য গৃহনির্মাণ নিশ্চিত না হওয়া পর্যন্ত এ কর্মসূচি অব্যাহত থাকবে উল্লেখ করে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন কিন্তু সরকারের এ মহৎ কার্যক্রম যখন দেশে-বিদেশে প্রশংসিত হচ্ছে এবং প্রকল্প বাস্তবায়নের মধ্য দিয়ে দেশের বিরাট একটি জনগোষ্ঠীর অর্থনৈতিক অগ্রগতির পথে এগিয়ে যাচ্ছে, ঠিক তখন একটি মতলবি মহল বিষয়টি নিয়ে সমালোচনার নামে উদ্দেশ্য প্রণোদিত অপতৎপরতায় মেতে উঠেছে। পরিকল্পিতভাবে অপপ্রচার চালিয়ে জনমনে বিভ্রান্তি সৃষ্টির অপচেষ্টা চালানোর বিরুদ্ধে সকলকে সতর্ক থাকার আহ্বান জানান আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

news24bd.tv এসএম

পরবর্তী খবর

পরিবেশ রক্ষায় ঐক্যবদ্ধতা পৃথিবীকে বাঁচাবে : তথ্যমন্ত্রী

অনলাইন ডেস্ক

পরিবেশ রক্ষায় ঐক্যবদ্ধতা পৃথিবীকে বাঁচাবে :  তথ্যমন্ত্রী

পরিবেশ রক্ষায় ঐক্যবদ্ধতা পৃথিবীকে আরো বেশি দিন বাঁচিয়ে রাখতে সহায়ক হবে বলেছেন তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী এবং পরিবেশ গবেষক ড. হাছান মাহমুদ। 

শুক্রবার সন্ধ্যায় রাজধানীর র‍্যাডিসন ব্লু ওয়াটার গার্ডেনে রোটারি ইন্টারন্যাশনাল এবং ট্রিপল নাইন গ্লোবাল সংস্থা দু'টির যৌথ আয়োজনে ফ্রেন্ডস অভ আর্থ এবং মিস আর্থ বাংলাদেশ দু'টি পরিবেশবান্ধবতা সম্মাননা প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় একথা বলেন। 

তথ্যমন্ত্রী বলেন, মানব সম্প্রদায়ের একমাত্র ধারক এই পৃথিবী গ্রহকে বাঁচিয়ে রাখতে তার প্রকৃতি ও পরিবেশ রক্ষার বিকল্প নেই। এই কাজে প্রয়োজন সকলের সম্মিলিত উদ্যোগ। 

তিনি বলেন, উন্নয়নশীল বিশ্বে নারীরা সরাসরি প্রকৃতি ও পরিবেশের সাথে সম্পৃক্ত। পরিবেশের ক্ষতিতে তারা সরাসরি ক্ষতিগ্রস্ত হন। তাই এক্ষেত্রে নারীদের সচেতনভাবে এগিয়ে আসার  বিকল্প নেই। 

রোটারি ডিস্ট্রিক্ট গভর্নর মোতাসিম বিল্লাহ ফারুকীর সভাপতিত্বে মিস আর্থ বাংলাদেশ এর ন্যাশনাল ডিরেক্টর নায়লা বারী ও প্রধান উপদেষ্টা নোমান রবিনের সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন পরিবেশ গবেষক ড. এ আতিক রহমান। 


সিলেটে বাসার ছাদ থেকে আপন দুই বোনের মরদেহ উদ্ধার

ক্ষমতায় থাকছেন ট্রুডো, তবে গঠন করতে হবে সংখ্যালঘু সরকার

মিডিয়া ভুয়া খবর ছড়িয়েছে: বাপ্পী লাহিড়ি


অনুষ্ঠানে পাটের আঁশ থেকে পলিথিনের বিকল্প আবিস্কারক ড. মোবারক আহমেদ খান, প্রকৃতি ও জীবন সংগঠনের কর্ণধার আব্দুল মুকিত মজুমদার, আবদুল্লাহ আবু সাঈদ,   রোটারি ডিস্ট্রিক্ট গভর্নর মোতাসিম বিল্লাহ ফারুকী, পরিবেশরক্ষা সংগঠক নায়লা বারী এবং ড. এস আই খানকে ফ্রেন্ডস অভ নেচার এবং উম্মে জমিলাতুন নাইমাকে প্রথম মিস আর্থ বাংলাদেশ সম্মানে ভূষিত করেন অতিথি ও আয়োজকবৃন্দ। 

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

ইসিতে সরকারের একটা ‘শয়তান’ থাকলে সেখানে ফেরেস্তাও অসহায়!

অনলাইন ডেস্ক

ইসিতে সরকারের একটা ‘শয়তান’ থাকলে সেখানে ফেরেস্তাও অসহায়!

দেশে এখন প্রয়োজন একটাই দাবী শেখ হাসিনা সরকারের পতন। এটার মধ্যে অন্য কোনো মসলা না লাগানো ভালো বলে জানিয়েছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়।

শুক্রবার দুপুরে এক আলোচনা সভায় এই মন্তব্য করেন তিনি।ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি কার্যালয়ের মিলনায়তনে জাতীয়তাবাদী প্রজন্ম দলের উদ্যোগে ‘নির্দলীয় সরকারের অধীনে জাতীয় নির্বাচনের দাবি’ শীর্ষক এই আলোচনা সভা হয়।

নির্বাচন কমিশন পুনর্গঠন সম্পর্কে এই বিএনপি নেতা বলেন, নির্বাচন কমিশন। পাঁচটি ফেরেস্তা দিয়ে যদি একটা নির্বাচন কমিশন হয়। আর সরকারে যদি একটা ‘শয়তান’ থাকে তাহলে ফেরেস্তাও অসহায়, কিছু করার নাই। সুতরাং নির্বাচন কমিশন কী হবে না হবে- এই তর্কে সময় দেওয়ার প্রয়োজন নাই।

বিএনপির এই নেতা বলেন,দেশে এত সমস্যা, সব সমস্যা নিয়ে কথা না বলে যেই সমস্যা সমাধানের যে অন্তরায় তাকে যদি আমরা পদত্যাগ করাতে পারি, তাকে যদি রাষ্ট্রীয় ক্ষমতা থেকে সরাতে পারি, তাহলে জনগণই সব সমস্যা সমাধানের পথ তৈরি করবে। সুতরাং আমাদের সব চিন্তা-চেতনা-সামর্থ্য একত্রিত করে আমরা একদফায় থাকি। অন্য কোনো দাবি, অন্য কোনো দফা নয়।

সরকারপ্রধান শেখ হাসিনার উদ্দেশে তিনি বলেন, জোর করে ক্ষমতায় থাকা যায়, কিন্তু ক্ষমতা থেকে যাওয়ার পথটা যদি সুন্দর না হয় পরিণতি ভয়াবহ হয়। অনেক কিছু করছেন। আপনি যদি স্বেচ্ছায় পদত্যাগ করে আহ্বান করেন গণতন্ত্রের পথে একটি সুষ্ঠু নির্বাচনের, তাহলে আপনার বিরুদ্ধে খ্যাপা মানুষগুলো কিছু সময়ের জন্য হলেও শান্ত হবে। কারণ বাংলাদেশের মানুষ ক্ষমা করতে পারে, তারা খুব একটা এক্সট্রিম না।


সিলেটে বাসার ছাদ থেকে আপন দুই বোনের মরদেহ উদ্ধার

ক্ষমতায় থাকছেন ট্রুডো, তবে গঠন করতে হবে সংখ্যালঘু সরকার

মিডিয়া ভুয়া খবর ছড়িয়েছে: বাপ্পী লাহিড়ি


 

গয়েশ্বর বলেন, দীর্ঘ দিনের লড়াইয়ে যে কষ্ট আছে আমাদের সেটা যার জন্য লড়াই করছি, সেই কাজ যদি আপনি এগিয়ে দেন, তাহলে আমাদের রুষ্ট মনোভাবটা পরবর্তী পর্যায়ে প্রতিফলিত নাও হতে পারে। সেটাই হলো সবচেয়ে উত্তম পথ।

সংগঠনের সভাপতি জনি হোসেন সরকারের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য আবদুস সালাম, হাবিবুর রহমান হাবিব, ছাত্র দলের সদ্য কারামুক্ত ছাত্রদলের সাবেক নেতা ইসহাক সরকার, কৃষক দলের সাবেক নেতা রাকিকুল ইসলাম রিপন প্রমুখ নেতারা বক্তব্য দেন।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

দেশের উন্নয়নের স্বার্থে আবারও শেখ হাসিনাকে ক্ষমতায় আনতে হবে : বদিউল আলম

অনলাইন ডেস্ক

দেশের উন্নয়নের স্বার্থে আবারও শেখ হাসিনাকে ক্ষমতায় আনতে হবে : বদিউল আলম

দেশের উন্নয়নের স্বার্থে আবারও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে রাষ্ট্রক্ষমতায় আনতে হবে বলে জানিয়েছেন যুবলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মদ বদিউল আলম।  

শুক্রবার (২৪ সেপ্টেম্বর) দুপুরে ঝালকাঠি শহরের একটি কমিউনিটি সেন্টারে আয়োজিত জেলা যুবলীগের বর্ধিত সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি কথা বলেন।

বদিউল আলম বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রাষ্ট্রক্ষমতায় আছেন বলেই দেশে আজ ধারাবাহিক উন্নয়ন হচ্ছে। বিশ্বব্যাংকের মুখে চুনকালি দিয়ে দেশের নিজস্ব অর্থায়নে পদ্মা সেতু বাস্তবে রূপ দিয়েছেন বঙ্গবন্ধুর কন্যা শেখ হাসিনা। তাই দেশের উন্নয়নের স্বার্থে আবারও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে রাষ্ট্রক্ষমতায় আনতে হবে।  

প্রধানমন্ত্রীকে আবার রাষ্ট্রক্ষমতায় আনতে হলে সারা দেশের তৃণমূলের যুবলীগকে আরও শক্তিশালী, সুশৃঙ্খল, নেতৃত্ব সৃষ্টি ও সুসংগঠিত হতে হবে বলেও জানান তিনি।   

যুবলীগের এই নেতা বলেন, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ এখন মানবিক যুবলীগ। করোনাকালীন প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে যুবলীগের চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস পরশ ও সাধারণ সম্পাদক মো. মাইনুল হোসেন খান নিখিলের তদারকিতে দেশের অসহায়দের মাঝে ত্রাণ সহায়তা, চিকিৎসাসেবা, করোনা সুরক্ষা সামগ্রী বিতরণ করেছে যুবলীগ। পাশাপাশি বৃক্ষরোপণ, প্রান্তিক কৃষক পরিবারের ধান কাটাসহ নানামুখী সামাজিক কার্যক্রম বাস্তবায়ন করছে।  


সিলেটে বাসার ছাদ থেকে আপন দুই বোনের মরদেহ উদ্ধার

ক্ষমতায় থাকছেন ট্রুডো, তবে গঠন করতে হবে সংখ্যালঘু সরকার

মিডিয়া ভুয়া খবর ছড়িয়েছে: বাপ্পী লাহিড়ি


ঝালকাঠি জেলা যুবলীগের আহ্বায়ক রেজাউল করিম জাকিরের সভাপতিত্বে এবং সদস্য মো. কামাল শরীফের সঞ্চালনায় বর্ধিত সভায় আরও বক্তব্য দেন যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক কাজী মো. মাজহারুল ইসলাম, যুবলীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য মানিক লাল ঘোষ, সাইদুর রহমান জুয়েল, মো. তানিন তালুকদার প্রমুখ। যুবলীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য ইমরান হোসেন মিয়াসহ জেলা যুবলীগ ও চার উপজেলার নেতারা অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন।  

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

সরকার-প্রশাসনের চারদিকে দুর্নীতির চোরাবালি তৈরি হয়েছে: ইনু

অনলাইন ডেস্ক

সরকার-প্রশাসনের চারদিকে দুর্নীতির চোরাবালি তৈরি হয়েছে: ইনু

শুধু বাইরের শত্রুই নয়, ঘরের শত্রু ঘরকাটা ইঁদুর-উইপোকাদের মোকাবিলায় প্রধানমন্ত্রীকে সতর্ক হতে বলেছেন জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জাসদ) সভাপতি হাসানুল হক ইনু।

তিনি বলেন, শত্রুদের ষড়যন্ত্র এবং বন্ধুদের সমালোচনার পার্থক্য সরকার ও প্রধানমন্ত্রীকে বুঝতে হবে।

আজ রাজধানীর বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ে শহীদ কর্নেল তাহের মিলনায়তনে এক অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন তিনি। জাসদের জাতীয় কমিটি দুই দিনব্যাপী এক সভার আয়োজন করে। সভায়  তিনি সভাপতিত্ব করেন।

ইনু বলেন, একদিকে বিএনপি তাদের পুরাতন সঙ্গী জামায়াত জঙ্গিদের সঙ্গে নিয়ে অসাংবিধানিক সরকার আনার অস্বাভাবিক রাজনীতির পথে থেকেই নতুন করে জল ঘোলা করা শুরু করেছে। সরকার প্রশাসনিক ও আইনগতভাবে জঙ্গিদের কাবু করলেও জঙ্গিদের বিরুদ্ধে সর্বব্যাপী রাজনৈতিক লড়াইয়ের ঘাটতির কারণে জঙ্গিবাদের উৎপাদন ও পুনরুৎপাদন অব্যাহত রয়েছে। জঙ্গিবাদীরা বাংলাদেশ রাষ্ট্র-সংবিধান-মুক্তিযুদ্ধকে চ্যালেঞ্জ করছে। 

জাসদ সভাপতি বলেন, সরকার-প্রশাসনের চারদিকে দুর্নীতির চোরাবালি তৈরি হয়েছে। দুর্নীতির সিন্ডিকেট সরকারকে ঘিরে ফেলছে। গুন্ডাতন্ত্রের দাপট চলছে। জাতীয় অর্থনীতির সক্ষমতা বৃদ্ধি এবং এত উন্নয়নের পরও নীতি-কাঠামোগত দুর্বলতা এবং মুক্তবাজার অর্থনীতির মোহ থেকে বের হতে না পারায় সামাজিক-অর্থনৈতিক বৈষম্য ভয়ংকরভাবে বেড়েই চলেছে।

আরও পড়ুন:


ফুটবলে ক্যারিশমা দেখিয়ে অষ্টমবারের মতো গিনেস বুকে বাংলাদেশের ফয়সাল

ইসরায়েলের আয়রন ডোমের জন্য ১০০ কোটি ডলার দেবে যুক্তরাষ্ট্র

বিশ্বব্যাপী স্থিতিশীল খাদ্য ব্যবস্থা গড়ে তোলার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

সাত ঘণ্টা বৈঠক শেষ যা বললেন মির্জা ফখরুল!


এ সময় জঙ্গিবাদ-দুর্নীতির সিন্ডিকেট-গুন্ডাতন্ত্র-বৈষম্য মোকাবিলায় সব গণতান্ত্রিক রাজনৈতিক শক্তিকে ঐক্যবদ্ধ রাজনৈতিক অবস্থান গ্রহণ করার আহ্বান জানান ইনু।

সভায় দলের সাধারণ সম্পাদক শিরীন আখতার, কার্যকরী সভাপতি অ্যাডভোকেট রবিউল আলম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

প্রধানমন্ত্রীর জাতিসংঘ সফর নিয়ে রিজভীর সমালোচনা

অনলাইন ডেস্ক

প্রধানমন্ত্রীর জাতিসংঘ সফর নিয়ে রিজভীর সমালোচনা

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জাতিসংঘ সফর নিয়ে কড়া সমালোচনা করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। 

তিনি বলেন, জাতিসংঘে আপনি (প্রধানমন্ত্রী) রোহিঙ্গাদের কথা বলেন না। তাহলে আপনি সেখানে কিসের কথা বলতে গেছেন? দেশের স্বার্থে জনগণের স্বার্থে আজকে দেশের যে সঙ্কট রোহিঙ্গাদের নিজ দেশে ফিরিয়ে দেওয়ার জন্য যে উদ্যোগ থাকার দরকার ছিল, যে কূটনৈতিক তৎপরতা থাকার দরকার ছিল সেই কূটনৈতিক তৎপরতা আপনি দেখাতে পারেননি। আপনি চারিদিক থেকে ব্যর্থ।

আজ দুপুরে রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক স্মরণ সভায় এসব কথা বলেন তিনি। ছাত্রদল নেতা প্রয়াত নিশতাক আহমেদ রাখীর স্মরণে রাজশাহী ইউনিভার্সিটি ন্যাশনালিস্ট এক্স স্টুডেন্ট’স অ্যাসোসিয়েশন (রুনেসা) শোক সভা ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করে।

আরও পড়ুন:


ফুটবলে ক্যারিশমা দেখিয়ে অষ্টমবারের মতো গিনেস বুকে বাংলাদেশের ফয়সাল

ইসরায়েলের আয়রন ডোমের জন্য ১০০ কোটি ডলার দেবে যুক্তরাষ্ট্র

বিশ্বব্যাপী স্থিতিশীল খাদ্য ব্যবস্থা গড়ে তোলার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

সাত ঘণ্টা বৈঠক শেষ যা বললেন মির্জা ফখরুল!


সরকার ভীতি ও শঙ্কা থেকেই করোনার অজুহাতে দীর্ঘদিন দেশের সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে রেখেছিল বলে মন্তব্য করে রিজভী বলেন, আপনারা বিশ্ববিদ্যালয় প্রায় দুই বছর বন্ধ রাখলেন সেই সঙ্গে স্কুল কলেজ ও বন্ধ রাখলেন। এখন ৫ অক্টোবর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় তারা নাকি খুলবেন এবং ২৭ সেপ্টেম্বরের মধ্যে সবাইকে নাকি টিকা নিতে হবে এবং টিকা কার্ড নিয়ে সবাইকে নাকি যেতে হবে। তারপর বলছেন, সমস্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান নজরদারিতে থাকবে। কি চলছে দেশে? শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান নজরদারিতে থাকবে কেন? তাহলে এতদিন আপনারা যে করোনার অজুহাতে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখলেন এইটা তাহলে রাজনৈতিক উদ্দেশে। এইটা করোনার বিষয় নয়, একধরনের ভীতি থেকে, এক ধরনের শঙ্কা থেকে। কারণ আপনার মনের মধ্যে দুর্বলতা, আপনি নিশিরাতের প্রধানমন্ত্রী। আপনার সরকার নিশিরাতের। পুলিশ-র‌্যাব দিয়ে আপনি দেশ চালাচ্ছেন। এজন্যই আপনারা আতঙ্কিত যে কখন কী হয়ে যায়।

সংগঠনের সভাপতি অধ্যক্ষ বাহাউদ্দিন বাহারের সভাপতিত্বে দোয়া মাহফিলে বিএনপির সহসাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল খালেক, ওলামা দলের আহ্বায়ক শাহ মো. নেছারুল হক, আমিনুল ইসলাম, মৎসজীবী দলের সদস্য সচিব আব্দুর রহিম প্রমুখ বক্তব্য দেন।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর