বগুড়ায় করোনা ও উপসর্গে ১৫ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ১৭০
বগুড়ায় করোনা ও উপসর্গে ১৫ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ১৭০

বগুড়ায় করোনা ও উপসর্গে ১৫ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ১৭০

Other

বগুড়ায় করোনায় আরও ১৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে আক্রান্ত হয়ে ৯ জন এবং উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন আরও ৬ জন। বৃহস্পতিবার সকাল ৮টা থেকে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টায় তাদের মৃত্যু হয়। করোনায় মারা যাওয়া নয়জনের বাড়িই বগুড়ায়।

তারা হলেন- সদরের আব্দুল হাকিম(৪৯), শেরপুরের নাজমা(৬৭), আদমদীঘির শামসুননাহার (৫৫) ও বেদেনা (৪০), নন্দীগ্রামের আব্দুল জব্বার (৭০), কাহালুর মুসলেমা (৪৫), শাজাহানপুরের তানিয়া (২৫), দুপচাঁচিয়ার আগর আলী (৫৫) এবং সদরের ঠেঙামারা এলাকার বাদশা মিয়া (৬২)। এদের মধ্যে হাকিম, নাজমা, শামসুন নাহার ও বেদেনা সরকারি মোহাম্মদ আলী হাসপাতালে, জব্বার, মুসলেমা ও তানিয়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতালে এবং আগর ও বাদশা মিয়া টিএমএসএস হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান।

বগুড়ার সিভিল সার্জন অফিসের মেডিকেল অফিসার ডা. সাজ্জাদ-উল-হক শুক্রবার সকালে অনলাইন ব্রিফিংয়ে জানান, করোনায় জেলায় নতুন করে আরও ১৭০ জন আক্রান্ত হয়েছেন। অন্যদিকে বগুড়া মোহাম্মদ আলী হাসপাতাল ও শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ করোনা উপসর্গ নিয়ে দুটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ৬ জনের মৃত্যুর কথা জানিয়েছেন।

ডা. সাজ্জাদ-উল-হক  আরও জানান, সর্বশেষ ২৪ ঘণ্টায় জেলায় আরও ৫১২টি নমুনা পরীক্ষায় ১৭০ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। আক্রন্তের হার ৩৩ দশমিক ২০ শতাংশ। এদের মধ্যে সদরের ৯৬ জন, শাজাহানপুরের ১৪ জন, শিবগঞ্জে ৯ জন, ধুনটে ৯ জন, গাবতলীতে ৭ জন, সারিয়াকান্দিতে ৬ জন, দুপচাঁচিয়ায় ৬ জন, নন্দীগ্রামে ৬ জন, শেরপুরে ৬ জন, কাহালুতে ৫ জন, সোনাতলায় ৪ জন এবং আদমদীঘিতে ২ জন। এছাড়া একই সময়ে সুস্থ হয়েছেন আরও ৯৫ জন।

তিনি জানান, জেলায় এ পর্যন্ত মোট ১৫ হাজার ৪২৭ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। তাদের মধ্যে সুস্থ হয়েছেন ১৩ হাজার ৩৪৫জন এবং  ৪৫৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। এছাড়া ১ হাজার ৬২৭ জন চিকিৎসাধীন।

আরও পড়ুনঃ


বগুড়ার শেরপুরে জামাইয়ের ছুরিকাঘাতে শ্বশুর নিহত

জন্মদিনে প্রায় ৩ কোটি টাকার গাড়ি কিনলেন রণবীর

‘নগদ’-এর পিন রিসেট করা যাবে নিজে নিজেই

তিস্তার পানি বিপৎসীমার ২০ সেন্টিমিটার ওপরে প্রবাহিত


news24bd.tv / কামরুল