রূপগঞ্জে নিহতদের প্রত্যেককে ৫০ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ দিতে হবে: ডা. জাফরুল্লাহ

নিজস্ব প্রতিবেদক

রূপগঞ্জে নিহতদের প্রত্যেককে ৫০ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ দিতে হবে: ডা. জাফরুল্লাহ

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে হাসেম ফুড অ্যান্ড বেভারেজ কারখানায় অগ্নিকাণ্ডে ৫১ জনের মৃত্যুর ঘটনাকে ‘পরিকল্পিত হত্যাকাণ্ড’ উল্লেখ করে গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ও ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী প্রত্যেক নিহতের পরিবারের জন্য ন্যূনতম ৫০ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ, আহতদের বিনা খরচে চিকিৎসা এবং কর্মস্থানের দাবি জানিয়েছেন।

আজ দুপুরে রূপগঞ্জের কর্ণগোপ এলাকায় ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এসব কথা বলেন তিনি। এ সময় গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়ক জুনায়েদ সাকি উপস্থিত ছিলেন। 

ডা. জাফরুল্লাহ বলেন, যারা আমাদের জীবনটাকে চলমান রাখে, যারা রাষ্ট্রকে চালু রাখে, তাদেরকে যথাযোগ্য মর্যাদা না দিলে, তাদের জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা না নিলে, যা হবার তাই হয়েছে। ফলে এটাকে দুর্ঘটনা বলা যাবে না। এটাকে যেন মনে হয় পরিকল্পিত হত্যাকাণ্ড। যদিও হত্যা করেনি কেউ। সার্বিকভাবে এটা সরকারের ব্যর্থতা। সরকারের একটি শিল্প বিভাগ আছে, তাদের পরিদর্শকরা এসে প্রতিনিয়ত দেখার কথা। এখানে তারা পা দিলেই বুঝতে পারত কোথায় কোথায় ঝুঁকি আছে। কেমিকেল কোথায় রাখা যাবে তার নিয়ম থাকলেও এখানে এর একটিও মেনে চলা হয়নি। দুর্নীতির ফলে পরিদর্শন না করে তারা রিপোর্ট দেয়।

হতাহতদের প্রতি সমবেদনা জানিয়ে তিনি বলেন, আমরা সম্মেলিতভাবে দাবি করছি যারা মারা গেছে তাদেরকে অন্তত ৫০ লাখ টাকা করে ক্ষতিপূরণ দেওয়া হোক। যারা বেঁচে আছে তাদের প্রশিক্ষণ দিয়ে কর্মক্ষম করে তুলতে হবে। তাদের কাজ দিতে হবে।

এসময় অন্যান্যদের মধ্যে ভাসানী অনুসারী পরিষদের মহাসচিব শেখ রফিকুল ইসলাম বাবলু, বীর মুক্তিযোদ্ধা নঈম জাহাঙ্গীর, বীর মুক্তিযোদ্ধা ইসতিয়াক আজিজ উলফত, রাষ্ট্র চিন্তার আইনজীবী হাসনাত কাইয়ুম, গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রেস উপদেষ্টা জাহাঙ্গীর আলম মিন্টু, ভাসানী অনুসারী পরিষদের সদস্য ব্যারিস্টার সাদিয়া আরমান, মো. ফরিদ উদ্দিন ও ছাত্র অধিকার পরিষদের নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

শনিবার আসছে অক্সফোর্ডের আরও ৮ লাখ ডোজ টিকা

অনলাইন ডেস্ক

শনিবার আসছে অক্সফোর্ডের আরও ৮ লাখ ডোজ টিকা

টিকার বৈশ্বিক উদ্যোগ কোভ্যাক্সের মাধ্যমে জাপান থেকে উপহার হিসেবে পাওয়া অ্যাস্ট্রাজেনেকার ৭ লাখ ৮১ হাজার ৩২০ ডোজ করোনার টিকা শনিবার ঢাকায় এসে পৌঁছাবে। জাপান থেকে উপহার হিসেবে আসা টিকার এটি দ্বিতীয় চালান। 

ভ্যাক্সিনগুলি গ্রহন করতে বিমানবন্দরে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক, স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের সচিব, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালকসহ অন্যান্য উর্দ্ধতন কর্মকর্তারা উপস্থিত থাকবেন। 

শুক্রবার স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয় এই তথ্য জানিয়েছে।

এদিকে, টোকিওর বাংলাদেশ দূতাবাস জানায়, টিকার দ্বিতীয় চালান নিয়ে অল নিপ্পন এয়ারওয়েজের একটি ফ্লাইট ঢাকার পথে রয়েছে। জাপানের স্থানীয় সময় রাত ১০টা ৪০ মিনিটে ফ্লাইটটি নারিতা আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে ছেড়ে আসে।

উল্লেখ্য, আগামী ৩ আগস্ট এস্ট্রেজেনেকার আরও ৬,১৬,৭৮০ ডোজ ভ্যাক্সিন দেশে আসবে।

আরও পড়ুন:


বিট লবনের যত উপকার

ধানখেতে ৮ ফুট অজগর

সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের ম্যুরাল ভাঙচুরকারীদের গ্রেপ্তার দাবি হানিফের


গত ২৪ জুলাই জাপানের উপহারের অ্যাস্ট্রাজেনেকার ২ লাখ ৪৫ হাজার ২০০ ডোজ টিকার প্রথম চালান দেশে পৌঁছায়।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

চলমান লকডাউন বৃদ্ধির সুপারিশ স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের

অনলাইন ডেস্ক

করোনা সংক্রমন রোধে চলমান লকডাউন বৃদ্ধির ইঙ্গিত দিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ডা. এবিএম খুরশিদ আলম।

আরও পড়ুনঃ


দ. কোরিয়ার কোন গালিও দেয়া চলবে না উত্তর কোরিয়ায়

তালেবানের হাত থেকে ২৪ জেলা পুনরুদ্ধারের দাবি

কাছাকাছি আসা ঠেকাতে টোকিও অলিম্পিকে বিশেষ ব্যবস্থা


 

আজ নিউজ টোয়েন্টিফোরকে তিনি জানান, করোনা সংক্রমণ রোধে চলমান লকডাউন অব্যাহত রাখার প্রস্তুাব দেয়া হয়েছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পক্ষ থেকে। 

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

শ্রমিকদের কর্মস্থলে ফেরানোর সিদ্ধান্ত সোমবারের মধ্যে

অনলাইন ডেস্ক

শ্রমিকদের কর্মস্থলে ফেরানোর সিদ্ধান্ত সোমবারের মধ্যে

আগামী রোববার (১ আগস্ট) দেশের সকল শিল্প-কারখানা খোলার সিদ্ধান্তের পর শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী বেগম মন্নুজান সুফিয়ান বলেছেন, শ্রমিকদের কর্মস্থলে ফেরানোর বিষয়ে রোববার অথবা সোমবার সিদ্ধান্ত নেওয়া হতে পারে।

শুক্রবার (৩০ জুলাই) শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী  বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

কঠোর লকডাউনে ৫ আগস্ট পর্যন্ত গণপরিবহন চলাচল বন্ধ থাকায় শ্রমিকরা গ্রাম থেকে কর্মস্থলে ফিরবেন কীভাবে এমন প্রশ্নে শ্রম ও কর্মসংস্থান বলেন, শ্রমিকদের কর্মস্থলে কীভাবে ফেরানো যায় সেই বিষয়ে মিটিং করা হবে। ভার্চ্যুয়ালি মিটিংয়ের চেয়ে সরাসরি মিটিংয়ে বসলে একটি সুষ্ঠু সমাধান পাওয়া যাবে। আগামী রোববার অথবা সোমবার শ্রম মন্ত্রণালয়ে শিল্প কারখানার মালিকদের সঙ্গে বৈঠক হতে পারে।

এছাড়া উচ্চপর্যায়ের সঙ্গে আলাপ-আলোচনা করা হবে। সেই আলোচনা অনযায়ী, কারখানার শ্রমিকদের কাজে ফেরানোর বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

তিনি বলেন, কঠোর লকডাউনে কোনো শ্রমিক যদি কারখানায় ফিরতে না পারে, সেই শ্রমিকের যাতে চাকরি চলে না যায়, সেজন্য কারখানার মালিকদের সঙ্গে আলোচনা করা হবে।

বেগম মন্নুজান সুফিয়ান আরও বলেন, আগামী ১ আগস্ট থেকে শিল্প কারখানা খুলে দেওয়ার সিদ্ধান্তটি সরকারের উচ্চপর্যায়ের।

প্রসঙ্গত, করোনা সংক্রমণ কমাতে সরকারের ঘোষিত কঠোর বিধিনিষেধ আগামী ৫ আগস্ট পর্যন্ত। এরমধ্যেই আজ শুক্রবার (৩০ জুলাই) বিকেলে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের উপ-সচিব মো. রেজাউল ইসলাম স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে যে, আগামী রোববার (১ আগস্ট) থেকে সারাদেশে শিল্প-কারখানা খুলছে। এতে কর্মস্থলে ফেরা নিয়ে শ্রমিকদের মাঝে দুশ্চিন্তা তৈরি হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, করোনা ভাইরাস সংক্রমণ রোধে চলমান বিধি-নিষেধের মধ্যে আগামী ১ আগস্ট থেকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে রপ্তানিমুখী সকল শিল্প ও কল-কারখানা খোলা থাকবে।

পরবর্তী খবর

গার্মেন্টস শ্রমিকদের কাজে যোগ দেওয়া নিয়ে যা বললেন বিজিএমইএর সভাপতি

অনলাইন ডেস্ক

গার্মেন্টস শ্রমিকদের কাজে যোগ দেওয়া নিয়ে যা বললেন বিজিএমইএর সভাপতি

আগামী রোববার থেকে (১ আগস্ট) কারখানার আশেপাশে বসবাসকারী শ্রমিকদের দিয়ে রফতানিমুখী শিল্প-কারখানার উৎপাদন কার্যক্রম চালু করা হবে। তবে এ সময়ের মধ্যে যেসব শ্রমিক কাজে যোগ দিতে পারবেন না তাদের চাকরি থেকে ছাঁটাই করা হবে না।

তৈরি পোশাক মালিকদের সংগঠন বিজিএমইএর সভাপতি ফারুক হাসান জানিয়েছেন এমন কথা।

তিনি বলেন, কঠোর বিধিনিষেধ শেষ হলে পর্যায়ক্রমে ঈদের ছুটিতে গ্রামে যাওয়া শ্রমিকরা কারখানায় কাজে যোগ দেবেন। এ সময়ে যেসব শ্রমিক কারখানায় আসতে পারবে না তাদের চাকরিতে কোনো সমস্যা হবে না।

তিনি বলেন, গত ২৬ জুলাইয়ের পর অধিকাংশ শ্রমিক গ্রাম থেকে ফিরেছেন। নারায়ণগঞ্জ, গাজীপুর এবং মানিকগঞ্জের আশেপাশে যে সব শ্রমিকরা বসবাস করছেন তাদের নিয়ে ১ আগস্ট থেকে কারখানা চালু করা হবে। যারা গ্রামে রয়েছেন তারা সরকার ঘোষিত বিধিনিষেধ শেষ হলে কাজে যোগ দেবেন। এজন্য কোনো শ্রমিকের চাকরি যাবে না। কোনো কারখানা থেকে তাদের ছাঁটাই করা হবে না। যদি ছাঁটায়ের কোনো তথ্য আমরা পাই তাহলে পুনরায় তার চাকরির ব্যবস্থা করা হবে।

উল্লেখ্য, আগামী ১ আগস্ট থেকে গার্মেন্টসসহ রপ্তানিমুখী শিল্প-কারখানা স্বাস্থ্যবিধি মেনে খুলে দেওয়ার ঘোষণা দেওয়া হয়েছে। শুক্রবার (৩০ জুলাই) বিকেলে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের উপ-সচিব মো. রেজাউল ইসলাম স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

পরবর্তী খবর

নিজেকে যেসব প্রতিষ্ঠানের সাংবাদিক পরিচয় দিতেন হেলেনা

অনলাইন ডেস্ক

নিজেকে যেসব প্রতিষ্ঠানের সাংবাদিক পরিচয় দিতেন হেলেনা

আওয়ামী লীগের মহিলাবিষয়ক উপ-কমিটি থেকে সদ্য পদ হারানো হেলেনা জাহাঙ্গীর  জয়যাত্রা আইপি টেলিভিশনের প্রতিষ্ঠাতা ও সিইও। এটির কোনো ধরনের বৈধ কাগজপত্র নেই বলে জানিয়েছে র‌্যাব। নিজস্ব এই প্রতিষ্ঠান ছাড়াও আরও বেশ কয়েকটি পত্রিকার সাংবাদিক পরিচয় দিতেন তিনি। 

যেগুলো নাম সর্বস্ব। এসব প্রতিষ্ঠানের অস্তিত্ব না থাকলেও হেলেনা জাহাঙ্গীরের রয়েছে এসব প্রতিষ্ঠানের আইডি কার্ড। সাংবাদিক পরিচয় দিয়ে তিনি গুরুত্বপূর্ণ স্থান সচিবালয়ে প্রবেশ করতেন।

গতকাল রাতে হেলেনা জাহাঙ্গীরের গুলশানের বাড়িতে অভিযান চালায় র‌্যাব। প্রায় চার ঘণ্টা অভিযানে র‌্যাব তার বাসা থেকে বেশ কয়েকটি নাম সর্বস্ব পত্রিকার আইডি কার্ড জব্দ করে। এগুলোর মধ্য রয়ে‌ছে ‌‘ভোরের সময়’ ও ‘প্রাণের বাংলাদেশ’ নামের পত্রিকা। হেলেনা জাহাঙ্গীর নিজেকে নাম সর্বস্ব পত্রিকা ভোরের সময়-এর স্টাফ রিপোর্টার এবং প্রাণের বাংলাদেশ পত্রিকার ফিনান্স রিপোর্টার পরিচয় দিতেন। 

আরও পড়ুন:


লকডাউন আরও যে কয়দিন বাড়াতে চায় স্বাস্থ্য অধিদপ্তর

হেলেনা জাহাঙ্গীরের বিরুদ্ধে একাধিক মামলা হচ্ছে

মেঘনায় ট্রলার ডুবে জেলের মৃত্যু, জীবিত উদ্ধার ১১

পর্যটকদের জন্য খুলছে সৌদির দরজা


উল্লেখ্য, বৃহস্পতিবার (২৯ জুলাই) রাত ৮টার পর হেলেনা জাহাঙ্গীরের গুলশান-২ এর ৩৬ নম্বর রোডের বাসভবনে অভিযান শুরু করে র‍্যাব। দীর্ঘ চার ঘণ্টা অভিযান শেষে রাত ১২টার দিকে তাকে আটক করা হয় এবং পরে র‍্যাব সদর দফতরে নিয়ে যাওয়া হয়। আজ বিকেলে তাকে গুলশান থানায় হস্তান্তর করেছে র‌্যাব।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর