ঈদে খুলতে পারে শপিংমল, চালু হতে পারে বাস

অনলাইন ডেস্ক

ঈদে খুলতে পারে শপিংমল, চালু হতে পারে বাস

মানুষের জীবন-জীবিকা প্রাধান্য দিয়ে আসন্ন ঈদুল আজহাকে সামনে রেখে চলমান বিধি-নিষেধে কিছুটা শিথিলতা আনতে যাচ্ছে সরকার। এরমধ্যে স্বাস্থ্যবিধি মেনে পশুরহাট বসানো, শপিংমল খুলে দেওয়া এবং সিটি করপোরেশন ও জেলার ভেতর বাস চলার অনুমতি দেওয়া হতে পারে।

তবে দূরপাল্লার বাস ও যাত্রীবাহী লঞ্চ-ট্রেন বন্ধ রাখা হবে। আর ঈদের ছুটিতে কর্মস্থল ত্যাগ না করতে নির্দেশনা দেওয়া হবে।

দেশের আকাশে রোববার (১১ জুলাই) পবিত্র জিলহজ্জ মাসের চাঁদ দেখা যাওয়ায় আগামী ২১ জুলাই ঈদুল আজহা উদযাপিত হবে। সার্বিক দিক বিবেচনায় চলমান বিধি-নিষেধ শেষে ঈদের সপ্তাহটিকেই গুরুত্ব দিয়ে দেখা হচ্ছে।  

সরকারি সূত্র বলছে, আগামী ১৪ জুলাই শেষ হচ্ছে দুই সপ্তাহের চলমান বিধি-নিষেধ। এই দুই সপ্তাহের ফলাফল দেখেই মূলত ঈদ সামনে রেখে মানুষের অর্থনৈতিক অবস্থা বিবেচনায় বিধি-নিষেধের শর্ত শিথিল করা হচ্ছে। তবে সবকিছুই নির্ভর করছে পরিস্থিতির উপর। আর ঈদের পর আবারও কঠোর বিধি-নিষেধ দেওয়া হতে পারে।

আসন্ন ঈদ সামনে রেখে চলমান বিধি-নিষেধের বিষয়ে সোমবারের মধ্যে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হতে পারে জানিয়ে সরকারের শীর্ষ কর্মকর্তারা বলছেন, পরদিন মঙ্গলবার (১৩ জুলাই) এসব নিয়ে প্রজ্ঞাপন জারি করা হবে।

জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন রোববার (১১ জুলাই) সচিবালয়ে সাংবাদিকদের বলেন, আগামী ১৪ জুলাইয়ের পর চলমান বিধিনিষেধ আবারও বাড়তে পারে, আমরা সেদিকেই গুরুত্ব দিচ্ছি।

তিনি বলেন, যে সংক্রমণ পরিস্থিতি, সেটি আমরা পর্যবেক্ষণ করছি। বিধি-নিষেধ বাস্তবায়নের দিকেই সরকার বেশি গুরুত্ব দিচ্ছে। সংক্রমণ এবার এমনভাবে ছড়িয়েছে, সেটা খুবই আশঙ্কাজনক। ১৪ তারিখের পরের সময়ও আমাদের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। যদি আমরা এ সংক্রমণ কমাতে চাই, তাহলে এ প্রক্রিয়া কিন্তু অব্যাহত রাখতে হবে বিভিন্ন পর্যায়ে।

অনলাইনে গরু কেনাবেচায় গুরুত্ব দেওয়া হলেও কোরবানির পশুরহাট কীভাবে বসবে তা নিয়ে মঙ্গলবার স্থানীয় সরকার বিভাগের একটি সভা অনুষ্ঠিত হবে বলে একজন কর্মকর্তা জানিয়েছেন।

কোরবানির হাট বিষয়ে জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী বলেন, যেহেতু ঈদ এবং কোরবানির হাট আছে, এ দু’টি কীভাবে করলে সংক্রমণটি নিয়ন্ত্রণ করতে পারবো, সেটিই আমাদের মূল লক্ষ্য। হাটগুলো যাতে নিরাপদ জায়গায় হয়, যেখানে তিনটি গেট থাকতে পারে। একটি দিয়ে ক্রেতারা ঢুকবেন, তারা পশু কিনে নিয়ে আসবেন। আরেকটি দিয়ে পশু ঢোকানো হবে। যাতে নির্দিষ্ট সংখ্যক ক্রেতা সেখানে ঢোকে এবং স্বাস্থ্যবিধি তারা মেনে চলে। সংক্রমণ ও মৃত্যু, সেটি মাথায় রেখেই হাটে আসতে হবে।

পশু কেনাবেচায় অনলাইন হাটে গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে জানিয়ে প্রতিমন্ত্রী বলেন, গতবার যেহেতু ২৫ শতাংশ সাকসেসফুল করেছি (ডিজিটাল হাট), অনলাইনের হাটগুলোকে যাতে আরও জনপ্রিয় করা যায়, সেটি আমরা আরও জোর দিচ্ছি।

সরকারের একজন কর্মকর্তা বলেন, শনিবার মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সভায় আসন্ন ঈদ সামনে রেখে বিধি-নিষেধ বিষয়ে সরকারের শীর্ষ কর্মকর্তাদের বৈঠক হয়। সেই বৈঠকে ঈদে সীমিত পরিসরে পশুরহাট বসানো, শপিংমল খোলা, জেলার ভেতরে বাস চলাচলের বিষয়ে আলোচনা হয়। তবে দূরপাল্লার বাস ও গণপরিবহন বন্ধ রাখার মত এসেছে। প্রয়োজন হলে ঈদের পর আবারও কঠোর বিধি-নিষেধ দেওয়ার মত দেন বেশিরভাগ কর্মকর্তা।

করোনা পরিস্থিতির উপর ঈদ সামনে রেখে সরকার সিদ্ধান্ত নেবে বলে জানিয়েছেন নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী।

ঈদ উপলক্ষে চলমান বিধি-নিষেধে শিথিলতা আসবে কিনা- জানতে চাইলে সচিবালয়ে নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী বলেন, আমাদের টেকনিক্যাল কমিটি যারা আছেন, তাদের পরামর্শে সরকার যদি মনে করে বিধি-নিষেধ এগিয়ে (বাড়ানো) নেওয়ার ব্যাপারে সেটিও হতে পারে। সবকিছুই এখন পরিস্থিতির উপর নির্ভর করছে। একটা কথা বারবার বলেছি আমাদের জীবনে ঈদ অনেকবার আসবে যদি আমরা বেঁচে থাকি। আমাদের এই অবস্থা থেকে বের হতেই বিধি-নিষেধ দেওয়া হয়েছে, সেটি সবার মানা উচিত।

ঈদে গণপরিবহন চালু হবে কিনা- সে প্রশ্নে তিনি বলেন, বিধি-নিষেধ চলমান থাকলে গণপরিবহন চলাচলের কোনো সুযোগ নেই। আর বিধিনিষেধ যদি প্রত্যাহার হয় সেটা কীভাবে প্রত্যাহার হবে, যদি সীমিত আকারে হয় সীমিত আকারেই চলবে। যদি পুরোপুরি উঠে যায় পুরোপুরিই চলবে। আমার মনে হয় যে পরিস্থিতি আছে সেখানে আমাদের পুরোপুরি স্বাভাবিক জীবনে ফিরে যাওয়ার মতো অবস্থায় পৌঁছাতে পারিনি।

সরকারি সূত্র আরও বলছে, আগামী ২১ জুলাই ঈদ উদযাপিত হলে ঈদের তিনদিনসহ সাপ্তাহিক দু’দিন মিলে পাঁচদিনের ছুটিতে সবাইকে কর্মস্থলে রাখতে সরকারের প্রচেষ্টা রাখা হবে।

করোনা মহামারির কারণে গত ১ জুলাই থেকে সরকারি বিধি-নিষেধে সকল সরকারি, আধাসরকারি, স্বায়ত্বশাসিত ও বেসরকারি অফিস বন্ধ রাখার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। বন্ধ রাখা হয়েছে গণপরিবহনসহ শপিংমল। মানুষের চলাচলেও নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়েছে। আগামী ১৪ জুলাই এই বিধিনিষেধ শেষ হওয়ার আগেই নতুন সিদ্ধান্ত আসবে বলে কর্মকর্তারা জানিয়েছেন।

আরও পড়ুন:


চাঁদ দেখা গেছে, জানা গেল ঈদুল আজহা কবে

 লকডাউন বাড়বে কিনা, যা বললেন নৌপ্রতিমন্ত্রী


news24bd.tv / তৌহিদ

পরবর্তী খবর

রাজধানীতে বাড়ছে জনসমাগম

অনলাইন ডেস্ক

রাজধানীতে বাড়ছে  জনসমাগম

চলমান কঠোর বিধিনিষেধে গত রোববার থেকে খুলে দেওয়া হয়েছে কলকারখানা। এতে ঢাকামুখী কর্মীদের কারণে রাজধানীতে ভিড় বাড়ছে। আজ মঙ্গলবার থেকে অনেক মানুষ গাড়িতে এমনকি হেঁটেও ঢাকায় এসেছে।

চলমান কঠোর বিধিনিষেধের ১২তম দিনে রাজধানীর সড়কগুলোতে পরিবহন চলাচল আগের দিনগুলোর তুলনায় বেশি দেখা যায়। গণপরিবহন ছাড়া সবধরনের যানবাহনই অনেকটা বিনা বাধায়ই চলাচল করছে।

news24bd.tv/এমিজান্নাত 

পরবর্তী খবর

খালেদা জিয়াকে আম পাঠিয়েছে পাকিস্তান

অনলাইন ডেস্ক

খালেদা জিয়াকে আম পাঠিয়েছে পাকিস্তান

পাকিস্তান সরকারের পক্ষ থেকে আম উপহার পেয়েছেন বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া। গতকাল (সোমবার) সন্ধ্যায় ঢাকার পাকিস্তান দূতাবাসের পক্ষ থেকে খালেদা জিয়ার বাসায় এসব আম পৌঁছে দেয়া হয়েছে।

বিএনপির একাধিক সূত্র এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

এ প্রসঙ্গে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত দফতর সম্পাদক সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্স গণমাধ্যমকে বলেন, ‘শুধু পাকিস্তানের পক্ষ থেকে আম নয়, জাপান থেকে চকলেট দেয়া হয়, সৌদি আরবের পক্ষ থেকে খেজুর, রাশিয়া, ইন্ডিয়া, ইউরোপসহ বিভিন্ন দূতাবাস থেকে উপহার আসে। সেটা শুধু বিএনপি বা বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার জন্য না, এটা রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী এবং আরও কয়েকটি রাজনৈতিক দলের কাছেও পাঠানো হয়।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমাদের পক্ষ থেকেও ঢাকার সকল দূতাবাসে এবং আন্তর্জাতিক সংস্থায় উপহার পাঠানো হয়। বিভিন্ন সিজনে এসব ফলমূল পাঠানো হয়। পহেলা বৈশাখে পিঠাপুলি, যদি কোনো দূতাবাস বা সংস্থায় নারী থাকেন, ক্ষেত্রবিশেষে সেখানে শাড়িসহ নানা উপহার পাঠানো হয়। এগুলো মূলত সৌজন্যতার অংশ।’

গতকাল রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকেও উপহার হিসেবে আম পাঠায় পাকিস্তান।

পাকিস্তান হাইকমিশন সূত্র জানায়, গত বছরের মতো এবারও পাকিস্তান সরকার বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী এবং অন্যান্য গণ্যমান্য ব্যক্তিদের জন্য উপহার হিসেবে তাজা আম পাঠিয়েছে।

আরও পড়ুন


শেখ কামাল: বহুমাত্রিক প্রতিভাবান সংগঠক

বিচার চাওয়ার অধিকার পর্যন্ত জিয়াউর রহমান কেড়ে নিয়েছিলেন: কাদের

বরিশাল শেবাচিমে অক্সিজেনের দাবীতে বাসদের বিক্ষোভ


 

এর আগে, বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শুভেচ্ছা উপহার হিসেবে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের জন্য হাঁড়িভাঙা আম পাঠান। আমগুলো পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীর দফতরে হস্তান্তর করা হলে বঙ্গবন্ধুকন্যার প্রশংসা করা হয়।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

হাসপাতাল করার আর জায়গা নেই, এখন হোটেল খুঁজছি : স্বাস্থ্যমন্ত্রী

অনলাইন ডেস্ক

হাসপাতাল করার আর জায়গা নেই, এখন হোটেল খুঁজছি : স্বাস্থ্যমন্ত্রী

দেশে হাসপাতাল করার আর জায়গা নেই এবং হাসপাতালও খালি জানিয়ে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেছেন, আমরা এখন হোটেল খুঁজছি, যাতে মৃদু আক্রান্তদের সেখানে রাখতে পারি।

আজ মঙ্গলবার সচিবালয়ে বিধিনিষেধ নিয়ে আন্তঃমন্ত্রণালয় সভা শেষে তিনি গণমাধ্যমকে এসব কথা বলেন।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, করোনায় আক্রান্ত হলেই সবাইকে হাসপাতালে ভর্তির প্রয়োজন পড়ে না। মৃদু আক্রান্ত রোগীদের জন্য আমরা আলাদা হোটেল ভাড়া করার চিন্তা করেছি, যেখানে ডাক্তার, নার্স ও ওষুধপত্র থাকবে। অক্সিজেনের ব্যবস্থাও রাখা হবে।


আরও পড়ুন

ডিএনসিসি এলাকায় এডিস মশা বিস্তার রোধকল্পে ২ লক্ষ ৮০ হাজার টাকার বেশি জরিমানা

বাড়ছে রোগীর চাপ : চালু হচ্ছে আরও দুই করোনা ইউনিট

১১ তারিখ থেকে যানবাহন চলবে যে নিয়মে


তিনি আরও বলেন, ইতোমধ্যে হাসপাতালে ৯০ শতাংশ শয্যা পূর্ণ হয়ে গেছে। আইসিইউ এরই মধ্যে ৯৫ শতাংশ পূর্ণ। এসব বিবেচনা করে আমরা ইতোমধ্যে বঙ্গবন্ধু মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে একটি ফিল্ড হাসপাতাল তৈরি করছি। সেখানে ইমিডিয়েটলি আমরা হয়তো ৫০০/৬০০ শয্যা রেডি করতে পারব। পরে তা এক হাজার শয্যায় নেওয়া যাবে।

news24bd.tv/এমিজান্নাত 

 

পরবর্তী খবর

নতুন নিয়মে চলবে গণপরিবহন

অনলাইন ডেস্ক

নতুন নিয়মে চলবে গণপরিবহন

১১ আগস্ট থেকে গণপরিবহন চলবে নতুন নিয়মে। এসময় পরিবহনের চালক ও তার সহকারী এবং ১৮ বছরের বেশি বয়সের যাত্রীদের করোনার টিকা গ্রহণের সনদ সঙ্গে রাখতে রাখতে হবে। এছাড়া গণপরিবহন চলাচলের ক্ষেত্রে রোটেশন পদ্ধতি অনুসরণ করার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার (৩ আগস্ট) ভার্চুয়ালি আন্তঃমন্ত্রণালয় সভা শেষে সচিবালয়ে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান। 

মন্ত্রী বলেন, ‘১০ তারিখ পর্যন্ত আমরা বিধিনিষেধ বৃদ্ধি করেছি। ১১ তারিখ থেকে ইনশাহ আল্লাহ সব খুলবে।’

কিছু শিল্প-কারখানা খুলে দেওয়া হয়েছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘অন্যান্য কারখানাও আমরা খুলে দেওয়ার জন্য সিদ্ধান্ত নিয়েছি। ১১ তারিখ থেকে দোকানপাট, যানবাহনও চলবে। তবে সব একত্রে না। আমরা লোকাল অ্যাডমিনিস্ট্রেটরকে জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে অনুরোধ করবো, বাই রোটেশনে যাতে চলে।’

উদাহরণ দিয়ে মন্ত্রী বলেন, ‘মনে করেন, গাজীপুর থেকে ১০০ গাড়ি প্রতিদিন ঢাকায় আসে। ১০০ না, ৩০টি আসুক বা ৫০টি আসুক। আজ এগুলো যাবে তো কাল অন্যগুলো যাবে। এরকম তারা নির্ধারণ করে দেবেন। শ্রমিক, পরিবহন নেতা এবং পরিবহনর মালিকদের সঙ্গে কথা বলে এগুলো বাস্তবায়ন করা হবে।’

‘লঞ্চ, স্টিমার, রেল আছে, সেগুলোও চলবে। কিন্তু অতীতে যে পরিমাণে  চলেছিল, সে পরিমাণ না চলে সীমিত আকারে...। কর্তৃপক্ষ সেগুলো নির্ধারণ করে জনগণকে অবহিত করবেন। যেমন রেল হয়তো ১০টা চলতো, এখন ৫টা চলবে। কোনটা কখন ছাড়বে এবং কিভাবে যাবে, এগুলো স্ব স্ব মন্ত্রণালয় ও ডিপার্টমেন্ট জনগণকে অবহিত করবে।’

এদিকে সবকিছু খুলে দেওয়ার ঘোষণা আসলেও এর সঙ্গে শর্ত জুড়ে দিয়েছে সরকার। ১৮ বছরের ঊর্ধ্বে যারা টিকা নিয়েছেন, শুধুমাত্র তারাই ঘর থেকে হতে পারবেন। টিকা নেওয়ায় ব্যতীত কেউ মুভমেন্ট করলে তাকে শাস্তির মুখোমুখি হতে হবে।

আরও পড়ুন:


১১ তারিখ থেকে যানবাহন চলবে যে নিয়মে

৭, ৮, ৯ আগস্ট ভ্যাকসিন নেওয়ার সুযোগ দিচ্ছি: মোজাম্মেল হক

১১ আগস্টের পর ভ্যাকসিন ছাড়া ঘোরাফেরা করলে শাস্তি


 

এ বিষয়ে মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক বলেন, অবশ্যই সবাইকে ভ্যাকসিন নিতে হবে। দেশব্যাপী ১৪ হাজার কেন্দ্রে ভ্যাকসিন দেওয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে। ১১ তারিখ থেকে কঠোরভাবে আইন প্রয়োগ করবে। টিকা ছাড়া ১৮ বছরের বেশি কেউ চলাচল করলে তাকে সাজার আওতায় আনা হবে।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

মাস্ক না পরলে জরিমানার ক্ষমতা পাচ্ছে পুলিশ

অনলাইন ডেস্ক

মাস্ক না পরলে জরিমানার ক্ষমতা পাচ্ছে পুলিশ

করোনা মহামারির মধ্যে মাস্ক না পরে ঘরের বাইরে গেলে পুলিশ শাস্তি দিতে পারবে। এ জন্য পুলিশকে বিচারিক ক্ষমতা দেওয়ার কথা ভাবছে সরকার। প্রয়োজনে এ বিষয়ে অধ্যাদেশ জারি করার কথাও ভাবা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক এবং স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক।

আজ মঙ্গলবার (৩ আগস্ট) করোনা পরিস্থিতি নিয়ে এক সভা শেষে সচিবালয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, সবাইকে মাস্ক পরতে হবে, শারীরিক দূরত্ব বজায় রাখাটা খুব গুরুত্বপূর্ণ। এটাকে সঠিকভাবে এনফোর্স করতে পুলিশকে ক্ষমতা দেওয়ার প্রয়োজন রয়েছে। যাতে করে যারা মাস্ক পরবে না তাদের জরিমানা করতে পারে। এ জন্য অধ্যাদেশ লাগবে। আলোচনা হয়েছে, আমরা সেদিকেও যাব।

আরও পড়ুন:


১১ তারিখ থেকে যানবাহন চলবে যে নিয়মে

৭, ৮, ৯ আগস্ট ভ্যাকসিন নেওয়ার সুযোগ দিচ্ছি: মোজাম্মেল হক

১১ আগস্টের পর ভ্যাকসিন ছাড়া ঘোরাফেরা করলে শাস্তি


 

সভার সভাপতি মুক্তিযুদ্ধ বিষয়কমন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক বলেন, চলমান কঠোর বিধি-নিষেধ আগামী ১০ আগস্ট পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে। আগামী ১১ আগস্ট থেকে সারাদেশের দোকানপাট খুলে দেওয়া হবে। সীমিত পরিসরে পর্যায়ক্রমে যানবাহন চলবে, খুলবে অফিস। ১১ আগস্টের পরে টিকা না নিয়ে কেউ মুভমেন্ট করলে শাস্তি হিসেবে বিবেচনা করা হবে।

এর আগে মঙ্গলবার করোনাভাইরাসের দ্বিতীয় ধাক্কা রুখতে চলমান বিধি-নিষেধ আরো পাঁচদিন বাড়িয়েছে সরকার। সরকারের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী চলমান বিধিনিষেধ চলবে ১০ আগস্ট পর্যন্ত।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর