দৌলতদিয়া ঘাটে ভাঙন, সর্বনাশা পদ্মার বুকে স্বপ্নের বসত ঘর

শফিকুল ইসলাম শামীম, রাজবাড়ী

দৌলতদিয়া ঘাটে ভাঙন, সর্বনাশা পদ্মার বুকে স্বপ্নের বসত ঘর

হঠাৎ পদ্মা নদীর ভাঙন। চোখের পলকে ১০টি ঘর নদীর বুকে। ৩০টি ঘর সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। ঝুঁকিতে প্রায় দুইশত ঘর বাড়ি। শঙ্কায় রয়েছে লঞ্চ ও ফেরি ঘাট এবং বাস টার্মিনালও। এমনি অবস্থা বিরাজ করছে দক্ষিণ-পশ্চিঞ্চলের গুরুত্বপূর্ণ প্রবেশদ্বার দৌলতদিয়া ঘাটে।

নদী ভাঙন কবলিত ও স্থানীয়দের সাথে কথা বলে জানা যায়, মঙ্গলবার সকাল ১১টার দিকে হঠাৎ পদ্মানদীর ভাঙন শুরু হয়। কিছু বুঝে উঠার আগে ১০টি বসত ঘর নদীর বুকে চলে যায়। ঘর থেকে কেউ কিছু বের করতেও পারেনি। এসময় প্রায় ৩০টি স্বপ্নের বসত ঘর সরিয়ে নিয়েছে এলাকাবাসী।

নদী ভাঙন কবলিত পল্লী চিকিৎসক বেনজীর আহমেদ বিলাস বেপারী বলেন, প্রতিদিনের মত সকালে বাড়ী থেকে বের হয়ে দোকানে আসি। দোকান থেকে সংবাদ পেলাম নদী ভাঙন শুরু হয়েছে। বাড়ীতে যাওয়ার আগেই, বাড়ী চলে গেল নদীতে। আর কখনও বাড়ীতে যেতে পারবো না। তিনি কাঁন্নাজড়িত কণ্ঠে বলেন, এবার দিয়ে তিন বার নদী ভাঙনের শিকার হলাম। প্রতিবার ঘর-দরজা নিয়ে আসতে পারি। এবার কিছু আনতে পারি নাই। এখন আমি পরিবার পরিজন নিয়ে কোথায় যাবো।

দৌলতদিয়া ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক ২নং ওয়ার্ডের মেম্বার উজ্জল হোসেন বাবু বলেন, শেষ আমার সব শেষ। এখন দাঁড়ানোর মত কোন জায়গা নেই আমার। এতগুলো মানুষ নিয়ে কোথায় দাঁড়াবো। সর্বনাশা নদী আমার সব কিছু শেষ করে নিয়েছে। বাড়ী থেকেও কিছু বের করতে পারি নাই। তিনি দুঃখ করে বলেন, পানি উন্নয়ন বোর্ডের কর্মকর্তারা শুকনো মৌসুমে ভাঙন প্রতিরোধ করলে আজ আমাদের এতগুলো মানুষের গৃহহীন হতো না।

হাউ-মাউ করে কাঁন্নাজড়িত ভাষায় মোঃ আক্কাস বেপারী বলেন, লকডাউনের কারণে আয়-রোজগার বন্ধ। এখন বাড়ী চলে গেল নদীতে। আমাদের মত গরীব মানুষের কি উপায় হবে। আমরা কোথায় যাবো।

আরও পড়ুন


বাগেরহাটে করোনায় স্বামীর মৃত্যু, ১৪ দিনেও জানে না স্ত্রী

নাটোরে লকডাউন উপেক্ষা করে চলছে পশুর হাট

সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে বখাটের হাতে চিকিৎসক লাঞ্ছিত

উৎক্ষেপণের সময়ই ভেঙে পড়ল ভারতের ব্রহ্মস ক্ষেপণাস্ত্র


ভাঙনের শিকার আরেকজন বদিউজ্জামান টোকন বলেন, আজ হঠাৎ ১০টি বাড়ী চলে গেল নদীতে। ৩০টি বাড়ী সরিয়ে নিয়ে গেল। এখন ভাঙন আতংকে দৌলতদিয়া লঞ্চঘাট, ফেরিঘাট ও বাস টার্মিনাল। তিনি বলেন, এখন থেকে প্রতিরোধ না করলে যে কোন সময় দৌলতদিয়া লঞ্চঘাট, ফেরিঘাট ও বাস টার্মিনাল। ভেঙ্গে যেতে পারে প্রায় ২ শতাধিক পরিবার। বন্ধ হয়ে যেতে পারে দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুট।

গোয়ালন্দ উপজেলা নির্বাহী অফিসার আজিজুল হক খান মামুন জানান, হঠাৎ নদী ভাঙনের কারণে কয়েকটি পরিবার নদী গর্ভে বিলীন হয়ে যায়। ভাঙনের সংবাদ শুনতে পেয়ে ভাঙন কবলিত এলাকা পরিদর্শন করা হয়েছে। ভাঙন কবলিতদের জরুরীভিত্তিতে কিছু খাদ্য সহযোগিতা করা হবে। পর্যায়ক্রমে তাদের বসবাসের জন্য ঘর তৈরি করে থাকার ব্যবস্থা করে দেওয়া হবে।

গোয়ালন্দ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোস্তফা মুন্সি জানান, জরুরীভাবে নদী ভাঙন প্রতিরোধ করা না হলে দৌলতদিয়া ঘাট মানচিত্র থেকে হারিয়ে যাবে। সুতরাং পানি উন্নয়ন বোর্ডকে অনুরোধ করব ঘাট রক্ষার্থে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিন।

news24bd.tv এসএম

পরবর্তী খবর

সমুদ্রের অদ্ভুত মাছ ‘বাওস’ মিলল পদ্মায়, বিক্রি সাড়ে ৪ হাজারে

অনলাইন ডেস্ক

সমুদ্রের অদ্ভুত মাছ ‘বাওস’ মিলল পদ্মায়, বিক্রি সাড়ে ৪ হাজারে

রাজবাড়ীর গোয়ালন্দে পদ্মা নদীতে মিলল সমুদ্রের বিরল মাছ ‘বাওস’। মাছটির ওজন ৪ কেজি ২শ’ গ্রাম।

লম্বায় সাড়ে ৩ ফিট মাছটি মঙ্গলবার (২৭ জুলাই) সকালে দৌলতদিয়া ইউনিয়নের কর্ণেশনা কলাবাগান এলাকার অদূরে পদ্মা নদীতে স্থানীয় মৌসুমি মৎস্য শিকারি বাচ্চু শেখের চায়না দুয়ারীতে অদ্ভুত এ মাছটি ধরা পড়ে।

পরে দৌলতদিয়া বাইপাস সড়কের পাশে দুলাল চালাকের আড়তে মৎস্য আড়তের মালিক সম্রাট শাহজাহান শেখ ১১শ’ টাকা কেজি দরে মোট ৪ হাজার ৬২০ টাকায় মাছটি কিনে নেন।

এ সময় অদ্ভুত মাছটি দেখতে স্থানীয়রা ভিড় করেন।

মাছ সম্পর্কে ওই ব্যবসায়ী বলেন, বছরের আষাঢ়-শ্রাবণ মাসের দিকে মাঝে মাঝে প্রত্যন্ত অঞ্চলের পদ্মায় মাছটি পাওয়া যায়। মাছটি খুবই সুস্বাদু এবং উপকারী হওয়ায় পরিবারের জন্য কিনেছি। আগেও পদ্মার খাড়িতে এই রকম বাওস মাছ পাওয়া যেত।

গোয়ালন্দ উপজেলার ভারপ্রাপ্ত মৎস্য কর্মকর্তা মো. রেজাউল শরীফ বলেন, আঞ্চলিক ভাষায় এটিকে বাঙ্গোশ বললেও মূলত এই মাছের নাম বাওস। এটি সামুদ্রিক মাছ। সমুদ্র তীরবর্তী অঞ্চলে এসব মাছ মাঝে মধ্যে ধরা পড়ে। বাওস মাছ প্রায় ২০ কেজি পর্যন্ত ওজন এবং অনেক সুস্বাদু ও দামি হয়। এর ওষধি গুণাগুণ রয়েছে।

আরও পড়ুন:


বিভিন্ন জেলায় করোনা ও উপসর্গে মৃত্যুর তথ্য

গার্মেন্টস খোলার ব্যাপারে যা জানালেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী

কখন লকডাউন বাড়ানো লাগবে না জানালেন তথ্যমন্ত্রী

ময়মনসিংহ মেডিকেলে করোনায় ‍মৃত্যুর রেকর্ড


 news24bd.tv তৌহিদ

পরবর্তী খবর

ডাসার উপজেলা প্রেসক্লাবের নতুন কমিটি

বেলাল রিজভী, মাদারীপুর

ডাসার উপজেলা প্রেসক্লাবের নতুন কমিটি

মাদারীপুরের ডাসার উপজেলা প্রেসক্লাবের ৯ (নয়) সদস্য বিশিষ্ট পুরনো কমিটি ভেঙ্গে নতুন কার্যকরী কমিটি গঠন করা হয়েছে। এতে আমার বার্তা পত্রিকার ও দি নিউজের কালকিনি উপজেলা প্রতিনিধি সৈয়দ রাকিবুল ইসলাম কে সভাপতি ও দৈনিক জাগো প্রতিদিন মাদারীপুর জেলা প্রতিনিধি মো. শাহরিয়ার তুহিনকে সাধারণ সম্পাদক করে সোমবার ডাসার উপজেলা প্রেসক্লাব কার্যালয়ে (অস্থায়ী) এই নতুন কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে।

ডাসার উপজেলা প্রেসক্লাবের অন্যান্য কর্মকর্তারা হলেন- সাংগঠনিক সম্পাদক মুমতাজুল কবীর নাফিউ দৈনিক দেশের কন্ঠ মাদারীপুর জেলা প্রতিনিধি, দপ্তর সম্পাদক নাজমুল হাসান আজকের দর্পণ, প্রচার সম্পাদক কাজী নাফিস বাংলার চোখ নিউজ, সহসভাপতি পারভেজ সরদার, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শরীফ শাওন, কার্যকরী সদস্য রফিকুল সরদার ও মিফতাহুল জান্নাত মুমু। 

উল্লেখ্য, ২০১৩ সালে ডাসার থানা প্রতিষ্ঠিত হওয়ার পরে ২০১৬ সালের ৫ জুন থেকে ডাসার প্রেসক্লাবের সাংগঠনিক কার্যক্রমের পথচলা শুরু হয়।

আরও পড়ুন:


বিভিন্ন জেলায় করোনা ও উপসর্গে মৃত্যুর তথ্য

গার্মেন্টস খোলার ব্যাপারে যা জানালেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী

কখন লকডাউন বাড়ানো লাগবে না জানালেন তথ্যমন্ত্রী

ময়মনসিংহ মেডিকেলে করোনায় ‍মৃত্যুর রেকর্ড


 news24bd.tv তৌহিদ

পরবর্তী খবর

কীটনাশক ছিটাতে গিয়ে ফুলবাড়ীতে কৃষকের মৃত্যু

নিজস্ব প্রতিবেদক

কীটনাশক ছিটাতে গিয়ে ফুলবাড়ীতে কৃষকের মৃত্যু

দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে কীটনাশক ছিটাতে গিয়ে বিষক্রিয়ায় মকলেছার রহমান (৬০) নামের এক কৃষকের মৃত্যু হয়েছে।

আজ সকাল ১১টার দিকে উপজেলার পৌর এলাকার স্বজনপুকুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। কৃষক মকলেছার স্বজনপুকুর গ্রামের মৃত ফয়েজ উদ্দিনের ছেলে।

মারা যাওয়া মকলেছারের বড় ভাই নুরুল ইসলাম বলেন, ‘মকলেছার রহমান জমিতে কীটনাশক ছিটাতে যায়। এ সময় সে মুখে কাপড় বাঁধেনি। খোলা মুখে কীটনাশক প্রবেশ করে বিষক্রিয়ায় সে ক্ষেতেই ঢলে পড়ে। খবর পেয়ে ক্ষেত থেকে মকলেছার রহমানকে ভ্যানে করে ফুলবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।’

আরও পড়ুন:


কক্সবাজারের উখিয়ায় পাহাড় ধসে ৫ রোহিঙ্গা নিহত

৫ অতিরিক্ত সচিবকে বদলি 

ভারত সফর বাতিল করলেন আফগান সেনাপ্রধান

একজন আইনজীবির মৃত্যু ও আমাদের জন্য বার্তা


স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল কর্মকর্তা ডাক্তার চামেলি বলেন, ‘স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আসার আগেই বিষক্রিয়ায় তার মৃত্যু হয়েছে।’

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

লকডাউনের মধ্যেই নাটোরে স্বেচ্ছাসেবক লীগের দুই গ্রুপের পাল্টাপাল্টি কর্মসূচী

নাসিম উদ্দীন নাসিম, নাটোর

লকডাউনের মধ্যেই নাটোরে স্বেচ্ছাসেবক লীগের দুই গ্রুপের পাল্টাপাল্টি কর্মসূচী

টানটান উত্তেজনা আর পুলিশি বেষ্টুনির মধ্যে বাংলাদেশ আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের ২৭তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন করেছে নবগঠিত নাটোর জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগ এবং পদবঞ্চিত স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতাকর্মীরা।

মঙ্গলবার (২৭ জুলাই) সকালে শহরের কান্দিভিটুয়া জেলা আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে পদবঞ্চিত স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতাকর্মীরা পৌর ও সদর উপজেলা শাখার উদ্যোগে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন, কেককাটা এবং আলোচনা সভা অনুষ্টিত হয়। এ সকল কর্মসূচিতে নেতৃত্ব দেন জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাবেক আহবায়ক অ্যাডেভাকেট আরিফুর রহমান, যুগ্ম আহবায়ক আহম্মেদ সেলিম-সহ পৌর ও সদর উপজেলা শাখার নেতৃবৃন্দ।

অপরদিকে সকালে শহরের কানাইখালি জনতা ব্যাংকের সমানে বঙ্গবন্ধুর অস্থায়ী প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান নবগঠিত নাটোর জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি ইশতিয়াক আহমেদ ডলার, সাধারণ সম্পাদক শফিউল আযম স্বপন-সহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ।

এসময় এক মিনিটি নিরবতা পালন এবং বিশেষ মোনাজাত করা হয়। পরে আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের ২৭তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী এবং প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়ের ৫১তম জন্মদিন উপলক্ষে কেক কাটা হয়।

আরও পড়ুন


‘সজীব ওয়াজেদ জয়ের হাত ধরেই বিশ্বকে নেতৃত্ব দেবে বাংলাদেশ’

৩০ হাজার টাকার জন্য ৩ বন্ধু মিলে গলা কেটে হত্যা করে উজ্জলকে

অক্সিজেন পাচার নয়, নতুন কৌশলে টাকা আত্মসাৎ করত তারা

পর্নগ্রাফিকাণ্ডে আগাম জামিন নিলেন শার্লিন চোপড়া


এসময় জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ মোর্ত্তুজা আলী বাবুল, সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান শরিফুল ইসলাম রমজান, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ত্রাণ ও দুর্যোগ উপ-কমিটির সদস্য ইমরান সোনারসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ।

এসময় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার তারেক যুবায়ের এর নেতৃত্বে বিপুল সংখ্যক পুলিশ মোতায়ন করা হয়। অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে নাটোর সহকারী কমিশনার (ভূমি) রনি খাতুনের নেতৃত্বে জেলা প্রশাসনের একটি ভ্রাম্যমান আদালত নিয়োজিত ছিল।

news24bd.tv এসএম

পরবর্তী খবর

৩০ হাজার টাকার জন্য ৩ বন্ধু মিলে গলা কেটে হত্যা করে উজ্জলকে

বাবুল আখতার রানা, নওগাঁ

৩০ হাজার টাকার জন্য ৩ বন্ধু মিলে গলা কেটে হত্যা করে উজ্জলকে

নওগাঁর চাঞ্চল্যকর ডিস ব্যবসায়ী উজ্জল হত্যাকান্ডের রহস্য উদঘাটন করেছে পুলিশ। ধারের টাকা না দিতেই তিন বন্ধু মিলে খুন করে তাকে। মঙ্গলবার দুপুরে পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানানো হয়।

সংবাদ সম্মেলনে পুলিশ সুপার আব্দুল মান্না মিয়া জানান, নিহত উজ্জল একজন ডিস ব্যবসায়ী ছিলেন। মাঝে মধ্যে নেশা করার অভ্যাসও ছিল তার। বেশ কিছুদিন আগে তার খুব কাছের বন্ধু সুজন ও শরিফ উজ্জলের কাছ থেকে সুদে ত্রিশ হাজার টাকা ধার করেন। সেই সুদের ধারের টাকার জন্য কয়েকদিন ধরেই চাপ দিচ্ছিলেন উজ্জল। এমন পরিস্থিতিতে সে টাকা না দিতে ঈদের পরদিন দুপুরে স্থানীয় বাজারে একত্রিত হয়ে উজ্জলকে খুনের পরিকল্পনা করে তারা। সেই অনুযায়ী নেশা করা ও টাকার প্রলোভন দেখিয়ে শনিবার রাতে বিলভবানীপুর গ্রামের নির্জন বিলের পাশে পাট ক্ষেতে নিয়ে যাওয়া হয় উজ্জলকে। তখন সেখানে সুজন, শরিফ ও রায়হান উপস্থিত ছিলেন। টাকা লেনদেনের কথাবার্তার এক পর্যায়ে সুজন কৌশলে উঠে গিয়ে পিছন থেকে উজ্জলের গলায় ধারালো ছুরি চালায়। সে চিৎকার শুরু করলে অন্য দুজন তার হাত-পা চেপে ধরে গলা কেটে ফেলে। মৃত্যু নিশ্চিত করার জন্য শরিফের কাছে থাকা আরেক চাকু দিয়ে দু’পায়ের রগ কেটে ফেলা হয়। এরপর খুনিরা লাশ গুমের জন্য একটি পাটক্ষেতে ফেলে আসে উজ্জলের মৃতদেহ।

আরও পড়ুন


অক্সিজেন পাচার নয়, নতুন কৌশলে টাকা আত্মসাৎ করত তারা

পর্নগ্রাফিকাণ্ডে আগাম জামিন নিলেন শার্লিন চোপড়া

বিলুপ্তপ্রায় প্রজাতির ৭৩টি সুন্ধি কচ্ছপ আটকের পর খানজাহান দিঘিতে অবমুক্ত

বিনা বিচারে ইসরাইলি কারাগারে বন্দি, ফিলিস্তিনি ফুটবলারের আমরণ অনশন


পুলিশ সুপার আরো জানান, ঘটনার পর উজ্জলের মা রহিমা বেগম বাদী হয়ে একটি হত্যা মামলা দায়ের করে। সেই সূত্র ধরে এরই মধ্যে ২ জন আসামীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। পলাতক আরেকজনকে খুঁজতে তৎপরতা অব্যাহত আছে।

প্রসঙ্গত, গত ২৪ জুলাই দিবাগত রাত থেকেই নিখোঁজ ছিল নওগাঁ সদর উপজেলার বিলভবানীপুর গ্রামের রহিমা বেগমের ছেলে উজ্জল হোসেন। পরদিন সকাল ৯টার দিকে গ্রামের পাশের একটি পাটক্ষেত থেকে তার ক্ষতবিক্ষত মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়।

news24bd.tv এসএম

পরবর্তী খবর