৪ ধরনের পশু দ্বারা কোরবানী করা যায় না
৪ ধরনের পশু দ্বারা কোরবানী করা যায় না

৪ ধরনের পশু দ্বারা কোরবানী করা যায় না

অনলাইন ডেস্ক

কোরবানী করা ওয়াজিব। এই বিধান সামর্থ্যবান ব্যক্তিদের জন্য। মহান আল্লাহ তা-আলা বলেন, ‘তুমি তোমার রবের জন্য নামাজ আদায় করো এবং কোরবানি করো। ’ (সুরা : কাউসার, আয়াত : ২)।

 

কোরবানি দেওয়ার জন্য নির্দিষ্ট পশু লাগে। পাশাপাশি সেগুলো নির্দিষ্ট বৈশিষ্ট্যে উত্তীর্ণ হতে হয়। গুণগুলো না থাকলে- কোরবানী করলে আদায় হবে না।

বারা ইবনে আজিব (রা.) কোরবানির পশু সম্পর্কে আলোচনা করতে গিয়ে বলেন, আল্লাহর রাসুল (সা.) হাত দিয়ে ইশারা করেছেন এবং বলেছেন, ‘চার ধরনের পশু দ্বারা কোরবানি করা যায় না। সেগুলো হলো- যে পশুর এক চোখের দৃষ্টিহীনতা স্পষ্ট, যে পশু অতিশয় রুগ্ন, যে পশু সম্পূর্ণ খোড়া এবং যে পশু এত শীর্ণ যে- তার হাড়ে মজ্জা নেই।  

লোকেরা বলল, আমরা তো দাঁত, কান ও লেজে ত্রুটিযুক্ত প্রাণী (দ্বারা কোরবানি করা)ও অপছন্দ করি? তিনি বললেন, যা ইচ্ছা অপছন্দ করতে পারো। তবে তা অন্যের জন্য হারাম করো না। ’ (সহিহ ইবনে হিব্বান, হাদিস : ৫৯১৯)

আরও পড়ুন:


বাবরের রেকর্ড গড়া সেঞ্চুরির পরও হোয়াইটওয়াশের লজ্জায় পাকিস্তান

ইসরাইলের নয়া প্রেসিডেন্টের সঙ্গে এরদোগানের ফোনালাপ

ঈদযাত্রা: আজ পাওয়া যাবে যে তারিখের টিকিট

যে কারণে এফডিসিতে এবার ছয়টি গরু কোরবানী দেবেন পরিমনি


 

আলী ইবনে আবি তালিব (রা.) বলেন, রাসুলুল্লাহ (সা.) আমাদের আদেশ করেছেন, আমরা যেন (কোরবানির পশুর) চোখ ও কান ভালোভাবে লক্ষ করি এবং ওই পশু দ্বারা কোরবানি না করি, যার কানের অগ্রভাগ বা পশ্চাদভাগ কর্তিত। তদ্রূপ যে পশুর কান ফাড়া বা কানে গোলাকার ছিদ্রযুক্ত। (সুনানে আবু দাউদ: ২/৩৮৮)

আরেক হাদিসে আলী ইবনে আবি তালিব (রা.) বলেন, ‘রাসুল (সা.) আমাদের শিং-ভাঙা বা কান-কাটা পশু দিয়ে কোরবানি করতে নিষেধ করেছেন। ’ (সুনানে ইবনে মাজাহ, হাদিস : ২২৭)

news24bd.tv নাজিম