বিয়ের জন্য চাপ দেয়ায় কিশোরী প্রেমিকাকে হত্যা

অনলাইন ডেস্ক

বিয়ের জন্য চাপ দেয়ায় কিশোরী প্রেমিকাকে হত্যা

কিশোরী প্রেমিকা বিয়ের জন্য প্রেমিককে চাপ দেয়ায় কিশোরীকে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে চাকু এবং গলায় ফাঁস দিয়ে হত্যা করে প্রেমিক আপন (১৮) । 

কুষ্টিয়ার মিরপুরে উদ্ধার হওয়া কিশোরী হত্যার রহস্য উন্মোচিহ হয়েছে জানিয়ে পুলিশ বলছে, হত্যাকাণ্ডের ২৪ ঘণ্টার মধ্যে জড়িত এক তরুণকে গ্রেপ্তার করে তারা। 

বৃহস্পতিবার দুপুরে কুষ্টিয়ার পুলিশ সুপার খাইরুল আলম এক প্রেস ব্রিফিংয়ে এসব তথ্য জানিয়েছেন।

পুলিশ সুপার জানান, হত্যাকাণ্ডের রহস্য উন্মোচনে ঘটনার পর থেকেই অভিযানে নামে পুলিশ। তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহার করে আপন (১৮) নামে একমাত্র আসামিকে গ্রেপ্তার করা হয়। জিজ্ঞাসাবাদে হত্যাকাণ্ডের বিষয়টি স্বীকার করে আপন। সে মিরপুর পৌরসভার কুরিপোল মধ্যপাড়া মহল্লার রংমিস্ত্রি মিলনের ছেলে ও আমলা সরকারি কলেজের শিক্ষার্থী।

এর আগে বুধবার বিকাল ৪টার দিকে পুলিশ কুষ্টিয়া-মেহেরপুর সড়কে ভাঙ্গা বটতলার কাছে একটি ভুট্টা ক্ষেত থেকে উম্মে ফাতেমা (১৪) নামের এক কিশোরীর মরদেহ উদ্ধার করা হয়।


বাবরের রেকর্ড গড়া সেঞ্চুরির পরও হোয়াইটওয়াশের লজ্জায় পাকিস্তান

ইসরাইলের নয়া প্রেসিডেন্টের সঙ্গে এরদোগানের ফোনালাপ

ঈদযাত্রা: আজ পাওয়া যাবে যে তারিখের টি


 

এদিকে বৃহস্পতিবার সকালে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালের মর্গে উম্মে ফাতেমার ময়নাতদন্ত শেষে দাফন সম্পন্ন হয়েছে।

ময়নাতদন্তকারী মেডিকেল অফিসার রুমন রহমান ও সুতপা রায় জানান, নৃশংসভাবে নির্যাতন করে তাকে হত্যা করা হয়েছে। শরীরের বিভিন্ন জায়গায় একাধিক ছুরিকাঘাতের চিহ্ন রয়েছে। এমনকি তার শরীর পোড়ানোও হয়েছে। গলায় রশি প্যাঁচানো ছিল।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

‌‘প্রতিশোধ নিতে’ কিশোরী শ্যালিকাকে তুলে নিয়ে ধর্ষণ, ভিডিও ভাইরাল

অনলাইন ডেস্ক

‌‘প্রতিশোধ নিতে’ কিশোরী শ্যালিকাকে তুলে নিয়ে ধর্ষণ, ভিডিও ভাইরাল

স্ত্রী তালাক দেওয়ায় কুষ্টিয়ায় সপ্তম শ্রেণির ছাত্রী শ্যালিকাকে বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে একাধিকবার ধর্ষণ করেছে বলে দুলাভাইয়ের বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠেছে।

পরে ধর্ষণের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছেড়েও দিয়েছে অভিযুক্ত। এ ঘটনায় আব্দুর রাজ্জাক (৩৮) নামে দুলাভাইকে আটক করেছে পুলিশ।

শুক্রবার (৩০ জুলাই) কুষ্টিয়ার কুমারখালী উপজেলার একটি বাড়ি থেকে পুলিশ তাকে আটক করে। তিনি উপজেলার পান্টি ইউনিয়নের বাগবাড়িয়া গ্রামের আব্দুর সাত্তারের ছেলে।

স্থানীয় সূত্র, পুলিশ ও নির্যাতিতার পরিবার জানায়, আট বছর আগে ওই কিশোরীর বড় বোনের সঙ্গে আব্দুর রাজ্জাকের বিয়ে হয়। সংসার জীবনে তাদের চার বছরের একটি ছেলেসন্তান রয়েছে। স্বামীর সঙ্গে বনিবনা না হওয়ায় গত ২৩ জুন রাজ্জাককে তালাক দেন তার স্ত্রী। স্ত্রীর তালাকে ক্ষুব্ধ হয়ে গত ৮ জুলাই সপ্তম শ্রেণিতে পড়ুয়া শ্যালিকাকে তুলে নিয়ে গিয়ে আত্মগোপন চলে যান রাজ্জাক। মেয়েকে অনেক খোঁজাখুজি করেও কোথায় না পেয়ে কুমারখালী থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) দায়ের করেন ওই ছাত্রীর মা।

জিডির সূত্র ধরে স্কলছাত্রীকে উদ্ধার অভিযান চালাতে থাকে পুলিশ। বুধবার (২৮ জুলাই) আব্দুর রাজ্জাক তার ব্যক্তিগত ফেসবুক পেজে শ্যালিকার তিন মিনিটের এক নগ্ন ভিডিও প্রচার করেন। এরপর শুক্রবার দুপুরে উপজেলার একটি ভাড়া বাসা থেকে ভিকটিমকে উদ্ধার ও রাজ্জাককে আটক করে পুলিশ।

ধর্ষণের শিকার কিশোরীর মা বলেন, রাজ্জাক খারাপ প্রকৃতির ছেলে। মাদকসহ নানা অপকর্মের সঙ্গে জড়িয়ে পড়ায় গত ২৩ জুন তার বড় মেয়ে তাকে তালাক দেন। এতে ক্ষুদ্ধ হয়ে গত ৮ জুলাই ছোট মেয়েকে তুলে নিয়ে আত্মগোপন করেন। এ সময় জোরপূর্বক তাকে একাধিকবার ধর্ষণ করেন এবং ভিডিও ধারণ করে রাখেন। এরপর সেই নগ্ন ভিডিও ফেসবুকে প্রচার করের। তিনি আব্দুর রাজ্জাকের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান।

কুমারখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কামরুজ্জামান তালুকদার বলেন, স্কুলছাত্রীকে অপহরণের পর ধর্ষণ ও ফেসবুকে নগ্ন ভিডিও প্রচার করার অভিযোগে আব্দুর রাজ্জাক নামের একজনকে আটক করা হয়েছে।

পরবর্তী খবর

টাকা চাওয়ায় ঝালমুড়ি বিক্রেতাকে পেটালো ঢাবি ছাত্রলীগ নেতা

অনলাইন ডেস্ক

টাকা চাওয়ায় ঝালমুড়ি বিক্রেতাকে পেটালো ঢাবি ছাত্রলীগ নেতা

ছাত্রলীগ নেতা রবিউল ইসলাম রবি। ছবি: ফেসবুক

ছাত্রলীগ নেতা রবিউল ইসলাম রবি পূর্বে বিভিন্ন সময় ঝালমুড়ি খেয়ে টাকা দেননি। সেই বকেয়া টাকা চাওয়ায় ছাত্রলীগ নেতা ঝালমুড়ি   বিক্রেতাকে মারধর করে। বৃহস্পতিবার রাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্র (টিএসসি) এলাকায় এই ঘটনা ঘটে।

ঘটনায় অভিযুক্ত ছাত্রলীগ নেতা রবিউল ইসলাম রবি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি।

ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী মীর আরশাদুল হক সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে লেখেন, রবিউল ইসলাম রবি নামের ওই ছাত্রলীগ নেতা জনতা ব্যাংক টিএসসি শাখার সামনে একজন ঝালমুড়ি বিক্রেতার জামার কলার ধরে মারতে উদ্যত হন। তিনিসহ ঘটনাস্থলে উপস্থিত আশপাশের বেশ কয়েকজন ওই ছাত্রলীগ নেতাকে থামাতে যান। কিন্তু অভিযুক্ত নিজেকে ছাত্রলীগের ভাইস প্রেসিডেন্ট পরিচয় দিয়ে বলেন, এটা অন্যদের দেখার বিষয় না।

ওই ঝালমুড়ি বিক্রেতা জানান, ছাত্রলীগ নেতা রবিউল ইসলাম রবি পূর্বে বিভিন্ন সময় তার কাছ থেকে ঝালমুড়ি খেয়ে টাকা দেননি। বকেয়া টাকা চাওয়ায় ছাত্রলীগ নেতা তাকে মারধর করেছে।

ঝালমুড়ি বিক্রেতা বলেন, আমার কোনো অপরাধ নেই।

প্রত্যক্ষদর্শীরা বলেন, ঝালমুড়ি বিক্রেতার সঙ্গে বাগবিতণ্ডার একপর্যায়ে ছাত্রলীগ নেতা রবিউল ইসলাম উত্তেজিত হয়ে যান। পূর্বের পাওনা টাকার প্রসঙ্গ কেন তোলা হচ্ছে এই কথা বলে তিনি ঝালমুড়ি বিক্রেতাকে সাজোরে থাপ্পড় ও ঘুষি মারেন।

আরও পড়ুনঃ


দ. কোরিয়ার কোন গালিও দেয়া চলবে না উত্তর কোরিয়ায়

তালেবানের হাত থেকে ২৪ জেলা পুনরুদ্ধারের দাবি

কাছাকাছি আসা ঠেকাতে টোকিও অলিম্পিকে বিশেষ ব্যবস্থা


 

এ বিষয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসাইন বলেন, আমরা বিষয়টি খতিয়ে দেখে যেভাবে ব্যবস্থা নেওয়া দরকার ব্যবস্থা গ্রহণ করব। 

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

হেলেনার বিরুদ্ধে গুলশান থানায় ২ মামলা

অনলাইন ডেস্ক

হেলেনার বিরুদ্ধে গুলশান থানায় ২ মামলা

আওয়ামী লীগের উপকমিটির সদস্য পদ হারানো এফবিসিসিআইর পরিচালক হেলেনা জাহাঙ্গীরের  বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন ও বিশেষ ক্ষমতা আইনে দু’টি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

শুক্রবার (৩০ জুলাই) বিকেলে গুলশান থানায় এ দুই মামলা দায়ের করা হয়। গুলশান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল হাসান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, র‌্যাব সদস্যরা হেলেনা জাহাঙ্গীরকে থানায় হস্তান্তর করেছেন। এরপর তার বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন ও বিশেষ ক্ষমতা আইনে দু’টি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

এর আগে হেলেনাকে জিজ্ঞাসাবাদের পর বিকেলে ব্রিফিংয়ে র‍্যাবের গণমাধ্যম শাখার পরিচালক খন্দকার আল মঈন জানান, হেলেনা জাহাঙ্গীরের সঙ্গে ১৩ টি ক্লাবের সখ্যতা রয়েছে। তিনি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহার করে চাঁদাবাজি করতেন।

'হেলেনা জাহাঙ্গীর একজন উচ্চাভিলাষী মহিলা। বিভিন্ন রাজনৈতিক ব্যক্তিদের সঙ্গে ছবি তুলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম দিয়ে নিজের উদ্দেশ্য হাসিল করতো।'

'সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিদেশে বসে সেফাতুল্লাহ নামে এক ব্যক্তি যে অশ্লীল শব্দ উচ্চারণ করতো সেই ব্যক্তির সঙ্গে অবৈধ লেনদেনসহ নিয়মিত যোগাযোগ রাখত হেলেনা জাহাঙ্গীর।'

খন্দকার আল মঈন বলেন, 'যেসব অবৈধ মদের বোতল উদ্ধার করা হয়েছে সবকিছু হেলেনা জাহাঙ্গীরের নিজ কক্ষে ছিল।

হেলেনা জাহাঙ্গীর এসব বিষয় স্বীকার করেছেন বলে জানান খন্দকার আল মঈন। পরে তাকে গুলশান থানায় হস্তান্ত করা হয়।

এর আগে ব্যবসায়ী হেলেনা জাহাঙ্গীরের বিরুদ্ধে অবৈধ মাদক, বন্যপ্রাণী সংরক্ষণ আইন এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভুল তথ্য ছড়ানোর অভিযোগে একাধিক মামলা দায়ের করা হয়।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় হেলেনা জাহাঙ্গীরের বাসায় অভিযান চালায় র‌্যাব। পরে তাকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য র‍্যাব সদর দপ্তরে নেওয়া হয়।

আওয়ামী লীগের মহিলাবিষয়ক উপকমিটির সদস্যপদ থেকে হেলেনা জাহাঙ্গীরকে অব্যাহতি দিয়ে গত রোববার আনুষ্ঠানিক সংবাদ বিজ্ঞপ্তি দেওয়া হয়।

আরও পড়ুনঃ


দ. কোরিয়ার কোন গালিও দেয়া চলবে না উত্তর কোরিয়ায়

তালেবানের হাত থেকে ২৪ জেলা পুনরুদ্ধারের দাবি

কাছাকাছি আসা ঠেকাতে টোকিও অলিম্পিকে বিশেষ ব্যবস্থা


 

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, হেলেনা জাহাঙ্গীর আওয়ামী লীগের মহিলাবিষয়ক উপকমিটির সদস্য ছিলেন। কিন্তু সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রচারিত তার সাম্প্রতিক কর্মকাণ্ড সংগঠনের নীতি বহির্ভূত হওয়ায় আওয়ামী লীগের মহিলাবিষয়ক উপকমিটির সদস্যপদ থেকে তাকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে। 

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

নাটোরে নিখোঁজের ৬ দিন পর ডোবায় লাশ

নাসিম উদ্দীন নাসিম, নাটোর

নাটোরে নিখোঁজের ৬ দিন পর ডোবায় লাশ

নাটোরের বড়াইগ্রামে নিখোঁজের ৬ দিন পর ডোবা থেকে ৭৫ বছর বয়সী এক বৃদ্ধার মৃতদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

শুক্রবার সকাল ৭টার দিকে উপজেলার বনপাড়া পৌর শহরের সরদারপাড়া এলাকার মহাসড়ক সংলগ্ন ডোবায় লাশ দেখতে পেয়ে স্থানীয়রা পুলিশকে খবর দেয়। পরে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে। নিহত ওই বৃদ্ধার নাম বির্জিনিয়া কস্তা। তিনি উপজেলার মাঝগাঁও বাহিমালী পূর্বপাড়া এলাকার মৃত বায়েন জোসেফের স্ত্রী।

নিহতের ভাতিজা পজ কস্তা জানান, বির্জিনিয়া কস্তা দীর্ঘদিন যাবৎ মানসিক ভারসাম্যহীন অবস্থায় চলাফেরা করছিলো। গত রবিবার সকাল থেকে তিনি আকস্মিক নিখোঁজ হন।

বনপাড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ পরিদর্শক রাশেদুল ইসলাম জানান, মৃতদেহ উদ্ধার করে লাশ ময়নাতদন্তের জন্য নাটোর হাসাপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। মৃত্যুর রহস্য উদঘাটন করতে পুলিশ তদন্ত শুরু করেছে।

আরও পড়ুন:

বিট লবনের যত উপকার

ধানখেতে ৮ ফুট অজগর

সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের ম্যুরাল ভাঙচুরকারীদের গ্রেপ্তার দাবি হানিফের

 news24bd.tv তৌহিদ

পরবর্তী খবর

কবরস্থানে ৬টি বোমাসদৃশ বস্তু

অনলাইন ডেস্ক

কবরস্থানে ৬টি বোমাসদৃশ বস্তু

নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার উপজেলায় একটি কবরস্থানে পলিথিন মোড়ানো ছয়টি বোমাসদৃশ বস্তু পাওয়া গেছে, যা ঘিরে রেখেছে পুলিশ।

ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) বোমা নিষ্ক্রিয়করণ দল ঘটনাস্থলে যাচ্ছে বলে জানা গেছে।

কবরস্থানের খাদেম চান শরীফ বলেন, শুক্রবার সকালে তিনি কবরস্থান পরিষ্কার করতে যান। এ সময় একটি কবরের পাশে ব্যাগের ভেতরে পলিথিনে মোড়ানো কালো কিছু বস্তু দেখতে পান। বস্তুগুলো বোমা হতে পারে, এমন সন্দেহ হওয়ায় তিনি স্থানীয় লোকজনকে ডেকে এনে দেখান।

আড়াইহাজার থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আনিচুর রহমান মোল্লা বলেন, বস্তুগুলো কালো স্কচটেপে মোড়ানো রয়েছে। এগুলো ককটেল হতে পারে বলে প্রাথমিকভাবে মনে হচ্ছে। বিষয়টি নিশ্চিত হতে ডিএমপির বোমা নিষ্ক্রিয়করণ দলকে খবর দেওয়া হয়েছে।

বেলা সাড়ে তিনটায় নারায়ণগঞ্জের সহকারী পুলিশ সুপার (গ-সার্কেল) আবির হোসেন বলেন, বিষয়টি নিয়ে আতঙ্কিত হওয়ার কিছু নেই। কেবল নিরাপত্তার স্বার্থে পুলিশ সদস্যরা স্থানটিকে ঘিরে রেখেছেন।

আরও পড়ুন:

বিট লবনের যত উপকার

ধানখেতে ৮ ফুট অজগর

সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের ম্যুরাল ভাঙচুরকারীদের গ্রেপ্তার দাবি হানিফের

 news24bd.tv তৌহিদ

পরবর্তী খবর