অনলাইনে কেনাকাটায় প্রতারণার হাত থেকে বাঁচার ৬টি উপায়

অনলাইন ডেস্ক

অনলাইনে কেনাকাটায় প্রতারণার হাত থেকে বাঁচার ৬টি উপায়

বাংলাদেশে অনলাইনে কেনাকাটা করতে গিয়ে প্রতারণার ঘটনা নতুন নয়। করোনাভাইরাস মহামারির সময় দেশে  যখন নিত্যনতুন অনলাইন ভিত্তিক বেচা-কেনার প্রতিষ্ঠান জন্ম নিচ্ছে, তখন ক্রেতারা অনেক সময়ই বুঝতে পারেন না, প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে কোনটি বিশ্বাসযোগ্য কিংবা কোনটিতে প্রতারণার আশংকা আছে।

তবে নির্দিষ্ট কিছু বিষয়ে সতর্কতা অবলম্বন করলে আপনি বেঁচে যেতে পারেন প্রতারণার হাত থেকে। অনলাইন মার্কেটিং এবং প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞরা সংবাদমাধ্যম বিবিসিকে সেরকমই কয়েকটি উপায়ের কথা জানিয়েছেন –

আসল ওয়েবসাইট চেনা

প্রতারক চক্র অনেক সময়ই বিখ্যাত কিংবা প্রতিষ্ঠিত কোন অনলাইনের ওয়েবসাইটের হুবহু প্রতিরূপ তৈরি করে। কখনো বানানে সামান্য পরিবর্তন এনে, কখনো ডিজাইনে।

সুতরাং আপনার কাঙ্খিত ওয়েবসাইটে ঢোকার আগে বানান এবং ডিজাইনের দিকে খেয়াল করুন। দেখুন আপনি সঠিক ওয়েবসাইটে ঢুকছেন কি-না।

প্রতিষ্ঠিত কোন কোম্পানি বা ব্র্যান্ড হুটহাট তাদের নামের বানান বা লোগো'র ডিজাইন পরিবর্তন করে না।

এছাড়া ওয়েব এড্রেসে http এর সঙ্গে s না থাকলে অর্থাৎ https না থাকলে সেই ওয়েবসাইট থেকে দূরে থাকুন।

সাইবার নিরাপত্তা বিশেষজ্ঞ আফিফা আব্বাস বলছেন, "সত্যিকারের ওয়েবসাইটে ঢুকছেন কি-না, সেটা দুইভাবে বোঝা যায়। প্রথমত: একটি অরিজিনাল ওয়েবসাইটের অ্যাড্রেসের শুরুতে অবশ্যই https থাকবে এবং ওয়েবসাইটটির একটি পূর্ণ ডোমেইন নেইম থাকবে, অর্থাৎ ডাব্লিউ ডাব্লিউ ডাব্লিউ ডট (WWW.), এর পরে কোন একটি নাম এবং শেষে ডটকম (.COM) থাকবে। দ্বিতীয়ত: ওয়েবসাইটটি কোন র‍্যানডম নাম্বার দিয়ে শুরু হবে না।"

রিভিউ এবং ঠিকানা

আপনি অনলাইনে যেখান থেকেই পণ্য কিনুন না কেন, কেনার আগে রিভিউ দেখে নেয়া অনেক গুরুত্বপূর্ণ। তবে অনেক সময় ফেইক রিভিউও থাকে।

অনলাইন মার্কেটিং বিশেষজ্ঞ সায়ন্তনী তিষা এক্ষেত্রে দুটি জিনিস খেয়াল করার কথা বলছেন।

প্রথমত: রিভিউয়ের বেশিরভাগই নতুন কি-না এবং দ্বিতীয়ত: রিভিউগুলো ভুয়া একাউন্ট থেকে কি-না, সেটা খেয়াল করতে হবে।

চেষ্টা করতে হবে, অনেক বেশি সংখ্যক রিভিউ পড়ে প্রতিষ্ঠানটি'র সেবা সম্পর্কে ধারণা পেতে। এছাড়া ওয়েবসাইটের বাস্তব কোন ঠিকানা এবং ফোন নাম্বার আছে কি-না, সেটি দেখে নিন।

অতিরিক্ত ছাড়, চটকদার বিজ্ঞাপন

বিশ্বব্যাপি প্রতারণার একটি বড় হাতিয়ার, চটকদার বিজ্ঞাপন দেখিয়ে ক্রেতাদের প্রলুব্ধ করা। এক্ষেত্রে অস্বাভাবিক মূল্য ছাড় বা ক্যাশব্যাক অফার কিংবা অস্বাভাবিক কম দামে পণ্য বিক্রি'র চটকদার বিজ্ঞাপন দেয়া হয়।

'এই সুযোগ খুবই স্বল্প সময়ের জন্য' এমন ঘোষণা দিয়ে গ্রাহকদের দ্রুত অর্ডার করতে প্রলুব্ধ করা হয়। সুতরাং এসব ক্ষেত্রে হুটহাট অর্ডার করার আগে অবশ্যই আপনার সতর্ক হওয়া উচিত।

পেইজের বয়স

ফেসবুকে অনলাইন কেনাকাটায় প্রতারণার ঘটনাগুলোতে উল্লেখযোগ্য ক্ষেত্রেই দেখা যায়, সেই পেইজগুলো নতুন করে তৈরি করা। সুতরাং আনকোরা কোন পেইজ থেকে অর্ডার করার আগে সেটি সম্পর্কে খোঁজ-খবর নিন। দেখুন, পেইজটিতে প্রোডাক্ট নিয়ে ফেসবুক লাইভ হচ্ছে কি-না।

পেইজটিতে যেসব পোস্ট বুস্ট করা হয়েছে, সেগুলোর তুলনায় অন্য পোস্টগুলোতে লাইক-কমেন্ট অস্বাভাবিক কম থাকলে সতর্ক হোন। এছাড়া ঠিকানা এবং রিভিউ অপশন আছে কি-না দেখে নিন। পোস্টের কমেন্টগুলো পড়ুন। তারপর সিদ্ধান্ত নিন।


আরও পড়ুনঃ

ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কে তীব্র যানজট, ভোগান্তি চরমে

নৌপথে যাত্রী ও যানবাহনের প্রচণ্ড চাপ

দ্বিতীয়বারের মতো অবসরের ঘোষণা দিলেন আরিয়েন রোবেন

অনলাইনে ট্রেনের টিকিট কাটার ভোগান্তি স্বাভাবিক: রেলমন্ত্রী


পণ্য যাচাই-বাছাই

সব দেখেশুনে যদি অর্ডার করতেই চান, তাহলে যে পণ্যটি পছন্দ করেছেন, সেটির বিবরণ বিস্তারিত আছে কি-না দেখে নিন।

পণ্যের মাপ, ওজন ইত্যাদি তথ্য জানুন। প্রয়োজনে চ্যাটিংয়ে গিয়ে আরো প্রশ্ন করুন। সন্দেহ হলে বিজ্ঞাপনের ছবি ছাড়াও পন্যটির রিয়েল ছবি চাইতে পারেন।

সবশেষে প্রতিষ্ঠানটির রিটার্ন এবং রিফান্ড পলিসি আছে কি-না, থাকলে সেটা কেমন এবং গ্রাহকবান্ধব কি-না, সেটা যাচাই করুন।

news24bd.tv / নকিব

পরবর্তী খবর

ল্যাপটপ পরিষ্কার রাখার সঠিক নিয়ম!

অনলাইন ডেস্ক

ল্যাপটপ পরিষ্কার রাখার সঠিক নিয়ম!

ল্যাপটপের কিবোর্ড কিছুদিন ব্যবহার করলেই ধুলো পড়ে। আমরা এই ধুলো বালি পরিষ্কার করলেও ল্যাপটপের নানা ফাঁকে ময়লা থেকে যায়, যা খালি চোখে ভালোভাবে দেখা যায়। আর এই ময়লাগুলো ল্যাপটপে রেখে দিলেই পরে শুরু হয় সমস্যা।

কয়েক বছর আগে ‘ইন্টারন্যাশনাল জার্নাল অব এনভায়রনমেন্টাল রিসার্চ অ্যান্ড পাবলিক হেল্থ’ নামক পত্রিকায় ‘ইউনিভার্সিটি অব ভেটেরিনারি মেডিসিন অ্যান্ড ফার্মেসি এমপ্লয়িজ’-এর একটি গবেষণাপত্র প্রকাশিত হয়।

সেখানে দেখা যায়, যে কোনও কিবোর্ডের ৯৬ শতাংশ অংশই নানা ধরনের ব্যাকটিরিয়ায় ভরা থাকে। সেগুলো নানা ধরনের সংক্রমণের কারণ হয়ে দাঁড়ায়।

কিবোর্ড কী দিয়ে পরিষ্কার করতে হবে এই বিষয়ে অনেকেই জানেন না। বিজ্ঞানীরা বলছেন, ৭০ শতাংশ আইসোপ্রোপাইল দিয়ে পরিষ্কার করলে কিবোর্ডের কোন ক্ষতি হয় না, আবার জীবাণুও পরিষ্কার হয়। কিন্তু এখন প্রশ্ন হলো কীভাবে পরিষ্কার করবেন আর কতদিন অন্তর পরিষ্কার করবেন?

কীভাবে পরিষ্কার করবেন?

কম্পিউটার এবং ল্যাপটপ নির্মাতা সংস্থা বলছে, নরম সুতির কাপড়ে আইসোপ্রোপাইল লাগিয়ে, তা দিয়ে কিবোর্ড পরিষ্কার করা উচিত। ডিসপ্লেও একই ভাবে পরিষ্কার করা যেতে পারে। তবে কখনো আইসোপ্রোপাইল সরাসরি কিবোর্ডে স্প্রে করা যাবে না।

কত দিন অন্তর পরিষ্কার করবেন?

‘ইউনিভার্সিটি অব ভেটেরিনারি মেডিসিন অ্যান্ড ফার্মেসি এমপ্লয়িজ’-এর একটি গবেষণাপত্রে বলা হয়েছে, এক বার পরিষ্কার করার দু’সপ্তাহ পর থেকে আবার দ্রুত গতিতে জীবাণুর বংশবৃদ্ধি হতে থাকে। তাই দু’সপ্তাহ পর পর ল্যাপটপ বা কম্পিউটারের কিবোর্ড পরিষ্কার করা উচিত।

আরও পড়ুন:


বাড়ানো হয়েছে লঞ্চ চলাচলের সময়

এবার পর্নোগ্রাফি শুটিংয়ের অভিযোগে অভিনেত্রী গ্রেপ্তার

সাকিবের সামনে রেকর্ড গড়ার হাতছানি, যেখানে তিনিই হবেন প্রথম

চিত্রনায়িকা একার বিরুদ্ধে হাতিরঝিল থানায় দুই মামলা


news24bd.tv / কামরুল 

পরবর্তী খবর

ফাইভ জি ইন্টারনেট চালুর প্রস্তুতি নিচ্ছে বাংলাদেশ

রিশাদ হাসান

গ্রাম থেকে শহর সবখানে ইন্টারনেট। তথ্য-প্রযুক্তির ছোঁয়ায় বদলে গেছে মানুষের জীবন মান বদলেছে সময়। তাইতো তথ্য-প্রযুক্তির বিপ্লব ঘটাতে বাংলাদেশ প্রস্তুতি নিচ্ছে ফাইভ জি ইন্টারনেট চালুর জন্য। যা বদলে দিবে শহর থেকে আবহমান গ্রাম বাংলার পুরো চিত্র। প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞরা বলছেন, বর্তমান সময়ে এই ইন্টারনেট সেবার ফলে চতুর্থ শিল্পবিপ্লবে পিছিয়ে পড়বে না বাংলাদেশ। 

আবহমান গ্রাম বাংলার চিত্র। গ্রাম ঠিকই আছে তবে এখানে লেগেছে ডিজিটালাইজেশনের ছোঁয়া। এখানকার দোকানী ছেলেটিও দিনভর দোকানে কাজ করে আর মালপত্র কেনে ইন্টারনেটের সহায়তায়।

এখন গ্রামকে পুরোপুরিই বদলে দিয়েছে ইন্টারনেট সেবা। মোবাইল মানি ট্রান্সফার-ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট অথবা সেটটপ বক্স। ফ্রিলানসিং থেকে বিনোদন সবখানেই এখন প্রযুক্তি বিপ্লব। এ সবই হচ্ছে ফোর জি ইন্টারনেটের বদৌলতে।

তবে বাংলাদেশ চাইছে বর্তমান অবস্থারও উন্নতি করতে। তারা চাইছে দেশের বর্তমান অবস্থার উন্নতি ঘটিয়ে চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের প্রতিযোগীতায় নামতে যার অন্যতম উপাদান ফাইভ জি ইন্টারনেট।

এই ফাইভ জি ইন্টারনেট বদলে দিবে সারা পৃথিবীকে। গ্রাম থেকে শহর সবখানে যোগাযোগ হবে সুদৃঢ় আর কৃত্তিম বুদ্ধিমত্তা হবে মানুষের সাহায্যকারী। হুওয়ায়ের এই সম্পার্ট সিটি প্রজেক্ট দেখলে যা খানেকটা আন্দাজ করা যায়।

শুধু তাই নয় স্মার্ট সিটির পাশাপাশি কৃষিতেও ব্যাপক উন্নতি সাধন হবে। সুইজার ল্যান্ডের এই ফাইভ জি স্মার্ট ফার্মটি যার বাস্তব উদাহরন। কৃষি প্রধান দেশের হাতে যখন এমন প্রযুক্তি আসবে তখন বদলে যাবে গ্রামীন জনপদ। পার্থক্য হারাবে শহরের সাথেও।

আরও পড়ুন:


বিট লবনের যত উপকার

ধানখেতে ৮ ফুট অজগর

সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের ম্যুরাল ভাঙচুরকারীদের গ্রেপ্তার দাবি হানিফের


 

এরই মধ্যে ফাইভ জি টেস্টিং করেছে বাংলাদেশ। তবে করোনার কারনে ফাইভ জি নিলাম সম্পন্ন না হওয়ায় কিছুটা অপেক্ষা করতেই হচ্ছে।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

আড়াই কোটি টাকা ভ্যাট দিল ফেসবুক

অনলাইন ডেস্ক

আড়াই কোটি টাকা ভ্যাট দিল ফেসবুক

চলতি জুলাই মাসে ঢাকা দক্ষিণ ভ্যাট কমিশনারে ভ্যাট রিটার্ন জমা দিয়েছে ফেসবুক। বাংলাদেশে ব্যবসা করে এমন নিবন্ধিত অনাবাসী  প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে এই প্রথম ভ্যাট রিটার্ন পেল ভ্যাট বিভাগ।

বিস্তারিত আসছে…

news24bd.tv/ নকিব

পরবর্তী খবর

সীমিত আকারে বুয়েটের ‘অক্সিজেট’ উৎপাদন ও ব্যবহারের অনুমোদন

অনলাইন ডেস্ক

সীমিত আকারে বুয়েটের ‘অক্সিজেট’ উৎপাদন ও ব্যবহারের অনুমোদন

ছবি- সংগৃহীত

সীমিত আকারে বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় (বুয়েট) উদ্ভাবিত যন্ত্র অক্সিজেটের উৎপাদন ও ব্যবহারের অনুমোদন দিয়েছে ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তর। বিভিন্ন শর্তসাপেক্ষে নির্ধারিত ল্যাবরেটরিতে তৈরি করার শর্তে এই অনুমোদন দেয়া হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২৯ জুলাই) বুয়েটের বায়োমেডিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. তৌফিক হাসান বলেন, ‘তিন ধাপে পরীক্ষায় সফল হওয়ায় ঔষধ প্রশাসন আমদের প্রাথমিকভাবে ২০০ ইউনিট উৎপাদন করার অনুমোদন দিয়েছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘এজন্য বেশ কিছু শর্ত জুড়ে দেওয়া হয়েছে। সেসব মেনে সব ডিভাইজ তৈরি করতে হবে। হাসপাতালে এসব ডিভাইজ ব্যবহারে কি ফলাফল হলো, তা নিয়ে তিন মাস পর আমাদের রিপোর্ট জামা দিতে হবে। রিপোর্ট ভালো হলে চাইলে এরপর আরও বেশি উৎপাদনের অনুমোদন দেওয়া হবে বলে জানানো হয়েছে।’

ডিজিডিএ’র উপপরিচালক মো. সালাউদ্দিন বিষয়টি সংবাদমাধ্যমকে নিশ্চিত করে বলেন, ‘জরুরি ব্যবহারের জন্য স্বল্পসংখ্যক অক্সিজেটের (২০০ ইউনিট) সীমিত অনুমোদন দেওয়া হয়েছে সুনিয়ন্ত্রিতভাবে ব্যবহারের জন্য। এটি অনেকটা ট্রায়ালের অংশ।’

তিনি বলেন, ‘প্রত্যেক রোগীর তথ্য রাখতে হবে। দেখতে হবে যে এতে রোগীর উপকার হচ্ছে কি না, কোনো পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া হচ্ছে কি না কিংবা কোনো ঝুঁকি তৈরি হচ্ছে কি না।’


আরও পড়ুন:

ওমরাহ্‌ পালনে করতে মানতে হবে যেসব শর্ত

গুলি করে ফিলিস্তিনি শিশুর বুক ঝাঁজরা করে দিল ইসরাইলি বাহিনী

কুমিল্লায় বালু বোঝাই ট্রাক্টরে কাভার্ডভ্যানের ধাক্কা, নিহত ৩

কলাপাড়ায় ধারালো অস্ত্র দিয়ে ছাত্রলীগ নেতার কবজি কেটে নিল প্রতিপক্ষ


সবকিছু পর্যবেক্ষণ করে যন্ত্রটির গণ-উৎপাদনের অনুমোদন দেওয়ার বিষয়টি বিবেচনা করা হবে বলেও জানান তিনি।

প্রসঙ্গত, তীব্র শ্বাসকষ্টে ভোগা রোগীদেরও হাসপাতালের সাধারণ বেডে রেখেই এ যন্ত্রের মাধ্যমে উচ্চমাত্রায় অক্সিজেন-সহায়তা দেওয়া যায় বলে জানিয়েছেন উদ্ভাবকরা।

news24bd.tv/ নকিব

পরবর্তী খবর

বাংলাদেশে ভ্যাকসিন ফাইন্ডার চালু করেছে ফেসবুক

অনলাইন ডেস্ক

বাংলাদেশে ভ্যাকসিন ফাইন্ডার চালু করেছে ফেসবুক

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ এবং স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে মিলিত হয়ে দেশে ভ্যাকসিন ফাইন্ডার চালু করেছে ফেসবুক। নতুন এই টুলটির মাধ্যমে বাংলাদেশিরা জানতে পারবে কারা টিকা নিতে পারে। 

একই সঙ্গে টুলটি তাদের নিকটস্থ টিকাদানকেন্দ্র খুঁজে পেতে সাহায্য করবে। 

আরও পড়ুন:


ব্যবসায়িক চুক্তিভঙ্গের অভিযোগে রাজ-শিল্পাকে জরিমানা

পবিত্র জুমার দিনের বিশেষ পাঁচটি বৈশিষ্ট্য

আজ বিকেলে ঢাকায় আসছে অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দল

টেকনোলজি বিষয়ক অলাভজনক সংগঠন মিদান-এর ডিজিটাল হেলথ ল্যাবের সঙ্গে এই সপ্তাহে পার্টনারশিপ শুরু করেছে ফেসবুক জার্নালিজম প্রজেক্ট।

news24bd.tv রিমু 

 

পরবর্তী খবর