ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালে যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী ড. সাদীর করোনার ওষুধ

অনলাইন ডেস্ক

ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালে যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী ড. সাদীর করোনার ওষুধ

করোনা চিকিৎসায় টিভিজিএন-৪৮৯, এবং সাইটোটক্সিক টি লিম্ফোসাইটস ওষুধ আবিস্কার করেছেন বাংলাদেশি আমেরিকান চিকিৎসা-বিজ্ঞানী ড. রায়ান সাদী। বর্তমানে এই ওষুধ মানবদেহের জন্যে নিরাপদ কি না তা যাচাইয়ের জন্যে ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের অনুমতি দিয়েছে মার্কিন ফেডারেল ওষুধ প্রশাসন তথা এফডিএ।

বিশ্ব মিডিয়ায় নিউজার্সিতে অবস্থিত বায়ো-টেকনোলজি কোম্পানী ‘টেভোজেন বায়ো’র সিইও এবং গবেষণা টিমের প্রধান ড. রায়ানের এই আবিষ্কারের খবর ব্যাপক সাড়া ফেলেছে। করোনা মহামারিতে বিধ্বস্ত অর্থনীতি এবং মুষড়ে পড়া জনজীবনে স্বস্তি আনতে এমন ওষুধের প্রয়োজনীয়তা ভিষণভাবে উপলব্ধি করছিলেন সকলেই। 

করোনার প্রকোপ শুরুর পরই পাবনার সন্তান এবং ঢাকা মেডিকেল কলেজ থেকে এমবিবিএস করা রায়ান সাদী নির্বিঘ্নচিত্তে এই ওষুধ আবিষ্কারে মনোনিবেশ করেন।

উল্লেখ্য, আগে থেকেই ক্যান্সার চিকিৎসার সবচেয়ে বেশি কার্যকর ওষুধের গবেষণা করছিলেন তিনি। সেটিকে করোনাভাইরাস নির্মুলের দিকে ধাবিত করেন। গত বছরের অক্টোবরে তার গবেষণা শেষ হয় এবং এফডিএর অনুমতির আবেদন করেছিলেন। প্রচলিত রীতি অনুযায়ী এফডিএ তার পর্যবেক্ষণ-বিশ্লেষণ শেষে এটি করোনা নির্মুলে ভূমিকা রাখবে কিনা তা যাচাইয়ের জন্যে ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালে পাঠিয়েছে। সেই অনুযায়ী ১২ জুলাই ‘টেভোজেন-বায়ো’ আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দিয়েছে ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের। এই ট্রায়ালের মাধ্যমে ‘টিভিজিএন-৪৮৯’ মানবদেহের জন্যে কতটা নিরাপদ তা নিশ্চিত হতে চায় এফডিএ।

করোনার টিকা গ্রহণ করলে মানুষ করোনার সংক্রমণ প্রতিহত করার ক্ষমতা অর্জন করে। করোনাভাইরাসকে মেরে ফেলতে পারে না। ড. সাদীর এই ওষুধ করোনায় আক্রান্ত বা সংক্রমিত সেলকে নির্মূল করবে। ট্রায়ালের মাধ্যমে করোনায় আক্রান্তরা এই ওষুধ গ্রহণ করলে মৃত্যুর ঝুঁকিতে পড়বে না-সেটিও নিশ্চিত হতে চায় মার্কিন স্বাস্থ্য প্রশাসন। এছাড়া, এই ওষুধ গ্রহণকারিরা কত দীর্ঘ সময়ের জন্য করোনার মত ভয়ংকর ভাইরাসের আক্রমণ থেকে দূরে থাকতে সক্ষম-তাও ট্রায়ালের অন্তর্ভুক্ত।

করোনা প্রতিনিয়ত পাল্টাচ্ছে এবং ভয়ংকর আকারে আবির্ভূত হচ্ছে। সেদিকে খেয়াল রেখে এই ওষুধ তৈরী করা হয়েছে বলে ১৫ জুলাই বৃহস্পতিবার অপরাহ্নে বাংলাদেশ প্রতিদিনকে জানিয়েছেন ড. রায়ান সাদী।

ইয়েল ইউনিভার্সিটির সংক্রমণ রোগ বিষয়ে বিশেষভাবে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত ড. রায়ান সাদী বলেন, ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের জন্যে এফডিএ থেকে অতিদ্রুত ছাড়পত্র পাওয়ায় আমি এবং আমার সহকর্মীরা খুবই সন্তুষ্ট। কারণ সারস-সিওভি-২’র সংক্রমণ রোধে সক্ষম কোষগুলিকে আরো শক্তিশালী করার ক্ষেত্রে এই সেল-থেরাপি অপরিসীম ভূমিকা রাখবে। সেল থেরাপির মাধ্যমে মহামারি দেখা দেয়া অঞ্চলেও এই ওষুধের সুফল পাবেন আক্রান্তরা। এমন চিকিৎসা-ব্যবস্থায় নানা সীমাবদ্ধতা রয়েছে, তাও দূর করতে ভূমিকা রাখবে এই ওষুধ। 

ড. রায়ান উল্লেখ করেন, খুব দ্রুত এটি রোগীকে প্রয়োগ করতে আমার টিম আন্তরিক অর্থেই সজাগ রয়েছে। ড. সাদী বলেন, এই ওষুধ কোষে সংক্রমিত হওয়া ভাইরাসকে একেবারেই নি:শেষ করবে। তার ফলে রোগী স্বল্পতম সময়ে আরোগ্য লাভে সক্ষম হবে। 

আবিষ্কৃত ওষুধ টিভিজিএন-৪৮৯ প্রসঙ্গে বিজ্ঞানী সাদী বলেন, এটি ভাইরাসের গতি-বিধি চিহ্নিত করতে পারে এবং তা মেরে ফেলে সুস্থ মানুষের কোষের ন্যায় অর্থাৎ স্বাভাবিক প্রক্রিয়ায় নতুন কোষ সৃষ্টিতে সক্ষম হবে। ইতিমধ্যেই পরিচালিত পর্যবেক্ষণ জরিপে (প্রি-ক্লিনিক্যাল) আমরা তা নিশ্চিত হয়েছি।  

করোনা যেভাবে আর যে নামেই আবির্ভূত হউক না কেন-সেই ভাইরাসকে চিরতরে নির্মূলে সক্ষম হবে বলে আশা প্রকাশ করেছেন এই টিভিজিএন-৪৮৯-ওষুধ আবিষ্কারে নেপথ্য পৃষ্টপোষক বিশ্বখ্যাত সেল-থেরাপি বিশেষজ্ঞ এবং ফিলাডেলফিয়ার থমাস জেফারসন ইউনিভার্সিটির মেডিকেল অনকোলজি ডিপার্টমেন্টের চেয়ারম্যান ড. নীল ফ্লোমেনবার্গ। ড. নীল এ প্রসঙ্গে বলেন, প্রাথমিক পর্যবেক্ষণে আমরা এই ওষুধকে নিরাপদ ভাবতে পারি। এখন ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালেও তা সব ধরনের ভাইরাসকে নির্মূলে কার্যকর ভূমিকা রাখবে-এটাই প্রমাণিত হবে, সে আশা করছি।

আরও পড়ুন


সতর্কতার পরেও ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা নিয়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় দুই গ্রামের সংঘর্ষ

বাংলা একাডেমির সাথে থাকা মানে বাংলাদেশের সাথে থাকা: নূরুল হুদা

তিশা-ফারুকীর একসাথে চলার ১১ বছর

করোনায় রাঙ্গামাটির অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আহসান হাবীবের মৃত্যু


৭০ বছরেরও অধিক বয়সের রোগী, ডায়াবেটিস, উচ্চ রক্তচাপসহ নানা জটিল রোগে আক্রান্ত এবং করোনায় সংক্রমিত হবার প্রচণ্ড ঝুঁকিতে থাকা ১৮ বছরের অধিক বয়সী সকল মানুষ এবং আগে থেকেই জটিল রোগে আক্রান্ত-এখন করোনায় সংক্রমিত হয়েছেন-এমন রোগীর ওপর ট্রায়াল চালানো হবে বলে জানান ড. সাদী। 

সর্বশেষ বিশ্লেষণ-পর্যবেক্ষণ অনুযায়ী ২০২৮ সালের মধ্যে সারাবিশ্বে চিকিৎসা-ব্যবস্থায় যুগান্তকারি উৎকর্ষ সাধনের অভিপ্রায়ে সবচেয়ে কার্যকর গবেষণায় নিয়োজিত বৃহৎ পরিসরের ১০টি ওষুধ প্রস্তুতকারি প্রতিষ্ঠানের অন্যতম হবে এই ‘টেভোজেন বায়ো’-যার মালিক হচ্ছেন ড. সাদী।

ড. সাদী বলেছেন, করোনা রোগীকে সারিয়ে তোলার এই ওষুধ ব্যবহারের জন্যে এফডিএর অনুমতি পাবার পর তা বাংলাদেশ যদি চায় আমি বিনামূল্যে দিতে কার্পণ্য করবো না। স্বল্পভাষী এবং প্রচণ্ড পরিশ্রমী ড. সাদী বললেন, তবে বাংলাদেশে তা যথাযথভাবে সংরক্ষণের ব্যবস্থা থাকতে হবে। প্রয়োজন হবে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত চিকিৎসকের। সেল থেরাপি দেয়ার মত আনুষঙ্গিক সামগ্রির পাশাপাশি এইচএলএ টেস্টিং মেশিনও লাগবে। ড. সাদী উল্লেখ করেছেন, বাংলাদেশের চিকিৎসকদের প্রশিক্ষণের ব্যবস্থাও আমি করে দেব আমার খরচেই। সূত্র: বাংলাদেশ প্রতিদিন।

news24bd.tv এসএম

পরবর্তী খবর

যুক্তরাজ্যে একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির সভা

অনলাইন ডেস্ক

যুক্তরাজ্যে একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির সভা

একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটি যুক্তরাজ্য শাখার নির্বাহী কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। 

৩১ জুলাই শনিবার এই সভা অনুষ্টিত হয়। সংগঠনের সেক্রেটারি রুবি হকের পরিচালনায় সভাপতিত্ব করেন প্রেসিডেন্ট সৈয়দ এনামুল ইসলাম।

সভায় সংগঠনের আগামী ১ বছরের কর্মপরিকল্পনা করা হয়। ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস পালনের মধ্যে দিয়ে আগামী ১ বছরের কর্মপরিকল্পনার সূচনার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

আরও পড়ুনঃ


দ. কোরিয়ার কোন গালিও দেয়া চলবে না উত্তর কোরিয়ায়

তালেবানের হাত থেকে ২৪ জেলা পুনরুদ্ধারের দাবি

কাছাকাছি আসা ঠেকাতে টোকিও অলিম্পিকে বিশেষ ব্যবস্থা


 

সভায় আরও বক্তব্য রাখেন অনারারি প্রেসিডন্ট নূর উদ্দিন আহমেদ, একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য আনসার আহমেদ উল্লাহ, যুক্তরাজ্য কমিটির ভাইস প্রেসিডেন্ট মতিয়ার চৌধুরী, নিলুফা ইয়াসমীন হাসান, জামাল আহমেদ খান, ট্রেজারার এনামুল হক, অর্গানাইজিং সেক্রেটারী শাহ মোস্তাফিজুর রহমান বেলাল, এসিস্টেন্ট জেনারেল সেক্রেটারী স্মৃতি আজাদ, ইন্টারন্যাশনাল সেক্রেটারি কাউন্সিলার পুস্পিতা গুপ্তা, প্রেস সেক্রেটারি আ স ম মাসুম, পাবলিকেশন সেক্রেটারি জুয়েল রাজ, কালচারাল সেক্রেটারি সেলিনা আক্তার জোছনা, নির্বাহী সদস্য সুশান্ত দাশ প্রশান্ত ও জোছনা পারভীন।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

ভিয়েনায় এশিয়া-প্যাসিফিক গ্রুপের সভাপতি হলেন রাষ্ট্রদূত মুহিত

অনলাইন ডেস্ক

ভিয়েনায় এশিয়া-প্যাসিফিক গ্রুপের সভাপতি হলেন রাষ্ট্রদূত মুহিত

অস্ট্রিয়াতে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত এবং ভিয়েনাস্থ জাতিসংঘের সংস্থাসমূহ ও অন্যান্য আন্তর্জাতিক সংস্থায় নিযুক্ত বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি মুহাম্মদ আবদুল মুহিত ২৯ জুলাই ভিয়েনায় এশিয়া ও প্রশান্ত মহাসাগরীয় দেশসমূহের গ্রুপের (এপিজি) সভাপতির দায়িত্ব গ্রহণ করেছেন।

ভিয়েনায় জাতিসংঘের বিভিন্ন সংস্থাসমূহ ও অন্যান্য বৈশ্বিক প্রক্রিয়ায় ৫৪ সদস্য রাষ্ট্রের অনন্য ও বৈচিত্র্যময় এই গ্রুপের অবস্থান সমন্বয়ের ক্ষেত্রে গ্রুপটির সভাপতি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন।

এক ভার্চুয়াল অনুষ্ঠানের মাধ্যমে বাংলাদেশ সদ্য সাবেক সভাপতি আফগানিস্তানের কাছ থেকে সভাপতির দায়িত্বভার গ্রহণ করে যেখানে ভিয়েনায় নিযুক্ত এশিয়া ও প্রশান্ত মহাসাগরীয় দেশসমূহের স্থায়ী প্রতিনিধি এবং অন্যান্য কূটনীতিকরা উপস্থিত ছিলেন।

আরও পড়ুন:


বিএনপি-জামায়াত-হেফাজত করোনার মতো বারবার রূপ পরিবর্তন করছে: বাহাউদ্দিন নাছিম

টিকা নেয়ার পরেও করোনা পজিটিভ ফারুকী

স্বামীর পর্নকাণ্ড: মানহানির মামলা নিয়ে শিল্পাকে আদালতের ভর্ৎসনা


অনুষ্ঠানে রাষ্ট্রদূত মুহিত টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা (এসডিজি), জলবায়ু পরিবর্তন রোধ, পারমাণবিক প্রযুক্তির শান্তিপূর্ণ ব্যবহার, অন্তর্ভুক্তিমূলক ও টেকসই শিল্প উন্নয়ন, সন্ত্রাস মোকাবেলা, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ, দুর্নীতি দমন এবং চলমান করোনা মহামারি মোকাবেলা ও কোভিড-পরবর্তী সবুজ পুনরুদ্ধারসহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে এশিয়া ও প্রশান্ত মহাসাগরীয় দেশসমূহের স্বার্থ সংরক্ষণে তার দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

যুক্তরাজ্য সফররত পরিবেশমন্ত্রী

প্রবাসে মুক্তিযুদ্ধের সংগঠকদের অবদান জাতি কখনো ভুলতে পারবে না

অনলাইন ডেস্ক


প্রবাসে মুক্তিযুদ্ধের সংগঠকদের অবদান জাতি কখনো  ভুলতে পারবে না

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বাধীনতার ঘোষণার পরে সেসময় প্রবাসে বসবাসরত দেশপ্রেমিক বাঙালি নেতৃবৃন্দ বহির্বিশ্বে বাংলাদেশের স্বাধীনতার সপক্ষে জনমত সৃষ্টিতে যে অসামান্য অবদান রাখেন, তা বাঙালি জাতি কখনও  ভুলতে পারবে না বলে জানিয়েছেন  পরিবেশ,বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রী মোঃ শাহাব উদ্দিন। 

তিনি বলেন, প্রবাসে মুক্তিযুদ্ধের সংগঠকদের অক্লান্ত পরিশ্রমের ফলে বিশ্বের শক্তিশালী রাষ্ট্রগুলির জনমত স্বাধীনতার পক্ষে আসে। ফলে আমাদের স্বাধীনতা অর্জন ত্বরান্বিত হয় এবং স্বাধীনতার পর পরই অনেক দেশ বাংলাদেশকে স্বীকৃতি প্রদান করে। 

পরিবেশমন্ত্রী শুক্রবার বিকেলে ইস্ট লন্ডনের সিডনি স্ট্রিটে স্থাপিত বাংলাদেশের স্থপতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্যে পুষ্পস্তবক অর্পণ এবং  গার্ডেন অফ পিস কবরস্থানে অবস্থিত প্রবাসে মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক ও যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি মরহুম আলহাজ উস্তার আলীর কবর জিয়ারতকালে উপস্থিত স্থানীয় বাঙালি কমিউনিটির সদস্যদের উদ্দেশে এসব কথা বলেন। 

পরিবেশমন্ত্রী বলেন, প্রবাসে মুক্তিযুদ্ধের সংগঠকদের এই অসামান্য অবদানের স্বীকৃতি স্বরূপ বাংলাদেশ সরকার তাদের বীর মুক্তিযোদ্ধার স্বীকৃতি প্রদান করছে। শুধু জাতীয়ভাবেই নয়, ব্যক্তি পর্যায়েও তাদের এই অবদান আমাদের শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করতে হবে। 

এসময় মন্ত্রী প্রবাসে মুক্তিযুদ্ধের পক্ষে জনমত সৃষ্টি, দেশের এবং এলাকার মানুষের কল্যাণে আজীবন কাজ করে যাওয়া মরহুম উস্তার আলীর অবদানের কথা শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করেন এবং তাঁর বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করেন।

আরও পড়ুনঃ


দ. কোরিয়ার কোন গালিও দেয়া চলবে না উত্তর কোরিয়ায়

তালেবানের হাত থেকে ২৪ জেলা পুনরুদ্ধারের দাবি

কাছাকাছি আসা ঠেকাতে টোকিও অলিম্পিকে বিশেষ ব্যবস্থা


 

যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ,স্থানীয় বাংলাদেশি কমিউনিটির নেতৃবৃন্দ, জুড়ী-বড়লেখার প্রবাসী নাগরিকগণ এবং মরহুম উস্তার আলী সাহেবের পরিবারের সদস্যরা এসময় উপস্থিত ছিলেন।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

যুক্তরাষ্ট্রে ​জমজমাট 'বাংলাদেশ মেলা'

অনলাইন ডেস্ক

যুক্তরাষ্ট্রে ​জমজমাট 'বাংলাদেশ মেলা'

যুক্তরাষ্ট্রের নিউজার্সি অঙ্গরাজ্যের আটলাণ্টিক সিটিতে গত মঙ্গলবার (২৭ জুলাই) অনুষ্ঠিত হয়ে গেল বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সাউথজার্সির উদ্যোগে বাংলাদেশ মেলা। এটলান্টিক সিটির সেন্ট ক্যাসেল স্টেডিয়াম বাংলাদেশ মেলা ​হয় ।

বাংলাদেশ মেলাকে সামনে রেখে ইতোমধ্যে সাউথজার্সিতে বসবাসরত বাংলাদেশিরা চাকরি থেকে ছুটি নিয়ে রেখেছিলেন ২৭ জুলাই মঙ্গলবার। স্কুল-কলেজের ছেলেমেয়েদের ছুটির দিন থাকায় বিদেশে বসে দেশীয় সংস্কৃতির স্বাদ নেয়ার জন্য উপস্থিত হয়েছিল সাউথজার্সিতে বসবাসরত স্কুল-কলেজের ছেলেমেয়েরা। 

এদিকে বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সাউথজার্সির সভাপতি জহিরুল ইসলাম বাবুল এবং সাধারণ সম্পাদক জাকিরুল ইসলাম খোকা জানান, তাদের সংগঠন একটি সুন্দর মেলা আয়োজনের মাধ্যমে একদিকে যেমন প্রবাসীদের আনন্দ দেয় ঠিক তেমনি বাংলাদেশ কমিউনিটি সেন্টারের উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে।

জহিরুল ইসলাম বাবুল জানান, গত ২০১৮ সালের  মতো এই মেলা থেকে আয়কৃত অর্থ বাংলাদেশ কমিউনিটি সেন্টারের উন্নয়নের কাজে ব্যবহার করা হবে। এছাড়াও এ মেলার মাধ্যমে যুক্তরাষ্ট্রের মেইন স্ট্রিম রাজনীতিবিদরা বাংলাদেশের কৃষ্টি এবং সংস্কৃতির সাথে পরিচিত হওয়ার সুযোগ তৈরি হবে বলে তারা জানান। মেলার প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ফজলুল কাদের। এবারের মেলার আহবায়ক ছিলেন গিয়াসউদ্দিন পাঠান এবং সদস্য সচিব মো. আইয়ুব।

বিকাল ৭টায় বাংলাদেশের এবং যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় সংগীত পরিবেশনের মধ্য দিয়ে মেলার উদ্বোধন করেন প্রধান অতিথি ফজলুল কাদের। এরপর যুক্তরাষ্ট্রের মেইন স্ট্রিমের নেতারা শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন।

আরও পড়ুন:


বিট লবনের যত উপকার

ধানখেতে ৮ ফুট অজগর

সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের ম্যুরাল ভাঙচুরকারীদের গ্রেপ্তার দাবি হানিফের


মেলায় ছিল খাবার ও পোশাকসহ হরেক রকমের দোকান এবং  র্যাফেল ড্র ইত্যাদি। মূল আকর্ষণ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে সঙ্গীত পরিবেশন করেন বাংলাদেশের জনপ্রিয় সঙ্গীত শিল্পী বেবী নাজনীনসহ প্রবাসের জনপ্রিয় শিল্পী শাহ মাহবুব, নাজু আকন্দ এবং মুমু।  

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

অস্ট্রেলিয়া-বাংলাদেশ জার্নালিস্ট এসোসিয়েশনের নতুন কমিটি

অনলাইন ডেস্ক

অস্ট্রেলিয়া-বাংলাদেশ জার্নালিস্ট এসোসিয়েশনের নতুন কমিটি

অস্ট্রেলিয়া-বাংলাদেশ জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশনের নতুন কার্যকরী পরিষদ গঠন করা হয়েছে। মোহাম্মাদ আবদুল মতিনকে সভাপতি ও ফয়সাল আহমেদকে সাধারণ সম্পাদক করে ১৩ সদস্য বিশিষ্ট নতুন কার্যকরী পরিষদের নাম ঘোষণা করেছে সংগঠনটি। 

২৮ জুলাই এক জুম সভায় এ গঠন করা হয়।

আরও পড়ুনঃ


দ. কোরিয়ার কোন গালিও দেয়া চলবে না উত্তর কোরিয়ায়

তালেবানের হাত থেকে ২৪ জেলা পুনরুদ্ধারের দাবি

কাছাকাছি আসা ঠেকাতে টোকিও অলিম্পিকে বিশেষ ব্যবস্থা


 

কার্যকরী পরিষদের অন্যান্য সদস্যরা হলেন- মোহাম্মেদ আসলাম মোল্লা (সিনিয়র সহ-সভাপতি), মোহাম্মাদ রেজাউল হক (সহ-সভাপতি), ড. তারিকুল ইসলাম (সহ-সভাপতি) আতিকুর রহমান (যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক), দিলারা জাহান (কোষাধ্যক্ষ), হাজী মোহাম্মাদ দেলোয়ার হোসেন (প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক), তাম্মি পারভেজ (সাংস্কৃতিক সম্পাদক) ও মোহাম্মাদ জিয়াউল কবির (মিডিয়া অ্যান্ড কমুনিকেশন সম্পাদক)। কার্যকরী পরিষদের সম্মানিত সদস্যরা হলেন- ড. রতন কুন্ডু, আকিদুল ইসলাম ও নাইম আবদুল্লাহ। 

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর