ফের নেটিজেনের আক্রমণের মুখে নুসরাত!

অনলাইন ডেস্ক

ফের নেটিজেনের আক্রমণের মুখে নুসরাত!

বহুদিন ধরেই চর্চার কেন্দ্রবিন্দুতে রয়েছেন সাংসদ ও অভিনেত্রী নুসরাত জাহান। আর এই চর্চার বিষয় এতদিনে কমবেশি সকলেরই জানা। নিখিলের সঙ্গে বিচ্ছেদ, যশ দাশগুপ্তের সঙ্গে প্রেম, আর সাংসদ অভিনেত্রীর অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার খবর এখন নেট দুনিয়ায় জলভাত। 

যা নিয়ে বারবার সোশ্যাল মিডিয়ায় ট্রোল হতে হয়েছে অভিনেত্রীকে। বৃহস্পতিবারও নতুন ইনস্টাগ্রাম পোস্টের কারণে ফের নেটিজেনের আক্রমণের মুখে পড়তে হল নুসরাতকে। পরনে গোলাপি রঙের স্লিভলেস টি-শার্ট, আর উস্কোখুস্কো চুল, চোখে চশমা, এক্কেবারে ঘরোয়া বেশে তোলা দুটি ছবি ইনস্টাগ্রামে পোস্ট করেছিলেন নুসরাত। নেটিজেনদের উদ্দেশ্য করে ক্যাপশানে লেখেন, মানুষের উপর কিছুটা সার দিলাম, যাতে তারা বেড়ে ওঠে।

এই ক্যাপশানের পাশে দুটো হাসির স্মাইলি জুড়ে দিয়েছেন তিনি। নুসরাতের এই পোস্টের পরই কিছু নেটিজেন তাকে ফের আক্রমণ করে কমেন্ট করতে থাকেন। একজন লেখেন, নিজের জীবনেও কিছুটা সার দিন। 

এমনকি মৃত্যুর প্রসঙ্গ টেনে এক নেটিজেন অশালীন আক্রমণ করে লেখেন, মৃত্যুর আগে জানিয়ে দাও তোমাকে দাহ করা হবে নাকি দাফন? তবে নুসরাতের বহু অনুরাগীই এ ধরনের আক্রমণের তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছেন। এক অনুরাগী প্রতিবাদ করে পাল্টা জবাবে লেখেন, সম্মান দিয়ে কথা বলতে শিখুন।

আরও পড়ুন


রাজধানীতে ট্রাকচাপায় দুই হোটেল কর্মচারী নিহত

নোয়াখালীতে মাটি চাপায় শিশু নিহত, আহত ৫

গণসংগীত শিল্পী ফকির আলমগীর আইসিইউতে

হাতিয়ায় ৩ কোটি ২০ লক্ষ টাকার চিংড়ি পোনা জব্দ


news24bd.tv / কামরুল 

পরবর্তী খবর

নিজের অসুস্থতার কথা ফেসবুকে জানালেন পরীমনি

অনলাইন ডেস্ক

নিজের অসুস্থতার কথা ফেসবুকে জানালেন পরীমনি

নিজের শারীরিক অসুস্থতার কথা জানিয়ে সবার কাছে দোয়া চেয়েছেন সময়ের আলোচিত-সমালোচিত নায়িকা পরীমনি। 

সোমবার (৩ আগস্ট) নিজের ভেরিফাইড ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাস দেন তিনি। 

সেখানে তিনি লেখেন, ‘আমার ভার্টিগো (মাথা ঘোরা) রোগটি মারাত্মক পর্যায়ে রয়েছে। সবাই আমার জন্য দোয়া করবেন।’

ভার্টিগো হলো এমন অনুভূতি যে, আপনি বা আপনার চারপাশের পরিবেশ নড়াচড়া করছে বা ঘুরছে। এই অনুভূতিটি খুব কমই লক্ষণীয় হতে পারে, অথবা এটি এত তীব্র হতে পারে যে আপনার ভারসাম্য বজায় রাখা এবং দৈনন্দিন কাজগুলো করা কঠিন হয়ে পড়ে।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

পিয়াসা-মৌ: ‘সমাজের সিজনাল ডেঙ্গু’

অনলাইন ডেস্ক

পিয়াসা-মৌ: ‘সমাজের সিজনাল ডেঙ্গু’

সম্প্রতি আলোচনার শীর্ষে মডেল-অভিনেত্রী ফারিয়া মাহবুব পিয়াসা ও মৌ আক্তার। গত রোববার রাতে রাজধানীর বারিধারার বাসায় অভিযান চালিয়ে মাদকদ্রব্যসহ পিয়াসাকে আটক করা হয়। এরপর গভীর রাতে মোহাম্মদপুরে একটি বাসা থেকে ইয়াবাসহ মডেল মৌ আক্তারকে আটক করে ডিবি। পিয়াসা ও মৌ একই সিন্ডিকেটের সদস্য।

তবে মডেল-অভিনেত্রী পরিচয়ে তাদের সংবাদ প্রকাশে ক্ষোভ প্রকাশ করেছে অভিনয়শিল্পী সংঘ। এ ঘটনার পর দেশের শিল্পী সমাজ থেকেও প্রতিবাদ হয়েছে। কে মডেল বা অভিনেত্রী, কে নন; তা নিয়ে লিখিত বিবৃতি দিয়েছে সংগঠনটি।

এ প্রসঙ্গে অভিনেত্রী আইরিন সুলতানা বলেন, ‘প্রথম কথা হচ্ছে একজন ব্যক্তি এখনও অভিযুক্ত। সে যে অপরাধী তা এখনও বিচারাধীন। দ্বিতীয় কথা হচ্ছে, ওই ব্যক্তি আদৌ মডেল বা অভিনেত্রী কি না সেটা যাচাই-বাছাই করা উচিত। হতে পারে সে এক সময় এ জগতে ছিল। কিন্তু এখন নেই। তাহলে তার বর্তমান পেশা লেখা উচিত।'

আইরিন সুলতানা এক সময় মডেলিং করলেও বর্তমানে চলচ্চিত্রে ব্যস্ততা বেড়েছে। পাশাপাশি সরব ওয়েব সিরিজেও। একাধিক ওয়েব সিরিজে খোলামেলা দৃশ্যে অভিনয় করে ‘সাহসী অভিনেত্রী’ হিসেবে আলাদা পরিচিতি পেয়েছেন। এ ধরনের নিউজ লেখার ক্ষেত্রেও সাংবাদিকদের সচেতন থাকা উচিত বলে তিনি মনে করেন।

আরও পড়ুন


শেখ কামাল: বহুমাত্রিক প্রতিভাবান সংগঠক

বিচার চাওয়ার অধিকার পর্যন্ত জিয়াউর রহমান কেড়ে নিয়েছিলেন: কাদের

বরিশাল শেবাচিমে অক্সিজেনের দাবীতে বাসদের বিক্ষোভ

টিকা নিন নইলে বেতন বন্ধ: অ্যাটর্নি জেনারেল কার্যালয়


এ প্রসঙ্গে চিত্রনায়ক শাকিল খান বলেন, ‘যাদের নাম খবরের শিরোনামে এসেছে তারা নামমাত্র মডেল। এদের সম্পর্কে কেউ অবগত নন। আদৌ এরা মডেল কিনা সেটাও কিন্তু কারো জানা নেই।’

এ ধরনের মানুষ তকমা লাগিয়ে, নাম ভাঙিয়ে সুবিধা নেয়। এতে সত্যিকারের মানুষগুলোর বদনাম হয় বলে মনে করেন এই চিত্রনায়ক। ‘এদের কারণেই মূল ধারার শিল্পী ও মডেলদের অনেক সময় সাধারণ মানুষ ভুল বোঝে। যেসব মডেল এসব কাজে লিপ্ত তাদের কোনো আত্নসম্মান কিংবা অতীত নেই।’ বলেন শাকিল খান।

কেউ যাতে নাম ভাঙিয়ে এ ধরনের ঘৃণিত কাজ করতে না পারে সে ব্যাপারে সবাইকে সাবধান হওয়ারও পরামর্শ দেন তিনি। এ ধরনের মানুষ ‘সমাজের সিজনাল ডেঙ্গু’ উল্লেখ করে শাকিল খান বলেন, ‘এদের দ্রুত বিচার হওয়া উচিত।’ 

news24bd.tv এসএম

পরবর্তী খবর

কবর পর্যন্ত একসঙ্গে থাকতে দোয়া চাইলেন সানী-মৌসুমী

অনলাইন ডেস্ক

কবর পর্যন্ত একসঙ্গে থাকতে দোয়া চাইলেন সানী-মৌসুমী

ঢাকাই চলচ্চিত্রের জনপ্রিয় তারকা দম্পতি ওমর সানী ও মৌসুমী। জনপ্রিয় এই দম্পতি সংসার জীবনের ২৬ বছর পূর্ণ করলেন; বাকি জীবন একসঙ্গে কাটাতে সবার দোয়া চেয়েছেন ওমর সানী।

২৬তম বিবাহবার্ষিকী উপলক্ষে রাজধানীর উত্তরার বাসায় গত রবিবার দিবাগত রাত ১২টায় ঘরোয়া আয়োজনে কেক কেটে বিশেষ দিনটি উদযাপন করেছেন তারা। 

কয়েকটি স্থিরচিত্র নিজের ভেরিফাইড ফেসবুক পেইজে প্রকাশ করে ওমর সানী লিখেছেন, 'আলহামদুলিল্লাহ ২৬ বছর পার করলাম। আপনাদের দোয়ায়, আল্লাহর হুকুমে, পরিবার-পরিজন, বন্ধুবান্ধব, ফিল্ম ক্লাব, শিল্পী সমিতি, প্রযোজক সমিতি, পরিচালক সমিতি ও চলচ্চিত্রবান্ধব সবাইকে নিয়ে; তার চেয়ে বড় আমাদের ভক্ত, বাকি জীবন কবর পর্যন্ত যেন যেতে পারি সেই দোয়া করবেন।' 

আরও পড়ুন

৭৩টি ভুঁইফোড় সংগঠনের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে নির্দেশ

রামেকে করোনা ওয়ার্ডে ১৯ জনের মৃত্যু

হেলেনা জাহাঙ্গীরের দুই সহযোগী গ্রেফতার

এবার নতুন রূপে হিরো আলম

উল্লেখ্য, নব্বইয়ের দশকের শুরুর দিকে ‘দোলা’ চলচ্চিত্রে একসঙ্গে কাজ করতে গিয়ে প্রণয়ের সম্পর্ক শুরু হয় এই তারকা জুটির। বছর খানেক প্রেমের পর ২৬ বছর আগে ১৯৯৫ সালের ৪ মার্চ হুট করেই বিয়ে সেরেছিলেন ওমর সানী ও মৌসুমী। পরবর্তীতে ২ অগাস্ট বিবাহোত্তর সংবধর্নার আয়োজন করা হয়েছিল।

news24bd.tv রিমু 

পরবর্তী খবর

অভিনব কায়দায় গরুর মাধ্যমে ইয়াবা নিয়ে আসতো মডেল পিয়াসা

অনলাইন ডেস্ক

অভিনব কায়দায় গরুর মাধ্যমে ইয়াবা নিয়ে আসতো মডেল পিয়াসা

গ্রেপ্তারের পর থেকে একের পর এক  চাঞ্চল্যকর তথ্য বেরিয়ে আসছে মডেল ফারিয়া মাহবুব পিয়াসার কাছ থেকে। এবার জানা গেল কীভাবে ইয়াবার কারবার করতো পিয়াসা।

মডেল পিয়াসার এক ঘনিষ্ঠ সূত্রে জানা গেছে, কয়েকজন বন্ধুর সহযোগিতায় একটি গরুর ফার্ম প্রতিষ্ঠা করেছেন তিনি। ওই ফার্মের জন্য টেকনাফ থেকে বার্মিজ গরু আনার সময় গরুর পেটে ইয়াবা ঢুকিয়ে আনা হতো বড় বড় চালান। এ কাজে পিয়াসাকে সহযোগীতা করতো জিসান ও মিশু তার দুই বন্ধু ।

গত রোববার রাতে রাজধানীর বারিধারার বাসায় অভিযান চালিয়ে মাদকদ্রব্যসহ আলোচিত মডেল ফারিয়া মাহবুব পিয়াসাকে আটক করা হয়। এরপর গভীর রাতে মোহাম্মদপুরে একটি বাসা থেকে ইয়াবাসহ মডেল মৌ আক্তারকে আটক করে ডিবি। পিয়াসা ও মৌ একই সিন্ডিকেটে কাজ করে।

আরও পড়ুন


খুলনায় করোনায় মৃত্যু আবারও ঊর্ধ্বগতি

সুন্দরী ২০-২৫ জন রমণীকে নিয়ে জমজমাট আসর বসাতো পিয়াসা

ভয়াবহ দাবানল থেকে বাঁচাতে সমুদ্র সৈকতে নেয়া হচ্ছে গবাদিপশুদের

‘ইসরাইলি জাহাজে হামলা: পরমাণু সমঝোতায় প্রভাব ফেলবে না’


পিয়াসার ঘরের টেবিল থেকে চার প্যাকেট ইয়াবা (কত পিস জানা যায়নি), রান্নাঘরের ক্যাবিনেট থেকে ৯ বোতল বিদেশি মদ, ফ্রিজে একটি আইসক্রিমের বাক্স থেকে সিসা তৈরির কাঁচামাল এবং বেশ কয়েকটি ই-সিগারেট পাওয়া গেছে। এছাড়া পিয়াসার কাছ থেকে ৪টি স্মার্টফোন জব্দ করেছে গোয়েন্দা পুলিশ।

news24bd.tv এসএম

পরবর্তী খবর

সুন্দরী ২০-২৫ জন রমণীকে নিয়ে জমজমাট আসর বসাতো পিয়াসা

অনলাইন ডেস্ক

সুন্দরী ২০-২৫ জন রমণীকে নিয়ে জমজমাট আসর বসাতো পিয়াসা

রাতে ২০-২৫ জন সুন্দরী রমণীকে নিয়ে মাদকের জমজমাট আসর বসাতো মডেল ফারিয়া মাহবুব পিয়াসা। জমজমাট এই সব আসরে আমন্ত্রণ জানানো হতো গুলশান, বনানী, বারিধারায় বসবাসকারী ধনাঢ্য ব্যবসায়ী, শিল্পপতি ও তাদের সন্তানদের। এই সব রমণীদের পালাক্রমে আসরে বসিয়ে তাদের কাছ থেকে হাতিয়ে নেওয়া হতো বিপুল পরিমাণ অর্থ।

রাতের এই রমণীকে গ্রেপ্তারের পর গোয়েন্দা সূত্রে এসব  তথ্য জানা  গেছে।

গত রোববার রাতে রাজধানীর বারিধারার বাসায় অভিযান চালিয়ে মাদকদ্রব্যসহ আলোচিত মডেল ফারিয়া মাহবুব পিয়াসাকে আটক করা হয়। এরপর গভীর রাতে মোহাম্মদপুরে একটি বাসা থেকে ইয়াবাসহ মডেল মৌ আক্তারকে আটক করে ডিবি। পিয়াসা ও মৌ একই সিন্ডিকেটে কাজ করে বলে জানা গেছে।

পিয়াসার ঘরের টেবিল থেকে চার প্যাকেট ইয়াবা (কত পিস জানা যায়নি), রান্নাঘরের ক্যাবিনেট থেকে ৯ বোতল বিদেশি মদ, ফ্রিজে একটি আইসক্রিমের বাক্স থেকে সিসা তৈরির কাঁচামাল এবং বেশ কয়েকটি ই-সিগারেট পাওয়া গেছে। এছাড়া পিয়াসার কাছ থেকে ৪টি স্মার্টফোন জব্দ করেছে গোয়েন্দা পুলিশ।

আর মৌয়ের বাসার ভেতরে ড্রয়িং রুমের পাশেই একটি মিনি বার দেখা গেছে। বাসার ভেতরের বেডরুমের একটি ড্রয়ার থেকে পাঁচ প্যাকেট ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করেন গোয়েন্দা কর্মকর্তারা। এ ছাড়া ওই বেডরুমের ভেতরে আরেকটি ড্রেসিং রুম থেকে অন্তত এক ডজন বিদেশি মদ উদ্ধার করা হয়।

গ্রেফতারের পর সোমবার তাদের বিরুদ্ধে মাদক আইনে গুলশান ও মোহাম্মদপুরে পৃথক দুটি মামলা হয়। এরপর আদালতে উপস্থাপন করলে উভয়ের তিন দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর হয়। 

গোয়েন্দা সূত্রে জানা গেছে, সুন্দরী রমণীদের দিয়ে মাদকের আসর বসিয়ে তিন ধরনের ফায়দা হাসিল করতেন পিয়াসা। আসরে আমন্ত্রিতদের বুঁদ করতে যে মাদক ব্যবহার করা হতো তার বিল পেত পিয়াসা।

আরও পড়ুন


ভয়াবহ দাবানল থেকে বাঁচাতে সমুদ্র সৈকতে নেয়া হচ্ছে গবাদিপশুদের

‘ইসরাইলি জাহাজে হামলা: পরমাণু সমঝোতায় প্রভাব ফেলবে না’

টি স্পোর্টসে আজকের খেলা

ময়মনসিংহ মেডিকেলে করোনা ইউনিটে একদিনে ১৭ জনের মৃত্যু


এছাড়া রমণীরা উদাম নৃত্যের সময় তাদের ওপর যে টাকা ছিটানো হতো তার বড় অংশও পিয়াসা নিত। আর গোপন ক্যামেরায় আসরে আগন্তুকদের ছবি তুলে ব্ল্যাকমেইল করত। এছাড়া রমণীদের সঙ্গে রাত কাটানো অতিথিদের পরদিন গুলশানের একটি ডায়মন্ড জুয়েলারি শপ থেকে লাখ লাখ টাকার জুয়েলারি উপহার দিতে বাধ্য করত। পরে ওই জুয়েলারি ফেরত দিয়ে নগদ টাকা নিয়ে নিত পিয়াসা।

তার সঙ্গে ওই ডায়মন্ড জুয়েলারি মালিকেরও ঘনিষ্ঠতা রয়েছে। আর পিয়াসার নেটওয়ার্কে থাকা সদস্যদের ইয়াবার চালান আসত টেকনাফ থেকে। অভিনব কায়দায় সংগ্রহ করা হতো ওই চালান। যা গোয়েন্দাদের কাছেও অনেকটা অজানা। 

ডিবি পুলিশের যুগ্ম কমিশনার হারুন-অর রশীদ বলেন, দুজন (দুই মডেল) একটি সংঘবদ্ধ চক্রের সদস্য। তাদের বিরুদ্ধে ব্ল্যাকমেইলিংয়ের অনেক অভিযোগ পেয়েছি। সেসব ঘটনা তদন্ত করতে গিয়ে তাদের বাসায় অভিযান চালানো হয়। দুজনের বাসায় বিদেশি মদ, ইয়াবা ও সিসা পাওয়া গেছে। মৌয়ের বাড়িতে মদের বারও ছিল। তিনি বলেন, গ্রেফতার হওয়া দুই মডেল হলো রাতের রানি। তারা দিনের বেলায় ঘুমায় এবং রাতে অশ্লীল কর্মকাণ্ড করে।

news24bd.tv এসএম

পরবর্তী খবর