রাষ্ট্রকে যথার্থ ‘গণপ্রজাতন্ত্রে’ রূপান্তর করতে হবে: আ স ম‌ রব

অনলাইন ডেস্ক

রাষ্ট্রকে যথার্থ ‘গণপ্রজাতন্ত্রে’ রূপান্তর করতে হবে: আ স ম‌ রব

জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল -জেএসডি সভাপতি আ স ম আবদুর রব বলেছেন, দেশে করোনা সংক্রমণ ও মৃত্যুর হার সর্বোচ্চ পর্যায়ে রয়েছে। চট্টগ্রাম, বরিশাল ও সিলেটেসহ কয়েকটি অঞ্চলে করোনা পরিস্থিতির অনেক অবনিত হচ্ছে।

আজ শুক্রবার গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে এ মন্তব্য করেন তিনি।

রব বলেন, আজ দেশে প্রাদেশিক সরকার ব্যবস্থা থাকলে এবং স্ব স্ব প্রদেশের প্রয়োজন অনুযায়ী সিদ্ধান্ত গ্রহণ করলে সারাদেশকে এই অপরিকল্পিত লকডাউন বা শাটডাউনের আওতায় আনতে হতো না এবং কেন্দ্রীভূত শাসন ব্যবস্থায় নৈরাজ্যকর অবস্থার সৃষ্টি হতো না।

আজকের বাস্তবতায় সমাজের সকল মানুষের কাছে স্বাস্থ্য শিক্ষাসহ অন্যান্য সকল সেবা পৌঁছে দেওয়া এককেন্দ্রিক সরকারের পক্ষে সম্ভব নয় বলে মন্তব্য করেন আ স ম আবদুর রব।

তিনি বলেন, আমেরিকার মতো দেশে ৩৩ কোটি লোকের জন্য ৫০টি স্টেট রয়েছে। তার বিপরীতে আমাদের ১৭ কোটিরও বেশি জনসংখ্যার দেশে এককেন্দ্রিক ব্যবস্থা কোনোক্রমেই গ্রহণযোগ্য নয়। তাই আমাদের দেশের সুষম উন্নয়ন ও জনগণের সর্বব্যাপী সুযোগ সুবিধার লক্ষ্যে ৮ থেকে ৯ টি প্রদেশ স্থাপন অতি প্রয়োজন। তাহলে আজ কোটি কোটি লোককে কথায় কথায় করোনার ন্যায় দুর্যোগের মধ্যে ঢাকার কর্মস্থল থেকে ঝুঁকি মাথায় নিয়ে প্রত্যন্ত অঞ্চলে বাড়ির দিকে বা তথা হতে আবার রাজধানী ঢাকার দিকে ছুটতে হতো না।

‌‌‘প্রদেশ এবং বিকেন্দ্রীকৃত প্রশাসনের কারণে সারাদেশে বিশাল এই জনগোষ্ঠীর কর্ম এবং অবস্থানের অবারিত সুযোগ থাকতো’, বলেন জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের সভাপতি।

তিনি বলেন, সশস্ত্র যুদ্ধের পর থেকে জনগণের আকাঙ্ক্ষার বিপরীতে সকল ক্ষমতা কেন্দ্রীয় সরকারের কাছে কেন্দ্রীভূত করার পদ্ধতি দিয়ে দেশ চালাতে গিয়ে রাষ্ট্রকে যথার্থ প্রজাতন্ত্রে রূপান্তর করার ধারে কাছেও পৌঁছাতে সক্ষম হয়নি। 

‘জনগণের ক্ষমতায়নের রাজনীতির আবেগ ও আদর্শের উপর নির্ভর করে যে মুক্তিযুদ্ধ সংগঠিত হয়েছিল, জাতিকে উদ্বুদ্ধ করেছিল তার সবটাই ভূলুণ্ঠিত হতে থাকে কেন্দ্রীয় সরকারের এককেন্দ্রিক রাজনৈতিক ব্যবস্থাপনায়। এই অক্ষম, অদক্ষ ও দুর্নীতিনির্ভর কেন্দ্রীয় শাসন ব্যবস্থা থেকে মুক্তিলাভ না করলে দেশ মারাত্মকভাবে অনিয়ন্ত্রিত সংকটে বিপর্যস্ত হয়ে পড়বে।’

জাসদ নেতা বলেন, ‘আজকের বাস্তবতায় ক্ষমতা কেন্দ্রীভূত করে রাখার উপনিবেশিক সংস্কৃতির বেড়াজাল থেকে অবশ্যই আমাদেরকে মুক্ত হতে হবে। কেন্দ্রীভূত ক্ষমতার রাজনীতি ও রাজনৈতিক কূট কৌশল ভবিষ্যৎ বাংলাদেশকে আরো বড় ধরনের সংকটে নিপতিত করবে এবং জাতীয় রাজনীতিতে বড় ধরনের বিভেদের পথ তৈরি হবে।’

রাষ্ট্রকে যথার্থ গণপ্রজাতন্ত্র ( People's Republic) রূপে রূপান্তর অর্থাৎ জনগণের ক্ষমতায়ন, স্বশাসন এবং সারাদেশে সুষম উন্নয়নের লক্ষ্যে আশু করণীয়:

(১) বাংলাদেশে ৮ থেকে ৯ প্রদেশ স্থাপন করে ‘ফেডারেল রাষ্ট্র’ কাঠামোর প্রবর্তন করা।

(২) প্রত্যেক প্রদেশে প্রাদেশিক সরকার গঠন করা।

(৩) প্রত্যেক প্রদেশে ১৫০ সদস্যবিশিষ্ট প্রাদেশিক পরিষদ গঠন  এবং তাতে এক-তৃতীয়াংশ শ্রেণি-পেশার প্রতিনিধি অন্তর্ভুক্ত করা।

(৪) প্রতিটি প্রদেশ একজন মুখ্যমন্ত্রী নেতৃত্বে ৯ সদস্য বিশিষ্ট মন্ত্রিপরিষদ গঠন করা।

(৫) প্রতিটি প্রদেশে ‘হাইকোর্ট’ স্থাপন করা।

(৬) কেন্দ্রে জাতীয় সংসদের ‘উচ্চকক্ষ’ স্থাপন করা এবং তাতে প্রাদেশিক সরকারের প্রতিনিধি অন্তর্ভুক্ত করা।

(৭) স্বশাসিত স্থানীয় সরকার ব্যবস্থা প্রবর্তন এবং স্থানীয় সরকার কাঠামো কেন্দ্রীয় সরকারের শাখায় পরিণত করা।

আরও পড়ুন:


রংপুরে ১৫শ দরিদ্র মানুষ পেল বসুন্ধরার মানবিক সহায়তা

দেশে কাক-কোকিল চেনা বড় দুষ্কর: নানক

হবিগঞ্জে বজ্রপাতে গেল দুই প্রাণ

news24bd.tv / তৌহিদ

পরবর্তী খবর

সাবেক ডেপুটি স্পিকার আলী আশরাফের মৃত্যুতে ওবায়দুল কাদেরের শোক

অনলাইন ডেস্ক

সাবেক ডেপুটি স্পিকার আলী আশরাফের মৃত্যুতে ওবায়দুল কাদেরের শোক

বীর মুক্তিযোদ্ধা, কুমিল্লা-৭ আসনের সংসদ সদস্য, সাবেক ডেপুটি স্পিকার অধ্যাপক মো. আলী আশরাফে মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

আজ এক শোকবার্তায় আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক মরহুমের আত্মার মাগফিরাত কামনা করেন এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান।

আরও পড়ুন:


হেলেনা জাহাঙ্গীরের বিরুদ্ধে একাধিক মামলা হচ্ছে

মেঘনায় ট্রলার ডুবে জেলের মৃত্যু, জীবিত উদ্ধার ১১

পর্যটকদের জন্য খুলছে সৌদির দরজা

বগুড়ার গাবতলীতে ৩০০ পরিবারের মাঝে বসুন্ধরা গ্রুপের ত্রাণ বিতরণ


উল্লেখ্য, আজ শুক্রবার (৩০ জুলাই) বিকেল ৩টা ৩০ মিনিটে রাজধানীর স্কয়ার হাসপাতালে নিউমোনিয়া রোগে আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান কুমিল্লা-৭ (চান্দিনা) আসন থেকে পাঁচবার নির্বাচিত প্রবীণ এই সংসদ সদস্য। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, চার মেয়ে, এক ছেলেসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।

সাবেক ডেপুটি স্পিকার ও এমপি মো. আলী আশরাফ আর নেই

সাবেক ডেপুটি স্পিকার আলী আশরাফের মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রীর শোক

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

নিয়ম-নীতিহীন আইপি টিভির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে: তথ্যমন্ত্রী

অনলাইন ডেস্ক

নিয়ম-নীতিহীন আইপি টিভির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে: তথ্যমন্ত্রী

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এবং তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ জানিয়েছেন, নিয়ম-নীতিহীন আইপি টিভির বিরুদ্ধে অচিরেই ব্যবস্থা নেওয়া হবে। কিছু আইপি টিভি অনেক সময় গুজব রটানোতে যুক্ত হয়।

আজ শুক্রবার (৩০ জুলাই) দুপুরে মন্ত্রী ঢাকায় তার সরকারি বাসভবনে সাংবাদিকদের এ সংক্রান্ত প্রশ্নের উত্তরে এ কথা জানান।

হাছান মাহমুদ বলেন, কিছু আইপি টিভি অনেক সময় গুজব রটানোতে যুক্ত হয়, অসত্য তথ্য পরিবেশন ও ভাঁড়ামোতে লিপ্ত হয়। আবার দেখা যায় অনুমোদন পাবার আগেই কেউ কেউ টেলিভিশন চ্যানেলের মতো অফিস খুলে বসেছে, জেলা প্রতিনিধি নিয়োগ দিচ্ছে। এসব বিষয়কে একটা নিয়ম-নীতির মধ্যে আনা প্রয়োজন।

সারা দেশব্যাপী ব্যাঙের ছাতার মতো আইপি টিভি খুলে যার যেমন ইচ্ছে তেমন করবে সেটা কখনও আইনসম্মত বা বাঞ্ছনীয় নয় উল্লেখ করে তথ্যমন্ত্রী বলেন, ভালো মানের আইপি টিভি অনুমোদন পাবে। যেগুলোর বিষয়ে নানা অভিযোগ আছে সেগুলো খতিয়ে দেখে সহসাই ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

তিনি বলেন, মন্ত্রণালয় আইপি টিভিগুলোর কাছ থেকে রেজিস্ট্রেশনের জন্য দরখাস্ত আহ্বান করেছিল। প্রায় পাঁচ শতাধিক দরখাস্ত জমা পড়েছে এবং সেগুলো যাচাই-বাছাইয়ের কাজও আমরা গুছিয়ে এনেছি। যেগুলোর মান ভালো সেগুলোর রেজিস্ট্রেশন দেওয়া হবে।

এ সময় জয়যাত্রা নামে আইপি টিভির পরিচালনাকারী হেলেনা জাহাঙ্গীর সম্পর্কে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে তথ্যমন্ত্রী বলেন, ফাঁকফোকর দিয়ে দলের উপ-কমিটিতে এ ধরনের কারো ঢোকা সমীচীন হয়নি। এদের কমিটিতে রাখার বিষয়ে আরও সতর্ক হওয়া প্রয়োজন ছিল।

যারা সুপারিশ করেছেন তাদেরও আরও জানাশোনার দরকার ছিল। তার বিষয়ে ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে এবং তার আইপি টিভির বিষয়ে অভিযোগগুলো আমরা খতিয়ে দেখব। সত্যতা পেলে অবশ্যই ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আরও পড়ুন:


ক্যাম্পে নিয়ে বাংলাদেশি নারীকে ধর্ষণ, বিএসএফ সদস্য গ্রেপ্তার

ফরিদপুরে আজও ১৪ জনের মৃত্যু, নতুন আক্রান্ত ১২৫

বিশ্বে করোনায় মৃতের সংখ্যা ও সংক্রমণ বেড়েছে

সপ্তম শ্রেণির ছাত্রীকে পিকনিক স্পটে নিয়ে ৫ বন্ধু মিলে ধর্ষণ


news24bd.tv / কামরুল 

পরবর্তী খবর

সাবেক ডেপুটি স্পিকার ও এমপি মো. আলী আশরাফ আর নেই

অনলাইন ডেস্ক

সাবেক ডেপুটি স্পিকার ও এমপি মো. আলী আশরাফ আর নেই

সরকারের প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়ন সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটির সভাপতি সাবেক ডেপুটি স্পিকার অধ্যাপক মো. আলী আশরাফ এমপি মারা গেছেন (ইন্না লিল্লাহি...রাজিউন)। 

আজ শুক্রবার (৩০ জুলাই) বিকেল ৩টা ৩০ মিনিটে রাজধানীর স্কয়ার হাসপাতালে নিউমোনিয়া রোগে আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যু ঘটে কুমিল্লা-৭ (চান্দিনা) আসন থেকে পাঁচবার নির্বাচিত প্রবীণ এই সংসদ সদস্যের। তাঁর একমাত্র তনয় মুনতাকিম আশরাফ টিটু বিষয়টি নিশ্চিত করেন। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৭৪ বছর।

কুমিল্লা উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি বর্ষীয়ান এই আওয়ামী লীগ নেতার মৃত্যুতে তাঁর নির্বাচনী এলাকা চান্দিনাসহ কুমিল্লাজুড়ে শোকের ছায়া নেমে আসে। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, চার মেয়ে, এক ছেলেসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।

চান্দিনার গল্লাই মুন্সিবাড়ির মরহুম মো. ইসমাইল হোসেন মুন্সির ছেলে অধ্যাপক মো. আলী আশরাফ এমপি ১৯৬২ সালে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া কলেজে অধ্যয়নরত অবস্থায় বাংলাদেশ ছাত্রলীগে যোগদান করে রাজনীতি শুরু করেন।

১৯৭০-এর পাকিস্তান সংসদ নির্বাচনে তিনি স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে নির্বাচনে ‘মই’ প্রতীক নিয়ে অংশগ্রহণ করেন। ওই নির্বাচনে জয় না পেলেও ‘মাছ’ প্রতীক নিয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে ১৯৭৩ সালের প্রথম বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের সর্বকনিষ্ঠ সদস্য হিসেবে নির্বাচিত হন।

পরবর্তী সময়ে আওয়ামী লীগ যতগুলো নির্বাচনে অংশগ্রহণ করেছে তার প্রত্যেকটিতেই তিনি আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী হয়ে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। তিনি ১৯৯৬, ২০০৮, ২০১৪ এবং ২০১৮ সালের একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে পঞ্চমবারের মতো বিজয় লাভ করেন।  ২০০০ সালে সপ্তম জাতীয় সংসদের ডেপুটি স্পিকারের দায়িত্ব পালন করেন। মৃত্যুর মধ্য দিয়ে প্রায় ৬০ বছরের বর্ণাঢ্য রাজনৈতিক জীবনের ইতি টানেন। 

এর আগে অধ্যাপক মো. আলী আশরাফ এমপি পিত্তথলিতে পাথরসংক্রান্ত সমস্যায় গত ২ জুলাই রাজধানীর স্কয়ার হাসপাতালে ভর্তি হন। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শরীরে নানা রোগের উপসর্গ দেখা দেয়। সঙ্গে নিউমোনিয়া রোগেও আক্রান্ত হন। পরবর্তী সময়ে ৯ জুলাই তাঁকে নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) স্থানান্তর করা হয়। সেখানে তার শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটলে ২১ জুলাই বিকেল ৩টায় লাইফ সাপোর্টে নেওয়া হয়।

আরও পড়ুন:


ক্যাম্পে নিয়ে বাংলাদেশি নারীকে ধর্ষণ, বিএসএফ সদস্য গ্রেপ্তার

ফরিদপুরে আজও ১৪ জনের মৃত্যু, নতুন আক্রান্ত ১২৫

বিশ্বে করোনায় মৃতের সংখ্যা ও সংক্রমণ বেড়েছে

সপ্তম শ্রেণির ছাত্রীকে পিকনিক স্পটে নিয়ে ৫ বন্ধু মিলে ধর্ষণ


news24bd.tv / কামরুল 

পরবর্তী খবর

লকডাউনে খেটে খাওয়া মানুষের দুঃখ-দুর্দশা কয়েকগুণ বেড়েছে: জিএম কাদের

অনলাইন ডেস্ক

লকডাউনে খেটে খাওয়া মানুষের দুঃখ-দুর্দশা কয়েকগুণ বেড়েছে: জিএম কাদের

জাতীয় পার্টির (জাপা) চেয়ারম্যান ও বিরোধীদলীয় উপনেতা গোলাম মোহাম্মদ (জি এম) কাদের বলেছেন, লকডাউনে করোনা পরিস্থিতির উন্নতি না হলেও খেটে খাওয়া মানুষের দুঃখ-দুর্দশা বেড়ে গেছে কয়েকগুণ। 

আজ এক বিবৃতিতে জাপা চেয়ারম্যান এসব কথা বলেন।

বাস্তবে লকডাউনে করোনা পরিস্থিতির উন্নতি হচ্ছে না উল্লেখ করে গোলাম মোহাম্মদ (জি এম) কাদের বলেছেন, দেশের বিদ্যমান পরিস্থিতিতে করোনা মোকাবিলায় লকডাউন ও কারফিউ কোনো সমাধান নয়। প্রতিদিন দরিদ্র মানুষের সংখ্যা বাড়ছে, বাড়ছে তাদের আহাজারি। সে কারণেই গণটিকা জোরদার করে সাধারণ মানুষের স্বাভাবিক জীবন ফিরিয়ে দিতে হবে।

বিবৃতিতে জিএম কাদের বলেন, দেশের বাস্তবতায় লকডাউন সফল হবে না। লকডাউন চলছে কিন্তু মানুষকে ঘরে আটকে রাখা সম্ভব হচ্ছে না। বিভিন্ন গবেষণা সংস্থার জরিপ বলছে, করোনায় একবছরে দেশের প্রায় আড়াই কোটি মানুষের জীবনমান নতুন করে দারিদ্র্যসীমার নিচে নেমে গেছে। আর আগে থেকে দারিদ্র্যসীমার নিচে বসবাস করছে আরও সাড়ে তিন কোটি মানুষ। বেশিরভাগ দরিদ্র মানুষের ঘরে খাবার নেই, পকেটে ওষুধ ও শিশুখাদ্য কেনার পয়সা নেই। এ ধরনের মানুষকে ঘরে আটকে রাখা সম্ভব হচ্ছে না।

তিনি আরও বলেন, মানুষের জীবনযাত্রা স্বাভাবিক করতে হবে। পাশাপাশি সংক্রমণপ্রবণ এলাকায় করোনা চিকিৎসায় ফিল্ড হাসপাতাল নির্মাণ করে প্রয়োজনীয় সংখ্যক চিকিৎসক ও অন্যান্য স্বাস্থ্যকর্মী নিয়োগ দিতে হবে।

আরও পড়ুন:


হেলেনা জাহাঙ্গীরের বিরুদ্ধে একাধিক মামলা হচ্ছে

মেঘনায় ট্রলার ডুবে জেলের মৃত্যু, জীবিত উদ্ধার ১১

পর্যটকদের জন্য খুলছে সৌদির দরজা

বগুড়ার গাবতলীতে ৩০০ পরিবারের মাঝে বসুন্ধরা গ্রুপের ত্রাণ বিতরণ


জাপা চেয়ারম্যান বলেন, সরকারের পক্ষ থেকে যে সাহায্য দেওয়া হচ্ছে তা একদিকে অত্যন্ত অপ্রতুল এবং একইসঙ্গে এর একটি বড় অংশ প্রকৃত দরিদ্রদের হাতে পৌঁচ্ছাছে না। দেশের বর্তমান পরিস্থিতিতে করোনা মোকাবিলায় লকডাউন ও কারফিউ কোনো সমাধান দিতে সক্ষম হচ্ছে না।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

করোনায় বিএনপির ৭০৯ নেতাকর্মীর মৃত্যু

অনলাইন ডেস্ক

করোনায় বিএনপির ৭০৯ নেতাকর্মীর মৃত্যু

দেশে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে এই পর্যন্ত বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলের  (বিএনপি) মোট ৭০৯ জন নেতাকর্মীর মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে সবশেষ দুই মাসেই মারা গেছেন বিএনপির ২৮৩ জন নেতাকর্মী।

দলটির করোনা আক্রান্ত ও মৃত্যুর তালিকা গত ১৫ জুলাই সর্বশেষ হালনাগাদ করা হয়েছে। সেই তালিকায় এই তথ্য পাওয়া গেছে।


দ. কোরিয়ার কোন গালিও দেয়া চলবে না উত্তর কোরিয়ায়

তালেবানের হাত থেকে ২৪ জেলা পুনরুদ্ধারের দাবি

কাছাকাছি আসা ঠেকাতে টোকিও অলিম্পিকে বিশেষ ব্যবস্থা


 

এই তালিকার বাইরে গত কয়েকদিনে দলটির আরও ৪-৫ জন নেতাকর্মী করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা যাওয়ার খবর এসেছে। সেই হিসাবে মৃত্যুর সংখ্যা আরও বাড়বে।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর