করোনায় অভাবে সন্তান বিক্রি: মায়ের কোলে ফিরিয়ে দিল প্রশাসন

অনলাইন ডেস্ক

করোনায় অভাবে সন্তান বিক্রি: মায়ের কোলে ফিরিয়ে দিল প্রশাসন

করোনা মহামারীতে কর্মহীন হয়ে অর্থভাবে তিন মাসের শিশু সন্তানকে ৪৫ হাজার টাকায় বিক্রি করে দিয়েছিলেন এক মা।টাঙ্গাইলের গোপালপুরে এই ঘটনা ঘটে। তিনি উপজেলার নগদাশিমলা ইউনিয়নের সৈয়দপুর এলাকার এক দিনমজুরের স্ত্রী।

দিনমজুর স্বামীর উপার্জনে সংসারে এমনিতেই টানাটানি ছিল। এরমধ্যে তিন মাস আগে ওই দম্পতির কোলজুড়ে জন্ম নেয় ছেলে সন্তান। তাদের সংসারে আরো দুই ছেলে রয়েছে। এরপর করোনায় উপজেলার অনেকের সঙ্গে কর্মহীন হয়ে পড়েন তিনি। সংসারে বেশ কিছু ঋণও রয়েছে তাদের। পাওনাদাররা প্রতিদিন টাকার জন্য তাগাদা দিচ্ছিল। এ অবস্থায় পাওনা টাকা পরিশোধের কোনো বিকল্প পাচ্ছিলেন না তারা। একপর্যায়ে ১৬ দিন আগে ওই দম্পতি তিন মাসের শিশুকে বাইশকাইল গৈজারপাড়া গ্রামের এক দম্পতির কাছে ৪৫ হাজার টাকায় বিক্রি করে দেন।

গত কয়েক দিন ঘটনাটি এলাকায় জানাজানি হয়। খবর পেয়ে উপজেলা প্রশাসন শুক্রবার ওই শিশু সন্তানকে তার মায়ের কোলে ফিরিয়ে দেয়।

গোপালপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোশাররফ হোসেন বলেন, নিঃসন্তান দম্পতি শিশুটিকে কিনে নেয়। আদালতের অনুমতি নিয়ে দত্তক নেয়ার বিধান রয়েছে। কিন্তু তারা সেটি করেনি। শিশুকে উদ্ধার করে তার মায়ের কোলে ফেরত দেওয়া হয়েছে। মানবিক দিক বিবেচনায় ও কোনো পক্ষ আগ্রহ প্রকাশ না করায় থানায় মামলা হয়নি।


স্বাভাবিক মৃত্যু না হওয়া পর্যন্ত কারাভোগ করতে হবে

২২ দিন পর আবার ট্রেন চলাচল শুরু

নৌপথে যাত্রী ও যানবাহনের প্রচণ্ড চাপ


 

এ বিষয়ে গোপালপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) পারভেজ মল্লিক বলেন, শিশু বিক্রির ঘটনার নেপথ্যে রয়েছে দারিদ্র্য। পরিবারটিকে সার্বিকভাবে সহায়তা দেওয়া হচ্ছে। ওই শিশুর মাকে স্থানীয় একটি ক্লিনিকে আয়া পদে চাকরির ব্যবস্থা করা হয়েছে।

এ বিষয়ে জেলা প্রশাসক মো. আতাউল গনি বলেন, ঋণের ৪৫ হাজার টাকা প্রশাসনে পক্ষ থেকে পরিশোধ করা হয়েছে। 

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

করোনার টিকা না নিয়ে ঘোরাফেরা করলেই শাস্তি

অনলাইন ডেস্ক

করোনার টিকা না নিয়ে ঘোরাফেরা করলেই শাস্তি

দেশে মহামারী করোনার টিকা না নিয়ে বাইরে ঘোরাফেরা করলে আগামী ১১ আগস্ট থেকে তাদের শাস্তির আওতায় আনা হবে। এক্ষেত্রে রাস্তাঘাটে, গণপরিবহন, ট্রেনে হোক- কেউ আইন না মানলে সরকার অধ্যাদেশ জারি করে শাস্তি দেওয়ার কথা ভাবছে।

মঙ্গলবার (০৩ আগস্ট) সচিবালয়ে সরকারের শীর্ষ পর্যায়ের বৈঠক শেষে ব্রিফিংয়ে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক এ তথ্য জানান।

মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী বলেন, ১১ আগস্টের পর ভ্যাকসিন (টিকা) ছাড়া কেউ মুভমেন্ট করলে শাস্তির মুখোমুখি হতে হবে। অবশ্যই ভ্যাকসিন নিতে হবে। ১৪ হাজার কেন্দ্রে ভ্যাকসিন দেওয়া হবে। আইন না করলেও অধ্যাদেশ জারি করে হলেও শাস্তি দেওয়ার ক্ষমতা দেওয়া হবে।

আরও পড়ুন:


১১ তারিখ থেকে যানবাহন চলবে যে নিয়মে

৭, ৮, ৯ আগস্ট ভ্যাকসিন নেওয়ার সুযোগ দিচ্ছি: মোজাম্মেল হক

১১ আগস্টের পর ভ্যাকসিন ছাড়া ঘোরাফেরা করলে শাস্তি


 

তিনি বলেন, আগামী ১ সপ্তাহে ১ কোটি মানুষকে ভ্যাকসিনেটেড করবে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। ওয়ার্ড-ইউনিয়নে ৫ থেকে ৭টা কেন্দ্র করে ১ কোটি মানুষকে ভ্যাকসিন দেওয়া হবে। মানুষকে ভ্যাকসিন নিতে দৌড়াতে হবে না, আমাদের লোকজনই তাদের কাছে পৌঁছে যাবে।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

এবার ছাত্রলীগ নেতার বাড়িতে ২৮ দিন ধরে কলেজছাত্রীর অবস্থান

অনলাইন ডেস্ক

এবার ছাত্রলীগ নেতার বাড়িতে ২৮ দিন ধরে কলেজছাত্রীর অবস্থান

বিয়ের আশ্বাসে সিঁথিতে সিঁদুর দিয়ে ছাত্রলীগ নেতা বঙ্কিম চন্দ্র এক কলেজছাত্রীর সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক করে। কিন্তু সম্প্রতি সে যোগাযোগ বন্ধ করে দিয়ে অন্যত্র বিয়ের জন্য পাত্রী দেখা শুরু করে দেয় । এ ঘটনা জানতে পেরে বিয়ের দাবিতে ৭ জুলাই থেকে ২৮ দিন ধরে বঙ্কিমের বাড়িতে অবস্থান নেয় ওই কলেজ ছাত্রী। অবস্থান নিয়ে প্রেমিকাটি জানায়, হয় তার সঙ্গে বিয়ে হবে, না হয় মৃত্যুর পথ বেছে নিবে। 

নীলফামারীর কিশোরগঞ্জের বড়ভিটা ইউনিয়নের মেলাবর পশ্চিমপাড়া গ্রামে ঘটনাটি ঘটেছে। অভিযুক্ত ছাত্রলীগ নেতা বঙ্কিম চন্দ্র ওই গ্রামের দিলীপ চন্দ্রের ছেলে ও বড়ভিটা ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক। অবস্থানকারী শিক্ষার্থী ডিমলা উপজেলার বাসিন্দা ও জলঢাকার একটি কলেজের স্নাতক দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রী।

সোমবার সন্ধ্যায় ওই ছাত্রীকে পুলিশ থানায় নিয়ে গিয়ে মঙ্গলবার সকালে আদালতে পাঠিয়েছে। 

স্থানীয়রা জানান, মেয়েটির অবস্থানের বিষয়টি বুঝতে পেরে ছাত্রলীগ নেতা বাড়ি থেকে সটকে পড়েন। রাতে উভয় পরিবারের লোকজন বৈঠকে বসেন। ৮ লাখ টাকা যৌতুকের বিনিময়ে বঙ্কিমের পরিবার বিয়েতে সম্মত হয়। এ সময় ছাত্রীর পরিবারের নিকট থেকে অগ্রিম ৪০ হাজার টাকাও নেয়। পরে বঙ্কিম ও তার পরিবার টালবাহানার আশ্রয় নেয়।

আরও পড়ুন


শেখ কামাল: বহুমাত্রিক প্রতিভাবান সংগঠক

বিচার চাওয়ার অধিকার পর্যন্ত জিয়াউর রহমান কেড়ে নিয়েছিলেন: কাদের

বরিশাল শেবাচিমে অক্সিজেনের দাবীতে বাসদের বিক্ষোভ


 

এ ব্যাপারে কিশোরগঞ্জ থানার ওসি আব্দুল আউয়াল ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, পারিবারিকভাবে বিষয়টি নিষ্পত্তির জন্য কালক্ষেপণ করা হয়েছে। অবশেষে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ করে ওই ছাত্রীকে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

সরকারি তদন্তেও পটিয়ায় অবৈধভাবে টিকা দেয়ার প্রমাণ পাওয়া গেলো

ডেস্ক রিপোর্ট

এবার সরকারি তদন্তেও চট্টগ্রামের পটিয়ার শোভনদণ্ডী ইউনিয়নে অবৈধভাবে টিকা দেয়ার প্রমাণ পাওয়া গেলো। সোমবার রাতে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের তদন্ত কমিটি প্রতিবেদন জমা দিয়েছে। সেখানে আড়াই হাজারের বেশি টিকা প্রদানের প্রমাণ পেয়েছে তদন্তকারিরা। পাশাপাশি ভ্যাকসিনের অন্তত ২শ কার্ড পাওয়া গেছে যেগুলো কয়েকমাস আগেই রেজিস্ট্রেশন করা হয়েছে। অথচ সব কার্ডই পূরণ করা হয়েছে দুই দিনের টিকা কার্যক্রম শেষ হওয়ার পর। কমিটির কাছে উপস্থাপন করা ২৬শ কার্ডের ২২শ-ই ভূয়া বলে সন্দেহ করছেন তদন্ত সংশ্লিষ্টরা।

সব অভিযোগের তীর চট্টগ্রাম-১২ আসনের এমপি ও হুইপ সামশুল হক চৌধুরীর ঘনিষ্ঠ সহযোগি, পটিয়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ইপিআই রবিউল হোসাইনের বিরুদ্ধে। 

পটিয়ার শোভনদণ্ডী ইউনিয়নে সরকারি সিদ্ধান্তের এক সপ্তাহ আগে টিকা দেয়ার যে পোস্টার ডিজাইন হয়, তাতে স্পষ্টভাবে এই কার্যক্রম আয়োজনের জন্য হুইপ সামশুল হককে ধন্যবাদ জানান তার সাঙ্গপাঙ্গরা। সরকারি আদেশের মতো মোবাইলে যে মেসেজ পাঠানো হয়, তাতেও সামশুল হকের নির্দেশনায় টিকা দেয়া হচ্ছে বলে উল্লেখ করা হয়।

তদন্তের সময় ২৬শ টিকা কার্ড কমিটির সামনে উপস্থাপন করা হয়। ২শ কার্ডে যে এনআইডি নম্বর পাওয়া যায়, সেগুলো কয়েকমাস আগেই রেজিস্ট্রেশন করা হয়েছে। আরো ২ হাজার মানুষ, যারা বিভিন্ন সময়ে ইউনিয়ন পরিষদে রেজিস্ট্রেশন করতে এসে ফিরে গেছেন, তাদের নামেও কার্ড করা হয়েছে।

এতে দুটি প্রশ্ন উঠে আসছে স্বাস্থ্য কর্মকর্তাদের কাছে।

১. যারা আগেই রেজিস্ট্রেশন করেছেন, কিন্তু টিকা নেননি, পরবর্তীতে তারা কিভাবে টিকা নেবেন?

২. যারা রেজিস্ট্রেশন করতে এসেও নানা কারনে তা পারেননি, তারা পুনরায় রেজিস্ট্রেশন করতে পারবেন কিনা? তদন্ত কর্মকর্তারা বলছেন, অবৈধ এই টিকা কর্মসূচিতে কোনো নিয়মনীতিই মানা হয়নি।

আরও পড়ুন


শেখ কামাল: বহুমাত্রিক প্রতিভাবান সংগঠক

বিচার চাওয়ার অধিকার পর্যন্ত জিয়াউর রহমান কেড়ে নিয়েছিলেন: কাদের

বরিশাল শেবাচিমে অক্সিজেনের দাবীতে বাসদের বিক্ষোভ


পটিয়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে সিসি ক্যামেরা থাকলেও ঘটনার দিনের কোনো ফুটেজ পায়নি তদন্ত কমিটি।

অভিযোগ আছে, শোভনদণ্ডী ইউনিয়নে হুইপের বাড়ি লাগোয়া ক্যাম্পে, হুইপের ভাইও টিকা প্রদান করেছেন। মাত্র দুই দিনে ২৬শ টিকা প্রদান কোনোভাবেই স্বাভাবিক নয়। এতে চরম স্বাস্থ্যঝুঁকি তৈরি হয়েছে বলে ধারণা স্বাস্থ্য সংশ্লিষ্টদের।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

চট্টগ্রামের শিল্পপতি আবু তাহের চৌধুরীর ইন্তেকাল

অনলাইন ডেস্ক

চট্টগ্রামের শিল্পপতি আবু তাহের চৌধুরীর ইন্তেকাল

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাবেক প্রটোকল কর্মকর্তা আলাউদ্দিন নাসিমের শ্বশুর ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষণা উপ পরিষদের সদস্য ডা: জাহানারা আরজুর পিতা চট্টগ্রামের বিশিষ্ট শিল্পপতি এবং সেন্ট্রাল ইনসুরেন্স কোম্পানীর সাবেক চেয়ারম্যান আলহাজ আবু তাহের চৌধুরী আজ সোমবার সন্ধ্যা ৬ টা ২৫ মিনিটে ইউনাইটেড হাসপাতালে ইন্তেকাল করেছেন। ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন। 

তার প্রথম নামাজে জানাজা আজ বাদ এশা গুলশান সোসাইটি জামে মসজিদে অনুষ্ঠিত হয়েছে। দ্বিতীয় নামাজে জানাজা আগামীকাল মঙ্গলবার দুপুর ১২ টায় কুমিল্লা জেলার চৌদ্দগ্রাম উপজেলার সোনাপুর চৌধুরী বাড়ীর সামনে অনুষ্ঠিত হবে। পরে তার লাশ সেখানকার পারিবারিক কবরাস্থানে দাফন করা হবে। 

আরও পড়ুন:


করোনায় আক্রান্ত কনডেম সেলের ফাঁসির আসামি

টিকা নিলে কমে মৃত্যু ঝুঁকি: আইইডিসিআর

করোনা: কুষ্টিয়ায় একদিনে ৯ জনের মৃত্যু

অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার দ্বিতীয় ডোজ টিকা প্রয়োগ শুরু


পরিবারের পক্ষ থেকে সকলের কাছে মরহুমের রূহের মাগফিরাত কামনার জন্য দোয়া চাওয়া হয়েছে।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

বিয়ের দাবীতে প্রেমিকের বাড়িতে ছাত্রীর অনশন, পালিয়েছে প্রেমিক

অনলাইন ডেস্ক

বিয়ের দাবীতে প্রেমিকের বাড়িতে ছাত্রীর অনশন, পালিয়েছে প্রেমিক

বিয়ের দাবীতে প্রেমিকের বাড়ির সামনে অনশন করেছে অনার্স পড়ুয়া এক শিক্ষার্থী। প্রেমিকার অনশনের কারণে বাড়ি ছেড়ে পালিয়েছে  প্রেমিক রবিন। অনশনরত মেয়েটিকে শারীরিক ও মানসিকভাবে নির্যাতনের অভিযোগ উটেছে প্রেমিক রবিনের পরিবারের সদস্যরা।

এই ঘটনা ঘটেছে টাঙ্গাইলের কালিহাতী উপজেলার বাংড়া ইউনিয়নের ধুনাইল গ্রামে। সোমবার সকালে কলেজছাত্রী বিয়ের দাবিতে সেখানে অনশন শুরু করে। বিষয়টি মুহূর্তেই এলাকায় ছড়িয়ে পড়ে।

অনশনকারী ছাত্রী জানান, ধুনাইল গ্রামের আশরাফুল ইসলামের ছেলে রবিনের সঙ্গে তার পাঁচ বছর ধরে প্রেমের সম্পর্ক চলে আসছে। প্রেমের একপর্যায়ে তারা মাঝে মধ্যে দেখা-সাক্ষাৎ করত। বেশ কয়েকবার ওই ছাত্রীর বাড়িতেও যাওয়া আসা করত। বিয়ের আশ্বাস দিয়ে প্রেমিক রবিন ওই শিক্ষার্থীর সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক গড়ে তোলে।

অনশনকারী কলেজছাত্রী বলেন, আমি আসার পর বাড়ি ছেড়ে রবিন পালিয়েছে। তার বাড়ির লোকজন আমাকে নানাভাবে ভয়ভীতি দেখাচ্ছে। হয় বিয়ে না হয় আত্মহত্যা ছাড়া এখন আমার আর কোনো পথ নেই।

সহকারী পুলিশ সুপার কালিহাতী সার্কেল শরিফুল হক বলেন, বিষয়টি শুনেছি দ্রুত প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

আরও পড়ুন:


করোনায় আক্রান্ত কনডেম সেলের ফাঁসির আসামি

টিকা নিলে কমে মৃত্যু ঝুঁকি: আইইডিসিআর

করোনা: কুষ্টিয়ায় একদিনে ৯ জনের মৃত্যু


 

স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান হাসমত আলী নেতা জানান, বিষয়টি জানার পরই উভয়পক্ষকে নিয়ে বৈঠকে বসার সিদ্ধান্ত হয়েছে। বসার পর প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে। মেয়েটি এখনো অনশন চালিয়ে যাচ্ছে।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর