সময় চেয়ে যা বললেন ইভ্যালির এমডি

অনলাইন ডেস্ক

সময় চেয়ে যা বললেন ইভ্যালির এমডি

বাংলাদেশ ব্যাংকের একটি প্রতিবেদনকে কেন্দ্র করে ইভ্যালি প্রসঙ্গ এখন ‘টক অব দ্য কান্ট্রি’। প্রতিষ্ঠানটি নিয়ে দেশের গণমাধ্যমেও বিভিন্ন ধরনের সংবাদ প্রকাশিত হয়েছে। এরমধ্যেই শুক্রবার দিনের বিভিন্ন সময় দেশের বেশ কয়েকটি সংবাদ মাধ্যমে খবর আসে ইভ্যালির প্রধান কার্যালয় বন্ধ এবং হট লাইনেও তারা গ্রাহক ও মার্চেন্টদের ফোন রিসিভ করছে না। 

এছাড়া ফেসবুকসহ অন্যান্য সামাজিক মাধ্যমেও চলছে  ইভ্যালি প্রসঙ্গে নানা আলোচনা-সমালোচনা।

এর পরিপ্রেক্ষিতেই শুক্রবার (১৬ জুলাই) রাতে ফেসবুকে নিজেদের অবস্থান তুলে ধরে নিজের অ্যাকাউন্ট থেকে একটি স্ট্যাটাস দেন ইভ্যালির ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) মো. রাসেল। সেখানে তিনি ইভ্যালিকে আরেকটু সময় দিতে গ্রাহকসহ সংশ্লিষ্টদের কাছে আবেদন জানান।

স্ট্যাটাসে রাসেল বলেন, ‘ইভ্যালির পক্ষে বিপক্ষে অনেক মতামত সোস্যাল মিডিয়াতে পেয়েছি এবং দেখেছি। এতদিন ইভ্যালির যে লস সেটা শুধুমাত্র বিজনেস ডেভেলপমেন্ট এর এই ইনভেস্টমেন্ট গিয়েছে। এখন ইভ্যালির অর্গানিক সেলস অনেক বেড়েছে। অনেকে এই সময় মতামত দিচ্ছেন বন্ধ করে পুরাতন অর্ডার ডেলিভারি করা হোক।’

‘কিন্ত এখন তো আমরা অগ্রিম টাকা পাই না। গত দুই সপ্তাহ কিভাবে তাহলে পুরাতন অর্ডার থেকে ৪০ কোটি টাকার অধিক ডেলিভারি করা হলো? আমরা বড় বড় সেলারদের ৪ হাজার কোটি টাকারও বেশি পেমেন্ট দিয়েছি। তারা আমাদের পাশে থাকতে চান। কিন্ত মিডিয়া অথবা সোস্যাল মিডিয়া যখন ডেসটিনি এর মত কোম্পানির সাথে তুলনা করেন, তখন যে কেউ ই ভয় পেয়ে যান। আমরা বিজনেস সবাই বুঝি। এটা একটা চলমান সম্পর্কে থাকার বিষয়। সেলস থাকলে সেলার থাকবে এবং সেলার থাকলে পণ্য থাকবে।’

রাসেল বলেন, ‘আমাদের এই বিজনেস ডেভেলপমেন্টে সবচেয়ে বড় বাধা ছিল দেশি অথবা বিদেশি বিনিয়োগ। কেউ কী আমাকে দয়া করে কোনো আইনি ধারা উল্লেখ করতে পারেন, যেটি হয়তো আমার অজান্তেই মিস করে গেছি। যে কারণে আপনি বলতে পারেন, ইভ্যালি অবৈধ। (আমি এই সংক্রান্ত বিস্তারিত আরও লিখব)।’

‘যদি না-ই হয়, মিডিয়ায় অথবা সোস্যাল মিডিয়ায় আমাকে ক্রিমিনাল না বানিয়ে বিচার না করার অনুরোধ করতে পারি শুধু। আমি বাংলাদেশের সব বড় গ্রুপ এখন যাচ্ছি। আমার হয়তো পুঁজি ঘাটতি। কেউ পুঁজি দিলেই কিন্তু কাল আমাকে সবাই হিরো বলত। যেই জিনিসটা ইভ্যালি অর্জন করতে চেয়েছিল, ইভ্যালির একদম সেটার দারপ্রান্তে। এতো কিছুর পর নতুন নীতিমালার আলোকে ইভ্যালির সেলস ১০০ কোটি টাকা (পেইড)। এই সময় এসে গঠনমূলক অথবা পরামর্শমূলক আলোচনা অবশ্যই সবার উপকার হবে।’

‘ইভ্যালি নিয়ে আমি শতভাগ আশাবাদী। এবং এর চেয়েও বেশি আশাবাদী ইকমার্স নিয়ে। বিদেশী Amazon আসলে আমরা খুশি হব স্বাভাবিক।  কিন্ত দেশের কেউ ইকমার্স লিড দিবে এটা আমি শতভাগ নিশ্চিত। কারণ আমরা এখন সবচেয়ে দ্রুত উন্নয়নশীল জাতি। আমাদের একটু সময় দিন।’


স্বাভাবিক মৃত্যু না হওয়া পর্যন্ত কারাভোগ করতে হবে

২২ দিন পর আবার ট্রেন চলাচল শুরু

নৌপথে যাত্রী ও যানবাহনের প্রচণ্ড চাপ


 

ইভ্যালির সম্পদের চেয়ে ছয় গুণ বেশি দেনা বলে বাংলাদেশ ব্যাংকের এক প্রতিবেদনে এমন তথ্য উঠে আসে। প্রতিবেদনে উঠে আসে ইভ্যালির মোট দায় ৪০৭ কোটি টাকা। প্রতিষ্ঠানটি গ্রাহকের কাছ থেকে অগ্রিম নিয়েছে ২১৪ কোটি টাকা, আর মার্চেন্টদের কাছ থেকে বাকিতে পণ্য নিয়েছে ১৯০ কোটি টাকার। স্বাভাবিক নিয়মে প্রতিষ্ঠানটির কাছে কমপক্ষে ৪০৪ কোটি টাকার চলতি সম্পদ থাকার কথা। কিন্তু সম্পদ আছে মাত্র ৬৫ কোটি টাকা।

ইভ্যালির ওপর করা বাংলাদেশ ব্যাংকের এক পরিদর্শন প্রতিবেদনের পর্যবেক্ষণের পরিপ্রেক্ষিতে ৪ জুলাই অভিযোগ তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে সরকারের ৪ প্রতিষ্ঠানকে চিঠি পাঠিয়েছে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়। প্রতিষ্ঠান চারটি হচ্ছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক), স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগ, বাংলাদেশ প্রতিযোগিতা কমিশন ও জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতর।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

পেগাসাস স্পাইওয়্যার : গুপ্তচর যখন পকেটে

অনলাইন ডেস্ক

পকেটে এখন গুপ্তচর ঢোকাতে বেশি কিছুর প্রয়োজন নেই। একটা স্মার্ট ফোন, একটি ম্যাসেজ এবং একটি ক্লিকই যথেষ্ট। এসবের মাধ্যমেই নিজের ব্যক্তিগত অডিও, ভিডিও, ছবি সব পৌঁছে যাবে গুপ্তচরদের কাছে।

সম্প্রতি এই ডিজিটাল গুপ্তচর নিয়ে চলছে আলোচনা-সমালোচনা। কারণ ইসরায়েলি সাইবার নিরাপত্তা প্রতিষ্ঠান-পেগাসাস স্পাইওয়্যার নামের এক সফটওয়্যার বিশ্বের অন্তত ৫০ হাজার ফোন নম্বর হ্যাক করেছে। একটি আন্তর্জাতিক কনসোর্টিয়ামের অনুসন্ধানে এমন তথ্যই এসেছে। 

আরও পড়ুন:

চীনে গুদামে অগ্নিকাণ্ডে নিহত ১৪

এনএসও'র দাবি পেগাসাস স্পাইওয়্যার ব্যবহারে বিশ্বের লাখো মানুষ ঘুমাতে পারছে

পিএসজির সঙ্গে চুক্তির মেয়াদ বাড়ল পচেত্তিনোর


 

এই প্রতিষ্ঠানটির দাবি, পেগাসাস স্পাইওয়ারের মাধ্যমে বিশ্বজুড়ে লাখ লাখ মানুষ নিশ্চিন্তে ঘুমাতে পারছে। কারণ সেগুলো বিশ্বজুড়ে গোয়েন্দা সংস্থা ও আইন প্রয়োগকারী সংস্থাগুলোকে অপরাধ, সন্ত্রাসবাদ ও শিশু যৌন নিপীড়ক চক্রকে প্রতিরোধ বিষয়ে তাদের অনুসন্ধানে সাহায্য করছে।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

সামাজিক মাধ্যম ও ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মের বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থানে রাশিয়া

অনলাইন ডেস্ক

সামাজিক মাধ্যম ও ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মের বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থানে রাশিয়া

পশ্চিমা দেশগুলোর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম রাশিয়ার আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল নয় বলে অভিযোগ করেন দেশটির প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। ফলে এসব প্ল্যাটফর্ম নিয়ন্ত্রণে পদক্ষেপ নিতে যাচ্ছে পুতিন প্রশাসন।

এ মাসের শুরুর দিকেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ও ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম নিয়ন্ত্রণে নতুন আইন পাস করে দেশটি। আগামী জানুয়ারিতে পাস হওয়া এই আইন কার্যকর করতে যাচ্ছে পুতিন প্রশাসন।

এই আইনের আওতায়, দেশটিতে কমপক্ষে পাঁচ লাখ সদস্য আছে এমন প্ল্যাটফর্মকে নির্দিষ্ট কিছু বিধিবিধান মানতে হবে। যার মধ্যে অন্যতম হচ্ছে, রাশিয়ায় সেই ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মের সরাসরি অফিস বা শাখা অফিস খুলতে হবে। দেশটির নিজস্ব আইন অনুযায়ী সেই অফিসের অনুমোদন নিতে হবে। বিজ্ঞাপন থেকে আয় করা অর্থের একটি অংশ কর আকারেও প্রদান করতে হবে রুশ সরকারকে।

ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মগুলোকে এসব আইন বাস্তবায়নে বা আইন মেনে চলতে সব প্রস্তুতি এবছরের মধ্যেই সম্পন্ন করতে হবে। এই আইন না মানলে নতুন বছরের প্রথম দিনেই সামাজিক মাধ্যম বা ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মের কার্যক্রম বন্ধ করে দেয়া হবে।

পুতিন বলেন, কাউকেই বন্ধ করার কোনও ইচ্ছা নেই আমাদের বরং তাদের সঙ্গে মিলে আমরা একসঙ্গে কাজ করতে চাই। কিন্তু বাস্তবতা হচ্ছে যখন তারা আমাদের শর্তগুলো মানতে পারে না এবং রাশিয়ান আইনের প্রতি শ্রদ্ধা দেখাতে পারে না তখন তারা আমাদের দূরে ঢেলে দেয়।

পুতিন আরও বলেন, যদি তারা আমাদের দেশে কার্যক্রম করতে চায়, অর্থ আয় করতে চায় তাহলে তাদের আমাদের আইন মানতেই হবে।


আরও পড়ুন:

ইরানে পানির দাবিতে বিক্ষোভ, নিহত ৩

বন্যা ও ভূমিধসে মহারাষ্ট্রের বিভিন্ন অঞ্চলে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ১৫৯

১০ আগস্ট থেকে বিদেশি মুসল্লিদের জন্য চালু হচ্ছে পবিত্র ওমরাহ

পরকীয়ায় ধরা মসজিদের ইমাম! রাতভর বেঁধে রাখল গ্রামবাসী


বর্তমানে দেশটিতে গুগলের বিরুদ্ধে একটি তদন্ত চলমান আছে। রাশিয়ান ব্যবহারকারীদের তথ্য রাশিয়ার বাইরে অন্যত্র সরিয়ে নেওয়ার অভিযোগ আছে প্রতিষ্ঠানটির বিরুদ্ধে। ব্যবহারকারীদের তথ্য রাশিয়ান সার্ভারেই সরিয়ে নেওয়া হয়েছে এমনটা প্রমাণ করতে না পারলে গুগলের বিরুদ্ধে ৮২ হাজার মার্কিন ডলার জরিমানা করতে পারে রুশ প্রশাসন।

এছাড়াও দেশটির আইন না মানায় বেশকিছু ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম বন্ধ থাকার নজিরও রয়েছে। এদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য হচ্ছে ভিডিও স্ট্রিমিং সাইট ডেইলি মোশন এবং পেশাজীবীদের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম লিংকড ইন।

news24bd.tv/ নকিব

পরবর্তী খবর

বাসায় আটকে রেখে পতিতাবৃত্তি, ৯৯৯-এ তরুণীর ফোন কলে উদ্ধার

অনলাইন ডেস্ক

বাসায় আটকে রেখে পতিতাবৃত্তি, ৯৯৯-এ তরুণীর ফোন কলে উদ্ধার

চাঁদপুরে জোর করে আটকে রেখে পতিতাবৃত্তি করানোর অভিযোগে একজনকে গ্রেপ্তার করেছে চাঁদপুর সদর থানার পুলিশ। জাতীয় জরুরী সেবা ৯৯৯ নম্বরে ভুক্তভোগী তরুণী কল দিলে তাকে উদ্ধার করা হয়।

২৪ জুলাই ২০২১, শনিবার সকাল সাড়ে দশটায় চাঁদপুর সদর থানাধীন ওয়ারলেস স্কুলের পাশের একটি ভবন থেকে কান্নাজড়িত স্বরে একজন তরুণী (১৮) ৯৯৯ নম্বরে ফোন করে জানান, তার বাড়ি চাঁদপুরের মতলব থানায়। সাড়ে তিনমাস পূর্বে তাকে মাহি এবং তার স্বামী রিপন নামে এক দম্পতি তাদের বাসায় কাজের কথা বলে নিয়ে আসে। কিন্তু তাকে দিয়ে ঘরের কাজের পরিবর্তে জোর করে পতিতাবৃত্তি করানো হচ্ছিল।

এ ধরণের কাজ করতে অস্বীকার করলে তাকে মারধর করা হতো। এখন সে এক সহৃদয় খদ্দেরের ফোন থেকে টয়লেটে লুকিয়ে ৯৯৯ এ ফোন করেছে। কলার ৯৯৯ এর কাছে তাকে উদ্ধারের ব্যবস্থা নেয়ার জন্য অনুরোধ জানায়।

৯৯৯ তাৎক্ষণিকভাবে বিষয়টি চাঁদপুর সদর থানায় জানিয়ে অবিলম্বে ব্যবস্থা নেয়ার জন্য অনুরোধ জানায়। সংবাদ পেয়ে চাঁদপুর সদর থানা পুলিশের একটি দল অবিলম্বে ঘটনাস্থলে যায়।


আরও পড়ুন:

চীনে গুদামে অগ্নিকাণ্ডে নিহত ১৪

এনএসও'র দাবি পেগাসাস স্পাইওয়্যার ব্যবহারে বিশ্বের লাখো মানুষ ঘুমাতে পারছে

পিএসজির সঙ্গে চুক্তির মেয়াদ বাড়ল পচেত্তিনোর

হাইতি প্রেসিডেন্টের সৎকার অনুষ্ঠান থেকে পালিয়েছে মার্কিন প্রতিনিধিদল


পরে চাঁদপুর সদর থানার সাব ইন্সপেক্টর (উপ পরিদর্শক) মোঃ রাশেদুজ্জামান ৯৯৯ কে ফোনে জানান তিনি ঘটনাস্থলে গিয়ে ভুক্তভোগী তরুণীকে উদ্ধার করেন এবং আটকে রেখে জোর পূর্বক পতিতাবৃত্তির অভিযোগে মাহি আক্তার বর্ষা ওরফে মাকসুদা বেগম মাহি (২৬), স্বামী- রিপন গনি, পিতা- আয়নাল হাওলাদার, গ্রাম- মাজারগেট, থানা- টুঙ্গিপাড়া, জেলা- গোপালগঞ্জ কে আটক করেন।

এ সংক্রান্তে থানায় একটি মামলা রুজু করা হয়েছে।

news24bd.tv/ নকিব

পরবর্তী খবর

এনএসও'র দাবি পেগাসাস স্পাইওয়্যার ব্যবহারে বিশ্বের লাখো মানুষ ঘুমাতে পারছে

অনলাইন ডেস্ক

এনএসও'র দাবি পেগাসাস স্পাইওয়্যার ব্যবহারে বিশ্বের লাখো মানুষ ঘুমাতে পারছে

পেগাসাস স্পাইওয়্যার ব্যবহার করে বিশ্বের  লাখ লাখ মানুষ রাতে ভালো ঘুমাতে পারছে। রাস্তায় চলাচল করতে পারছে নিশ্চিন্তে । এমন দাবি করেছে ইসরায়েলি সাইবার নিরাপত্তা প্রতিষ্ঠান- এনএসও গ্রুপ।

দেশে দেশে গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের ফোনে আড়ি পাতা নিয়ে সমালোচনার মধ্যে নিজেদের এমন বক্তব্য দিয়েছে এনএসও গ্রুপ।

আরও পড়ুন:

বাড্ডায় লরির ধাক্কায় যুবকের মৃত্যু

আফগানিস্তানে তালেবানদের সহিংসতা থামাতে কারফিউ জারি

মুম্বাই পুলিশের জেরার মুখে শিল্পা

সুরা হাশরের শেষ তিন আয়াত পাঠের ফজিলত

ইসরায়েলের সাবেক সাইবার গোয়েন্দাদের হাত ধরে ২০১০ সালে গড়ে ওঠে এনএসও গ্রুপ। তাদের তৈরি পেগাসাস স্পাইওয়্যার ব্যবহার করে বিশ্বের অন্তত ৪৫টি দেশে সাংবাদিক, মানবাধিকারকর্মী, রাজনীতিবিদসহ বিভিন্ন শ্রেণি–পেশার গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের স্মার্টফোনে আড়ি পাতা হয়েছে বলে সম্প্রতি খবর প্রকাশিত হয়েছে।

news24bd.tv রিমু 

পরবর্তী খবর

বেজোস ও ব্র্যানসনকে নভোচারী বলা যাবে না

অনলাইন ডেস্ক

বিশ্বের সবচেয়ে ধনাঢ্য ব্যক্তি জেফ বেজোস এবং আরেক মার্কিন ধনকুবের রিচার্ড ব্র্যানসন মহাকাশ ভ্রমণ করে এলেও, তাদেরকে নভোচারী বলা যাবে না। 

যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল এভিয়েশন এডমিনিস্টেশন জানিয়েছে, নিয়ম অনুযায়ী একজন নভোচারী মহাকাশযানের একজন ক্রু হিসেবে এবং এর নিরপদ উড্ডয়ন, ভ্রমণ ও ভূমিতে নেমে আসার ক্ষেত্রে কাজ করে। কাজেই বেজোস এবং ব্র্যানসন, কেউই সেরকম কোন দায়িত্ব পালন না করায়, তাদের এস্ট্রোনট বলা যাবে না বলে জানিয়েছে এফ.এ.এ।


দ. কোরিয়ার কোন গালিও দেয়া চলবে না উত্তর কোরিয়ায়

তালেবানের হাত থেকে ২৪ জেলা পুনরুদ্ধারের দাবি

কাছাকাছি আসা ঠেকাতে টোকিও অলিম্পিকে বিশেষ ব্যবস্থা


 গেলো ২১ জুলাই আরো তিনজন যাত্রী নিয়ে জেফ বেজোস মহাকাশে খুব স্বল্প সময়ের জন্য যাত্রা করেন। এর কিছুদিন আগে একইরকমভাবে মহাকাশ ঘুরে এসেছেন স্যার রিচার্ড ব্র্যানসন। কিন্তু তারা শুধুমাত্র দর্শণার্থী হয়ে মহাকাশযানের যাত্রী ছিলেন। যে কারণে ২০০৪ সালে পর এফ.এ.এ তাদের নতুন উইং প্রোগ্রামে এই প্রথম নিয়মের পরিবর্তন করলো। 

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর