বাংলাবাজার ঘাটে ঘরমুখো মানুষের ভিড়
বাংলাবাজার ঘাটে ঘরমুখো মানুষের ভিড়

বাংলাবাজার ঘাটে ঘরমুখো মানুষের ভিড়

Other

স্বাস্থ্যঝুঁকিকে উপক্ষো করে গ্রামের বাড়ি ফিরতে শুরু করেছে মানুষ। শনিবার সকাল থেকেই মাদারীপুরের বাংলাবাজার ঘাটে ঘরমুখো মানুষের ভিড় দেখা যায়। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে তা আরও বাড়তে থাকে। সামাজিক দূরত্ব বলে কোনও কিছুই নেই।

একে অপরের গা ঘেঁষে যাতায়াত করাতে বাড়ছে করোনা ঝুঁকি।  

যাত্রীদের চাপ বৃদ্ধি পাওয়ায় ঘাট এলাকায় সৃষ্টি হয়েছে তীব্র যানজটের। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা করছে পুলিশ, জেলা ও উপজেলা প্রশাসনের কর্মকর্তারা।

সকালে সরেজমিনে শিবচরের বাংলাবাজার ঘাটে গিয়ে দেখা গেছে,  ঘাট থেকে কিছুক্ষণ পর পরই শিমুলিয়া ঘাটের উদ্দেশে লঞ্চ ছেড়ে যাচ্ছে। বাংলাবাজার থেকে ছেড়ে যাওয়া লঞ্চে যাত্রীর সংখ্যা খুবই কম। তবে শিমুলিয়া থেকে আসা লঞ্চগুলোতে ঘরমুখো যাত্রীদের চাপ রয়েছে। প্রতিটি লঞ্চেই যাত্রীদের স্বাভাবিক চাপ দেখা গেছে। তাছাড়া বাংলাবাজার থেকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে লঞ্চে যাত্রী উঠাচ্ছে। মাস্ক ছাড়া যাত্রীদের উঠতে দিচ্ছে না বিআইডব্লিউটিএ'র বাংলাবাজার ঘাটে দায়িত্বরতরা।

এদিকে বাংলাবাজার ফেরী ঘাটে গিয়ে দেখা যায় যতগুলো ফেরি শিমুলিয়ার উদ্দেশে যাচ্ছে সব ফেরিতে ব্যক্তিগত ২ থেকে ৩টি ছোট গাড়ি আবার ২/৩ টি অ্যাম্বুলেন্সের সঙ্গে যাচ্ছে পন্যবাহী ট্রাক ও গরু বাহী ট্রাক।

এদিকে বিআইডব্লিউটিসির বাংলাবাজার ফেরিঘাট সূত্র জানায়, সকাল থেকে নৌরুটে ১৫টি ফেরি চলাচল করছে। ফেরিঘাটে ঘরমুখো যাত্রী ও ঢাকাগামী যাত্রীদের তেমন ভিড় নেই। তবে ফেরিতে পণ্যবাহী পরিবহনসহ অন্যান্য যানবাহন পার করা হচ্ছে। ঘাট এলাকায় প্রায়  তিন শতাধিক পণ্যবাহী ও গরুবাহী ট্রাক পারাপারের জন্য অপেক্ষা করছে।

বাংলাবাজার ঘাটে যাত্রীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে প্রশাসনের পক্ষ থেকে নেয়া হয়েছে নিরাপত্তা ব্যবস্থা। আনসার, পুলিশের পাশাপাশি থাকছে ভ্রাম্যমাণ আদালতের একাধিক টিমের সার্বক্ষণিক মনিটরিং। বাড়তি ভাড়া আদায় বন্ধে ভাড়ার তালিকা টাঙিয়ে রাখারও নির্দেশ দেওয়া হয়।

বিআইডব্লিউটিএ'র বাংলাবাজার লঞ্চ ঘাটের ট্রাফিক ইন্সপেক্টর আক্তার হোসেন বলেন, সকাল থেকেই ঘরমুখো যাত্রীদের ভিড় দেখা যাচ্ছে। যে লঞ্চগুলো আসা যাওয়া করছে প্রতিটি লঞ্চেই স্বাস্থ্যবিধি মেনে ধারণ ক্ষমতার অর্ধেক যাত্রী বহন করা হচ্ছে।

বিআইডব্লিউটিসির বাংলাবাজার ফেরিঘাটের ব্যবস্থাপক মো. সালাহউদ্দিন আহমেদ জানান,  বাংলাবাজার-শিমুলিয়া নৌরুটে ফেরি চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে। আজ সকাল থেকে ১৫টি ফেরি চলছে। মাঝ নদীতে একটু স্রোত থাকার কারনে ফেরীগুলোর চলাচলে বেশি সময় লাগছে। আমরা জরুরি পন্য ও গরু পারাপারের গাড়ি গুলোকে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে পার করছি।

আরও পড়ুন:


পাটুরিয়ায় দীর্ঘ যানজট, ভোগান্তিতে সাধারণ যাত্রীরা

২৩ জুলাই থেকে কঠিন লকডাউন নিয়ে যা বললেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী

আনুশকার দেহরক্ষীর বেতন কত?

দক্ষিণ আফ্রিকায় সহিংসতা ও লুটপাট পূর্বপরিকল্পিত: প্রেসিডেন্ট


বাংলাবাজার ঘাটের পুলিশের টিআই জামাল উদ্দিন বলেন, নদীতে স্রোত থাকার কারণে ফেরীগুলো চলাচল করতে বেশী সময় লাগে। তাই ঘাট এলাকায় গাড়ির একটু চাপ রয়েছে। আমরা অগ্রাধিকার ভিত্তিতে গরুবাহী ট্রাক,এ্যাম্বুলেন্স ও জরুরি পন্যবাহী ট্রাক পার করছি।  

শিবচর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আসাদুজ্জামান জানান, যাত্রীদের নির্বিঘ্নে ঘরে ফেরা নিশ্চিত করতে শিবচরের বাংলাবাজার ঘাটে প্রশাসনের পক্ষ থেকে সার্বিক প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে। বাড়তি ভাড়া ও ধারণ ক্ষমতার অর্ধেকের বেশী যাত্রী নেওয়ার বিড়ম্বনা বন্ধে ভ্র্যামমাণ আদালতের টিম রয়েছে। ঘাট এলাকায় পুলিশ সেনাবাহিনী দায়িত্ব পালন করছে। সড়কে যানজট এড়াতে ঘাটের অদূরে যাত্রী নামিয়ে দেওয়া হচ্ছে।

news24bd.tv নাজিম