আজ আসছে ১০ লাখ ডোজ, কাল আরও ১০

অনলাইন ডেস্ক

আজ আসছে ১০ লাখ ডোজ, কাল আরও ১০

১০ লাখ ডোজ টিকা আসছে আজ শনিবার। রাত ১১টায় চীনের সিনোফার্মের টিকা বহনকারী বিমানটি হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে এসে পৌঁছাবে। 

স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক এবয় স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয় ও স্বাস্থ্য অধিদফতরের কর্মকর্তারা বিমানবন্দরে উপস্থিত থেকে এই টিকাগ্রহণ করবেন।

আরও পড়ুন:


পাটুরিয়ায় দীর্ঘ যানজট, ভোগান্তিতে সাধারণ যাত্রীরা

২৩ জুলাই থেকে কঠিন লকডাউন নিয়ে যা বললেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী

আনুশকার দেহরক্ষীর বেতন কত?

দক্ষিণ আফ্রিকায় সহিংসতা ও লুটপাট পূর্বপরিকল্পিত: প্রেসিডেন্ট


এ তথ্য জানিয়েছেন আর আগামীকাল রোববার দিবাগত রাত তিনটায় আরও ১০ লাখ ডোজ টিকা এসে পৌঁছাবে বলে জানান স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের জনসংযোগ কর্মকর্তা মাইদুল ইসলাম।

news24bd.tv/এমিজান্নাত

পরবর্তী খবর

কামাল বেঁচে থাকলে আরও অনেক কাজ করতে পারতো: প্রধানমন্ত্রী

অনলাইন ডেস্ক

কামাল বেঁচে থাকলে আরও অনেক কাজ করতে পারতো: প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, দেশের প্রতি ভালোবাসা, দেশের প্রতি কল্যাণমূলক কাজ করে গেছে শেখ কামাল। ওই বেঁচে থাকলে যুব সমাজের জন্য অনেক অনেক কাজ করে যেতে পারতো।

বৃহস্পতিবার (৫ আগস্ট) ভিডিও কনফারেন্সিংয়ের মাধ্যমে শহিদ ক্যাপ্টেন শেখ কামালের ৭২তম জন্মবার্ষিকী উদযাপন ও শেখ কামাল জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ পুরস্কার-২০২১ প্রদান অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী।

এসময় তিনি আরও বলেন, একটা জাতিকে গড়ার জন্য শিক্ষা, ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক চর্চা অপরিহার্য। ক্রীড়া পুরস্কারের মধ্যদিয়ে যেমন শেখ কামালের প্রতি সম্মান দেখানো হয়েছে, তেমনি ক্রীড়াঙ্গণে মানুষের সম্পৃক্ততা আরও বাড়বে, উৎসাহী হয়ে বাংলাদেশকে এগিয়ে নিয়ে যাবে এবং বিশ্বসভায় মর্যাদা বয়ে আনেব- সেটাই কাম্য।

কান্নাজড়িত কণ্ঠে ছোট ভাই শেখ কামালের স্মৃতিচারণ করে শেখ হাসিনা বলেন, ‘কামাল আমার ছোট ভাই। আমরা দুই ভাইবোন পিঠাপিঠি। এক সঙ্গে বড় হয়েছি, এক সঙ্গে চলতাম। খেলাধুলা, পড়ালেখা ও ঝগড়াও করেছি। ভালো বোঝাপড়া ছিল আমাদের মধ্যে। যে কোনো কাজে আমার সঙ্গে পরামর্শ করত। একরকম নির্ভর করত আমার ওপর। বাবার স্নেহ থেকে সে বঞ্চিত ছিল। যার কারণে মনে অনেক আক্ষেপ ছিল। আব্বা তাকে আদরও করতেন বেশি। কামালের অনেক গুণ ছিল। সে যে কাজেই হাত দিত, সেখানে তার মেধার স্বাক্ষর রেখে আসত। কামাল সেতার বাজানো শিখতো, সে চর্চা সে রেখে গিয়েছিল। পাশাপাশি চমৎকার নাটক করতে পারত। ঢাবিতে পড়তে অনেক নাটক করেছে। ক্রীড়া জগতে তার অবদান অনেক। আবাহনী ক্রীড়াচক্র গড়ে তোলে। ধানমণ্ডি অঞ্চলের শিশু ও কিশোরদের খেলাধুলার জন্য এই চক্র গড়ে তোলে কামাল।’

দেশনেত্রী বলেন, ‘কামাল ঘরে ঢুকলে গান গাইতে গাইতে আসত। বোঝা যেত কামাল আসছে। স্পন্দন শিল্পীগোষ্ঠী সে গড়ে তোলে। ছাত্রজীবনে ছাত্রলীগের রাজনীতি করত। অদ্ভুত সাংগঠনিক দক্ষতা ওর মধ্যে ছিল। ঢাবিতে ছেলে-মেয়ে সবাই মিলে একসঙ্গে চলতে পারায় কামালের অবদান আছে।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘বাবাকে তো প্রায় গ্রেফতার করা হতো। ছয়দফা দেয়ার পর কামালের আন্দোলনের ভূমিকা ছিল উল্লেখযোগ্য। আসলে আজকে আমাদের সঙ্গীতাঙ্গণে যে আধ্যাত্মিক বা ফোক গান আধুনিক সঙ্গীতের সঙ্গে সুর করে প্রচার করা হয়, এতে কামালের অবদান ছিল। আজকে যেটি প্রাসঙ্গিক। উপস্থিত বক্তৃতায়ও কামাল পারদর্শী ছিল।’

তিনি বলেন, ‘আমার দাদা, বাবা ফুটবল খেলতেন। খেলাধুলার প্রতি পারিবারিকভাবেই আমাদের আগ্রহ ছিল। কামালও খেলায় পারদর্শী ছিল। যুবসমাজকে সুসংগঠিত করার অনেক কাজ করে গেছে কামাল। বেঁচে থাকলে হয়তো যুবকদের জন্য আরও কিছু করত।’

আরও পড়ুন


মুস্তাফিজের ধারালো বোলিংয়ে বিস্মিত অস্ট্রেলিয়া

ইসরাইলি সাইবার ইউনিট: সঙ্কটের কেন্দ্রে পারস্য উপসাগর

নওগাঁর মান্দায় বসুন্ধরা গ্রুপের খাদ্য সহায়তা পেল ২৫০ অসহায় পরিবার

দেশে করোনায় আক্রান্ত ৯৮ শতাংশের শরীরেই ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট


শেখ হাসিনা বলেন, ‘নির্বাচনে মানুষকে সম্পৃক্ত করা ও প্রচার প্রচারণা চালানোয়ও কামাল ভালো করেছে। সেসময় একজন একভোট ছিল, নির্বাচনে ভোটের প্রশিক্ষণ দিতে হতো। কামাল সে প্রশিক্ষণ দিত। অত্যন্ত দক্ষতার সঙ্গে কামাল কাজগুলো করেছিল। ৭ মার্চের ভাষণের সময়ও মঞ্চে কামাল ছিল। সেখানেও সুসংগঠিত করার কাজ করেছে। ২৫ মার্চ সন্ধ্যা থেকেই ধানমন্ডি এলাকায় যুবসমাজকে প্রশিক্ষণ দিয়ে ব্যারিকেড দেয়ার কাজটি সে করে। আব্বাকে গ্রেফতারের পরে সে রাতেই সে ২৫টি বাড়ির ৫০টি দেয়াল টপকে বাসায় মাকে দেখতে আসে। আবার চলে যায়। সে মুক্তিযুদ্ধে যোগদান করে। বাংলাদেশ সরকার কয়েকজনকে ওয়ার ট্রেনিং দেয়, সেখানেও কামাল ছিল। পরে তাকে ওসামনির এডিসি নিয়োগ দেয়া হয়।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আজকে যারা ক্রীড়া পুরস্কার পেয়েছেন, তাদের আন্তরিক ধন্যবাদ জানাই। ক্রীড়াক্ষেত্রে দেশ এগিয়ে যাক, সেটা চাই। কারণ একটা জাতির এগিয়ে যাওয়ার জন্য বা গড়ার জন্য শিক্ষা, ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক চর্চা অপরিহার্য। আমাদের শিশু, কিশোর, যুবক ও সকলের মেধাকে কাজে লাগানো গুরুত্বপূর্ণ। আমি মনে করি, এই পুরস্কারের মধ্যদিয়ে যেমন কামালের প্রতি সম্মান দেখানো হয়েছে, পাশাপাশি ক্রীড়াঙ্গণে মানুষের সম্পৃক্ততা আরও বাড়বে, উৎসাহী হবে, বাংলাদেশকে এগিয়ে নিয়ে যাবে, বিশ্বসভায় মর্যাদা নিয়ে আসবে, সেটাই আমাদের কাম্য।’

যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন। এসময় দেশের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান ও ব্যক্তিকে ক্রীড়া পুরস্কার দেয়া হয়।

news24bd.tv এসএম

পরবর্তী খবর

শুক্রবার থেকেই চলবে অভ্যন্তরীণ ফ্লাইট

অনলাইন ডেস্ক

শুক্রবার থেকেই চলবে অভ্যন্তরীণ ফ্লাইট

করোনাভাইরাস সংক্রমণ রোধে সরকারি বিধিনিষেধের মধ্যেই ৬ আগস্ট (শুক্রবার) থেকে শিল্প-কারখানাসমূহ খোলা রাখার সিদ্ধান্তের পাশাপাশি অভ্যন্তরীণ বিমান চলাচলের অনুমতি দেওয়া হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (০৫ আগস্ট) মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে ১০ আগস্ট দিবাগত রাত ১২টা পর্যন্ত চলমান বিধি-নিষেধ বৃদ্ধি করে প্রজ্ঞাপন জারি করে।     

এতে বলা হয়, শিল্প, কল-কারখানা বিধি-নিষেধের আওতার বাইরে থাকবে। স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করে অভ্যন্তরীণ রুটে বিমান চলাচল করবে।

আরও পড়ুনঃ

দিনাজপুরে হেরোইন-ইয়াবাসহ মা, মেয়ে ও ছেলে আটক

অসংখ্য তরুণীর পর্নো ভিডিও পরীর গডফাদার রাজের মোবাইলে

পর্নোগ্রাফি: আঁচল-নায়লা নাঈম ও শিলাসহ অনেকেই র‍্যাবের নজরদারিতে

বেরিয়ে আসছে পরীমনির অন্ধকার জগতের চাঞ্চল্যকর তথ্য


তবে শিল্প-কারখানাসমূহ স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করে নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় চালু থাকবে এবং ফ্লাইট পরিচালনার ক্ষেত্রে এয়ারলাইন্সগুলোকেও মানতে হবে যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি।

এর আগে করোনা সংক্রমণ পরিস্থিতি নিয়ে মঙ্গলবার (০৩ আগস্ট) সচিবালয়ে সরকারের শীর্ষ পর্যায়ের বৈঠকে এসব সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।  

news24bd.tv/ নকিব

পরবর্তী খবর

সাম্প্রতিক অসামাজিক কর্মকান্ডে যে অভিযান চলছে তা চলমান থাকবে: হানিফ

অনলাইন ডেস্ক

সাম্প্রতিক অসামাজিক কর্মকান্ডে যে অভিযান চলছে তা চলমান থাকবে: হানিফ

সাম্প্রতিক অসামাজিক কর্মকান্ডে যে অভিযান চলছে তা চলমান থাকবে। 

সরকার এই ব্যাপারে জিরো টলারেন্স বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহাবুব উল আলম হানিফ।

আরও পড়ুন


সিনেমায় আসার আগে রাজ-পরীমণি একসঙ্গে থাকতেন

বগুড়ায় করোনা ও উপসর্গ নিয়ে ৯ জনের মৃত্যু

টি-স্পোর্টসে আজকের খেলা

মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রীর পদত্যাগে অস্বীকৃতি

আজ বৃহস্পতিবার শেখ কামালের জন্মদিন উপলক্ষে রাজধানীর দক্ষিণ আওয়ামী লীগ আয়োজিত আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন হানিফ। 

বিস্তারিত আসছে......

news24bd.tv রিমু 

 

পরবর্তী খবর

দেশে করোনায় আক্রান্ত ৯৮ শতাংশের শরীরেই ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট

অনলাইন ডেস্ক

দেশে করোনায় আক্রান্ত ৯৮ শতাংশের শরীরেই ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট

দেশে করোনায় আক্রান্ত ৯৮ শতাংশ রোগীর শরীরেই ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের উপস্থিতি পাওয়া গেছে বলে জানিয়েছেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) উপাচার্য অধ্যাপক ডা. মো. শারফুদ্দিন আহমেদ।

বৃহস্পতিবার (৫ আগস্ট) বেলা সাড়ে ১১টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ ডা. মিল্টন হলে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে করোনার জিনোম সিকোয়েন্সিং গবেষণার ফলাফল প্রকাশের সময় এই তথ্য জানান তিনি।

করোনা আক্রান্ত সারাদেশব্যাপী রোগীদের ওপর গত ২৯ জুন থেকে ৩০ জুলাই পর্যন্ত এই গবেষণা পরিচালিত হয়। জিনোম সিকোয়েন্সিং রিসার্চ প্রজেক্টের সুপারভাইজার হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন উপাচার্য নিজেই।

বিএসএমএমইউ উপাচার্য বলেন, গবেষণায় দেশের সব বিভাগের রিপ্রেজেন্টেটিভ স্যাম্পলিং করা হয়। গবেষণায় মোট ৩০০ কোভিড-১৯ পজিটিভ রোগীর ন্যাযোফ্যারিনজিয়াল সোয়াব স্যাম্পল থেকে নেক্সট জেনারেশন সিকোয়েন্সিংয়ের মাধ্যমে করোনাভাইরাসের জেনোম সিকোয়েন্সিং করা হয়।

গবেষণায় অন্তর্ভুক্ত কোভিড-১৯ আক্রান্তদের মধ্যে ৫৩ শতাংশ পুরুষ। তবে বিএসএমএমইউ-এর গবেষণায় ৯ মাস থেকে শুরু করে ৯০ বছরের বয়স পর্যন্ত রোগী অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছিল। এরমধ্যে ৩০-৩৯ বছর বয়সের রোগীদের সংখ্যা বেশি। যেহেতু কোনো বয়স সীমাকেই কোভিড-১৯ এর জন্য ইমিউন করছে না, সে হিসেবে শিশুদের মধ্যেও যে কোভিড সংক্রমণ ঝুঁকি নেই, তা বলা যাচ্ছে না।

আরও পড়ুন


সারারাত র‍্যাব সদরদপ্তরেই ছিলেন পরীমণি, আজ পুলিশের কাছে হস্তান্তর

শেখ কামালের কবরে প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের শ্রদ্ধা

৭ সেপ্টেম্বরের মধ্যে সিলেট-৩ আসনের ভোট সম্পন্ন করতে হাইকোর্টের নির্দেশ

আবারও লকডাউন বাড়িয়ে প্রজ্ঞাপন


শারফুদ্দিন আহমেদ বলেন, করোনা অনেক ক্ষেত্রে বহমান জীবন-যাপনের বাধা তৈরি করলেও জীবন থেমে নেই। অন্যান্য জেনেটিক্স রোগগুলোর ওপর গবেষণা কার্যক্রম অবিলম্বে শুরু করা হবে। এ বিষয়ে বাংলাদেশের নিজস্ব ডাটা তৈরির উদ্যোগ গ্রহণ করা হবে।

গবেষণার উদ্দেশ্য প্রসঙ্গে তিনি আরও বলেন, করোনার জেনোম সিকোয়েন্সিং গবেষণার উদ্দেশ্য ভাইরাসটির জিনোমের চরিত্র উন্মোচন, মিউটেশনের ধরণ এবং বৈশ্বিক ভাইরাসের জিনোমের সঙ্গে এর সম্পর্ক বের করা এবং বাংলাদেশি কোভিড-১৯ জেনোম ডাটাবেস তৈরি করা।

news24bd.tv এসএম

পরবর্তী খবর

সারারাত র‍্যাব সদরদপ্তরেই ছিলেন পরীমণি, আজ পুলিশের কাছে হস্তান্তর

অনলাইন ডেস্ক

সারারাত র‍্যাব সদরদপ্তরেই ছিলেন পরীমণি, আজ পুলিশের কাছে হস্তান্তর

ঢাকাই চলচ্চিত্রের আলোচিত চিত্রনায়িকা পরীমণিকে গতকাল বনানীর বাসা থেকে বিদেশি মদ ও মাদকসহ আটক করেছে র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‍্যাব)। আটকের পর তাকে র‍্যাব সদরদপ্তরে নিয়ে যাওয়া হয়। সারারাত সেখানেই থাকতে হয় পরীকে।

র‍্যাবের লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইংয়ের উপ-পরিচালক মেজর হুসাইন রইসুল আজম মনি জানান, পরীমণিকে আটকের পর র‍্যাব সদরদপ্তরে রাখা হয়েছে।

র‍্যাব সূত্রে জানা যায়, পরীমণির বিরুদ্ধে মামলার প্রস্তুতি চলছে। তার বাসায় মাদকদ্রব্য পাওয়া যাওয়ায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে একটি মামলা দেওয়া হবে পরীমণিকে। পর্নোগ্রাফি ও ব্ল্যাকমেইলিংয়ের অভিযোগও খতিয়ে দেখছে র‍্যাব। প্রমাণ পেলে সেগুলোর জন্যও পৃথক মামলা দেওয়া হবে তাকে।

এছাড়া পরীমণির করা ধর্ষণচেষ্টার মামলায় ১৫ দিন কারাগারে থাকা বোট ক্লাবের ব্যবসায়ী নাসির উদ্দিন মাহমুদও তার বিরুদ্ধে মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছেন।

আরও পড়ুন


শেখ কামালের কবরে প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের শ্রদ্ধা

৭ সেপ্টেম্বরের মধ্যে সিলেট-৩ আসনের ভোট সম্পন্ন করতে হাইকোর্টের নির্দেশ

আবারও লকডাউন বাড়িয়ে প্রজ্ঞাপন

গণটিকা কার্যক্রম শুরু ৭ আগস্ট নয়, ১৪ আগস্ট থেকে


বনানী থানা সূত্রে জানা যায়, র‍্যাব সদস্যরা মামলা দিলে ও থানায় হস্তান্তর করলে পরীমণিকে সেসব মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে আজই আদালতে পাঠানো হবে।

এর আগে সুনির্দিষ্ট অভিযোগের ভিত্তিতে বুধবার (৪ আগস্ট) বিকেলে পরীমণির বাসায় অভিযান চালায় র‍্যাব। এ সময় ফেসবুক লাইভে এসে পরীমণি জানান, অজ্ঞাত বিভিন্ন পোশাকের কয়েকজন ব্যক্তি বাসার বাইরে থেকে কলিং বেল দিয়ে দরজা খুলতে বলছে। আমি ভয় পাচ্ছি।

news24bd.tv এসএম

পরবর্তী খবর