তালিবানরা তো বিয়ের নামে মেয়েদের যৌনদাসিই বানাবে
তালিবানরা তো বিয়ের নামে মেয়েদের যৌনদাসিই বানাবে

তালিবানরা তো বিয়ের নামে মেয়েদের যৌনদাসিই বানাবে

Other

একজন আফগান লোক দুঃখ করে বলেছেন, ' তালিবান আসার পর আমরা ভীষণই হতাশ। বাড়িতে আমরা জোরে কথা বলতে পারি না, গান শুনতে পারি না, মেয়েদের  শুক্রবারের বাজারে পাঠাতে পারি না। তালিবানরা পরিবারের সদস্য সম্পর্কে জানতে চেয়েছে। তালিবান সাব কমান্ডার তো বলেই দিয়েছে তোমরা ১৮ বছর বয়স হয়ে গেলে তোমাদের  মেয়েকে ঘরে রাখতে পারবে না, এটা পাপ, তাদের অবশ্যই বিয়ে দিয়ে দিতে হবে।

তালিবান সেনারা ১৫'র বেশি  এবং ৪৫'এর কম -- এমন বয়সী মেয়েদের তালিকা চেয়েছে। এদের সঙ্গে  তালিবান সেনাদের বিয়ে দেওয়া হবে। আইসিস সৈন্যরা  মেয়েদের আহবান করেছিল আইসিসে যোগ দিতে, সেই মেয়েদের ওরা যৌনদাসী বানিয়েছিল। তালিবানরা তো বিয়ের নামে মেয়েদের যৌনদাসিই বানাবে। আর মেয়েদের শিক্ষিত হওয়া, স্বাবলম্বী হওয়া --- সে বোধহয় গেল।  

ধর্মান্ধ গোষ্ঠী এসে  প্রথমেই মেয়েদের  অধিকারের ওপর হিংস্র থাবা বসাচ্ছে। ওরা ঠিক এ কাজটিই করে। নারীর অধিকার এবং ধর্মান্ধতা কখনও সহাবস্থান করতে পারে না।

(মত ভিন্ন মত বিভাগের লেখার আইনগত ও অন্যান্য দায় লেখকের নিজস্ব। এই বিভাগের কোনো লেখা সম্পাদকীয় নীতির প্রতিফলন নয়। )

news24bd.tv/আলী

;