দুই বাসের সংঘর্ষে নিহত ৬

ড্রাইভার ঘুমিয়ে ঘুমিয়ে গাড়ি চালাচ্ছিল, অভিযোগ যাত্রীদের

রেজাউল করিম মানিক, রংপুর:

ড্রাইভার ঘুমিয়ে ঘুমিয়ে গাড়ি চালাচ্ছিল, অভিযোগ যাত্রীদের

রংপুরের মিঠাপুকুর উপজেলার বলদীপুকুর নামক স্থানে যাত্রীবাহী দুই বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে চালকসহ ছয় জনের মৃত্যুর ঘটনায় বাসচালককে দোষারোপ করেছেন দুর্ঘটনায় বেঁচে যাওয়া যাত্রীরা।

যাত্রীদের দাবি, চালক ঘুমিয়ে ঘুমিয়ে গাড়ি চালাচ্ছিলেন বলেই রোববার (১৮ জুলাই) সকালের দুর্ঘটনাটি ঘটে। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন অর্ধশতাধিক যাত্রী। এদের মধ্যে ছয় জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। 

পুলিশ জানায়, রোববার সকাল ৮ টার দিকে রংপুর থেকে জোয়ানা পরিবহন নামে একটি যাত্রীবাহী বাস ঢাকার উদ্দেশে যাচ্ছিল, বিপরীত দিক থেকে সেলফি পরিবহন নামে একটি যাত্রীবাহী বাস রংপুরের দিকে আসছিল। বাস দুটি রংপুরের মিঠাপুকুর উপজেলার বলদীপুকুর নামক স্থানে পৌঁছালে দুই বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়।

এতে দুই বাসের সামনে অংশ দুমড়ে মুচড়ে যায়। ঘটনাস্থলেই সেলফি পরিবহনের ড্রাইভারসহ ছয় জন নিহত হন। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের চারটি ইউনিট ঘটনাস্থলে পৌঁছে উদ্ধার অভিযান শুরু করে। 

রংপুরে দুই বাসের সংঘর্ষ, নিহত ৬ দুর্ঘটনার শিকার সেলফি পরিবহনের যাত্রী আমিনুল ও সালাম জানান, ড্রাইভার ঢাকা থেকে গাড়ি বেপরোয়াভাবে চালিয়ে আসছিল। বগুড়া পার হওয়ার পর ড্রাইভার ঘুমিয়ে ঘুমিয়ে গাড়ি চালাচ্ছিলেন। আমরা ড্রাইভারের পেছনে ছিলাম, কয়েক দফা তাকে সাবধানও করা হয়েছে। ড্রাইভারের গাড়ি চালাতে গিয়ে ঘুমিয়ে পড়ায় গাড়ির নিয়ন্ত্রণ হারান।

ফায়ার সার্ভিসের রংপুরের উপ-পরিচালক শামসুজ্জামান বলেন, আমরা ড্রাইভারসহ ছয় জনের লাশ উদ্ধার করেছি। আহত অন্তত ৪০ জনকে রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এদের মধ্যে ছয় জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের জরুরি বিভাগ সূত্রে জানা যায়, আহতদের মধ্যে ৩০ জনকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। বর্তমানে হাসপাতালে ছয় জনকে ভর্তি করা হয়েছে। তাদের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানিয়েছেন জরুরি বিভাগের চিকিৎসক ডা. সামসুল।

আহতদের পরিচয় পাওয়া গেছে এরা হলেন গাইবান্ধার সুন্দরগজ্ঞ এলাকার রশিদুল ইসলাম, সাদুল্লাপুর এলাকার আবু বক্কর। বাকিরা হলেন নার্গিস আখতার, সেতারা বেগম, শাহিন  ও জুয়েল। এদের ঠিকানা জানা যায়নি।

মিঠাপুকুর থানার ওসি আমিরুল ইসলাম জানান, থানা পুলিশ ও হাইওয়ে পুলিশের সদস্যরা উদ্ধার অভিযানে ফায়ার সার্ভিস কর্মীদের সঙ্গে কাজ করেছে। নিহতদের কারোই পরিচয় তাৎক্ষণিকভাবে জানাতে পারেননি তিনি।

আরও পড়ুন


জামালপুর থেকে ঢাকায় ‘ক্যাটল স্পেশাল’ ট্রেন

ব্যারেন্টস ও নরওয়ে সাগরে রাশিয়ার নর্দার্ন ফ্লিট সাবমেরিন মহড়া শেষ

পটুয়াখালীতে করোনায় তিন জনের মৃত্যু

ময়মনসিংহ মেডিকেলে একদিনে সর্বোচ্চ মৃত্যুর রেকর্ড


news24bd.tv / কামরুল 

পরবর্তী খবর

বাসর রাতে ঘুমানোর জায়গা নিয়ে তর্ক, বরের মৃত্যু

অনলাইন ডেস্ক

বাসর রাতে ঘুমানোর জায়গা নিয়ে তর্ক, বরের মৃত্যু

বাসর রাতে বরের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করা হয়েছে পঞ্চগড়ের দেবীগঞ্জে। বাবুল হোসেন (২০) নামের ওই ব্যক্তিকে আজ শনিবার ভোরে বাড়ির রান্নাঘরে ফাঁস দেওয়া অবস্থায় তার ঝুলন্ত লাশ দেখতে পান পরিবারের লোকজন। 

বাবুল দেবীগঞ্জ উপজেলার চিলাহাটি ইউনিয়নের চরতিস্তাপাড়া এলাকার সফিজুল ইসলামের ছেলে। তিনি আত্মহত্যা করেছেন বলে তার পরিবার দাবি করেছে। তবে পুলিশ বলছে, এটি ‌‘রহস্যজনক’ মৃত্যু। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য পঞ্চগড় আধুনিক সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছে পুলিশ।

স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) সদস্য রফিকুল ইসলাম বলেন, শুক্রবার রাতে পঞ্চগড়ের বোদা উপজেলার বড়শশী ইউনিয়নের দিনবাজার এলাকার সবারউদ্দিনের মেয়ে সাবিনা ইয়াসমিনের সঙ্গে পারিবারিকভাবে বিয়ে হয় বাবুলের বিয়ের পর নববধূ সাবিনাকে বাড়িতে নিয়ে আসেন। সাবিনার সঙ্গে আসেন তার দাদি ও দুই শিশু। কিন্তু বাড়িতে মাত্র দুটি ঘর থাকায় কে কোথায় ঘুমাবেন তা নিয়ে শুরু হয় বিতর্ক। একপর্যায়ে বাসর ঘরেই বর-কনের সঙ্গে কনের দাদি ও তার সঙ্গে আসা দুই শিশু, বরের বোনজামাই হুসেন আলী ঘুমান। ভোরে ঘুম থেকে উঠে পরিবারের লোকজন রান্না ঘরে গিয়ে গলায় রশি দিয়ে ফাঁসি দেওয়া অবস্থায় বাবুলের ঝুলন্ত লাশ দেখতে পান। তবে তার পা মাটিতে স্পর্শ করে থাকায় রহস্যের জন্ম দিয়েছে। খবর পেয়ে দেবীগঞ্জ থানা পুলিশ লাশ উদ্ধার করে।


আরও পড়ুন

শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গুলোতে ক্রিকেট চর্চা বাড়াতে চান কোচ নাজমুল আবেদিন

ইভ্যালির বিরুদ্ধে প্রতিযোগিতা কমিশনের মামলা

অভিজাত এলাকায় প্রবেশ করতে গুনতে হবে ট্যাক্স: মেয়র আতিক

নতুন মন্ত্রিসভা ঘোষণা করেছে দুবাই শাসক


দেবীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জামাল হোসেন বলেন, এই মৃত্যু আমাদের কাছে রহস্যজনক মনে হয়েছে। আমরা লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পঞ্চগড় আধুনিক সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছি। ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন পেলেই মৃত্যুর প্রকৃত কারণ জানা যাবে। এ ঘটনায় থানায় একটি ইউডি (অস্বাভাবিক মৃত্যু বা অপমৃত্যু) মামলা হয়েছে।

news24bd.tv/এমি-জান্নাত   

পরবর্তী খবর

ওভারটেককালে ট্রাকের বাম্পারে আটকে গেল সিএনজি, নিহত ৪

অনলাইন ডেস্ক

ওভারটেককালে ট্রাকের বাম্পারে আটকে গেল সিএনজি, নিহত ৪

খুলনা-সাতক্ষীরা মহাসড়কের পূর্ব জিলেরডাঙ্গা এলাকায় সড়ক দুর্ঘটনায় স্বামী-স্ত্রীসহ ৪ জন নিহত হয়েছেন।

শুক্রবার (২৪ সেপ্টেম্বর) দুপুরে এ দুর্ঘটনা ঘটে বলে জানা গেছে।

এ ঘটনায় ট্রাকের হেলপার রাকিব শেখকে আটক করেছে পুলিশ। বালু ভর্তি ট্রাক এবং যাত্রীবাহী সিএনজি খুলনার দিকে যাচ্ছিল।

সিএনজি ট্রাকটিকে ওভারটেক করতে গেলে ট্রাকের বাম্পারে আটকে যায়। এসময় নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ট্রাক ও সিএনজি খাদে পড়ে।

আরও পড়ুন:


স্ত্রীকে পরকীয়া থেকে ফেরাতে না পেরে স্ট্যাটাস দিয়ে যুবলীগ নেতার আত্মহত্যা

সংস্কারের অভাবে বেহাল রাঙামাটি ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর সাংস্কৃতিক ইনস্টিটিউট

গাজীপুরে গৃহবধূর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

ভেসে আসা তিমির ওজন ৩০ হাজার কেজি, দৈর্ঘ্য ৪০ ফুট


সাথে সাথে রেশমা নামে এক নারীর মরদেহ উদ্ধার করা হয়। সিএনজির ওপর বালু ভর্তি ট্রাক পড়ায় সেটি পানির নিচে ডেবে যায়।

সিএনজি থেকে কেউ বের হতে পারেনি। পরে ডুমুরিয়া ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরিরা প্রায় ৪ ঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে পানির ভেতর থেকে আরও তিন জনের মরদেহ উদ্ধার করে।

news24bd.tv তৌহিদ

পরবর্তী খবর

হতাশামূলক পোস্ট দিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীর আত্মহত্যা!

অনলাইন ডেস্ক

হতাশামূলক পোস্ট দিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীর আত্মহত্যা!

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ইমরুল কায়েস ডিএসএলআর ক্যামেরা কিনতে কিনতে চেয়েছিল। কিন্তু মধ্যরাতে ক্যামেরা কিনতে যাওয়া যাবে না বলে মা তাকে বোঝানোর চেষ্টা করে। কিন্তু মায়ের কথায় সে রুমের দরজা বন্ধ করে গলায় ফাঁস দেয়। পরে রুমের দরজা ভেঙে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

বৃহস্পতিবার (২৩ সেপ্টেম্বর) রাত ৩টার দিকে যশোরের ঝিকরগাছা উপজেলার গঙ্গানন্দপুর গ্রামে নিজ বাড়িতে ফ্যানের সঙ্গে ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করেছে বলে জানা গেছে। 

 ইমরুল কায়েসের গ্রামের বাড়ি যশোরের ঝিকরগাছা উপজেলার গঙ্গানন্দপুর গ্রামে। তিনি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী। বাবা শহীদুল্লাহ ও মা একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে চাকরি করেন। তিন ভাই-বোনের মধ্যে দ্বিতীয় কায়েস। 

তার এক সহপাঠী জানায়, কিছু দিন আগে মায়ের কাছে মোটরসাইকেল কিনতে চেয়েছিল। মোটরসাইকেলও কিনে দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু ঘটনার আগে একটি ডিএসএলআর ক্যামেরা কিনতে চায়। কিন্তু মধ্যরাতে ক্যামেরা কিনতে যাওয়া যাবে না বলে মা তাকে বোঝানোর চেষ্টা করে। এরপর সে রুমের দরজা বন্ধ করে গলায় ফাঁস দেয়। পরে রুমের দরজা ভেঙে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

আরও পড়ুন:

অবশেষে ব্রিটেনের লাল তালিকা থেকে বাদ পড়ছে বাংলাদেশ

বেড়াতে গিয়ে অতিরিক্ত মদ পানে দুই ছাত্রলীগ কর্মীর মৃত্যু

আর কোনো তত্ত্বাবধায়ক সরকার হবে না, জানালেন কৃষিমন্ত্রী

ইভ্যালির সঙ্গে আর সম্পর্ক নেই তাহসানের


 

ফেসবুকে ইমরুলের টাইমলাইনে কয়েক দিন ধরে হতাশা আর আত্মহত্যা নিয়ে পোস্ট করতে দেখা যাচ্ছিল। ব্যর্থতা আত্মহত্যার মূল এবং পরিচিত কয়েকজনের সঙ্গে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছবি পোস্ট করছিলেন। সেই ছবিতেও হতাশামূলক ক্যাপশন দিতে দেখা গেছে। 

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

বরযাত্রীবাহী মাইক্রো দুর্ঘটনায় নারীর মৃত্যু, আহত ১২

নোয়াখালী প্রতিনিধি:

বরযাত্রীবাহী মাইক্রো দুর্ঘটনায় নারীর মৃত্যু, আহত ১২

নোয়াখালী সদরে নুর পাটওয়ারী হাট এলাকায় বরযাত্রীবাহী মাইক্রো দুর্ঘটনায় এক নারীর মৃত্যু হয়েছে। এ সময় শিশু নারী-পুরুষ, সহ অন্তত আরও ১২ বরযাত্রী আহত হয়েছে।  

আহতদের উদ্ধার করে ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। পরে গুরুত্বর আহত ২জনকে উন্নত চিকিৎসার জন্য চট্রগ্রাম পাঠানো হয়েছে এবং ১জনকে ঢাকায় পাঠানোর প্রস্তুতি চলছে।  

নিহত গৃহবধূ সুমি আক্তার (৩০)। সে এওজবালিয়া ইউনিয়নের পূর্ব এওজবালিয়া গ্রামের দুলাল মিয়ার মেয়ে। তবে তাৎক্ষণিক আহতদের নাম ঠিকানা জানা যায়নি।     

আরও পড়ুন:


এক বছরের মধ্যে করোনা ভাইরাস মহামারি শেষ হবে: ব্যানসেল

ফ্যানের সঙ্গে ওড়না পেঁচিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীর আত্মহত্যা

সাত ঘণ্টা বৈঠক শেষ যা বললেন মির্জা ফখরুল!

টাঙ্গাই‌লে বাস- ট্রাক ও কাভার্ডভ্যানের সংঘর্ষে নিহত ২


শুক্রবার দুপুর ২টার দিকে সোনাপুর টু আলেকজান্ডার সড়কের কালাদারাপ ইউনিয়নের নুর পাটওয়ারী হাট এলাকার সমিতি মসজিদের পাশে বরযাত্রীবাহী হাইচ মাইক্রোটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে গাছের সাথে ধাক্কা খেলে এ দুর্ঘটনা ঘটে।  

স্থানীয় সূত্র জানায়, সদর উপজেলার মান্নান নগর থেকে লক্ষীপুর জেলার রামগতি উপজেলায় বিয়ে বাড়িতে যাচ্ছিল মাইক্রোটি। মাইক্রোটি পার্শ্ববর্তী কালাদরাপ ইউনিয়নের নুর পাটওয়ারী হাট সমিতি মসজিদ এলাকায় পৌঁছলে মাইক্রোর চাকা বাষ্ট হয়ে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে গাছের সাথে ধাক্কা লাগে। পুলিশ জানিয়েছে, তাদের মধ্যে ১ নারীর মৃত্যু হয়েছে। আহত হয়েছে অন্তত ১২জন। আহতদের মধ্যে ৩জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।
  
সুধারাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাহেদ উদ্দিন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে এবং ১ নারীর মৃত্যু হয়েছে।

NEWS24.TV / কামরুল

পরবর্তী খবর

জাহাজের ধাক্কায় সাগরে ডুবল ট্রলার, নিহত ২, নিখোঁজ ১

অনলাইন ডেস্ক

জাহাজের ধাক্কায় সাগরে ডুবল ট্রলার, নিহত ২, নিখোঁজ ১

বঙ্গোপসাগরে জাহাজের ধাক্কায় একটি মাছ ধরার ট্রলার ডুবে দুই জেলে নিহত ও এক জেলে নিখোঁজ রয়েছেন। 

শুক্রবার ভোর সাড়ে ৪টায় চট্টগ্রামের গ্যাসফিল্ড সংলগ্ন গভীর সমুদ্রে এ দুঘর্টনা ঘটে বলে নিশ্চিত করেন মনপুরা থানার ওসি সাইদ আহমেদ।

তিনি বলেছেন, নিহতরা হলেন- মো. রুবেল (২৭) ও মো. মাফু (২৮)। তাদের বাড়ি উপজেলার হাজীরহাট ইউনিয়নের চরফৈজুদ্দিন ও দাসেরহাট গ্রামে। অপর নিখোঁজ জেলে হলেন উপজেলার হাজীরহাট ইউনিয়নের চরফৈজুদ্দিন গ্রামের বাসিন্দা মজিবুল হকের ছেলে মো. মিজানুর রহমান (৩৬)।

সংশ্লিষ্টরা জানান, শুক্রবার ভোর সাড়ে ৪টায় গিয়াস উদ্দিন মাঝির ট্রলারে থাকা জেলেরা চট্টগ্রামের গ্যাসফিল্ড সংলগ্ন সাগরে জালপাতা অবস্থায় মাছ শিকার করছিলেন। এ সময় একটি জাহাজ পেছনে ধাক্কা দেয়। তাৎক্ষণিক ট্রলারটি ১১ জেলেসহ ডুবে যায়। এ সময় পাশে থাকা মনপুরার কামাল মাঝির ট্রলার ডুবে যাওয়া ট্রলারের ৮ জেলেকে উদ্ধার করে।

আরও পড়ুন:


সংস্কারের অভাবে বেহাল রাঙামাটি ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর সাংস্কৃতিক ইনস্টিটিউট

গাজীপুরে গৃহবধূর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

ভেসে আসা তিমির ওজন ৩০ হাজার কেজি, দৈর্ঘ্য ৪০ ফুট


পরে মৃত অবস্থায় দুই জেলের লাশ উদ্ধার করে। কিন্তু সাগরে নিখোঁজ থাকা এক জেলেকে অনেক খোঁজার পরও সন্ধান না পাওয়ায় জীবিত ৮ জেলে ও মৃত দুই জেলের লাশ নিয়ে মনপুরার উদ্দেশে কামাল মাঝির ট্রলার রওনা হয়েছে।

ওসি জানান, জেলে ট্রলারডুবির ঘটনায় দুই জেলের মৃত্যু হয় ও এক জেলে নিখোঁজ রয়েছেন। নিখোঁজ জেলেকে উদ্ধারে চেষ্টা চালানো হচ্ছে।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. শামীম মিঞা জানান, নিহত জেলে পরিবারদের আর্থিক সহযোগিতা করা হবে।

news24bd.tv তৌহিদ

পরবর্তী খবর