গণপরিবহন ও পশুর হাটে স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিত করুন: জিএম কাদের

অনলাইন ডেস্ক

গণপরিবহন ও পশুর হাটে স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিত করুন: জিএম কাদের

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ও বিরোধীদলীয় উপনেতা জিএম কাদের (এমপি) বলেছেন, গণপরিবহন আর পশুর হাটে স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিত না হলে আনন্দের ঈদ জাতির জন্য ভয়াবহ দুঃসংবাদ ডেকে আনবে। তাই স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিত করতে সংশ্লিষ্টদের আরো কঠোর অবস্থান নিতে হবে। 

রোববার (১৮ জুলাই) এক বিবৃতিতে এ কথা বলেন তিনি। 

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান বলেন, করোনার ঊর্ধমুখী সংক্রমণ আর ক্রমবর্ধমান মৃত্যুহারের মধ্যেই সারা দেশে কোরবানির জন্য পশুর হাট জমে উঠেছে। পছন্দের পশু কিনতে প্রতিটি হাটেই প্রতিদিন ভিড় করছেন হাজারো মানুষ। কিন্তু গণমাধ্যমের খবরে প্রকাশ, পশুর হাটে উপেক্ষিত হচ্ছে স্বাস্থ্যবিধি। অধিকাংশ ক্রেতা ও বিক্রেতার মুখে মাস্ক নেই। হ্যান্ড স্যানিটাইজারের ব্যবহার নেই বললেই চলে। আবার প্রিয়জনদের সাথে ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করতে অনেকেই ছুটছেন বাড়ির পথে। সেখানেও উপেক্ষিত স্বাস্থ্যবিধি। লঞ্চ, বাস ও অন্যান্য যানবাহনে গাদাগাদি করে ছুটছেন মানুষ। শারীরিক দূরত্ব বা করোনা সচেতনতার অভাবে কোথাও স্বাস্থ্যবিধির বালাই নেই। 

আরও পড়ুন:


টিকা সংগ্রহ নিয়ে সরকার জনগণের সঙ্গে প্রতারণা করছে: ফখরুল

সোনাহাট স্থলবন্দরে পাঁচ দিন আমদানি-রপ্তানি বন্ধ

নোয়াখালীতে করোনায় একদিনে ৮ জনের মৃত্যু

দেশে করোনায় মৃত্যু ও শনাক্ত আবারও বাড়ল


তিনি বলেন, ঈদের পর দুই দিনে আবারো কর্মস্থলে ফিরবেন সবাই। সাত দিন ধরে যারা বাড়ি গিয়েছেন, তারা দুই দিনে কর্মস্থলে ফিরতে গেলেই সৃষ্টি হবে মারাত্মক জটলা। তাই করোনা সংক্রমণ রোধ করতে পশুর হাট ও গণপরিবহনে স্বাস্থ্যবিধি রক্ষায় সংশ্লিষ্টদের প্রয়োজনীয় উদ্যোগ গ্রহণ করতে হবে।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

কোনো সুযোগ নেই: কাদের

অনলাইন ডেস্ক

কোনো সুযোগ নেই: কাদের

গঠনতন্ত্র অনুযায়ী স্বীকৃত সংগঠনের বাইরে কোনো মনগড়া বা হঠাৎ গজিয়ে ওঠা সংগঠনকে আওয়ামী লীগের সঙ্গে সম্পৃক্ত হওয়া এবং করার কোনো সুযোগ নেই।

রোববার নিজের বাসভবনে ভার্চ্যুয়াল সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক, সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘দলের গঠনতন্ত্রের বিধান অনুযায়ী আওয়ামী লীগের সহযোগী, ভ্রাতৃপ্রতিম সংগঠন এবং বিভিন্ন উপকমিটি রয়েছে।’

আওয়ামী লীগের জ্যেষ্ঠ এই নেতা বলেন, ‘স্বীকৃত সংগঠনের বাইরে যেকোনো নামের সঙ্গে “লীগ বা আওয়ামী” শব্দ জুড়ে দিয়ে আওয়ামী লীগের রাজনীতির সঙ্গে সম্পৃক্ত হওয়ার কোনো সুযোগ নেই।’

তিনি বলেন, ‘দল ক্ষমতায় থাকলে নানান সুবিধাভোগী শ্রেণি এবং বসন্তের কোকিলরা এ ধরনের চেষ্টায় লিপ্ত হয়। যুক্ত হয় নানান আগাছা-পরগাছা।’ দলীয় সভানেত্রীর ঘোষণা অনুযায়ী দলের মধ্যে কারও প্রকাশ্যে বা অপ্রকাশ্যে এ ধরনের কাজে সংশ্লিষ্টতা পাওয়া গেলে, তাদের বিরুদ্ধে তাৎক্ষণিক সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে সতর্ক করেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক।

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘দলের নাম ভাঙিয়ে ব্যক্তিস্বার্থ হাসিলের অপচেষ্টাকারীদের বিরুদ্ধে নেওয়া হবে প্রশাসনিক ব্যবস্থা। কোনো বিতর্কিত ব্যক্তির দলে অনুপ্রবেশ ঘটলে কিংবা কারও কর্মকাণ্ড নিয়ে প্রশ্ন উঠলে, দলের গঠনতন্ত্র অনুযায়ী সভানেত্রীর রাজনৈতিক কার্যালয়ে নির্বাচনী ট্রাইব্যুনালে লিখিত অভিযোগ দায়ের করা যেতে পারে।’

পরবর্তী খবর

ড. ইউনূসের ‘অলিম্পিক লরেল’ সম্মাননা নি:সন্দেহে গৌরবজনক: আ স ম রব

অনলাইন ডেস্ক

ড. ইউনূসের ‘অলিম্পিক লরেল’ সম্মাননা নি:সন্দেহে গৌরবজনক: আ স ম রব

‘অলিম্পিক লরেল’ অ্যাওয়ার্ডে ভূষিত হওয়ায় অর্থনীতিবিদ ও শান্তিতে নোবেল জয়ী অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ ইউনূসকে অভিনন্দন জানিয়েছেন জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের (জেএসডি) সভাপতি আ স ম আবদুর রব।

আজ গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে এ অভিনন্দন জানান তিনি। 

বিবৃতিতে তিনি বলেন, ​ড. মুহাম্মদ ইউনূসের ‘অলিম্পিক লরেল’ প্রাপ্তির বিরল সম্মাননা আমাদের জাতীয় মর্যাদাকে বৃদ্ধি করবে। বিশ্ববাসীর কাছে মর্যাদাশীল জাতি হিসেবে বাংলাদেশ সমাদৃত হবে। যা আমাদের জন্য নি:সন্দেহে গৌরবজনক।

তিনি আরও বলেন, ড. মুহাম্মদ ইউনুস বিশ্ব ক্রীড়া জগতের সর্বোচ্চ সম্মান ‘অলিম্পিক লরেল’-এ ভূষিত হওয়ায় বাংলাদেশের জনগণ ও ব্যক্তিগতভাবে আমি গর্ববোধ করছি।

আরও পড়ুন:


প্রতি মাসে এক কোটি টিকা দেওয়ার পরিকল্পনা আছে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

নামের সাথে লীগ জুড়ে আওয়ামী লীগের সাথে সম্পৃক্ত হওয়ার সুযোগ নেই: কাদের

করোনা: খুলনা বিভাগে একদিনে ৪৫ জনের মৃত্যু


জেএসডি সভাপতি বলেন, এই অ্যাওয়ার্ড প্রবর্তনের পর আপনি দ্বিতীয় ব্যক্তি-যিনি বিরল সম্মান অর্জন করলেন। এর পূর্বেও শান্তিতে নোবেল জয় লাভ করে আপনি বাংলাদেশকে গৌরবান্বিত করেছেন। তেমনি এবার বিশ্ব ক্রীড়া জগতের এই সর্বোচ্চ সম্মান অর্জন আমাদেরকে আত্মশক্তিতে বলীয়ান হওয়ার প্রেরণা জোগাবে। আপনার বিশাল প্রাপ্তি ও সাফল্যে বাংলাদেশের জনগণ আনন্দিত ও গৌরবান্বিত।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

করোনা নিয়ন্ত্রণে স্বাস্থ্য খাতেরই চিকিৎসা প্রয়োজন : আ স ম রব

অনলাইন ডেস্ক

করোনা নিয়ন্ত্রণে স্বাস্থ্য খাতেরই চিকিৎসা প্রয়োজন : আ স ম রব

করোনা মোকাবেলায় অদক্ষ, দুর্নীতিগ্রস্ত ও পরিকল্পনাহীন অদুরদর্শী স্বাস্থ্য খাতেরই চিকিৎসা প্রয়োজন বলে জানিয়েছেন জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল(জেএসডি) সভাপতি আ স ম আবদুর রব।

তিনি বলেন, স্বাস্থ্য খাত দীর্ঘদিন ধরে দুরারোগ্য ব্যাধিতে আক্রান্ত, দুর্নীতি ও সিন্ডিকেট দ্বারা নিয়ন্ত্রিত। সুতরাং স্বাস্থ্য খাতের চিকিৎসা তথা কাঠামোগত সংস্কার ছাড়া করোনা নিয়ন্ত্রণসহ গণমুখী স্বাস্থ্য ব্যবস্থার সফল বাস্তবায়ন সম্ভব নয়।

বুধবার ২১ জুলাই কর্নেল তাহের দিবস উপলক্ষে জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল(জেএসডি) কর্তৃক ভার্চুয়াল আলোচনা সভায় সভাপতির ভাষণে আ স ম আবদুর রব এসব কথা বলেন। তাহের দিবস উপলক্ষে কর্নেল তাহের স্মরণে জেএসডি আয়োজিত ভার্চুয়াল আলোচনা সভা বুধবার রাত ৮টায় অনুষ্ঠিত হয়।

তিনি বলেন, পৃথিবীর সব দেশে বয়স্ক ও ঝুঁকিপূর্ণ নাগরিকদের দ্রুত টিকা কর্মসূচির আওতায় আনার পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়। এতে মৃত্যু সংখ্যা হ্রাস পায়। কিন্তু আমাদের দেশে সরকার সর্বাগ্রে বয়স্ক ও ঝুঁকিপূর্ণ সকল নাগরিককে টিকার প্রাপ্যতা নিশ্চিত না করে শুধু বয়স কমিয়ে আনার ঘোষণা কেবল চমক সৃষ্টির সহায়ক হতে পারে মাত্র, এতে মূল সঙ্কট আরো জটিল হবে।

তিনি আরও বলেন, বাংলাদেশের জনসংখ্যা ১৭ কোটির মাঝে ১৩ কোটি ৩০ লাখ মানুষ টিকা পাওয়ার অধিকারী। প্রতিজনকে দুই ডোজ করে টিকা দিতে হলে ২৬ কোটি ৬০ লাখ টিকার প্রয়োজন। আর সরকার আজ পর্যন্ত সংগ্রহ করতে পেরেছে মাত্র দুই কোটি ডোজ টিকা। সুতরাং টিকা ক্রয়, সংগ্রহ, প্রাপ্তি এবং বিতরণ ব্যবস্থা নিশ্চিত না করে শুধুমাত্র দুদিন পর পর বয়স কমানোর ঘোষণা সরকারের চূড়ান্ত পরিকল্পনাহীনতার অংশ। 

সরকার যখন জনসংখ্যার ৮০% মানুষকে টিকা কর্মসূচির আওতায় আনার পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে তখন অবশ্যই ধরে নেয়া যায় প্রাপ্যতা অনুযায়ী সকল নাগরিককে টিকার আওতায় আনা সম্ভব হবে। টিকা প্রাপ্তি, সংগ্রহ ও বিতরণের সাথে অবশ্যই অগ্রাধিকার নির্ধারণ করতে হবে।

আসম রব বলেন, ঘুণে ধরা উপনিবেশিক শাসন ব্যবস্থার আমুল পরিবর্তন করে জনগণের অংশগ্রহণ ভিত্তিক শাসন ব্যবস্থা প্রবর্তন এর মধ্য দিয়ে কর্নেল তাহেরের স্বপ্নকে বাস্তবায়ন করতে হবে।

স্বাধীনতার পতাকা উত্তোলক জনাব আ স ম আবদুর রব এর সভাপতিত্বে সভায় বক্তব্য রাখেন কার্যকরী সভাপতি অ্যাডভোকেট সা কা ম আনিছুর রহমান খান, বীর মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ সিরাজ মিয়া, কার্যকরী সাধারণ সম্পাদক জনাব শহীদ উদ্দিন মাহমুদ স্বপন, স্থায়ী কমিটির সদস্য  অ্যাডভোকেট আবদুর রহমান মাস্টার, বাবু হিরালাল চক্রবর্তী, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ডা. জবিউল হোসেন, এস এম আনসার উদ্দিন, অ্যাডভোকেট সৈয়দ বেলায়েত হোসেন বেলাল, লোকমান হাকিম।


দ. কোরিয়ার কোন গালিও দেয়া চলবে না উত্তর কোরিয়ায়

তালেবানের হাত থেকে ২৪ জেলা পুনরুদ্ধারের দাবি

কাছাকাছি আসা ঠেকাতে টোকিও অলিম্পিকে বিশেষ ব্যবস্থা


আরো বক্তব্য রাখেন সাংগঠনিক সম্পাদক মোশাররফ হোসেন, আমিন উদ্দিন বিএসসি, মাস্টার আমির উদ্দিন, ছরওয়ার আজম আরজু, অ্যাডভোকেট সৈয়দা ফাতেমা হেনা, অ্যাডভোকেট তৈমুর রেজা মোঃ শাহজাদ ভুঁইয়া, অ্যাডভোকেট মিয়া হোসেন, ব্যারিস্টার ফারাহ খান, শামসু উদ্দিন আহমেদ শামীম, শ্রী নীল রতন মিস্ত্রি, হাজী আখতার হোসেন ভুইয়া, মোশাররফ হোসেন, আজম খান, অ্যাডভোকেট শামসুদ্দিন মজুমদার, অ্যাডভোকেট খলিলুর রহমান, আবদুল মোতালেব মাষ্টার, ইলোরা খাতুন সোমা, মিতা ইসলাম, সৈয়দ তারিকুল আনোয়ার প্রমুখ।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

ছাত্রদল নেতার পাশে অক্সিজেন নিয়ে ছাত্রলীগ কর্মীরা

অনলাইন ডেস্ক

ছাত্রদল নেতার পাশে অক্সিজেন নিয়ে ছাত্রলীগ কর্মীরা

ছাত্রলীগ আর ছাত্রদলের মধ্যে রাজপথে তিক্ত সম্পর্ক। কিন্তু করোনা মহামারিতে সেই সম্পর্ক ভুলে ছাত্রদলের নেতার পাশে অক্সিজেন সেবা নিয়ে এগিয়ে এলেন ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা। যার মধ্য দিয়ে মানবতার আরেকটি দৃষ্টান্ত স্থাপন করলেন মেহেরপুর জেলা ছাত্রলীগের কোভিড-১৯ স্বেচ্ছাসেবক ইউনিটের কর্মীরা।

জানা গেছে, মেহেরপুর জেলা ছাত্রদলের সহ সাধারণ সম্পাদক ইমরুল কায়েস করোনা আক্রান্ত হয়ে গাংনী উপজেলার নওদা মটমুড়া গ্রামের বাড়িতে চিকিৎসাধীন। শুক্রবার (২৩ জুলাই) সন্ধ্যায় তার শ্বাসকষ্ট দেখা দেয়। অক্সিজেনে দেওয়ার প্রয়োজনীয়তা দেখা দিলে দিশেহারা তার পরিবারের লোকজন। অক্সিজেন জোগাড় করতে ব্যর্থ হয়ে তারা ছাত্রলীগের কোভিড-১৯ স্বেচ্ছাসেবক ইউনিটের হটলাইন নম্বরে কল দিয়ে সহায়তা কামনা করেন। তাতে মানবিক সাড়া দেয় ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা। বিনামূল্যে অক্সিজেন সহায়তা আর ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের পাশে পেয়ে আবেগ আপ্লুত ছাত্রদল নেতা ও তার পরিবারের লোকজন কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

জেলা ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক ও কোভিড-১৯ স্বেচ্ছাসেবক ইউনিটের আহ্বায়ক মুনতাছির জামান মৃদুল বলেন, আমরা ইমরুল কায়েসের পরিবারের কল পেয়ে সাড়া দেই। কোভিড-১৯ সেচ্ছাসেবক ইউনিটের সদস্য সচিব ও গাংনী উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আমিনুল ইসলাম সেন্টু, উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ফয়সাল জাহান শিশির, স্বেচ্ছাসেবক ইউনিটের সদস্য জেলা মুক্তিযুদ্ধ প্রজন্ম লীগের সভাপতি ইউসুফ আলী, জেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক তপু রায়হান রবিন মোটরসাইকেলযোগে অক্সিজেন সিলিন্ডার নিয়ে তার কাছে ছুটে যায়।

স্বেচ্ছাসেবক ইউনিটের সদস্য ছাত্রলীগের সাবেক নেতা জুবায়ের হোসেন উজ্জ্বল জানান, ইসরুল কায়েসের প্রচণ্ড শ্বাসকষ্ট ছিল। অক্সিজেন সেবা পেয়ে তিনি এখন বেশ সুস্থ। তার প্রয়োজনীয় অক্সিজেন ও অন্যান্য চিকিৎসা সেবা আমাদের পক্ষ থেকে নিশ্চিত করা হবে।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

জোট থেকে কোন শরীক বেরিয়ে গেলেও ক্ষতিগ্রস্থ হবে না বিএনপি

মারুফা রহমান

জোট থেকে কোন শরীক বেড়িয়ে গেলে সেটা বিএনপির ক্ষতি নয় বলে মনে করেন, বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোটের সমন্বয়ক, নজরুল ইসলাম খান। এদিকে আগামী নির্বাচন কিংবা রাজপথের আন্দোলনে সফল হতে, বিএনপি এবং জোটের শরীকদের আত্ম সমালোচনার মাধ্যমে এই জোটকে পুনরুদ্ধার এবং পুনর্গঠন করে, সক্রিয় করার আহ্বান জানিয়েছেন, জোটে থেকে যাওয়া নেতারা। 

১৪ জুলাই ঘোষণা দিয়ে, ২০ দলীয় জোট ছেড়েছে জমিয়তে উলামায়ে ইসলামের একাংশ। জোট ছাড়ার কারণ প্রসঙ্গে দলটির মহাসচিব মাওলানা  জাকারিয়া বলেন, জোটের শরিক দলের যথাযথ মূল্যায়ন না করা, শরিকদের সঙ্গে পরামর্শ না করেই উপনির্বাচন এককভাবে বর্জন করা এবং  আলমদের গ্রেফতারের প্রতিবাদ না করায় জোট ছাড়ছেন তারা।

এ বিষয়ে ২০ দলীয় জোটের স্বমন্বয়ক বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য বলেন, যে কোন দলের স্বাধীনতা আছে, জোটে থাকা বা না থাকার। তবে মুল্যায়ণ নিয়ে জমিয়তের অভিযোগ ভুল।

এদিকে জমিয়তে উলামার একাংশের বেড়িয়ে যাওয়া এবং শরীকদল গুলোর এ নিয়ে অবস্থান প্রসঙ্গে কথা বলেন, কল্যাণ পার্টির চেয়ারম্যান,  সৈয়দ মুহাম্মদ ইব্রাহিম। তিনি মনে করেন, সরকারের বিরুদ্ধে কোন আন্দোলন হোক বা আগামী নির্বাচনকে কেন্দ্র করে হোক, সম্মিলিত শক্তি বা সম্মিলিত প্রয়াসের কোন বিকল্প নেই।

আরও পড়ুন:

আনন্দ ভ্রমণে গিয়ে মাদরাসাছাত্রের মৃত্যু

রাস্তায় ফেলে চলে যাওয়া চামড়াগুলোতে পচন ধরে দুর্গন্ধ ছড়াচ্ছে

মুনিয়ার মৃত্যুর সঙ্গে সায়েম সোবহান আনভীরের জড়িত থাকার প্রমাণ পায়নি পুলিশ


 

বিএনপি জানায়, করোনাকালে তারা আপাতত এককভাবে কর্মসূচি নিয়েই এগোবে। এ মুহূর্তে কৌশলগত কারণেই কোনো জোটের সঙ্গে বৈঠক করা হচ্ছে না। তবে, সময়ই বলে দেবে জোট আরও শক্তিশালী হবে না ভেঙ্গে দেয়া হবে।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর