সুরক্ষায় মানুষের পাশে থাকার পরিকল্পনা সরকারি দলের

শাহ্ আলী জয়

শুক্রবার থেকে শুরু হতে যাওয়া কঠোর লকডাউনে ত্রাণ,খাদ্য ও স্বাস্থ্য সুরক্ষাসামগ্রী নিয়ে দুস্থদের পাশে থাকবে আওয়ামী লীগ এবং এর সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা। দলটির ত্রাণ ও সমাজকলণ্যাণ সম্পাদক সুজিত রায় নন্দী জানিয়েছেন, দুর্যোগের এই সময়ে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে হলেও মানুষের সেবায় কার্পণ্য করবেন না সংগঠনটির কর্মীরা। 

করোনার উর্ধমুখী সংক্রমণ ঠেকাতে শুক্রবার ভোর থেকে দেশ জুড়ে আবারো শুরু হচ্ছে কঠোর লকডাউন। বন্ধ থাকবে অফিস আদালত কল কারখানা যানবাহন এবং মানুষের চলাচল। মানুষের জীব বাঁচাতে এমন উদ্যোগে নেয়া হলেও এতে বিপাকে পরবেন নিম্ন আয়ের খেটে খাওয়া মানুষেরা। লকডাউনের সময়ে এইসব অসহায় এসব মানুষের পাশে ত্রাণ সহয়তা নিয়ে সরকারের পাশাপাশি মাঠে থাকবেন আওয়ামী লীগের নেতা কর্মীরাও।

আওয়ামী লীগের ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক জানান শুধু খাদ্য এবং ত্রাণ সহায়তায়ই নয়, অসুস্থ রোগীদের হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া এবং মৃতদের দাফন এবং সৎকারের কাজেও করবেন দল এবং সহযোগী সংগঠনের নেতা কর্মীরা।

আরও পড়ুন:

আনন্দ ভ্রমণে গিয়ে মাদরাসাছাত্রের মৃত্যু

রাস্তায় ফেলে চলে যাওয়া চামড়াগুলোতে পচন ধরে দুর্গন্ধ ছড়াচ্ছে

মুনিয়ার মৃত্যুর সঙ্গে সায়েম সোবহান আনভীরের জড়িত থাকার প্রমাণ পায়নি পুলিশ


 

ত্রাণ বিতরণের জন্য গেল বছর ওয়ার্ড পর্যায় পর্যন্ত ত্রাণ কমিটি গঠনের নির্দেশ দিয়েছিলেন আওয়ামী লীগ সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। দলটির ত্রাণ ও সমাজ কল্যাণ সম্পাদক জানালেন, কমিটি গুলো নতুন ভাবে তৎপরতা শুরু করবে লকডাউনের সময়ে এবং ত্রাণ বিতরণের ক্ষেত্রে দলমত নির্বিশেষে সকলকেই অন্তর্ভুক্ত করা হবে।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

আজ স্বেচ্ছাসেবক লীগের ২৭তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী

অনলাইন ডেস্ক

আজ স্বেচ্ছাসেবক লীগের ২৭তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী

আওয়ামী লীগের অন্যতম সহযোগী সংগঠন স্বেচ্ছাসেবক লীগের ২৭তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী আজ মঙ্গলবার। ১৯৯৪ সালের এই দিনে আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা ছাত্রলীগের বিভিন্ন পর্যায়ের সাবেক নেতাদের সমন্বয়ে স্বেচ্ছাসেবক লীগ প্রতিষ্ঠা করেন।

গৌরবোজ্জ্বল সংগ্রাম ও সাফল্যের পথ বেয়ে সংগঠনটি ২৭ বছরে পদার্পণ করলো। সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ছিলেন আওয়ামী লীগের বর্তমান যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম।

প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে স্বাস্থ্যবিধি মেনে সীমিত পরিসরে কর্মসূচি হাতে নিয়েছে স্বেচ্ছাসেবক লীগ। সকাল ৯টায় ধানমন্ডি ৩২ নম্বরে ঐতিহাসিক বঙ্গবন্ধু ভবনের সামনে স্থাপিত জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ।

বিকেল সাড়ে ৪টায় বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সীমিত পরিসরে স্বাস্থ্যবিধি মেনে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হবে। সভায় সংগঠনের নেতাকর্মীদের উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দিক-নির্দেশনামূলক ভাষণ দেবেন।

এতে সংগঠনের সভাপতি নির্মল রঞ্জন গুহ স্বাগত বক্তব্য রাখবেন। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও স্বেচ্ছাসেবক লীগের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম বক্তব্য রাখবেন।

সভার শুরুতে স্বেচ্ছাসেবক লীগের বিগত এক বছরের কার্যক্রম নিয়ে ৫ মিনিট ৩১ সেকেন্ডের ডকুমেন্টারি প্রদর্শন এবং ‘স্বেচ্ছাসেবার ১ বছর’ ২০১৯-২০২০ইং শিরোনামে প্রকাশিত গ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন করা হবে।

আরও পড়ুন:

চীনে গুদামে অগ্নিকাণ্ডে নিহত ১৪

এনএসও'র দাবি পেগাসাস স্পাইওয়্যার ব্যবহারে বিশ্বের লাখো মানুষ ঘুমাতে পারছে

পিএসজির সঙ্গে চুক্তির মেয়াদ বাড়ল পচেত্তিনোর


 

আলোচনা সভা শেষে প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়ের জন্মদিন উপলক্ষে কেক কাটা ও তার সুস্বাস্থ্য কামনায় দোয়া অনুষ্ঠিত হবে।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

মাত্র দুদিন বাকী থাকতে সিলেট-৩ আসনের উপ-নির্বাচনের ভোটগ্রহণ স্থগিত

হাবিবুল ইসলাম হাবিব

মাত্র দুদিন বাকী থাকতে সিলেট-৩ আসনের উপ-নির্বাচনের ভোটগ্রহণ স্থগিত করলেন হাইকোর্ট। সোমবার এ সংক্রান্ত রিট আবেদনের শুনানি নিয়ে বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিমের বিশেষ হাইকোর্ট বেঞ্চ এই আদেশ দেন। করোনায় দেশব্যাপী লকডাউন থাকায় নির্বাচন কমিশন ঘোষিত ২৮ জুলাই উপনির্বাচন স্থগিত চেয়ে রিটটি দায়ের করে কয়েকজন ভোটার ও হাইকোর্টের ৭ আইনজীবী। 

দেশে করোনা সংক্রমণ যখন উর্ধ্বমুখি তখন সংসদীয় আসন সিলেট-৩ ফেঞ্চুগঞ্জ ও বালাগঞ্জে নির্বাচনী আমেজ। মাত্র দুদিন বাদে ২৮ জুলাই এই নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা।  নির্বাচনকে উপলক্ষ করে চলছিল শেষ মুহুর্তের প্রচার প্রচারনা।

নির্বাচন নাকের ডগায় থাকায় সিলেটের আইন শৃঙ্খলা বানিহীর সাথে গেল শনিবার এক বৈঠক করেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার। ঐ বৈঠকে তিনি বলেন, নির্বাচনের সময় পেছানোর কোন সুযোগ নেই এবং নির্বাচনী এলাকা লকডাউনের আউতামুক্ত থাকবে।

কিন্তু করোনার প্রকোপ উর্ধ্বোমুখি থাকায় নির্বাচন স্থগিত চেয়ে হাইকোর্টে রিট আবেদন করেন কয়েকজন ভোটার ও ৭ আইনজীবী। রিটের শুনানী নিয়ে আগামী ৫ আগস্ট পর্যন্ত নির্বাচন  স্থগিত করেছেন হাইকোর্ট।

আরও পড়ুন:

চীনে গুদামে অগ্নিকাণ্ডে নিহত ১৪

এনএসও'র দাবি পেগাসাস স্পাইওয়্যার ব্যবহারে বিশ্বের লাখো মানুষ ঘুমাতে পারছে

পিএসজির সঙ্গে চুক্তির মেয়াদ বাড়ল পচেত্তিনোর


 

সংবিধানের ১২৩ এর দফা ৪ এর শর্তানুসারে নির্বাচনি আসন শূণ্য হওয়ার প্রথম ৯০ দিনের মধ্যে নির্বাচন আয়োজন করতে না পারলে পরবর্তী ৯০ দিনের মধ্যে নির্বাচন দিতে হবে। সে অনুযায়ী সিলেট উপ নির্বাচন অনুষ্ঠানের সময় সীমা এবছরের ৭ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

বিএনপি’র পরিকল্পিত লকডাউনটা কী, জানতে চান তথ্যমন্ত্রী

অনলাইন ডেস্ক

বিএনপি’র পরিকল্পিত লকডাউনটা কী, জানতে চান তথ্যমন্ত্রী

‘বিএনপি’র পরিকল্পিত লকডাউনটা কি! সেটা ২০১৩-১৪-১৫ সালে ১৫৮ দিন মানুষকে বন্দি করে রাখার মতো কি না’ লকডাউন নিয়ে বিএনপি’র লাগাতার সমালোচনার জবাবে এ প্রশ্ন রেখেছেন তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড.হাছান মাহমুদ। 

সোমবার দুপুরে সচিবালয়ে তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে সাংবাদিকরা লকডাউন নিয়ে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের সমালোচনার বিষয়ে প্রশ্ন করলে তিনি একথা বলেন। 

মির্জা ফখরুল সাহেবকে তথ্যমন্ত্রী ঈদের শুভেচ্ছা জানান এবং বলেন, ‘লকডাউন নিয়ে বিএনপি’র পক্ষ থেকে একেক সময় একেক ধরণের কথা বলা হচ্ছে। লকডাউন দেয়ার আগে তারা বলেছিল দেশে কঠোর লকডাউন দেয়া দরকার। আবার লকডাউন দেয়ার পর বলছে এই লকডাউন অপরিকল্পিত। তাহলে তাদের পরিকল্পিতটা কি, সেটার প্রেসক্রিপসনটা তারা দিক।’ 

‘আর বিএনপি যে এসমস্ত কথা বলে, ২০১৩-১৪-১৫ সালে দিনের পর দিন হরতাল অবরোধ ডেকে ১৫৮ দিন মানুষকে বন্দি করে রেখেছিল, জনগণের যে অসুবিধা হয়েছে, সেটা কি তাদের মাথায় ছিল না’ প্রশ্ন রেখে মন্ত্রী বলেন, আজকে তো মানুষের জীবনরক্ষার জন্য লকডাউন দিতে হচ্ছে এবং শুধু বাংলাদেশে নয়, পাশ্ববর্তী দেশ ও ইউরোপের বিভিন্ন দেশসহ পৃথিবীর প্রায় সব দেশেই এই পদ্ধতি অবলম্বন করা হয়েছে।

তথ্যমন্ত্রী এসময় বলেন, বাংলাদেশে আজকে প্রায় দেড় বছর করোনা। কিন্তু খেটে খাওয়া মানুষের দেশে একজন মানুষও না খেয়ে মৃত্যুবরণ করেনি। সরকার ও  আমাদের দলের পক্ষ থেকে ব্যাপক তৎপরতার কারণে মানুষের মধ্যে কোনো হাহাকার নেই। সাময়িক অসুবিধা যে হচ্ছে না, তা নয়। অবশ্যই অনেকের সাময়িক অসুবিধা হচ্ছে। তবে এ অসুবিধা সাময়িক। সবাই যদি স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলে তাহলে লকডাউন বিলম্বিত করতে হবে না। 

মির্জা ফখরুলের ‘সরকার দিন দিন হিংস্র হয়ে উঠছে, বিএনপিকর্মীদের গ্রেপ্তার করছে’ এ বক্তব্যের জবাবে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘প্রকৃতপক্ষে হিং¯্রতার রাজনীতি বিশেষ করে ২০১৩-১৪-১৫ সালে যেভাবে মানুষকে পেট্রোলবোমা নিক্ষেপ করে হত্যা করা, বহু মানুষকে ঝলসে দেয়া, বহু মানুষকে জীবনের তরে পঙ্গু করে দেয়া, এটি বাংলাদেশে আগে কেউ কখনো দেখেনি। পৃথিবীতেও সমসাময়িককালে রাজনীতির জন্য এভাবে মানুষ পুড়িয়ে হত্যা করা কেউ দেখেনি।’ 

‘এখন এই লকডাউনের মধ্যে যদি কেউ ফৌজদারী মামলার আসামী হন, তিনি যদি কোনো দল করেন তাহলে তাকে গ্রেপ্তার করা যাবে না?’ প্রশ্ন রেখে ড. হাছান বলেন, ‘মির্জা ফখরুল সাহেবরা ফৌজদারী অপরাধের আসামীর পক্ষ কেন নেন। কোনো রাজনীতিবিদও যদি ফৌজদারী মামলার আসামী হন, আইন এবং আদালত তো তার বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেবেন। আইন এবং ন্যায় প্রতিষ্ঠার সাথে রাজনীতির কোনো সংশ্লেষ নেই।’ 

আরও পড়ুন:


করোনায় জাবি অধ্যাপকের মৃত্যু

মর্মান্তিক মৃত্যুর ঠিক আগ মুহূর্তে ছবি তোলেন তিনি

সিলেট-৩ আসনের উপনির্বাচনে ভোটগ্রহণ স্থগিত


এখন গ্রামাঞ্চলেও করোনা ছড়িয়েছে এ প্রেক্ষিতে মন্ত্রী বলেন, ‘আমি মনে করি মানুষের মধ্যে করোনার শুরুতে যে ধরণের ভীতি ছিল, সেই ভীতিটা নেই। দীর্ঘ একবছর গ্রামে করোনা না ছড়ানোর প্রেক্ষিতে গ্রামের মানুষের মধ্যে একটি ধারণা জন্মেছিল গ্রামে কখনো করোনা আসবে না। কিন্তু আজকে আমরা দেখতে পাচ্ছি, শহরের হাসপাতালগুলোতে যে রোগীরা ভর্তি হচ্ছে তার ৭০ ভাগ গ্রাম থেকে আসছে।’ 

সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার জন্য আবারও অনুরোধ জানিয়ে ড. হাছান বলেন, নিজের সুরক্ষার জন্যই লকডাউন এবং স্বাস্থ্যবিধি মানা প্রয়োজন। 

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

দেশবাসীকে রক্ষায় সব মানুষকে মাস্ক পরতে বাধ্য করতে হবে: তোফায়েল

অনলাইন ডেস্ক

দেশবাসীকে রক্ষায় সব মানুষকে মাস্ক পরতে বাধ্য করতে হবে: তোফায়েল

‌‘সব মানুষকে টিকা নেওয়ার পাশাপাশি মাস্ক পরতে বাধ্য করতে হবে। তবেই করোনা থেকে দেশবাসীকে রক্ষা করা সম্ভব হবে।’

সোমবার দুপুরে ভোলার জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে জেলা আইনশৃঙ্খলা বিষয়ক সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেছেন আওয়ামী লীগ উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য সাবেক মন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ। ঢাকা থেকে তিনি ভার্চুয়ালি যুক্ত হন।

তোফায়েল আহমেদ বলেন, তিনি (প্রধানমন্ত্রী) করোনা পরিস্থিতিতে যা যা করেছেন, এর বেশি আর কারও পক্ষে করা সম্ভব ছিল না। তিনি যেমনি টিকার ব্যবস্থা করে চলেছেন, তেমনি কর্মহীন মানুষদের আর্থিক ও মানবিক খাদ্য সহায়তা দিয়েছেন।

তিনি বলেন, ২১ কোটি টিকা আনার ব্যবস্থা করা হচ্ছে। এতে দেশের সকল মানুষই টিকা পাবেন। তাই সবাইকে টিকা নিতে বাধ্য করতে হবে। এ ছাড়া ভোলায় ব্যাপক করোনা আক্রান্ত বেড়ে যাওয়া রোধ করতে নিষিদ্ধ ট্রলারযোগে ভোলায় বহিরাগতদের প্রবেশ ঠেকানোর ব্যবস্থা নিতে নির্দেশ দেন তোফায়েল আহমেদ।

আরও পড়ুন:


বিভিন্ন জেলায় করোনা ও উপসর্গে মৃত্যুর তথ্য

গার্মেন্টস খোলার ব্যাপারে যা জানালেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী

কখন লকডাউন বাড়ানো লাগবে না জানালেন তথ্যমন্ত্রী

ময়মনসিংহ মেডিকেলে করোনায় ‍মৃত্যুর রেকর্ড


 news24bd.tv তৌহিদ

পরবর্তী খবর

হাসপাতালে বেড নেই, অক্সিজেন নেই, আইসিইউ নেই: ফখরুল

অনলাইন ডেস্ক

হাসপাতালে বেড নেই, অক্সিজেন নেই, আইসিইউ নেই: ফখরুল

এই সরকারকে যদি না সরানো যায় তাহলে ১৯৭১ সালে স্বাধীনতা যুদ্ধের যে মূল লক্ষ্য ছিল তা পুরোপুরিভাবে ধবংস হয়ে যাবে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

তিনি বলেছেন, এখন এটা সারা দেশের মানুষের দায়িত্ব। এই সরকারকে সরিয়ে গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনতে হবে এবং খালেদা জিয়াকে মুক্ত করতে হবে।

সোমবার (২৬ জুলাই) দুপুরে এক ভার্চুয়াল আলোচনা সভায় এসব কথা বলেন ফখরুল।

বিএনপি প্রয়াত সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আবদুল আউয়াল খানের প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে ভার্চুয়াল 
এ স্মরণ সভায় বিএনপির মহাসচিব আরও বলেন, আমাদের দায়িত্বটা বেশি, কারণ বিএনপিকেই এর (সরকারকে সরানোর) নেতৃত্ব নিতে হবে। সেজন্য যেটা প্রয়োজন- আমাদের কখনো হতাশ হওয়া যাবে না, হতাশা ও ব্যর্থতা নিয়ে এগুনো যাবে না। আমাদের অবশ্যই আশাবাদী ও জনগণকে সংগঠিত করতে হবে। ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান সেই লক্ষ্যে কাজ করছেন। অনেক বাধা-বিপত্তি, অনেক সুবিধা-অসুবিধার মধ্যেও কাজ হচ্ছে। সেই কাজগুলোকে আমাদের একত্রিত করতে হবে।

সরকারের ‘অপরিকল্পিত লকডাউনে জনজীবন বিপন্ন’ বলে অভিযোগ করে মির্জা ফখরুল বলেন, ভয়াবহ বৈশ্বিক মহামারির সময়ে এই সরকার পরিকল্পিতভাবে দেশের স্বাস্থ্য ব্যবস্থাকে ভেঙে দিয়েছে। তাদের উদাসীনতা, অযোগ্যতা, ব্যর্থতা ও দুর্নীতি আজকে দেশ এবং দেশের মানুষের জীবন বিপন্ন-জীবিকা বিপন্ন করে ফেলেছে।

তিনি আরও বলেন, হাসপাতালগুলোতে বেড নেই, অক্সিজেন নেই, আইসিইউ বেড নেই এবং ওষুধ নেই। এমন একটা অবস্থা সরকার সৃষ্টি করেছে। এর ভয়াবহতায় জনগণের জীবন আজকে বিপন্ন। করোনা হবে চিকিৎসা পাবে না, ভুল চিকিৎসা হবে, গরীব মানুষ চিকিৎসার অভাবে রাস্তায় পড়ে থাকবে এটা মেনে নেওয়া যায় না।

সাবেক এই মন্ত্রী বলেন, আজকের পত্রিকাতে আছে সরকার যে ২৮ হাজার কোটি টাকা প্রণোদনা দিয়েছে তার শতকরা ৮৬ শতাংশ ভুয়া। অর্থাৎ তারা যে নামগুলো দিয়েছে সেখানেও আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীদের নামগুলো দিয়েছে, যাতে করে তারা সেই টাকা নিয়ে নিতে পারে। এটা সর্বক্ষেত্রেই হচ্ছে।

‘তথাকথিত পার্লামেন্টে’ চিৎকার করে আওয়ামী লীগের নেতারাই বলছে- ‘আমলা এখন সব কিছু দখল করে নিয়েছে’ উল্লেখ করে বিএনপির মহাসচিব বলেন, আমলারা দখল করে নিয়েছে, এজন্য যে তাদের দখল করতে দেওয়া হয়েছে। রাজনীতি নেই, রাজনীতিবিদরা দূরে সরে যেতে বাধ্য হয়েছে। এই সরকার কার ওপরে টিকে আছে। জনগণের সঙ্গে তাদের কোনো সম্পর্ক নাই। আমলা এবং কিছু দুর্নীতিপরায়ন ব্যক্তিদের যোগসাজশে আজকে তারা ক্ষমতায় টিকে আছে।

খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে বিএনপিকে ধরে রেখেছি দাবি করে মির্জা ফখরুল ইসলাম বলেন, ধরে রাখার চেষ্টা করেছি এবং ধরে রাখতে পেরেছি। বিএনপিকে অনেকবার ভাঙার চেষ্টা হয়েছে। অনেকবার ধ্বংস করে দেওয়ার চেষ্টা হয়েছে, কিন্তু কখনোই ভেঙে ফেলতে পারেনি। কারণ একটাই আমাদের শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমান যে দর্শন দিয়েছেন, সেটা জনগণের অন্তুরের সঙ্গে একাত্ম হয়ে গেছে।

আরও পড়ুন:


বিভিন্ন জেলায় করোনা ও উপসর্গে মৃত্যুর তথ্য

গার্মেন্টস খোলার ব্যাপারে যা জানালেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী

কখন লকডাউন বাড়ানো লাগবে না জানালেন তথ্যমন্ত্রী

ময়মনসিংহ মেডিকেলে করোনায় ‍মৃত্যুর রেকর্ড


 news24bd.tv তৌহিদ

 

পরবর্তী খবর