কিশোরীকে পুলিশের উদ্ধার

অনলাইনে প্রেম : পালিয়ে যাওয়ার পর প্রেমিকাকে বিক্রির চেষ্টা

অনলাইন ডেস্ক

অনলাইনে প্রেম : পালিয়ে যাওয়ার পর প্রেমিকাকে বিক্রির চেষ্টা

ঈদের দিন সন্ধ্যায় বাংলাদেশ পুলিশের ফেসবুক পেজে এক কিশোরী ম্যাসেজ পাঠান। ম্যাসেজে সে লিখে ‘আমাকে অপহরণ করে মুক্তিপণ দাবি করা হচ্ছে। মুক্তিপণ না দিলে দৌলতদিয়া পতিতালয়ে বিক্রি করে দেবে বলে হুমকি দিচ্ছে। আমাকে বাঁচান।’

এই ম্যাসেজ পেয়ে বাংলাদেশ পুলিশের মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশন্স উইং মুক্তাগাছা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ দুলাল আকন্দকে দ্রুততম সময়ে কিশোরীকে উদ্ধারের ব্যবস্থা নিতে নির্দেশনা দেওয়া হয়।

পরে প্রযুক্তির সহায়তায় ও প্রাথমিক তদন্তে মুক্তাগাছার ওসি জানতে পারেন মেয়েটি রাজবাড়ির পাংশা থানার একটি এলাকায় রয়েছেন। পরে থানা পুলিশ, জেলা পুলিশ, সাইবার পুলিশ ও মহানগর গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশের একাধিক ইউনিট অভিযান চালিয়ে শুক্রবার (২৩ জুলাই) রাতে রাজবাড়ী জেলার পাংশা থানার সরিষা ইউনিয়নের পিড়ালীপাড়া গ্রাম থেকে তাকে উদ্ধার করে। এ সময় ওই কিশোরীর কথিত প্রেমিক ও অপহরণকারী দুর্জয়কে আটক করা হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে পুলিশ সদরদফতর জানায়, মেয়েটিকে উদ্ধারের পর প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা গেছে- কয়েক মাস আগে তার সাথে অনলাইনে দুর্জয়ের প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। এক পর্যায়ে বাড়িতে কাউকে না জানিয়ে দুর্জয়ের সাথে পালিয়ে যান মেয়েটি। দুর্জয় মেয়েটিকে প্রথমে তার নিজের বাড়িতে নিয়ে যান। তারপর, সেখান থেকে তার নানাবাড়িতে রেখে আসেন। এরপরই তাকে বিক্রি করে দেওয়ার পরিকল্পনা করেন দুর্জয়।

আরও পড়ুনঃ


দ. কোরিয়ার কোন গালিও দেয়া চলবে না উত্তর কোরিয়ায়

তালেবানের হাত থেকে ২৪ জেলা পুনরুদ্ধারের দাবি

কাছাকাছি আসা ঠেকাতে টোকিও অলিম্পিকে বিশেষ ব্যবস্থা


 

পুলিশ সদরদফতর জানায়, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, দুর্জয়ের সঙ্গে এ অপকর্মে আরও কেউ জড়িত ছিল। তার পরিবার ও  এলাকার কোনো দুষ্টচক্র মেয়েটিকে বিক্রির হুমকি দিয়ে তার পরিবারের কাছ থেকে সুবিধা আদায় করতে চেয়েছে বলেও সন্দেহ করা হচ্ছে।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

গাজীপুরে ১৮ কেজি গাঁজা সহ দুই মাদক কারবারি গ্রেপ্তার

মোহাম্মদ আল-আমীন, গাজীপুর

গাজীপুরে ১৮ কেজি গাঁজা সহ দুই মাদক কারবারি গ্রেপ্তার

গাজীপুরে দুই মাদক কারবারিকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব-১ । শনিবার ২৫ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যার দিকে গাজীপুর জিএমপি টঙ্গী পশ্চিম থানাধীন চান্দনা টঙ্গী স্টেশন রােড এলাকা থেকে ১৮ কেজি গাঁজাসহ তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।

গ্রেপ্তাররা হলেন- কুমিল্লা জেলার দাউদকান্দি থানার বশির উদ্দিনের ছেলে হারুন অর রশিদ (৫৩) এবং দিনাজপুর জেলার পার্বতীপুর থানার পলাশবাড়ী গ্রামের মৃত আজহার আলীর ছেলে সবুজ (৩১)।

এদিকে সকালে র‌্যাব-১এর পোড়াবাড়ী ক্যাম্পের কোম্পানী কমান্ডার মেজর এএসএম মাঈদুল ইসলাম জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানা যায় গাজীপুর টঙ্গী পশ্চিম থানাধীন স্টেশন রােড এলাকায় মাদকদ্রব্য গাঁজা ক্রয়-বিক্রয় হচ্ছে। পরে ক্যাম্পের আভিযানিক দল কোম্পানী কমান্ডার মেজর এএসএম মাঈদুল ইসলাম  ও সিনিয়র এএসপি জি এম মাজহারুল ইসলাম এর নেতৃত্বে ওই এলাকায় (রেডিয়াম ডায়াগনস্টিক সেন্টারের বিপরীতে) অনন্যা ক্লাসিক কাউন্টারের সামনে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের ওপর অভিযান পরিচালনা করা হয়।

আরও পড়ুন:


হংকংয়ের বিরুদ্ধে বাংলাদেশের মেয়েদের বড় জয়

তালেবান ক্ষমতায় আসায় বিএনপি-জামায়াত-হেফাজত উৎফুল্ল: কৃষিমন্ত্রী

সৌদি আরবে বাংলাদেশির মৃত্যু

দুই ডোজ টিকা নিয়েও উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তার করোনা শনাক্ত


পরে দুজনকে গ্রেপ্তার করা হয়। তাদের কাছ থেকে ১৮ কেজি গাঁজা, দুটি মােবাইল ফোন উদ্ধার করা হয়। কোম্পানী কমান্ডার আরো জানান, জিজ্ঞাসাবাদে জানায়  তারা দীর্ঘদিন ধরে বিভিন্ন স্থান থেকে অবৈধ মাদকদ্রব্য গাঁজা সরবরাহ করে গাজীপুর টঙ্গীসহ গাজীপুরে বিভিন্ন এলাকায় সুকৌশলে ক্রয়-বিক্রয় করে আসছিল।

news24bd.tv তৌহিদ

পরবর্তী খবর

স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের পর হত্যা, আসামি ভারতে পালানোর সময় গ্রেপ্তার

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি:

স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের পর হত্যা, আসামি ভারতে পালানোর সময় গ্রেপ্তার

সাতক্ষীরায় দশম শ্রেণী ছাত্রী পূর্ণিমা দাসকে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে ধর্ষণ ও শ্বাসরোধ করে হত্যার ঘটনায় দায়েরকৃত মামলার একমাত্র আসামি ভিকটিমের প্রেমিক পার্থ মণ্ডলকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। 

শনিবার রাতে অবৈধভাবে ভারতে পালানোর সময় বৈকারী সীমান্ত থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। এ সময় তার কাছ থেকে হত্যায় ব্যবহৃত ইলেকট্রিক ক্যাবল ও একটি বাইসাইকেল জব্দ করা হয়। 

আজ রোববার দুপুরে পুলিশ সুপার কার্যালয়ে এক প্রেসবিফিং-এ সাতক্ষীরার পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মোস্তাফিজুর রহমান এসব কথা জানান। 

পুলিশ সুপার বলেন, দেবহাটা উপজেলার টিকেট গ্রামের শান্তিরঞ্জন দাসের মেয়ে গাভা একেএম আদর্শ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ১০ম শ্রেণীর ছাত্রী পূর্ণিমা দাসকে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে ধর্ষণ শেষে গলায় ক্যাবল পেঁচিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠে তার প্রেমিক একই গ্রামের একই গ্রামের শিবপদ মন্ডলের ছেলে প্যারা মেডিক্যালে অধ্যয়নরত ছাত্র পার্থ মন্ডলের বিরুদ্ধে। 

রও পড়ুন:


কাল লাখ লাখ অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোন বন্ধ হয়ে যাবে!

বিয়ের আগেই পাত্রের মাকে নিয়ে পালিয়ে গেল পাত্রীর বাবা!

বিশ্বকাপের আগে কোহলিকে স্বস্তি দিলেন অশ্বিন

ইংরেজি শেখার জন্য বিয়ে করেছিলেন শেবাগ-যুবরাজ-হরভজন!!


শুক্রবার সকালে বাড়ির পাশের একটি পরিত্যক্ত বাড়ির সবজি বাগান থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। ওইদিন রাতে পূর্ণিমার বাবা শান্তি রঞ্জন দাস উপজেলার দেবহাটা থানায় পার্থকে আসামী করে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা করেন। এ ঘটনায় একমাত্র আসামি ভারতে পালিয়ে যাওয়ার সময় পুলিশ তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে শনিবার রাতে পার্থ মণ্ডলকে সদর উপজেলার বৈকারী সীমান্ত থেকে গ্রেপ্তার করে। 

পূর্ণিমা দাসের সঙ্গে পার্থ মণ্ডলের প্রেমের সম্পর্ক ছিল। এক বছর আগে পূর্ণিমাকে বিয়ের জন্য পার্থ মন্ডল প্রস্তাব দেয়। এতে পূর্ণিমার বাবা শান্তি রঞ্জন দাস রাজি না হওয়ায় পূর্নিমা তাকে এড়িয়ে চলত। এতে পার্থ ক্ষিপ্ত হয়ে পরিকল্পনা সুযোগ বুঝে তাকে ধর্ষণ শেষে হত্যা করে বলে জানান পুলিশ সুপার মোস্তাফিজুর রহমান।

এদিকে স্কুল ছাত্রী পূর্ণিমা হত্যার ঘটনায় খুনি পার্থ মণ্ডলের ফাঁসির দাবিতে মানববন্ধন করেছে দেবহাটা উপজেলার গাভা একেএম আদর্শ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী, অভিভাবক ও শত শত এলাকাবাসী। রোববার সকাল ১১ টার সময় সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের সামনে এই মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়। 

NEWS24.TV / কামরুল

পরবর্তী খবর

শাহজালাল বিমানবন্দরে ১ কেজি সোনাসহ যাত্রী আটক

অনলাইন ডেস্ক

শাহজালাল বিমানবন্দরে ১ কেজি সোনাসহ যাত্রী আটক

রাজধানীর হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে দুবাই ফেরত এক যাত্রীর কাছ থেকে স্বর্ণ উদ্ধার করেছে ঢাকা কাস্টম হাউস। এসময় ওই যাত্রীকে আটক করা হয়।

আটক ওই যাত্রীর নাম আনোয়ার হোসেন। তার শরীরে লুকানো ১ কেজি ১০ গ্রাম ওজনের পেস্ট স্বর্ণ, চারটি স্বর্ণের বার এবং ১১০ গ্রাম স্বর্ণের অলঙ্কার জব্দ করা হয়।  

কাস্টমস হাউসের ডেপুটি কমিশনার (প্রিভেন্টিভ) মো. সানোয়ারুল কবীর গণমাধ্যমকে বলেন, শুক্রবার রাতে বিমানবন্দরে এমিরেটস এয়ারলাইন্সের ফ্লাইটে দুবাই থেকে আসেন আনোয়ার হোসেন। শুল্ক ফাঁকি রোধে কাস্টম হাউসের প্রিভেন্টিভ টিম বিমানবন্দরে অবস্থান নেয়। এ সময় তাকে তল্লাশি করে চারটি স্বর্ণের বার পাওয়া যায়, যার ওজন ৪৬৪ গ্রাম। এ ছাড়া স্বর্ণের অলঙ্কার ছিল ১১০ গ্রাম। এ ছাড়া মলদ্বারে বিশেষ পদ্ধতিতে লুকানো আরও ১০১০ গ্রাম স্বর্ণ পাওয়া গেছে। 

তিনি বলেন, এসব স্বর্ণের আনুমানিক বাজারমূল্য এক কোটি পাঁচ লাখ টাকা। আটক যাত্রীর বিরুদ্ধে মামলা করে থানায় পাঠানো হয়েছে।

news24bd.tv এসএম

আরও পড়ুন


চট্টগ্রামে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে ৫টি কাঠের গুদাম পুড়ে ছাই

আজ এসএসসি পরীক্ষার সময়সূচি প্রকাশিত হতে পারে

শ্রীপুরে কাভার্ডভ্যানের চাপায় শ্রমিক লীগ নেতা নিহত

কানাডার মূল ধারার রাজনীতি: বাংলাদেশি বংশোদ্ভূতদের অংশ গ্রহণ


 

পরবর্তী খবর

মসজিদে তাবলিগের ১৩ মুসল্লিকে বেহুঁশ করে সব লুট!

অনলাইন ডেস্ক

মসজিদে তাবলিগের ১৩ মুসল্লিকে বেহুঁশ করে সব লুট!

মসজিদেই তাবলিগ জামাতের ১৩ সদস্যকে খাবারের সঙ্গে চেতনানাশক ওষুধ খাইয়ে টাকা লুট করেছে দুর্বৃত্তরা। আহত মুসল্লিরা বর্তমানে পটুয়াখালী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। 

শনিবার সকালে পটুয়াখালী শহরের কলাতলা বাবরি মসজিদে এ ঘটনা ঘটে। 

সূত্র জানায়, শুক্রবার তাবলিগের মারকাজের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী তিন চিল্লার বিভিন্ন বিভাগ থেকে ১৫ জন সাথী শহরের কলাতলা এলাকার বটতলা বাবরি মসজিদে যান। রাতে খাবার সময় তাবলিগ জামাতে আগত সদস্য ব্যতীত দুইজন লোক তাদের সঙ্গে ছিলেন। রাতের খাবার শেষ করে অন্যরা যার যার মতো চলে যান।

ফজরের সময় তাবলিগের দুইজন সদস্য উঠলেও বাকিরা উঠতে পারেননি। স্থানীয় মারকাজ মসজিদে বিষয়টি অবগত করা হলে তারা দ্রুত এসে অচেতন অবস্থায় ১৩ জনকে পটুয়াখালী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন। 

আরও পড়ুন:

অবশেষে ব্রিটেনের লাল তালিকা থেকে বাদ পড়ছে বাংলাদেশ

বেড়াতে গিয়ে অতিরিক্ত মদ পানে দুই ছাত্রলীগ কর্মীর মৃত্যু

আর কোনো তত্ত্বাবধায়ক সরকার হবে না, জানালেন কৃষিমন্ত্রী

ইভ্যালির সঙ্গে আর সম্পর্ক নেই তাহসানের


 

তাবলিগ জামাতের সংশ্লিষ্টরা বলেন, এ ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা এই প্রথম পটুয়াখালীতে ঘটল।

সদর থানার ওসি আখতার মোরশেদ এই ঘটনার বিষয়ে বলেন, মসজিদের ঘটনা শোনার সঙ্গে সঙ্গে আমি ফোর্স পাঠিয়েছি। এ ধরনের ন্যক্কারজনক ঘটনার হোতাদের খুঁজে বের করার জন্য পুলিশ কাজ করছে। 

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

পঞ্চম শ্রেণীর ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে মামলা

অনলাইন ডেস্ক

পঞ্চম শ্রেণীর ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে মামলা

জয়পুরহাটের কালাইয়ে পঞ্চম শ্রেণি পড়ুয়া ১১ বছর বয়সী এক শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগে মামলা হয়েছে। শুক্রবার রাতে শিশুটির বাবা বাদী হয়ে জহুরুল ইসলাম (৩৮) নামে একজনকে আসামি করে কালাই থানায় মামলাটি দায়ের করেন। 

এর আগে একই দিন দুপুরে ঘটনাটি 'ধামাচাপা দিতে' সালিশের আয়োজন করে গ্রাম্য মাতবররা। কিন্তু অভিযুক্ত উপস্থিত না থাকায় পরে সালিশ বাতিল করা হয়।

মামলার আসামি জহুরুল ইসলাম উপজেলার উদয়পুর ইউনিয়নের মাস্তর চান্দারপাড়া গ্রামের আব্দুল আজিজের ছেলে। তিনি পোশায় একজন অটোরিকশা চালক। তিনি পলাতক রয়েছেন।

আরও পড়ুন


রোহিঙ্গাদের নিজ দেশে ফেরাতে ইইউ’র সহায়তা চাইলেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী

আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে ব্যবসা প্রতিষ্ঠান উচ্ছেদের অভিযোগ কাদের মির্জার বিরুদ্ধে

লঘুচাপ গভীর নিম্নচাপে পরিণত, উপকূলে ঝড়-বৃষ্টির আভাস

ঠাকুরগাঁওয়ে তিন স্কুলের ১৪ ছাত্রী করোনায় আক্রান্ত


মামলার বিবরণ সূত্রে জানা যায়, শুক্রবার সকাল থেকে অন্য বাড়িতে টিনের ঘর ছাউনি দেওয়া নিয়ে ব্যস্ত ছিলেন শিশুটির বাবা। দুপুরের দিকে শিশুটির মা তাকে বাড়িতে রেখে স্বামীর কাছে যান। এ সময় শিশুটি বাড়িতে একাই ছিল। এ  সুযোগে জহুরুল ইসলাম ওই বাড়িতে ঢুকে শিশুটিকে ধর্ষণ করেন।

মামলার বাদী ও নির্যাতিত শিশুর বাবা জানান, কাজ শেষে দুপুরে বাড়িতে ঢুকে তিনি মেয়েকে মেঝেতে পড়ে থাকতে দেখেন। পরে তার কাছ থেকে ঘটনা জেনে গ্রামের লোকজনদের জানান। তখন গ্রামের মাতবর ছফির উদ্দিন, হেলাল উদ্দিন, ছুমির ফকির, আলতাব হোসেন সরদার, আমিরুল খান ও ছাত্তার খান শিশুটির বাবা-মাকে ঘটনাটি জানাজানি করতে নিষেধ করেন। তারা সবাই মিলে রাতে সালিশ করে এ ঘটনার মীমাংসা করে দেবেন বলেও আশ্বাস দেন।

নির্যাতিত শিশুটির বাবা আরও জানান, এরপর তিনি স্থানীয় একটি ফার্মেসি থেকে কিছু ওষুধ এনে মেয়েকে খেতে দেন। রাত সাড়ে ৮টার দিকে গ্রামে সালিশ বসান মাতবররা। ওই সালিশে তারা উপস্থিত হলেও জহুরুল ইসলাম অনুপস্থিত ছিলেন। এ কারণে মাতবররা সালিশ বাতিল করেন। পরে রাতেই তিনি জহুরুলকে আসামি করে থানায় মামলা দায়ের করেন।

শিশুটির বাবা জানান, রাতে মেয়ের অবস্থার অবনতি হলে তাকে কালাই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করান। পরে চিকিৎসকরা শিশুটিকে জয়পুরহাট জেলা আধুনিক হাসপাতালে পাঠান।

কালাই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক ডা. নুর আলম বলেন, প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে রাতেই শিশুটিকে জয়পুরহাট জেলা আধুনিক হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে।

কালাই থানার ওসি সেলিম মালিক বলেন, ধর্ষণের অভিযোগে শিশুটির বাবা বাদী হয়ে একজনকে আসামি করে থানায় ধর্ষণ মামলা দায়ের করেছেন। আসামিকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

NEWS24.TV / কামরুল

পরবর্তী খবর