বাড়িতে রহস্যজনক মৃত্যু বাবরি মসজিদ ধ্বংসকারী আমেরের

অনলাইন ডেস্ক

বাড়িতে রহস্যজনক মৃত্যু বাবরি মসজিদ ধ্বংসকারী আমেরের

ভারতের উত্তর প্রদেশের অযোধ্যায় বহুল আলোচিত বাবরি মসজিদ ধ্বংসকারী সাবেক করসেবক মোহাম্মদ আমেরের রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে।  পূর্বে বলবির সিং নামে পরিচিত মোহাম্মদ আমের উগ্র হিন্দুত্ববাদী দল রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সংঘের (আরএসএস) কর্মী ছিলেন। আরএসএসের সক্রিয় কর্মী হিসেবে ১৯৯২ সালে তিনি বাবরি মসজিদের ধ্বংসে অংশ নিয়েছিলেন।

শুক্রবার তেলেঙ্গানা প্রদেশের হায়দরাবাদ শহরে নিজ বাড়িতে তার মৃত্যু হয়েছে বলে পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে। হায়দরাবাদের পুরনো শহরে হাফিজ বাবা নগর মহল্লায় মোহাম্মদ আমেরের বাড়ি থেকে বাজে গন্ধ পেয়ে স্থানীয়রা পুলিশকে খবর দেয়। খবর পেয়ে কাছাকাছি থাকা কাঞ্চনবাগ পুলিশ স্টেশন থেকে একটি দল এসে বাড়িতে ঢুকে তার লাশ উদ্ধার করে।

কিন্তু মোহাম্মদ আমেরের উদারপন্থী পরিবার তার কাজকে প্রত্যাখ্যান করলে তিনি নিজেকে অপরাধী মনে করতে থাকেন। মানসিক শান্তির জন্য তিনি উত্তর প্রদেশের মুজাফফরনগরের মাওলানা কলিম সিদ্দিকীর সাথে যোগাযোগ করেন। পরে ১৯৯৩ সালে তিনি ইসলাম গ্রহণ করেন এবং বলবির সিং থেকে নিজের নাম পরিবর্তন করে মোহাম্মদ আমের রাখেন।

ইসলাম গ্রহণের পর থেকে বাবরি মসজিদ ধ্বংসে নিজের অংশগ্রহণের বদলায় ১০০ মসজিদ নির্মাণের লক্ষ্য নির্ধারণ করেছিলেন মোহাম্মদ আমের। এই লক্ষ্যে ১৯৯৪ সালে হরিয়ানায় ‘মসজিদে মদীনা’ নামে প্রথম মসজিদ নির্মাণ করেন তিনি। গত ২৭ বছরে মোট ৯১টি মসজিদ নির্মাণ করেছিলেন মোহাম্মদ আমের। এ ছাড়া আরো ৫৯টি মসজিদ বর্তমানে নির্মাণাধীন অবস্থায় রয়েছে।

আরও পড়ুনঃ


দ. কোরিয়ার কোন গালিও দেয়া চলবে না উত্তর কোরিয়ায়

তালেবানের হাত থেকে ২৪ জেলা পুনরুদ্ধারের দাবি

কাছাকাছি আসা ঠেকাতে টোকিও অলিম্পিকে বিশেষ ব্যবস্থা


 

কাঞ্চনবাগ পুলিশ স্টেশনের ইন্সপেক্টর জে ভেঙ্কট রেড্ডি বলেন, ‘মৃত্যুর কারণ এই মুহূর্তে বলা যাচ্ছে না। যদি আমরা তার পরিবারের সদস্যদের কাছ থেকে মৃত্যুর বিষয়ে সন্দেহ করে কোনো অভিযোগ পাই, পুলিশ তখন ময়নাতদন্ত করবে এবং মামলা লিপিবদ্ধ করবে।’

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

নিজেদের চাহিদা পূরণ হলেই টিকা রপ্তানি করা হবে : ভারতের পররাষ্ট্রসচিব

অনলাইন ডেস্ক

নিজেদের চাহিদা পূরণ হলেই টিকা রপ্তানি করা হবে : ভারতের পররাষ্ট্রসচিব

নিজ দেশের চাহিদা পূরণের পরই প্রতিবেশী দেশে করোনার টিকা রপ্তানি শুরু করবে ভারত। গতকাল মঙ্গলবার ভারতের পররাষ্ট্রসচিব হর্ষবর্ধন শ্রিংলা এ কথা বলেন। নয়াদিল্লিতে গণমাধ্যমের সঙ্গে আলাপকালে শ্রিংলা এ কথা জানান। তিনি বলেন, এপ্রিলের পর থেকে ভারত টিকা উৎপাদন দ্বিগুণ করেছে। এর ফলে নিজস্ব প্রয়োজন মিটিয়ে রপ্তানিও করা যাবে। সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি এ খবর জানায়।

যদিও গত সোমবার দিল্লিতে এক অনুষ্ঠানে ভারতের স্বাস্থ্যমন্ত্রী মানসুক মানদাভিয়া বলেছিলেন, ছয় মাস বন্ধ রাখার পর আগামী অক্টোবর থেকে আবার টিকা রপ্তানি শুরু করবে ভারত। করোনা সংক্রমণের দ্বিতীয় ঢেউ মোকাবিলায় ভারত গত এপ্রিলে টিকা রপ্তানি বন্ধ করে দেয়। ফলে বাংলাদেশসহ বিভিন্ন দেশ টিকা সংকটে পড়ে। বিশ্বের সবচেয়ে বড় টিকা উৎপাদক দেশ ভারতের সেই সিদ্ধান্তে বিশ্ব জুড়ে টিকা সরবরাহে বড় ধরনের প্রভাব পড়ে।


আরও পড়ুন

ইভার গান গাওয়া নিয়ে কী চান নতুন স্বামী?

ই-কমার্স উদ্যোক্তাদের জেলখানায় পাঠিয়ে লাভ নেই: বাণিজ্যমন্ত্রী

কেন মন ভাঙালো তরুণদের ক্রাশ রাশমিকার!


ভারত সরকার ডিসেম্বরের মধ্যে দেশটির ৯৪ কোটি ৪০ লাখ প্রাপ্তবয়স্কের সবাইকে করোনার টিকা দেওয়ার লক্ষ্যমাত্রা ঠিক করেছে; ইতোমধ্যে দেশটির তাদের ৬১ শতাংশ টিকার অন্তত একটি ডোজ নিয়েছেন। অন্যদিকে শ্রিংলা বলেছেন, ব্রিটিশ সরকার সিরাম ইনস্টিটিউটে তৈরি অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার কোভিশিল্ড টিকাকে স্বীকৃতি দেবে না বলে যে সিদ্ধান্ত নিয়েছে, সেটি বৈষ্যম্যমূলক। যদি এই ইস্যুর সমাধান না হয় সেক্ষেত্রে ভারত পালটা পদক্ষেপ নেবে বলে জানানো হয়েছে।

news24bd.tv/এমি-জান্নাত    

পরবর্তী খবর

নতুন করে স্নায়ুযুদ্ধ চায় না যুক্তরাষ্ট্র

অনলাইন ডেস্ক

নতুন করে স্নায়ুযুদ্ধ চায় না যুক্তরাষ্ট্র

জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের ৭৬তম অধিবেশনে দেওয়া ভাষণে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন বলেন, 'আমরা নতুন করে স্নায়ুযুদ্ধে জড়াতে চাই না।' উদ্ভূত চ্যালেঞ্জের শান্তিপূর্ণ সমাধানের জন্য যেকোনো দেশের সঙ্গে একযোগে কাজ করতে যুক্তরাষ্ট্র প্রস্তুত।

এছাড়া যুক্তরাষ্ট্র তার মিত্র ও বন্ধুদের পক্ষে দাঁড়াবে। দুর্বল দেশগুলোর ওপর প্রভাব বিস্তারকারী শক্তিশালী দেশগুলোর বলপ্রয়োগের চেষ্টার বিরোধিতা করবে বলেও জানিয়েছেন জো বাইডেন। খবর এএফপি ও সিএনএন’র। 

স্থানীয় সময় মঙ্গলবার নিউইয়র্কে জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের অধিবেশনের প্রথম দিন দেওয়া ভাষণে এসব কথা বলেন তিনি। প্রসঙ্গত, যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট হওয়ার পর জাতিসংঘে এটি জো বাইডেনের প্রথম ভাষণ।  

বাইডেন বলেন, যেহেতু আমরা সামনের দিকে তাকিয়ে আছি। আমরা কোভিড, জলবায়ু পরিবর্তন, শান্তি ও নিরাপত্তা; মানবাধিকার রক্ষা-এসব চ্যালেঞ্জের নেতৃত্ব দিতে চাই। কিন্তু এটা আমরা একা করব না। আমাদের মিত্র এবং অংশীদারদের নিয়েই আমরা সামনে এগিয়ে যাব।

তিনি আরও বলেন, 'আমরা আর সময় নষ্ট করার সামর্থ্য রাখি না। আসুন কাজ শুরু করি। আসুন এখন আমাদের উন্নত ভবিষ্যৎ তৈরি করি।'  

অন্যদিকে, এদিন সাধারণ পরিষদের অধিবেশনের দেওয়া ভাষণে জাতিসংঘের মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেস সতর্কবাণী উচ্চারণ করে বলেন, ‘বিশ্ব ক্রমেই বিভক্তির দিকে এগোচ্ছে। এর থেকে রেহাই পেতে হলে যুক্তরাষ্ট্র ও চীনকে সংলাপে বসতে হবে।’ 

তিনি বলেন, বিশ্ব ক্রমেই দুটি ভিন্ন অর্থনীতি, বাণিজ্য, আর্থিক ও প্রযুক্তিগত নিয়মনীতি, কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার উন্নয়নে দুটি স্বতন্ত্র পন্থায় বিভক্ত হয়ে পড়ছে। এমনকি দুটি পৃথক সামরিক ও ভূরাজনৈতিক কৌশলে বিভক্ত হয়ে পড়ছে পৃথিবী।

রও পড়ুন:

শিরোপা জয়ের আনন্দ উদযাপন বসুন্ধরা কিংসের

নারী ক্ষমতায়নে আন্তর্জাতিক সম্মেলন আয়োজনের আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

ফ্রান্সের পাশে ইউরোপীয় ইউনিয়ন

৭ বছরের শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগ, আটক ৩


এটি স্নায়ুযুদ্ধের সময়ের মতো সংকট বয়ে আনবে। তাই বিশ্বাস পুনরুদ্ধার এবং আশা জাগাতে আমাদের মধ্যে সহযোগিতা থাকা দরকার। মহাসচিব বলেন, আমাদের সংলাপ দরকার। বোঝাপড়া দরকার। কারণ দুই শক্তির মধ্যে বিভাজন অগ্রাধিকারমূলক মূল প্রচেষ্টাকে পিছিয়ে দিচ্ছে।

গুতেরেস বলেন, আমরা শক্তি দিয়ে ক্ষমতা দখলের বিস্ফোরণ দেখছি। সামরিক অভ্যুত্থান ফিরে এসেছে। আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের মধ্যে ঐক্যের অভাব থাকায় এক্ষেত্র কার্যকর ভূমিকা রাখা যাচ্ছে না। 

news24bd.tv রিমু   

পরবর্তী খবর

জাতিসংঘের বৈঠকে এসে করোনা পজিটিভ ব্রাজিলের স্বাস্থ্যমন্ত্রী

অনলাইন ডেস্ক

জাতিসংঘের বৈঠকে এসে করোনা পজিটিভ ব্রাজিলের স্বাস্থ্যমন্ত্রী

জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের ৭৬তম বৈঠক শুরু হয়েছে। আর এ বৈঠকে অংশ নিতে যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে অবস্থান করছেন ব্রাজিলের স্বাস্থ্যমন্ত্রী মার্সেলো কুইরোগা। আর বৈঠকে এসেই করোনা পজিটিভ হলেন তিনি। 

করোনা ধরা পড়া খবরটি এক বিবৃতিতে জানিয়েছে ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট প্রাসাদ।

মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএন জানায়, প্রেসিডেন্ট জায়ার বলসোনারোর প্রতিনিধি দলের অংশ কুইরোগা। বিবৃতিতে বলা হয়, তিনি ভালো আছে। তবে দলের অন্যদের করোনা রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে।

আরও পড়ুন:


পাঁচ বছরে বাংলাদেশকে ১২০০ কোটি ডলার দেবে এডিবি

লোহাগড়ায় বৃদ্ধার মরদেহ উদ্ধার

বিচারের কাঠগড়ায় অং সান সুচি

‘বিসমিল্লাহ’র ফজিলত


এ দিকে কুইরোগা জানান, তিনি নিউইয়র্কে ১৪ দিন নিভৃতবাসে থাকছেন। দলের অন্য সদস্যদের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্র ছাড়ছেন না। 

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

বিশ্বে করোনায় শনাক্ত ২৩ কোটি ছাড়াল

অনলাইন ডেস্ক

বিশ্বে করোনায় শনাক্ত ২৩ কোটি ছাড়াল

মহামাীর করোনা ভাইরাসে গেলো ২৪ ঘণ্টায় বেড়েছে মৃত্যু। একইসঙ্গে বেড়েছে শনাক্তের সংখ্যাও।

বুধবার (২২ সেপ্টেম্বর) সকালে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত, মৃত্যু ও সুস্থতার হিসাব রাখা ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটারস থেকে পাওয়া সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় সারা বিশ্বে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ৮ হাজার ১০৯ জন। অর্থাৎ আগের দিনের তুলনায় মৃত্যুর সংখ্যা বেড়েছে আড়াই হাজারের বেশি। এতে বিশ্বজুড়ে মৃতের সংখ্যা পৌঁছেছে ৪৭ লাখ ২১ হাজার ৫৭০ জনে।

আরও পড়ুন:


পাঁচ বছরে বাংলাদেশকে ১২০০ কোটি ডলার দেবে এডিবি

লোহাগড়ায় বৃদ্ধার মরদেহ উদ্ধার

বিচারের কাঠগড়ায় অং সান সুচি

‘বিসমিল্লাহ’র ফজিলত


একই সময়ের মধ্যে ভাইরাসটিতে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ৪ লাখ ৫১ হাজার ৭৬৮ জন। অর্থাৎ আগের দিনের তুলনায় নতুন শনাক্ত রোগীর সংখ্যা বেড়েছে প্রায় ৬৪ হাজার। এতে মহামারির শুরু থেকে এ পর্যন্ত ভাইরাসে আক্রান্ত মোট রোগীর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২৩ কোটি ২ লাখ ৭৪ হাজার ৬০৮ জনে।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

ক্রেতাকে মাস্ক পরতে বলায় ২০ বছর বয়সী কর্মীকে হত্যা

অনলাইন ডেস্ক

ক্রেতাকে মাস্ক পরতে বলায় ২০ বছর বয়সী কর্মীকে হত্যা

জার্মানির পশ্চিমাঞ্চলীয় ইডার-ওবারস্টেইন শহরে এক ক্রেতাকে মাস্ক পরতে বলায় পেট্রল স্টেশনের এক বিক্রেতাকে গুলি করে হত্যা করে সে। ডয়েচে ভেলের খবরে বলা হয়, বিয়ার কিনতে আসা এক ক্রেতাকে মাস্ক পরতে বলেছিলেন ২০ বছর বয়সী ওই কর্মী। এতে ওই ক্রেতা ক্ষুব্ধ হয়ে ওঠেন এবং ওই কর্মীকে গুলি করেন।    

এতে বলা হয়,  শনিবার সন্ধ্যায় ওই হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটলেও তা সম্প্রতি প্রকাশ্যে এসেছে। ধারণা করা হচ্ছে দেশটিতে সরকারি বিধি-নিষেধ লঙ্ঘনের এটাই প্রথম ঘটনা। 

উল্লেখ্য, নিহত ওই বিক্রেতা একজন শিক্ষার্থী ছিলেন। তিনি ক্রেতাকে ফেস মাস্ক পরে সেবা নিতে বলেন। জার্মানির সব দোকানেই মাস্ক পরে যাওয়ার নির্দেশ দিয়েছে প্রশাসন। কিন্তু সরকারি নিয়ম অমান্য করে মাস্ক না পরেই দোকানে গিয়েছিলেন ওই ক্রেতা। এরপর এ নিয়ে বিক্রেতার সঙ্গে রাগারাগির এক পর্যায়ে তিনি দোকান থেকে বেরিয়ে যান। পরে ওই ক্রেতা মাস্ক পরে ঘণ্টাখানেক পর আবারও ফিরে আসেন। তিনি ছয় প্যাক বিয়ার নেন এবং মাস্ক খুলে আবারও ঝামেলা শুরু করেন।

রও পড়ুন:

নারী ক্ষমতায়নে আন্তর্জাতিক সম্মেলন আয়োজনের আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

বিচারের কাঠগড়ায় অং সান সুচি

ফ্রান্সের পাশে ইউরোপীয় ইউনিয়ন

৭ বছরের শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগ, আটক ৩


প্রসিকিউটর কাই ফুরমান সাংবাদিকদের বলেন, অপরাধী একটি রিভলবার বের করে সরাসরি বিক্রেতার মাথায় গুলি করেন। এই ঘটনার পর ৪৯ বছর বয়সী ওই জার্মান নাগরিক নিজেই পুলিশ স্টেশনে যান। তাকে গ্রেফতার করা হয় এবং তিনি হত্যাকাণ্ডের কথা স্বীকার করেছেন।

news24bd.tv রিমু 

পরবর্তী খবর