কুষ্টিয়ায় করোনা ও উপসর্গ নিয়ে আরো ১২ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ২২৩

জাহিদুজ্জামান, কুষ্টিয়া

কুষ্টিয়ায় করোনা ও উপসর্গ নিয়ে আরো ১২ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ২২৩

কুষ্টিয়ায় গত ২৪ ঘন্টায় করোনা ও এর উপসর্গ নিয়ে আরো ১২ জনের মৃত্যু হয়েছে। এদের মধ্যে ১১ জন করোনা শনাক্ত ছিলেন, আর ১ জনের করোনার উপসর্গ ছিলো। ২৫ জুলাই রবিবার সকাল ৮টা থেকে আজ ২৬ জুলাই সোমবার সকাল ৮টা পর্যন্ত সময়ে এদের মৃত্যু হয়েছে।

এছাড়াও ২৪ ঘন্টায় আরো ২২৩ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। নমুনা পরীক্ষা বিবেচনায় শনাক্তের হার ৩৩ শতাংশ। এই সময়ে সুস্থ হয়েছেন ২৩৮ জন করোনা রোগী।
হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. আব্দুল মোমেন জানান, কুষ্টিয়া করোনা ডেডিকেডেট জেনারেল হাসপাতালে ২শ’ বেডের অনুকুলে করোনা ও এর উপসর্গ নিয়ে এখন ভর্তি আছে ২১০ জন। এর মধ্যে করোনা শনাক্ত রোগীই ১৩৬ জন। বাকীরা করোনার উপসর্গ নিয়ে ভর্তি আছেন। প্রায় ৭০ শতাংশ রোগীদের অক্সিজেন প্রয়োজন হচ্ছে।


আরও পড়ুন:

আন্দোলনের মুখে তিউনিসিয়ার প্রধানমন্ত্রী অপসারিত, স্থগিত পার্লামেন্ট

ইরানে পানির দাবিতে বিক্ষোভ, নিহত ৩

বন্যা ও ভূমিধসে মহারাষ্ট্রের বিভিন্ন অঞ্চলে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ১৫৯

১০ আগস্ট থেকে বিদেশি মুসল্লিদের জন্য চালু হচ্ছে পবিত্র ওমরাহ


গত ৭ দিনেই কুষ্টিয়ায় করোনা আক্রান্ত ৮৩ জনের মৃত্যু হয়েছে এবং ১ হাজার ২৫১ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। পাচশ’ ছাড়িয়ে এ পর্যন্ত শুধুমাত্র করোনা আক্রান্ত ৫০৬ জনের মৃত্যু হলো।

এর বাইরেও করোনার উপসর্গ আরো শতাধিক মানুষের মৃত্যু হয়েছে। আজ সকালে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতাল থেকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছে। 

news24bd.tv/ নকিব

পরবর্তী খবর

গাজীপুর সাফারি পার্কে জেব্রা পরিবারে নতুন অতিথি

অনলাইন ডেস্ক

গাজীপুর সাফারি পার্কে জেব্রা পরিবারে নতুন অতিথি

গাজীপুরের শ্রীপুরের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাফারি পার্কে জেব্রা পরিবারে আবারও এসেছে নতুন অতিথি। এরইমধ্যে শাবকটি উঠে দাঁড়িয়েছে। এখন সে মায়ের সামনে ঘোরা ফেরা করছে।

সোমবার (১৮ অক্টোবর) ভোরে শাবকটির জন্ম হয়। পার্কের কোর সাফারি পার্কে গতকাল সোমবার সকালেই জেব্রার পালে মায়ের সঙ্গে শাবকটিকে দেখা যায়। সদ্য জন্ম নেওয়া এই শাবকটিসহ এ পার্কে মোট জেব্রার সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৩১টি। এর মধ্যে ১৫টি পুরুষ ও ১৬টি মাদি জেব্রা।

পার্কের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ও সহকারী বন সংরক্ষক তবিবুর রহমান জানান, নির্দিষ্ট এলাকায় কয়েকটি পালে জেব্রাগুলো ঘুরে বেড়ায়। সদ্য জন্ম নেয়া শাবকটি সহ এ বছর জেব্রা পরিবারে ৮টি নতুন সদস্য এসেছে। নতুন শাবকটি পুরুষ। মা ও শাবক উভয়েই সুস্থ আছে। মা জেব্রার পুষ্টিমানের কথা বিবেচনা করে খাদ্যে পরিবর্তন আনা হয়েছে। ঘাসের পাশাপাশি মা জেব্রাকে ছোলা, গাজর ও ভূষি দেওয়া হচ্ছে।

আরও পড়ুন


মনোনয়ন ফরমের আগেই ১০ হাজারে কিনতে হচ্ছে উপজেলা আ.লীগের দলীয় ফরম

ট্রলারে করে ঝুঁকি নিয়েই ফিরছে সেন্টমার্টিনে আটকা পর্যটকরা

মহেশখালীতে সাবেক যুবলীগ নেতাকে কুপিয়ে ও গুলি করে হত্যা

পূজামণ্ডপ কেন্দ্রিক ‘অপ্রীতিকর ঘটনায়’ ৭১ মামলায় আটক ৪৫০


তিনি জানান, পার্কের প্রাকৃতিক পরিবেশে দেশি-বিদেশি বিভিন্ন জাতের পশুপাখি থেকে নিয়মিত বাচ্চা পাওয়া যাচ্ছে। এ ধারাবাহিকতা বজায় থাকলে এ পার্ক থেকে এক সময় দেশে জেব্রার চাহিদা মেটানো সম্ভব হবে। জেব্রা আমদানির নির্ভরতাও কমে আসবে।

জেব্রাদের প্রধান খাবার ঘাস। আফ্রিকান এসব পুরুষ জেব্রা ৪ বছর বয়সে ও মাদি জেব্রা তিন বছরে প্রজননের উপযোগী হয়। প্রাকৃতিক পরিবেশে এরা ২০ বছর পর্যন্ত বেঁচে থাকতে পারে।

news24bd.tv এসএম

পরবর্তী খবর

ট্রলারে করে ঝুঁকি নিয়েই ফিরছে সেন্টমার্টিনে আটকা পর্যটকরা

অনলাইন ডেস্ক

ট্রলারে করে ঝুঁকি নিয়েই ফিরছে সেন্টমার্টিনে আটকা পর্যটকরা

কক্সবাজারের টেকনাফ-সেন্টমার্টিন নৌ-রুটে বৈরী আবহাওয়ার কারণে সার্ভিস বোট বন্ধ থাকায় কাঠের বোটে সেন্টমার্টিন দ্বীপে ভ্রমণে যাওয়া প্রায় তিন শতাধিক পর্যটক আটকা পড়েন।

মঙ্গলবার (১৯ অক্টোবর) সকালে ট্রলারে করে ঝুঁকি নিয়েই টেকনাফে ফিরছে এসব পর্যটক। জানা গেছে, আবহাওয়া পরিস্থিতি কিছুটা স্বাভাবিক হওয়ার পর এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে তারা। তবে অনেকেই লাইফ জ্যাকেট পরিহিত থাকলেও ট্রলারে ধারণ ক্ষমতার অতিরিক্ত যাত্রী তোলার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

সেন্টমার্টিন ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য হাবিবুর রহমান গণমাধ্যমকে বলেন, গেল কয়েকদিন আগে এসকল যাত্রীরা ট্রলার ও স্পিড বোটে করে সেন্টমার্টিনে আসে। কিন্তু হঠাৎ করে বঙ্গোপসাগরে বায়ুচাপের প্রভাবে আবহাওয়া অফিস কক্সবাজারকে তিন নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত দেখিয়ে যেতে বলে। যার কারণে টেকনাফ সেন্টমার্টিন নৌরুটে নৌযান চলাচল বন্ধ করে দেয় প্রশাসন। 

আরও পড়ুন


মহেশখালীতে সাবেক যুবলীগ নেতাকে কুপিয়ে ও গুলি করে হত্যা

পূজামণ্ডপ কেন্দ্রিক ‘অপ্রীতিকর ঘটনায়’ ৭১ মামলায় আটক ৪৫০

শুধু তামিম নয়, বিশ্বকাপ খেলতে চায়নি আরও একজন: পাপন

তথ্য প্রতিমন্ত্রী শপথ ভঙ্গ করেছে, তার পদত্যাগ করা উচিত: জিএম কাদের


ইউপি সদস্য আরও জানান, নৌযান চলাচল না করায় ভ্রমণে আসা এসব পর্যটকরা আটকা পড়ে। তবে আবহাওয়া পরিস্থিতি কিছুটা স্বাভাবিক হলে আজ মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে ৯টি ট্রলারে করে টেকনাফে উদ্দেশে রওনা দেন পর্যটকরা। যাদের দুপুর ১টার দিকে টেকনাফ পৌঁছার কথা রয়েছে।

আবহাওয়া অফিস সহকারী আবহাওয়াবিদ আবদুর রহমান বলেন, আবহাওয়া পরিস্থিতি কিছুটা স্বাভাবিক হলেও এখন পর্যন্ত কক্সবাজারকে ৩ নং স্থানীয় সতর্ক সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে। তবে দুপুর নাগাদ এ সংকেত নামিয়ে ফেলা হতে পারে।

news24bd.tv এসএম

পরবর্তী খবর

মহেশখালীতে সাবেক যুবলীগ নেতাকে কুপিয়ে ও গুলি করে হত্যা

অনলাইন ডেস্ক

মহেশখালীতে সাবেক যুবলীগ নেতাকে কুপিয়ে ও গুলি করে হত্যা

কক্সবাজারের মহেশখালীতে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে মো: রুহুল কাদের (৩৫) নামের সাবেক এক যুবলীগ নেতাকে কুপিয়ে ও গুলি করে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। নিহত রুহুল কাদের মহেশখালী উপজেলা বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশনের সভাপতি ও ইউনিয়ন যুবলীগের সাবেক সহ-সভাপতি।

সোমবার (১৮ অক্টোবর) দিবাগত রাত ১০ টার দিকে উপজেলার কালামারছড়ার ইউনিয়নের ফকিরজুমপাড়ায় এ ঘটনা ঘটে। নিহত রুহুল ওই এলাকার মোহাম্মদ আমিনের ছেলে। 

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, রুহুল রাত ১০টার দিকে মহেশখালী উপজেলার কালারমার ছড়া বাজার থেকে বাড়ি ফিরছিলেন। এসময় ফকিরজুম পাড়ায় পৌঁছলে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে পরিকল্পিতভাবে তাকে সিএনজি থেকে নামিয়ে প্রথমে কুপিয়ে পরে গুলি করে পালিয়ে যায় দুর্বৃত্তরা।

আরও পড়ুন


পূজামণ্ডপ কেন্দ্রিক ‘অপ্রীতিকর ঘটনায়’ ৭১ মামলায় আটক ৪৫০

শুধু তামিম নয়, বিশ্বকাপ খেলতে চায়নি আরও একজন: পাপন

তথ্য প্রতিমন্ত্রী শপথ ভঙ্গ করেছে, তার পদত্যাগ করা উচিত: জিএম কাদের

বিসিবি সভাপতির কাঠগড়ায় তিন 'সিনিয়র' খেলোয়াড়


এসময় স্থানীয়রা রুহুল কাদেরকে উদ্ধার করে প্রথমে কালারমার ছড়া উপ-স্বাস্থ্যকেন্দ্র ও পরে আশংকাজনক অবস্থায় চকরিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

মহেশখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো: আব্দুল হাই ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। এসময় তিনি জানান, এলাকায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে এ খুনের ঘটনা ঘটতে পারে। লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে। 

news24bd.tv এসএম

পরবর্তী খবর

চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানায় বাঘের খাঁচায় আরো দুই শাবক

নয়ন বড়ুয়া জয়

চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানায় বাঘের খাঁচায় আরো দুই শাবক

চট্টগ্রামের চিড়িয়াখানায়  বাঘের খাঁচায় আরো দুই শাবক। মা জয়া নামে বাঘিনীর আদরেই বড় হচ্ছে  এসব শাবক। চিড়িয়াখানা কর্তৃপক্ষ বলছে, চট্টগ্রামের চিড়িয়াখানায় এখন এক ডজন বাঘ।দর্শনার্থীরাও বাঘ দেখে খুশি। 

বনের বাঘ এখন খাঁচায়, চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানায় একের পর এক জন্ম দেয় বাঘের শাবক। সম্প্রতি আরো দুই শাবক জন্ম দিয়েছে মা জয়া। ২০২০ সালের ১৪ নভেম্বর জয়া বাঘিনী জো বাইডেন নামে ছেলে বাঘ শাবকের জন্ম দেয় ।যা তার প্রথম সন্তান ছিল। জো বাইডেনের প্রতি বিমাতাসুলভ আচরণ করায় সেটিকে চিড়িয়াখানার তত্ত্বাবধানে লালন পালন করা হয়েছিল।তবে এবার দুই শাবকই মায়ের  আদরেই বড় হচ্ছে।

আরও পড়ুন:


ইভ্যালিকে লাভজনক প্রতিষ্ঠানে রূপান্তরের সর্বোচ্চ চেষ্টা করব: বিচারপতি মানিক

করোনা: দেশে ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু কমলেও বেড়েছে শনাক্ত

প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় কলেজছাত্রকে অপহরণ করে বিয়ে করলো তরুণী!

ডিএমপি কমিশনার ও র‍্যাব ডিজি’র পদোন্নতি


চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানায় কোন বাঘ না থাকায় ২০১৬ সালে আফ্রিকা থেকে রাজ-পরি নামে  দুই বাঘ আনা হলেও এখন  নতুন দুই শাবকসহ এই চিড়িয়াখানার বাঘের খাঁচায়  এক ডজন বাঘ।

বাঘের ঝাঁক দেখে খুশি দর্শনার্থীরা। শুধু বাঘ নয় হাতিসহ আরো নতুন নতুন প্রানী যুক্ত করার চেষ্টা করছে চিড়িয়াখানা কর্তৃপক্ষ। কিছুদিন আগেও বিরল সাদা বাঘ শুভ্রা জন্ম দিয়েছে আরেকটি ফুটফুটে ডোরাকাটা শাবক।

news24bd.tv/ কামরুল 

পরবর্তী খবর

সাম্প্রদায়িক সহিংসতায় ৬০ মামলা, গ্রেপ্তার ২৬৩

অনলাইন ডেস্ক

সাম্প্রদায়িক সহিংসতায় ৬০ মামলা, গ্রেপ্তার ২৬৩

দেশের বিভিন্ন স্থানে মন্দির ও বাড়িঘরে ভাঙচুর এবং হামলার ঘটনায় ৬০টি মামলা হয়েছে। আসামি করা হয়েছে ৮ হাজার ৯৪৯ জনকে। এরমধ্যে এখন পর্যন্ত বিভিন্ন জেলার ২৬৩ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। কুমিল্লায় পূজামণ্ডপে ‘কোরআন’ পাওয়ার ঘটনাকে কেন্দ্র করে এসব ঘটনা ঘটে।

তথ্যমতে, ঘটনার কেন্দ্রস্থল কুমিল্লায় সহিংসতার ঘটনায় ১ হাজার ৫৫ জনকে আসামি করা হয়েছে। গ্রেপ্তার করা হয়েছে ৪৪ জনকে। নোয়াখালীতে ৫ হাজার জনকে আসামি করে ৯০ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। 

আরও পড়ুন:


ইভ্যালিকে লাভজনক প্রতিষ্ঠানে রূপান্তরের সর্বোচ্চ চেষ্টা করব: বিচারপতি মানিক

করোনা: দেশে ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু কমলেও বেড়েছে শনাক্ত

প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় কলেজছাত্রকে অপহরণ করে বিয়ে করলো তরুণী!

ডিএমপি কমিশনার ও র‍্যাব ডিজি’র পদোন্নতি


এছাড়া বাগেরহাটে ৪, পাবনায় ৩, চাঁপাইনবাবঞ্জে ১০, সিলেটে ২০, মৌলভীবাজারে ২, কুড়িগ্রামে ২১, গাজীপুরে ২০, কিশোরগঞ্জে ৪, মাদারীপুরে ৪ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়।

সবশেষ গতকাল রোববার (১৭ অক্টোবর) রাতে রংপুরের পীরগঞ্জে হিন্দুদের বাড়িতে হামলা ও অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটেছে। পীরগঞ্জে হামলায় ২০টি বাড়িঘরে আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। এ ঘটনায় ৪৫ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

news24bd.tv/ কামরুল 

পরবর্তী খবর