ইরান-আফগানিস্তান সীমান্তে পূর্ণ নিরাপত্তা বিরাজ করছে: আইআরজিসি

অনলাইন ডেস্ক

ইরান-আফগানিস্তান সীমান্তে পূর্ণ নিরাপত্তা বিরাজ করছে: আইআরজিসি

আফগানিস্তানের সঙ্গে তার দেশের সীমান্ত পূর্ণ নিরাপত্তা বজায় রয়েছে বলে জানিয়েছে ইরানের ইসলামি বিপ্লবী গার্ড বাহিনী বা আইআরজিসি’র স্থলবাহিনীর কমান্ডার।

মঙ্গলবার তেহরানে সশস্ত্র বাহিনীর এক অনুষ্ঠানে ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোহাম্মাদ পাকপুর একথা জানান। তিনি বলেন, আফগানিস্তানে সংঘর্ষ ও নিরাপত্তাহীনা বিরাজ করলেও দু’দেশের সীমান্তে কোনো নিরাপত্তাহীনতা নেই। সাম্প্রতিক সময়ে ইরান-আফগানিস্তান সীমান্তে নিরাপত্তা বিঘ্নিত হওয়ার মতো কোনো ঘটনা ঘটেনি।

বর্তমান বৈশ্বিক মহামারী করোনাভাইরাস মোকাবিলায়ও তার বাহিনীর অবদান সম্পর্কে কথা বলেন আইআরজিসি’র স্থলবাহিনীর কমান্ডার। তিনি বলেন, করোনাভাইরাস মহামারী মোকাবিলায় আইআরজিসি উল্লেখযোগ্য কাজ করেছে। তার বাহিনী বেশ কয়েকটি করোনা বিশেষায়িত হাসপাতাল স্থাপন করেছে যেগুলোর মধ্যে স্থায়ী হাসপাতালের পাশাপাশি রয়েছে একাধিক ফিল্ড হাসপাতাল।

জেনারেল পাকপুর জানান, কেবলমাত্র তার বাহিনীর হাতে নির্মিত হাসপাতালগুলোতেই ৫০০ শয্যার ব্যবস্থা করা হয়েছে। সূত্র: পার্সটুডে।

news24bd.tv এসএম

আরও পড়ুন


পাকিস্তানি তালেবান সদস্যদের লাশ গ্রহণ, অস্বীকার রেডক্রসের

কুষ্টিয়ায় এক মাসের মধ্যে সবচেয়ে কম মৃত্যু, শনাক্তের হার ৪৯ শতাংশ

মাহফুজ আনামের অনৈতিক কর্মকাণ্ডের প্রতিবাদে সম্পাদক পরিষদ থেকে নঈম নিজামের পদত্যাগ

টিকা: ফাইজার-অ্যাস্ট্রাজেনেকার অ্যান্টিবডি ১০ সপ্তাহে কমতে পারে ৫০ শতাংশ


 

পরবর্তী খবর

আগেই বলেছিলাম, সিধু ভরসা করার মানুষ নন: অমরিন্দর সিং

অনলাইন ডেস্ক

আগেই বলেছিলাম, সিধু ভরসা করার মানুষ নন: অমরিন্দর সিং

সভাপতি হওয়ার দুই মাস কাটতে না কাটতেই পাঞ্জাবের প্রদেশ সভাপতির পদ থেকে সরে দাঁড়ালেন ভারতের সাবেক টেস্ট ক্রিকেটার নভজ্যোৎ সিং সিধু। গতকাল নাটকীয়ভাবে পদত্যাগ করেন তিনি। তার এই পদত্য্যাগে বিধানসভা ভোটের আগে বড় ধাক্কা খেলো ভারতের পাঞ্জাব কংগ্রেস। 

পাঞ্জাব বিধানসভার ভোটের মাত্র পাঁচ মাস বাকি। আগামী মার্চ মাসে ভোট হওয়ার কথা। তার আগেই সিধুর প্রথম বিদ্রোহ। সেই বিদ্রোহের লক্ষ্য ছিলেন মুখ্যমন্ত্রী অমরিন্দর সিং। সিধুকে গুরুত্ব দিয়ে প্রধানত রাহুল ও প্রিয়াঙ্কার চাপে সোনিয়া মুখ্যমন্ত্রী বদলের সিদ্ধান্ত নেন। নতুন মুখ্যমন্ত্রী করা হয় দলিত নেতা চরণজিৎ সিং চান্নিকে। সে সময় বিদায়ী মুখ্যমন্ত্রী অমরিন্দর সিং বলেছিলেন, কংগ্রেস মারাত্মক ভুল করল। সিধু ভরসা করার মানুষ নন। পাঞ্জাবের মতো সীমান্তবর্তী রাজ্যে সিধুকে মুখ্যমন্ত্রী করা উচিত হবে না। কারণ, উনি স্থিতিশীল নন। গতকাল সিধুর পদত্যাগের পর সেই অমরিন্দর বলেন, ‘আমি আগেই বলেছিলাম। এখন প্রমাণ হলো আমি কতটা নির্ভুল ছিলাম।’

আরও পড়ুন:


বুকে ব্যথা নিয়ে হাসপাতালে যাওয়ার পথে চবি শিক্ষার্থীর মৃত্যু

সভাপতির পদ ছেড়ে সোনিয়া গান্ধীকে চিঠিতে যা বললেন সিধু

গলায় কাঁটা বিঁধলে তৎক্ষণাৎ যা করবেন

ঘরে প্রবেশের সময় যে দোয়া পড়তে হয়


মুখ্যমন্ত্রী অমরিন্দর সিংয়ের সঙ্গে ক্ষমতার লড়াই থামাতে গত ১৫ জুলাই সিধুকে প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি করা হয়েছিল। কিন্তু তাতেও ক্ষমতার দ্বন্দ্ব মেটেনি। এরপর অমরিন্দর মুখ্যমন্ত্রিত্ব ছেড়ে দিলে সিধু ভেবেছিলেন তাঁকেই সেই পদে বসানো হবে। কিন্তু কংগ্রেস নেতৃত্ব বেছে নেয় দলিত বিধায়ক চান্নিকে।

লোকসভা এবং রাজ্যসভার প্রাক্তন সাংসদ সিধু এক সময় অমরেন্দ্র মন্ত্রিসভারও সদস্য ছিলেন। ২০১৭ সালে বিজেপি ছেড়ে তিনি কংগ্রেসে যোগ দেন।

news24bd.tv নাজিম 

পরবর্তী খবর

সভাপতির পদ ছেড়ে সোনিয়া গান্ধীকে চিঠিতে যা বললেন সিধু

অনলাইন ডেস্ক

সভাপতির পদ ছেড়ে সোনিয়া গান্ধীকে চিঠিতে যা বললেন সিধু

বিধানসভা ভোটের আগে বড় ধাক্কা খেলো ভারতের পাঞ্জাব কংগ্রেস। দলটির পাঞ্জাব শাখা সভাপতির পদ থেকে ইস্তফা দিয়েছেন সাবেক ক্রিকেটার নভজিৎ সিং সিধু। পাঞ্জাবের প্রদেশ সভাপতি হওয়ার পর দুই মাস কাটতে না কাটতেই পদত্যাগ করলেন তিনি।

হিন্দুস্তান টাইমস এ খবর জানিয়েছে।

ভারতের আরেক গণমাধ্যম এনডিটিভি বলছে, মঙ্গলবার (২৮ সেপ্টেম্বর) নাটকীয়ভাবে সভাপতির পদে ইস্তফা দিলেন তিনি। কংগ্রেস সভানেত্রী সোনিয়া গান্ধীকে লেখা চিঠিতে এই সিদ্ধান্তের কথা জানিয়ে তিনি লিখেছেন, ‘মানুষের চরিত্রের স্খলন হয় সমঝোতার মধ্য দিয়ে। পদত্যাগ করলেও কংগ্রেস কর্মী হিসেবে সেবা করে যাব। কিন্তু পাঞ্জাবের ভবিষ্যৎ নিয়ে আপস করব না।’

পাঞ্জাব বিধানসভার ভোটের মাত্র পাঁচ মাস বাকি। আগামী মার্চ মাসে ভোট হওয়ার কথা। তার আগেই সিধুর প্রথম বিদ্রোহ। সেই বিদ্রোহের লক্ষ্য ছিলেন মুখ্যমন্ত্রী অমরিন্দর সিং। সিধুকে গুরুত্ব দিয়ে প্রধানত রাহুল ও প্রিয়াঙ্কার চাপে সোনিয়া মুখ্যমন্ত্রী বদলের সিদ্ধান্ত নেন। নতুন মুখ্যমন্ত্রী করা হয় দলিত নেতা চরণজিৎ সিং চান্নিকে। সে সময় বিদায়ী মুখ্যমন্ত্রী অমরিন্দর সিং বলেছিলেন, কংগ্রেস মারাত্মক ভুল করল। সিধু ভরসা করার মানুষ নন। পাঞ্জাবের মতো সীমান্তবর্তী রাজ্যে সিধুকে মুখ্যমন্ত্রী করা উচিত হবে না। কারণ, উনি স্থিতিশীল নন। গতকাল সিধুর পদত্যাগের পর সেই অমরিন্দর বলেন, ‘আমি আগেই বলেছিলাম। এখন প্রমাণ হলো আমি কতটা নির্ভুল ছিলাম।’

মুখ্যমন্ত্রী অমরিন্দর সিংয়ের সঙ্গে ক্ষমতার লড়াই থামাতে গত ১৫ জুলাই সিধুকে প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি করা হয়েছিল। কিন্তু তাতেও ক্ষমতার দ্বন্দ্ব মেটেনি। এরপর অমরিন্দর মুখ্যমন্ত্রিত্ব ছেড়ে দিলে সিধু ভেবেছিলেন তাঁকেই সেই পদে বসানো হবে। কিন্তু কংগ্রেস নেতৃত্ব বেছে নেয় দলিত বিধায়ক চান্নিকে।

লোকসভা এবং রাজ্যসভার প্রাক্তন সাংসদ সিধু এক সময় অমরেন্দ্র মন্ত্রিসভারও সদস্য ছিলেন। ২০১৭ সালে বিজেপি ছেড়ে তিনি কংগ্রেসে যোগ দেন।

news24bd.tv নাজিম  

পরবর্তী খবর

কংগ্রেসে যোগ দেয়ার আগে সিপিআই অফিস থেকে এসি খুলে নেন কানহাইয়া

অনলাইন ডেস্ক

কংগ্রেসে যোগ দেয়ার আগে সিপিআই অফিস থেকে এসি খুলে নেন কানহাইয়া

সব জল্পনা কল্পনার অবসান ঘটিয়ে কংগ্রেসেই যোগ দিলেন সিপিআই নেতা কানহাইয়া কুমার। মঙ্গলবার বিকালে নয়াদিল্লিতে কংগ্রেসে যোগ দেওয়ার আগে পাটনার সিপিআই দলীয় কার্যালয়ে নিজের ঘর থেকে শীতাতপ নিয়ন্ত্রণ যন্ত্র (এসি) খুলে নিয়ে যান কানহাইয়া কুমার। 

আর সেই নিয়ে শুরু হয় তর্ক-বিতর্ক।

 কিছুদিন আগের এই ঘটনায় বিহারে সিপিআই সাধারণ সম্পাদক রামনরেশ পাণ্ডে বলেছিলেন, ‘আমরা আপত্তি করিনি। কারণ ওই এসি নিজের টাকায় বসিয়েছিলেন কানহাইয়া। সেটা খুলে নেওয়ায় আমরা আপত্তি করব কেন?’’

এই বিতর্কের মধ্যেই মঙ্গলবার নয়াদিল্লিতে কংগ্রেসে যোগ দেন। যদিও সিপিআই নেতৃত্ব শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত আশায় ছিলেন কানহাইয়া কংগ্রেসে যাবেন না। কিন্তু মঙ্গলবার বিকেলে সিপিআই ছেড়ে কংগ্রেসের হাতই ধরেছেন জওহরলাল নেহরু বিশ্ববিদ্যালয় (জেএনইউ)-এর পড়ুয়া সংসদের প্রাক্তন সভাপতি কানহাইয়া।

আরও পড়ুন:


দুই মেয়েসহ মা নিখোঁজ উৎকন্ঠায় পরিবার

রশি দিয়ে বাধা প্রতিবন্ধী শহিদের বন্দী জীবন

বাগেরহাটে সড়ক দুর্ঘটনায় ক্রিকেটার রিদু নিহত

স্কুল খোলার পর যেভাবে চলবে প্রাথমিকের ক্লাস!

 

দল ছাড়ার সময় কানহাইয়া সিপিআই-এর জাতীয় কর্মসমিতির সদস্য ছিলেন। পার্টি কাঠামোয় যা সর্বোচ্চ নীতিনির্ধারক সমিতি হিসেবে বিবেচিত হয়। এই পরিস্থিতিতে তার দলবদলের উত্তেজনায় ঘি ঢেলেছে সিপিআই দফতর থেকে এসি খুলে নিয়ে যাওয়ার ঘটনা।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

মানুষের মাথার খুলির টাওয়ার

অনলাইন ডেস্ক

মানুষের মাথার খুলির টাওয়ার

মানুষের মাথার খুলি দিয়েই তৈরি আস্ত এক টাওয়ার। এ যেন ভুতের নগরী। যা দেখেই ভয়ে আঁতকে উঠবে সবাই।

উত্তর আমেরিকার দেশ মেক্সিকোর রাজধানী মেক্সিকো সিটির একেবারে কেন্দ্রস্থলেই পাওয়া গেছে এমন খুলির টাওয়ারের।

প্রত্নতাত্ত্বিকরা মাটি খননের পর মানুষের মাথার খুলি দিয়ে তৈরি ওই টাওয়ারের সন্ধান পেয়েছেন বলে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমগুলো জানায়। 

মাথার খুলি দিয়ে নির্মিত লম্বা এক টাওয়ার যেন দাঁড়িয়ে আছে মৃত্যুদূতের সিংহাসনের মতো।

বেশ কয়েক বছর আগে এটি আবিষ্কারের পর বছরের পর বছর ধরে তা নিয়ে গবেষণা করছেন দেশটির প্রত্নতাত্ত্বিকরা।

আরও পড়ুন:


টাকার অভাবে বাঁচানো গেল না শরীরের বাইরে হৃৎপিণ্ড নিয়ে জন্মানো শিশুটিকে

কিশোরীকে স্বামীর ঘরে ঢুকিয়ে দরজা বন্ধ করে বাইরে পাহারা দেয় স্ত্রী

গাড়িচাপা দেওয়া ইসরাইলি ২ পুলিশের অবস্থা আশঙ্কাজনক

এই হচ্ছে বিএনপি, আর সব দোষ আওয়ামী লীগের?


news24bd.tv তৌহিদ

পরবর্তী খবর

উর্ধ্বগামী বন্ধকী বাজার সৌদি অর্থনীতিকে চাঙ্গা করে: কেপিএমজি

অনলাইন ডেস্ক

উর্ধ্বগামী বন্ধকী বাজার সৌদি অর্থনীতিকে চাঙ্গা করে: কেপিএমজি

আর্থিক বিশ্লেষক কেপিএমজির মতে, একটি উর্ধ্বগামী বন্ধকী বাজার সৌদি আরবে অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধিকে সহায়তা করেছে।

আরব নিউজ জানিয়েছে ফার্মের 'ফিউচার ফাইন্যান্স' প্রতিবেদনে দাবি করা হয়েছে, রিয়েল এস্টেট সেক্টরে পরিচালিত ব্যবসাগুলি রাজ্যের নন-ব্যাংক আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলির (এনবিএফআই) মধ্যে অন্যতম, যা মহামারীর পরে অর্থনীতি পুনরুদ্ধারে সহায়তা করছে।

সৌদি আরবের এনবিএফআইগুলোর মধ্যে স্বয়ংচালিত, বাণিজ্যিক সরঞ্জাম এবং অন্যান্য ভোক্তা অর্থায়ন সংস্থা রয়েছে, কেপিএমজির মতে যার অনুমানিক মূল্য ৫৪ বিলিয়ন।

এই খাত রাজ্যের মধ্যে ঋণ গ্রহীতারদের কিছু অংশকে ঋণ দেওয়ার ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।

সৌদি আরবের কেপিএমজির অফিস ম্যানেজিং পার্টনার খলিল ইব্রাহিম আল সেদাইস বলেন, ২০২০ সালের দ্বিতীয়ার্ধে শুরু হওয়া প্রবৃদ্ধি চলতি বছরের প্রথম ছয় মাসে বৃদ্ধি পায়।

তিনি বলেন, এটি বিশেষভাবে  লক্ষণীয়, সরকারি গ্যারান্টির কারণে বন্ধকী শিল্পের মূল্য সবসময় বেশি ছিলো যা আবাসনের জন্য দেশীয় চাহিদা, কম সুদের হার এবং একজন নাগরিকের বাসস্থানের জন্য দেওয়া হয়।


আরও পড়ুন

দুই পরীক্ষা বাতিল নিয়ে যা বললেন শিক্ষামন্ত্রী

পাশের রুম থেকে দুর্গন্ধ ছড়ানোর পরে ছেলে টের পেলো বাবা মারা গেছেন!

বিয়ে বন্ধ করতে কনে নিজেই থানায়!

শেখ হাসিনার জন্মদিনে নড়িয়ায় দোয়া ও দুই হাজার কোরআন বিতরণ


আল সেদাইস আরও বলেন, এনবিএফআইরা সৌদি আর্থিক সেবা খাতে উন্নয়নের জন্য ক্রমবর্ধমান হার অব্যাহত রাখবে বলে আশা করা হচ্ছে, যার মধ্যে মানি লন্ডারিং বিরোধী সম্মতি, ফিনটেক অগ্রগতি, সাইবার নিরাপত্তা, ব্যবসায়ের ধারাবাহিকতা পরিকল্পনা এবং ডিজিটালাইজেশন রয়েছে।

news24bd.tv/এমি-জান্নাত   

 
 
 
 
 

আন্তর্জাতিক বিমান চলাচলে নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ বাড়লো

 

অনলাইন ডেস্ক

আন্তর্জাতিক বিমান চলাচলে নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ বাড়লো
  
 

ভারতে আন্তর্জাতিক বিমান চলাচলে আরও বাড়ানো হল নিষেধাজ্ঞা। ৩১ অক্টোবর পর্যন্ত বাণিজ্যিক বিমান চলাচলে নিষেধাজ্ঞা জারি থাকছে বলে জানিয়েছে ডিরেক্টর জেনারেল অফ সিভিল অ্যাভিয়েশন। তবে পূর্ব নির্ধারিত নির্দিষ্ট কয়েকটি রুটে বিমান চলাচলে ছাড় দেওয়া হয়েছে।


আরও পড়ুন

দুই পরীক্ষা বাতিল নিয়ে যা বললেন শিক্ষামন্ত্রী

পাশের রুম থেকে দুর্গন্ধ ছড়ানোর পরে ছেলে টের পেলো বাবা মারা গেছেন!

বিয়ে বন্ধ করতে কনে নিজেই থানায়!

শেখ হাসিনার জন্মদিনে নড়িয়ায় দোয়া ও দুই হাজার কোরআন বিতরণ

 

পরবর্তী খবর