বন্যা প্রবণ নদী তীরবর্তী মানুষ আগাম প্রস্তুতি নিতে পারছে না

হুমায়ুন কবির সূর্য

বন্যা প্রবণ নদী তীরবর্তী মানুষ আগাম প্রস্তুতি নিতে পারছে না

করোনার কারণে বন্যা প্রবণ কুড়িগ্রামের নদী তীরবর্তী মানুষ এবছর বন্যা মোকাবিলায় আগাম প্রস্তুতি নিতে পারছে না। লকডাউনের ফলে শ্রমজীবী মানুষের নেই কাজ, জমানো অর্থও। 

যার কারণে নিজেদেরকে সঁপে দিতে হয়েছে ভাগ্যের ওপর। যদিও জেলা প্রশাসন বলছে বন্যা মোকাবেলায় সার্বিক প্রস্তুতি তাদের রয়েছে।

কুড়িগ্রাম জেলায় রয়েছে ৩১৬কিলোমিটার নদী পথ। প্রতি বছর ভারী বৃষ্টিপাত আর পাহাড়ী ঢলের কারণে সৃষ্ট বন্যায় প্রায় ৪/৫ লাখ মানুষ পরে চরম দুর্ভোগে। এছাড়াও রয়েছে আগ্রাসী নদী ভাঙন। ফলে নদী তীরবর্তী মানুষের দুর্দশা যেন সারা জীবনের।

প্রতিবছর বন্যার পূর্বে আগাম প্রস্ততি নেয় স্থানীয়রা।  ঘরবাড়ী মজবুত করে। আলগা চুলা, ঔষধপত্র, শুকনো খাবার ও জ¦ালানী সংগ্রহ করে। পর্যাপ্ত চাল-ডাল রাখে ঘরে।

কিন্তু এবার করোনা আর লকডাউনের কারণে বেশিরভাগ নিম্ন আয়ের মানুষকে ঘরে বন্দি থাকতে হচ্ছে। কাজ না থাকায় উপার্জনও কমে গেছে। এতে আগাম প্রস্তুতির কাজে হাত দিতে পারেন নি অনেকে।

যদিও বন্যার প্রস্তুতি বিষয়ে প্রশাসনের পক্ষ থেকে দিক নিদের্শনা দেয়া হয়েছে।  স্বেচ্ছাসেবক দল প্রস্তুত রাখার পাশাপাশি সরকারি সহায়তা পৌঁছে দেয়া অব্যাহত রয়েছে বলে জানিয়েছেন জনপ্রতিনিধিরা।

বন্যা মোকাবেলায় পর্যাপ্ত নৌকা ও আশ্রয়কেন্দ্র প্রস্তুত রাখা হয়েছে। এছাড়াও বন্যা কবলিতদের জন্য পর্যাপ্ত চাল, নগদ অর্থ উপজেলা পর্যায় বরাদ্দ দেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন কুড়িগ্রামের জেলা প্রশাসক।

কুড়িগ্রামে রয়েছে ১৬টি নদ-নদী। প্রতিবছর পাহাড়ী ঢল আর নদীর পানি বেড়ে যাওয়ার কারণে বন্যার সৃষ্টি হয়।

আরও পড়ুন:


করোনায় ঝালকাঠির আদালতের বিচারকের মৃত্যু!

আগস্ট মাসের দুই দিন বন্ধ থাকবে ব্যাংক

বিভিন্ন জেলায় করোনায় প্রায় দেড় শতাধিক মৃত্যুর

সিলেট বিভাগে করোনায় শনাক্ত ও মৃত্যু নতুন রেকর্ড


news24bd.tv / কামরুল 

পরবর্তী খবর

পাবনায় মধ্যরাত পর্যন্ত দেওয়া হলো গণটিকা

অনলাইন ডেস্ক

পাবনায় মধ্যরাত পর্যন্ত দেওয়া হলো গণটিকা

পাবনার ভাঙ্গুড়ায় সদর ইউনিয়ন পরিষদে গতকাল মঙ্গলবার মধ্যরাত পর্যন্ত গণটিকা দেওয়ার খবর পাওয়া গেছে। স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, পার্শ্ববর্তী দুইটি ইউনিয়নে বরাদ্দকৃত টিকা বেঁচে যাওয়ায় সদর ইউনিয়নে পাঠানো হয়। তাই দিনভর স্বাস্থ্যকর্মীরা প্রায় সাড়ে তিন হাজার টিকা দিয়ে শেষ করতে পারেনি।

এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, ভাঙ্গুড়া সদর ইউনিয়নে মঙ্গলবার (২৮ সেপ্টেম্বর) রাত ১১টার সময় সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, সদর ইউনিয়ন পরিষদ চত্বরে অন্তত ৭০/৮০ জন নারী-পুরুষ টিকা নেওয়ার জন্য অপেক্ষা করছে। তবে আর তিনটি ভায়েল টিকা অবশিষ্ট রয়েছে। যা আরো ৩০ জন মানুষকে দেওয়া যাবে। 

এ বিষয়ে ভাঙ্গুড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান গোলাম ফারুক বলেন, 'টিকা নেওয়ার জন্য সাধারণ মানুষের মধ্যে ব্যাপক আগ্রহ রয়েছে। তাই অন্য দুটি ইউনিয়নের বেঁচে যাওয়া টিকা সদর ইউনিয়নে দেওয়ায় টিকা নিতে সবাই অনেক রাত পর্যন্ত ভিড় করেছে। আশা করছি রাত ১২টার মধ্যে টিকা প্রদান শেষ হবে।' 

আরও পড়ুন


বিশ্বের প্রশংসাসহ সব অর্জনই প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে

ফাইজারের আরও ২৫ লাখ ডোজ ভ্যাকসিন দেশে এসে পৌঁছেছে আজ

গালে থাপ্পড়ের পর এবার ডিম হামলার শিকার ম্যাক্রোঁ, ভিডিও ভাইরাল

মন্দির ভাঙার প্রতিবাদে আদালতের দ্বারস্থ হলেন মুসলিমরা


উল্লেখ্য, ভাঙ্গুড়ায় সদর ইউনিয়ন পরিষদে ১ হাজার ৫০০ জন মানুষের জন্য টিকা বরাদ্দ ছিল। একই সঙ্গে মন্ডুতোষ ও দিলপাশার ইউনিয়ন ৩ হাজার টিকা বরাদ্দ পায়। কিন্তু ইউনিয়ন দুটিতে প্রায় দুই হাজার টিকা বেঁচে যায়। 

news24bd.tv রিমু  

পরবর্তী খবর

বাগেরহাটে পুকুরে পড়ে শিশুর মৃত্যু

শেখ আহসানুল করিম, বাগেরহাট

বাগেরহাটে পুকুরে পড়ে শিশুর মৃত্যু

বাগেরহাটের শরণখোলায় পা ফসকে পুকুরে পড়ে নুর মোহাম্মাদ (৪) নামে এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে।

মঙ্গলবার সকালে উপজেলার পশ্চিম রাজৈর গ্রামে এঘটনা ঘটে। মৃত শিশু নুর মোহাম্মাদ রায়েন্দা বাজারের পাঁচরাস্তা এলাকার কাচামাল ব্যবসায়ী ও রাজৈর গ্রামের লোকমান হাওলাদারের ছেলে।

মৃত্যু শিশুটির নানী সেলিনা বেগম জানান, মঙ্গলবার সকালে রুটি খেয়ে নুর মোহাম্মাদ ঘর থেকে বের হয়। এর কিছুক্ষণ পর আর তাকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছিল না। পরে ঘরের সামনের পুকুরে খোঁজ করলে তাকে পানির নিচে পাওয়া যায়। সাথে সাথে উদ্ধার করে শরণখোলা উপজেলা নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

শরণখোলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সাইদুর রহমান জানান, এ ব্যাপারে একটি অপমৃত্যু মামলা হয়েছে। বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

news24bd.tv তৌহিদ

পরবর্তী খবর

ঢাকার আকাশে উদযাপিত হলো মনোজ্ঞ ফ্লাইফেস্টের (ভিডিও)

অনলাইন ডেস্ক

বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর ৫০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষ্যে ঢাকার আকাশে উদযাপিত হলো মনোজ্ঞ ফ্লাইফেস্টের। বিমান বাহিনীর ৩৫টি বিমান ও হেলিকপ্টার এই বর্ণিল আয়োজনে অংশ নেন।

মঙ্গলবার রাজধানীর তেজগাঁওয়ের পুরাতন বিমানবন্দরের আকাশে প্রথমে ফ্লাইফেস্টে অংশ নেয় একটি সি-130 ও কে-এইট-ডব্লিউ বিমান। এরপর বিমানবাহিনীর ৫০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর স্মরণে ১৯টি পিটিসিক্স বিমান ৫০ লেখার একটি অবয়ব আকাশে  তৈরি করে। তিনটি বেল-212 ও তিনটি এমআই-17 হেলিকপ্টার আকাশে দুইটি ফ্লাইফেষ্ট করে। সবশেষ মিগ-29 ও চারটি এফ- 7 যুদ্ধ বিমান বর্ণিল আয়োজনে অংশ নেয়। বিমান বাহিনীর সাফল্যের চিহৃ -ভি অবয়ব তৈরি করে।


আরও পড়ুন

দুই পরীক্ষা বাতিল নিয়ে যা বললেন শিক্ষামন্ত্রী

পাশের রুম থেকে দুর্গন্ধ ছড়ানোর পরে ছেলে টের পেলো বাবা মারা গেছেন!

বিয়ে বন্ধ করতে কনে নিজেই থানায়!

শেখ হাসিনার জন্মদিনে নড়িয়ায় দোয়া ও দুই হাজার কোরআন বিতরণ


বর্ণিল এই আয়োজনের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে শুভেচ্ছা জানায় বাংলাদেশ বিমান বাহিনী।

news24bd.tv/এমি-জান্নাত     

পরবর্তী খবর

পিতার মৃত্যুর সংবাদে মেয়ের মৃত্যু, তারপর নাতি!

অনলাইন ডেস্ক

পিতার মৃত্যুর সংবাদে মেয়ের মৃত্যু, তারপর নাতি!

হবিগঞ্জের চুনারুঘাট উপজেলায় একটি গ্রামে পিতার মৃত্যুর খবর পেয়ে মেয়ের মৃত্যু হয় এবং মেয়ের মৃত্যুর খবরে তার ছেলে অর্থাৎ নাতির মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে। মাত্র ৮ ঘণ্টার ব্যবধানে একই পরিবারের তিনজনের মৃত্যুতে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

মঙ্গলবার চুনারুঘাট উপজেলার ৭নং উবাহাটা ইউনিয়নে এ ঘটানা ঘটে।


আরও পড়ুন

দুই পরীক্ষা বাতিল নিয়ে যা বললেন শিক্ষামন্ত্রী

পাশের রুম থেকে দুর্গন্ধ ছড়ানোর পরে ছেলে টের পেলো বাবা মারা গেছেন!

বিয়ে বন্ধ করতে কনে নিজেই থানায়!

শেখ হাসিনার জন্মদিনে নড়িয়ায় দোয়া ও দুই হাজার কোরআন বিতরণ


স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার সকালে ঢাকায় একটি বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান আলহাজ্ব সাজিদুর রহমান (আরজু মিয়া) নামে এক ব্যক্তি। পিতার মৃত্যুর সংবাদ শুনে একই দিনে অর্থাৎ সকাল ৭টায় চুনারুঘাট হাসপাতালে মারা যান আরজু মিয়ার মেয়ে মোছা. সুরাইয়া আক্তার।

পরে মায়ের মৃত্যুর সংবাদ শুনে বিকাল ৪টার দিকে চুনারুঘাটের উত্তর বাজার বাসায় সুরাইয়া আক্তারের বড় মেয়ে সৈয়দা উলফাত মারা যায়। একই দিনে বাবা, মেয়ে ও নাতির মৃত্যুতে এলাকায় শোক নেমে এসেছে। 

তিনজনের জানাজার নামাজ একই সাথে শ্রীকুটা হাফিজীয়া মাদ্রাসা ও মসজিদ প্রাঙ্গণে বাদ মাগরিব অনুষ্ঠিত হয়।

news24bd.tv/এমি-জান্নাত  

 

পরবর্তী খবর

নিজের বিয়ে বন্ধে থানায় হাজির স্কুলছাত্রী, অতঃপর...

অনলাইন ডেস্ক

নিজের বিয়ে বন্ধে থানায় হাজির স্কুলছাত্রী, অতঃপর...

নিজের বিয়ে বন্ধে দশম শ্রেণির এক ছাত্রীর থানায় হাজির হওয়ার ঘটনা এখন চুয়াডাঙ্গার মানুষের মুখে মুখে।  বেশ কিছু দিন থেকেই তার মা ও খালা তাকে বিয়ের জন্য চাপ দিতে থাকেন। ১৬ বছর বয়সী ওই কিশোরী তাদের প্রস্তাবে রাজি না হয়ে তাদের নানাভাবে বোঝানোর চেষ্টা করেন। কিন্তু তারা তাদের সিদ্ধান্তে অনড়। একই অবস্থান কিশোরীর বাবারও। 

শেষমেষ উপায় না দেখে আজ দুপুর ১২টার দিকে চুয়াডাঙ্গা সদর থানায় গিয়ে নিজের বিয়ে বন্ধের অনুরোধ জানিয়েছে চুয়াডাঙ্গা ঝিনুক মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের ওই শিক্ষার্থী। নিজের ইচ্ছার বিরুদ্ধে তাকে বিয়ের দেওয়ার প্রতিবাদে থানায় লিখিত অভিযোগও দেয় সে।

মেযেটির লিখিত বক্তব্যের উদ্বৃতি দিয়ে চুয়াডাঙা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মহসীন বলেন, ১৬ বছর বয়সী এই কিশোরী ঝিনুক মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থী। তার বাবার চায়ের দোকান আছে। মা একটি মুড়ির কারখানায় চাকরি করেন। কিছু দিন আগে থেকে খালা ও মা তাকে বিয়ের জন্য চাপ দিতে থাকেন। কিশোরী তাদের বারবার বোঝানোর পরও তারা এই সিদ্ধান্তে অনড় থাকেন। বিয়ের জন্য ছেলেও ঠিক করেন। নিরুপায় হয়ে আজ ওই কিশোরী নিজেই থানায় এসে উপস্থিত হয়।

ওসি আরও জানান, কিছুদিন একই এলাকায় পুলিশ একটি বাল্যবিয়ে বন্ধ করে দেয়। ওই কিশোরী জানিয়েছে, ওই ঘটনায় উৎসাহিত হয়ে সে পুলিশের কাছে এসেছে।

আরও পড়ুন:


মুফতি কাজী ইব্রাহীমকে আটক করেছে ডিবি

ইতিহাসের প্রয়োজনেই বঙ্গবন্ধু কন্যার জন্ম: ওবায়দুল কাদের

৫ ঘণ্টা পর মিলল ড্রেনে পড়ে নিখোঁজ সেই তরুণীর মরদেহ

ইউটিউবারদের আয়ের উপর কর, মিশরে মিশ্র প্রতিক্রিয়া


থানায় লিখিত অভিযোগ দায়েরের পর পুলিশের একটি দল ওই কিশোরীর বাসায় গিয়ে তার মা ও বাবাকে বুঝিয়ে বলেন। তারা বিয়ের সিদ্ধান্ত থেকে সরে এসে মেয়ের পড়াশোনা চালিয়ে যাওয়ার ব্যাপারে সম্মত হয়েছেন।

চুয়াডাঙা ঝিনুক মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রেবেকা সুলতানা ওই শিক্ষার্থীর সাহসের প্রশংসা করে বলেন, প্রতিটি মেয়েকেই এভাবেই এগিয়ে আসতে হবে।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর